adimage

২২ Jul ২০১৯
সকাল ০৩:০৩, সোমবার

যেসব পণ্যের দাম বাড়বে

আপডেট  06:37 AM, Jun ১৪ ২০১৯   Posted in : অর্থ ও বাণিজ্য     

যেসবপণ্যেরদামবাড়বে

অর্থনৈতিক ডেস্ক, ১৪ জুন : প্রস্তাবিত বাজেট অনুযায়ী দাম বাড়তে পারে স্মার্টফোন, মধু, গুঁড়া দুধ, আইসক্রিম, সিগারেট, বিড়ি ও গুল-জর্দাসহ অনেক পণ্যের।

আজ বৃহস্পতিবার বাজেট বক্তৃতায় অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য, দেশীয় শিল্প রক্ষা, পরিবেশ ও স্বাস্থ্যঝুঁকিসহ নানাদিক বিবেচনায় নিয়ে আমদানি শুল্ক, সম্পূরক শুল্ক এবং ভ্যাট আরোপ বা বাড়ানোর প্রস্তাব করেছেন। এর ফলে বাড়তে পারে বেশ কিছু পণ্য ও সেবার খরচ।

স্মার্টফোন আমদানির ওপর শুল্কহার ১০ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ২৫ শতাংশ করার প্রস্তাব করা হয়েছে। এ কারণে বাড়তে পারে স্মার্টফোনের দাম। প্রস্তাবিত বাজেটে মোবাইল ফোনের সিমকার্ড ব্যবহারের মাধ্যমে সেবার বিপরীতে সম্পূরক শুল্ক ৫ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ১০ শতাংশ করা হয়েছে। ফলে মোবাইল ফোনে কথা বলা, এসএমএস পাঠানো এবং ডেটা ব্যবহারের খরচও বেড়ে যাবে।

৫ শতাংশ সম্পূরক শুল্ক আরোপের প্রস্তাবে বাড়তে পারে আইসক্রিমের দাম।

প্রাকৃতিক মধুর আমদানি শুল্ক ১০ থেকে বাড়িয়ে ১৫ শতাংশ করা হয়েছে। এতে মধুর দাম বাড়বে।

অলিভ ওয়েল আমদানি শুল্ক ১০ থেকে বাড়িয়ে ২৫ শতাংশ করা হয়েছে। এতে অলিভ ওয়েলেরও দাম বাড়বে।

ওভেন, বিভিন্ন ধরনের কুকার, কুকিং প্লেট, গ্রিলার, রোস্টারের সম্পূরক শুল্ক ০ থেকে ২০ শতাংশ করা হয়েছে। এতে সেসব পণ্যের দাম বাড়বে।

সয়াবিন তেল, পাম ওয়েল, সান ফ্লাওয়ার তেল, সরিষার তেলের আমদানি পর্যায়ের ওপর মূসক আরোপ করা হয়েছে। এতে সেসব পণ্যের দাম বাড়বে।

টিভি ও অনলাইনের মাধ্যমে অনুষ্ঠান সরবরাহকারী, স্থানীয় পর্যায়ে জ্যোতিষী ও ঘটকালিতে মূসক আরোপ করা হয়েছে। এতে সেসব পণ্যের খরচ বাড়বে।

প্লাস্টিক ও অ্যালুমিনিয়ামের তৈরি তৈজসপত্র আমদানিতে মূসক আরোপ করার ফলে দাম বাড়বে।

যাত্রীবাহী বাস, স্কুল বাস, ট্রাক লরি, থ্রি হুইলার ও অ্যাম্বুলেন্স ছাড়া সব ধরনের গাড়ির রেজিস্ট্রেশন, রুট পারমিট, ফিটনেস সনদ, মালিকানা সনদ নবায়ন ও গ্রহণের ক্ষেত্রে পরিশোধিত চার্জের ওপর ১০ শতাংশ সম্পূরক শুল্ক আরোপ করা হয়েছে। এতে খরচ বাড়বে।

চার্টার্ড বিমান ও হেলিকপ্টারের সম্পূরক শুল্ক বেড়েছে। এতে ওই সব পণ্যের সেবা খরচ বাড়বে।

আমদানি করা মোটরসাইকেলের দাম বাড়বে।

এ ছাড়া আমদানি করা ওষুধ, চিনি, গাড়ি, বিদেশি ফ্রিজ, লিফট, বডি স্প্রে, ব্রয়লার, প্রসাধনী সামগ্রী, সিরামিক, ম্যারিজ সেন্টার, গাড়ি, হাতে তৈরি খাবার, বোতলজাত পানি, এনার্জি ড্রিং, রং, হোটেল-রেস্তোরাঁ, বিদেশি শিল্পীদের অংশগ্রহণমূলক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, পলিথিন ব্যাগ, টমেটো কেচাপ, চাটনি, ফলের জুস, টয়লেট টিস্যু, টিউবলাইট, চশমার ফ্রেম, প্লাস্টিকের তৈরি গৃহস্থালি সামগ্রী, সিআর কয়েল, জিআই ওয়্যার, তারকাঁটা, স্ক্রু, ব্লেড, ট্রান্সফরমার, সানগ্লাস ও রিডিং গ্লাসের দাম বাড়তে পারে।

২০১৯-২০ অর্থবছরের জন্য আজ বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে পাঁচ লাখ ২৩ হাজার ১৯০ কোটি টাকার বাজেট উপস্থাপন করেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। রাজস্ব আয়ের লক্ষ্যমাত্রা তিন লাখ ৭৭ হাজার ৮১০ কোটি টাকা। উন্নয়ন ব্যয় দুই লাখ দুই হাজার ৭২১ কোটি টাকা। অনুন্নয়ন ব্যয় তিন লাখ ২০ হাজার ৪৫১ কোটি টাকা। চলতি অর্থবছরের মূল বাজেটের চেয়ে প্রস্তাবিত বাজেট ১২ দশমিক ৬১ শতাংশ বড়। ৩০ জুন এই বাজেট পাস হবে।

অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বিকেল সোয়া ৩টার দিকে জাতীয় সংসদে বক্তব্য শুরু করেন। কিছুক্ষণ পর অসুস্থ হয়ে পড়লে অর্থমন্ত্রীর পরিবর্তে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা স্পিকারের অনুমতি নিয়ে নিজেই বাজেট বক্তব্য দেন।

সর্বাধিক পঠিত

Comments

এই পেইজের আরও খবর

মোবাইল অ্যাপ ডাউনলোড করুন

nazrul