adimage

১৭ নভেম্বর ২০১৯
সকাল ০৩:২৫, রবিবার

কারফিউ জোরদারের মাঝেই শ্রীনগরে কাশ্মীরিদের বিক্ষোভ

আপডেট  02:16 AM, অগাস্ট ২৪ ২০১৯   Posted in : আন্তর্জাতিক    

কারফিউজোরদারেরমাঝেইশ্রীনগরেকাশ্মীরিদেরবিক্ষোভ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, ২৪ আগস্ট : ভারতশাসিত জম্মু-কাশ্মীরের রাজধানী শ্রীনগরে স্বাধীনতাকামী নেতাদের বিক্ষোভের ডাককে কেন্দ্র করে শুক্রবার সকাল থেকেই আরও কড়াকড়ি আরোপ করা হয়। মোতায়েন ছিল অতিরিক্ত সেনা। এরপরও জুমার নামাজের পর বিক্ষোভ মিছিল করেছেন হাজারও কাশ্মীরি।

এদিকে প্রায় তিন সপ্তাহ ধরে জম্মু-কাশ্মীরে চলমান কারফিউয়ে ভারত সরকারের বিরুদ্ধে মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগ তুলেছে জাতিসংঘ।

কাশ্মীরের আন্তর্জাতিক নিয়ন্ত্রণ রেখায় (এলওসি) শুক্রবারও পাকিস্তানি সেনার গুলিতে এক ভারতীয় সেনাসদস্য নিহত হয়েছেন। চলমান সংকট নিরসনে আবারও মধ্যস্থতার প্রস্তাব দিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, জুমার নামাজের পরে শ্রীনগরের সৌরা এলাকায় শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ মিছিল শুরু হয়। প্রায় কয়েক হাজার কাশ্মীরি এতে অংশ নেন।

বিকালের দিকে নিরাপত্তা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা মিছিলকে লক্ষ্য করে গলির ভেতর ঢুকতে চাইলে তা সহিংস হয়ে ওঠে। বিক্ষোভকারীরা পাথর ছোড়া শুরু করলে নিরাপত্তা বাহিনী ছররা গুলি ও কাঁদানে গ্যাস ছুড়ে।

গত দুই সপ্তাহেও জুমার নামাজের পর এ অঞ্চলে শান্তিপূর্ণ মিছিল হয়েছিল।

নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা যেন সৌরা এলাকায় ঢুকতে না পারে সেজন্য বড় রাস্তা থেকে যেসব গলি ভেতরে ঢুকেছে- সবই খুঁড়ে রেখেছেন ওখানকার বাসিন্দারা। কোথাও ব্যারিকেড দেয়া হয়েছে।

তাই পুলিশের গাড়ি সেখানে ঢুকতে পারে না, সদস্যদের হেঁটে ঢুকতে হয়।

এরকমই একটা গলি দিয়ে নিরাপত্তা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা ভেতরে ঢোকার চেষ্টা করলে সংঘর্ষ বাধে। লোকজন পাথর ছোড়া শুরু করে ও সব বাড়ি থেকে টিন বাজানো হয়। সবাই বাড়ি থেকে বেরিয়ে ওই গলির দিকে যায়।

বিবিসির প্রতিবেদক জানান, প্রায় দুই ঘণ্টা ধরে চলা ওই সংঘর্ষে তিনি দুইজনকে ছররা গুলিতে আহত হতে দেখেছেন।

পুলিশের ছোড়া গোলমরিচের গোলায় সাংবাদিকরাও আহত হয়েছেন। তবে পোস্টারের ডাক অনুযায়ী শ্রীনগরে জাতিসংঘের অফিসের দিকে যেতে পারেনি মিছিল। সেখানে যাওয়ার একটি বাদে সব রাস্তাই সকাল থেকে বন্ধ করে দেয়া হয়েছিল।

সৌরা ছাড়া শহরের অন্য অঞ্চলে তেমন বিক্ষোভের খবর পাওয়া যায়নি। তৃতীয় সপ্তাহের মতো এদিনও বড় বড় মসজিদে জুমার নামাজের অনুমতি দেয়া হয়নি।

সোপিয়ান, কুলগাম, বারামুল্লা, কুপওয়াড়া বা অনন্তনাগ এলাকাতেও একই ধরনের বিধিনিষেধ চালু রয়েছে।

মাইক বাজানোরও অনুমতি নেই কোনো মসজিদে। প্রশাসনের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, আজ শনিবার থেকে আবারও কড়াকড়ি কিছুটা শিথিল করা হবে।

শ্রীনগরে দুই-তিন দিন আগে থেকেই শুক্রবার জুমার নামাজের পর স্থানীয়দের কারফিউ অমান্য করে প্রতিবাদ মিছিলে শামিলের ডাক দিয়ে হুরিয়ত নেতাদের নামে পোস্টার ছাপা হয়।

বিবিসি ও রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়, শহরের কয়েকটি এলাকায় স্বাধীনতাকামী নেতাদের যৌথ সংগঠন ‘জয়েন্ট রেজিস্ট্যান্স লিডারশিপ’-এর নামে এ ধরনের পোস্টার দেয়ালে লাগানো হয়।

ওই নেতারা আটক বা গৃহবন্দি থাকায় সত্যিই তারা ওই ডাক দিয়েছেন কি না, তা নিশ্চিত নয়।

এদিকে জম্মু-কাশ্মীরে কারফিউ জারি, যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন, মতপ্রকাশে বাধা, নির্বিচারে আটক-গ্রেফতার ও নির্যাতনের মাধ্যমে ভারত সরকার মানবাধিকার লঙ্ঘন করছে বলে অভিযোগ করেছে জাতিসংঘ।

সংস্থাটির একাধিক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা এক যৌথ বিবৃতিতে বৃহস্পতিবার এ অভিযোগ করেন। তারা বলেন, সেখানে অতিরিক্ত শক্তি প্রয়োগ করছে ভারত।

কাশ্মীরের রাজনৈতিক নেতা, মানবাধিকার কর্মী, সাংবাদিক, নিরীহ যুবক থেকে শুরু করে সব ধরনের মানুষকে গ্রেফতার করা হচ্ছে।

অনেককে আটকের পর কোথায় নেয়া হয়েছে তা কেউ জানে না। যোগাযোগ ও উপার্জনের ব্যবস্থা সম্পূর্ণ ভেঙে যাওয়ায় নিদারুণ ভোগান্তিতে আছেন কাশ্মীরের বাসিন্দারা।

টাইমস অব ইন্ডিয়ার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, শুক্রবার ভোরে এলওসির রাজৌরি সেক্টরে পাকিস্তানি বাহিনীর ছোড়া গুলিতে নিহত হয়েছেন ভারতীয় সেনা সদস্য রাজীব থাপা।

ঘটনার সময় কালসিয়া গ্রামের একটি ফরওয়ার্ড পোস্টে টহলের দায়িত্বে ছিলেন তিনি।

ভারত-পাকিস্তান উত্তেজনার পরিপ্রেক্ষিতে সংকট নিরসনে গত মঙ্গলবার মধ্যস্থতার প্রস্তাব দিয়েছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

হোয়াইট হাউসের এক মুখপাত্র গত বৃহস্পতিবার আবারও বলেন, দুই দেশ একমত হলে ভারত-পাকিস্তানকে সহায়তা করতে প্রস্তুত ট্রাম্প।

আজ শনিবার ফ্রান্সে শুরু হওয়া জি-৭ সম্মেলনের ফাঁকে দ্বিপক্ষীয় বৈঠকে মিলিত হবেন ট্রাম্প ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

সাক্ষাৎকালে জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা রদ এবং রাজ্যটিকে দুটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে ভাগ করার সিদ্ধান্তের পর তৈরি হওয়া ‘আঞ্চলিক উত্তেজনা’ হ্রাসের ব্যাপারে মোদি কী পরিকল্পনা করছেন তা জানতে চাইবেন ট্রাম্প।

সর্বাধিক পঠিত

Comments

এই পেইজের আরও খবর

মোবাইল অ্যাপ ডাউনলোড করুন

nazrul