adimage

২৩ এপ্রিল ২০১৮
বিকাল ০৭:৪২, সোমবার

নিবন্ধন পেতে ৭৬ দলের আবেদন

আপডেট  03:24 AM, জানুয়ারী ০১ ২০১৮   Posted in : রাজনীতি    

নিবন্ধনপেতে৭৬দলেরআবেদন

ঢাকা, ১ জানুয়ারি : নির্বাচন কমিশনের (ইসি) নিবন্ধন পেতে অর্ধশতাধিক রাজনৈতিক দল আবেদন করেছে। গতকাল রোববার আবেদনের শেষ দিনে ইসির কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ৭৬টি রাজনৈতিক দলের আবেদন পাওয়া গেছে। এ ছাড়া আরও ১৫টি নতুন দল নিবন্ধনের আবেদনের সময় বাড়ানোর আবেদন জানিয়েছে। তবে ইসি আর নতুন করে সময় বাড়াচ্ছে না। যাচাই-বাছাই সাপেক্ষে আবেদনকারী দলগুলোর মধ্যে যোগ্যদের মার্চ মাসে নতুন নিবন্ধন দেওয়া হবে। নতুন দলের নিবন্ধনের জন্য আবেদন চেয়ে গত ৩০ অক্টোবর গণবিজ্ঞপ্তি জারি করেছিল ইসি। গতকাল রোববার সেই সময় শেষ হয়।

ইসি সূত্র জানায়, পঙ্কজ ভট্টাচার্যের নেতৃত্বাধীন ঐক্য ন্যাপ, মাহমুদুর রহমান মান্নার নাগরিক ঐক্য, শরীফ নুরুল আম্বিয়ার নেতৃত্বাধীন

বাংলাদেশ জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-বাংলাদেশ জাসদ, জোনায়েদ সাকীর গণসংহতি আন্দোলন যেমন নিবন্ধনের জন্য আবেদন করেছে, তেমনি নাকফুল বাংলাদেশ, ঘুষ নির্মূল পার্টি, মঙ্গল পার্টি, কর্মসংস্থান আন্দোলন, বাংলাদেশ সমাধান ঐক্য পার্টি (বসবাস), সোনার বাংলা উন্নয়ন লীগ, সত্যব্রত আন্দোলন, সততা দল, জাতীয় পরিবার কল্যাণ পার্টি, শান্তির দল, জনতার কথা বলে, মৌলিক বাংলা, জনস্বার্থে বাংলাদেশ, সুশীল সামাজিক আন্দোলন, বাংলাদেশ নিউ সংসদ লীগ, আলোকিত পার্টির মতো অনেক দল।

আবেদনের তালিকায় ব্যবসায়ী মুসা বিন শমসেরের পুত্র ববি হাজ্জাজের নেতৃত্বাধীন জাতীয়তাবাদী গণতান্ত্রিক আন্দোলন-এনডিএম রয়েছে। এই দল থেকে এবার জনপ্রিয় ব্যান্ডশিল্পী সাফিন আহমেদ ঢাকা উত্তর সিটির মেয়র পদে নির্বাচনের প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলে জানা গেছে।

আবেদনের তালিকায় ধর্মভিত্তিক কয়েকটি রাজনৈতিক দলের নামও রয়েছে। দলগুলো হলো- জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম ও নেজামে ইসলাম পার্টি, বাংলাদেশ ইসলামিক গাজী, জালালী পার্টি, ইনসানিয়া বিপ্লব, ইউনাইটেড ইসলামী পার্টি, ইসলামিক পার্টি, ফরায়েজি আন্দোলন, বাংলাদেশ রামকৃষ্ণ পার্টি, বাংলাদেশ হিন্দুলীগ, মাইনরিটি জনতা পার্টি ইত্যাদি।

এ ছাড়া নিবন্ধনের জন্য আবেদনকারী অন্য দলগুলোর মধ্যে রয়েছে- বাংলাদেশ কৃষক শ্রমিক আওয়ামী লীগ (বাকশাল), ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি, পিপলস ডেমোক্রেটিক পার্টি, জনতা পার্টি, রিপাবলিকান পার্টি, সমাজ উন্নয়ন পার্টি, জাতীয় লীগ, পরিবহন লেবার পার্টি, তৃণমূল ন্যাশনাল পার্টি, ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক পার্টি, মানবাধিকার আন্দোলন, ন্যাশনাল কংগ্রেস বাংলাদেশ, গণতান্ত্রিক ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি, গণশক্তি দল, বেঙ্গল জাতীয় কংগ্রেস (বিজেসি), কৃষক শ্রমিক পার্টি, লিবারেল পার্টি, মুক্ত রাজনৈতিক আন্দোলন, জাতীয় দল, নতুন ধারা বাংলাদেশ, সাধারণ জনতা পার্টি, বাংলাদেশ লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি (ডিপিএলডিপি), মুক্তিযোদ্ধা কমিউনিজম ডেমোক্রেটিক পার্টি, গণ আজাদী লীগ, লেবার পার্টি, বাংলাদেশ কৃষক শ্রমিক পার্টি, তৃণমূল লীগ, বাংলাদেশ ন্যাশনাল ডেমোক্রোটিক পার্টি, ডেমোক্রেটিক মুভমেন্ট, ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি বাংলাদেশ, বাংলাদেশ কংগ্রেস, বাংলাদেশ আওয়ামী পার্টি (ভাসানী ন্যাপ)। তালিকায় কোনো কোনো দলের নাম একাধিকবারও আছে, তবে তাদের চেয়ারম্যান ও প্রতীক পৃথক রয়েছে বলে জানিয়েছেন ইসির সংশ্নিষ্ট কমকর্তারা।

নতুন আবেদনের বিষয়ে ইসি সচিবালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ সাংবাদিকদের বলেন, ৭৬টি দল নিবন্ধনের আবেদন করেছে। এসব আবেদন যাচাই-বাছাইয়ের জন্য একটি কমিটি করা হবে। সব শর্ত দলগুলো পূরণ করছে কি-না, তা কঠোরভাবে যাচাই করা হবে। প্রয়োজনে মাঠপর্যায়ে তদন্ত ও গোয়েন্দা প্রতিবেদন নেওয়া হবে। আগামী মার্চে নতুন দলের নিবন্ধনের সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হবে।

বর্তমানে ইসিতে নিবন্ধিত দল আছে ৪০টি। গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশের (আরপিও) ৯০ (এ) অনুসারে নির্বাচন কমিশন আগ্রহী দলগুলোকে তাদের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে নিবন্ধন দিয়ে থাকে। আরপিও অনুযায়ী তিনটি শর্তের মধ্যে একটি পূরণ হলে একটি দল নিবন্ধনের যোগ্য বিবেচিত হয়। এসব শর্তের মধ্যে রয়েছে, দেশ স্বাধীন হওয়ার পর যে কোনো জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সংশ্নিষ্ট দলের যদি একজন সংসদ সদস্য থাকেন; যে কোনো একটি নির্বাচনে দলের প্রার্থী অংশ নেওয়া আসনগুলোয় মোট ভোটের ৫ শতাংশ পায়; বা দলটির যদি একটি সক্রিয় কেন্দ্রীয় কার্যালয়, দেশের কমপক্ষে এক-তৃতীয়াংশ (২১টি) প্রশাসনিক জেলায় কার্যকর কমিটি এবং অন্তত ১০০টি উপজেলা/মেট্রোপলিটন থানায় কমপক্ষে ২০০ ভোটারের সমর্থন সংবলিত দলিল থাকে। -সমকাল

সর্বাধিক পঠিত

Comments

এই পেইজের আরও খবর

মোবাইল অ্যাপ ডাউনলোড করুন

nazrul