adimage

১১ ডিসেম্বর ২০১৮
বিকাল ০৩:০১, মঙ্গলবার

উত্তরাঞ্চলের সঙ্গে ঢাকার বাস চলাচল স্বাভাবিক

আপডেট  03:43 AM, মার্চ ০১ ২০১৮   Posted in : রাজশাহী    

উত্তরাঞ্চলেরসঙ্গেঢাকারবাসচলাচলস্বাভাবিক

বগুড়া, ১ মার্চ : বগুড়াসহ উত্তরাঞ্চলের ১১ জেলায় সঙ্গে ঢাকার বাস চলাচল স্বাভাবিক হয়েছে। বুধবার বিকালে জেলা প্রশাসনের সঙ্গে বৈঠকের পর সন্ধ্যায় বগুড়া মোটর মালিক গ্রুপের আহ্বায়ক মঞ্জুরুল আলম মোহন উত্তরাঞ্চলের সঙ্গে ঢাকার বাস চলাচল পুনরায় শুরুর করার সিদ্ধান্ত হয়েছে হয়েছে বলে জানান। এর পরপরই বন্ধ থাকা ঢাকাগামী বাসের চলাচল শুরু হয়।

বগুড়ার পরিবহন মালিক ও শ্রমিক নেতাদের মালিকাধানাধী শাহ্ ফতেহ আলী নামে একটি পরিবহন সংস্থার শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত (এসি) বাস ঢাকা-বগুড়া রুটে চলাচলে বাধা দেওয়াকে কেন্দ্র করে সোমবার রাতে হঠাৎ করেই বগুড়া থেকে রাজধানীগামী বাস চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়। এর ২৪ ঘণ্টা পর মঙ্গলবার রাতে বগুড়ায় রাজশাহী বিভাগীয় পরিবহন মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদের সভা হতে বুধবার সকাল থেকে ঢাকার সঙ্গে রংপুর বিভাগের ৮ জেলা এবং বগুড়াসহ মোট ১১টি জেলার বাস চলাচল বন্ধ রাখার ঘোষণা দেওয়া হয়।

যে ১১টি জেলা থেকে ঢাকাগামী বাস চলাচল বন্ধ রাখা হয় সেগুলো হলো— পঞ্চগড়, ঠাকুরগাঁও, দিনাজপুর, লালমনিরহাট, নীলফামারী, কুড়িগ্রাম, গাইবান্ধা, রংপুর, জয়পুরহাট, নওগাঁ ও বগুড়া।

উদ্ভূত পরিস্থিতিতে বুধবার বিকেলে বগুড়ার জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ নূরে আলম সিদ্দিকী তার কার্যালয়ে জেলার পরিবহন মালিক-শ্রমিকদের নিয়ে সভা ডাকেন। ওই সভায় পুলিশ সুপার আসাদুজ্জামানসহ জেলা ও পুলিশ প্রশাসনের শীর্ষ কর্মকর্তারাও উপস্থিত ছিলেন। সভায় বগুড়া পরিবহন মালিক-শ্রমিক নেতৃবৃন্দ তাদের মালিকানাধীন শাহ্ ফতেহ্ আলী পরিবহনের আটটি এসি বাস আগের মতো ঢাকা-বগুড়া রুটে চলাচলের সুযোগ চান। তারা অভিযোগ করেন, ঢাকার পরিবহন মালিক পক্ষ তাদের মাত্র দু'টি এসি বাস ঢাকা-বগুড়া রুটে চলাচলের সুযোগ দিতে চায়।

সভা সূত্র জানায়, বগুড়ার পরিবহন মালিক-শ্রমিক নেতাদের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে জেলা পুলিশ সুপার আসাদুজ্জামান ফোনে ঢাকার পরিবহন মালিকদের সঙ্গে কথা বলেন। এ সময় ঢাকার পরিবহন মালিক পক্ষ জানান, শাহ্ ফতেহ আলী পরিবহনের সর্বোচ্চ পাঁচটি এসি বাস ঢাকা-বগুড়া রুটে চলাচল করতে পারবে। এ সময় বগুড়ার পরিবহন মালিক-শ্রমিক নেতারা ঢাকা-বগুড়া রুটে ছয়টি এসি বাস চলাচলের সুযোগ চান। বিষয়টি বগুড়ার পুলিশ সুপার আসাদুজ্জামান ঢাকার পরিবহন মালিকদের অবহিত করলে তারা নিজেদের মধ্যে আলোচনা করার জন্য সময় চান।

সূত্র আরও জানায়, ঢাকার পরিবহন মালিক পক্ষ সন্ধ্যার দিকে বগুড়ার জেলা ও পুলিশ প্রশাসনকে জানিয়ে দেন যে, তারা আপাতত পাঁচটির বেশি এসি বাস চলতে দিতে রাজি নন। ঢাকার এমন সিদ্ধান্ত জানার পর বগুড়ার পরিবহন মালিক-শ্রমিকরা আবারও নিজেদের মধ্যে কথা বলেন এবং ঢাকার প্রস্তাব মেনে নেন।

বগুড়া মোটর মালিক গ্রুপের আহবায়ক মঞ্জুরুল আলম মোহন বলেন, 'আমরা বৃহত্তর স্বার্থে ঢাকার পরিবহন মালিক পক্ষের প্রস্তাব মেনে নিয়েছি। তবে আগামী ১১ ফেব্রুয়ারি ঢাকায় পরবর্তী সভায় এ বিষয়ে আরও বিশদ আলোচনা হবে। তখন আমরা আমাদের যৌক্তিক দাবি তুলে ধরবো।'

বগুড়ার পুলিশ সুপার আসাদুজ্জামান বলেন, 'জনগণের ভোগান্তি নিরসনের জন্য আমরা যে উদ্যোগ নিয়েছিলাম সেটা সফল হয়েছে।'


সর্বাধিক পঠিত

Comments

এই পেইজের আরও খবর

মোবাইল অ্যাপ ডাউনলোড করুন

nazrul