adimage

২২ অগাস্ট ২০১৮
সকাল ১২:০৭, বুধবার

বাংলাদেশকে ইনিংস পরাজয়ের হুমকি দিয়ে গেলেন সামারাবিরা

আপডেট  02:47 AM, ফেব্রুয়ারী ০৩ ২০১৮   Posted in : স্পোর্টস    

বাংলাদেশকেইনিংসপরাজয়েরহুমকিদিয়েগেলেনসামারাবিরা

স্পোর্টস ডেস্ক, ৩ ফেব্রুয়ারি : বাংলাদেশের চেয়ে ৯ রানে পিছিয়ে আছে শ্রীলঙ্কা। কিন্তু হাতে আছে ৭টি উইকেট। স্পষ্টতই বড় লিডের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে দলটি। আর তা করতে পারলে ইনিংস ব্যবধানে জয় অসম্ভব নয়। কারণ শেষ দুই দিনে উইকেট থেকে ভালো সুবিধাই পাবেন স্পিনাররা। তৃতীয় দিনে তার কিছুটা প্রমাণও মিলছে। সংবাদ সম্মেলনে শ্রীলঙ্কার ব্যাটিং কোচ থিলান সামারাবিরা জানালেন তাদের দলে আছেন প্রতিষ্ঠিত তিন জন স্পিনার। ইঙ্গিতটা স্পষ্ট। পরোক্ষ হুমকিই বটে।

নিজেদের প্রথম ইনিংসে ৫১৩ রান করেছিলো বাংলাদেশ। স্কোরটা বড়ই। কিন্তু এই স্কোর ছোট হয়ে দাঁড়াচ্ছে লঙ্কানদের সাবলীল ব্যাটিংয়ে। তৃতীয় দিন শেষে তাদের সংগ্রহ ৫০৪ রান। উইকেট পড়েছে মাত্র ৩টি। তার উপর টাইগারদের ভোগান্তি বাড়িয়ে উইকেটে দারুণ সেট হয়ে অপরাজিত আছেন রোশেন সিলভা ও অধিনায়ক দীনেশ চান্দিমাল। এ ভোগান্তি আরও বাড়াতে চান বললেন সামারাবিরারা, ‘প্রথম দুই ঘণ্টা অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ। আমাদের জুটি গড়ে যেতে হবে। আমাদের স্বাভাবিকভাবে ব্যাট করে যেতে হবে, কারণ ১৮০ ওভার অনেক।’ এরপর এক বাক্যে জানিয়ে দিলেন দলের শক্তির কথা, ‘আমাদের কিন্তু তিন জন দারুণ স্পিনার আছে।’

অর্থাৎ বেশ বড়সড় লিডই চাই লঙ্কানদের। এরপর বাকিটা তুলে দিয়ে চান স্পিনারদের হাতে। আর তা করতে চাইবেনই না কেন? বাংলাদেশকে পেলেই যে জ্বলে ওঠেন রঙ্গনা হেরাথ। টাইগারদের বিপক্ষে এর আগে ৯ টেস্ট খেলে উইকেট নিয়েছেন ৪৪টি। প্রথম ইনিংসেও পেয়েছেন ৩টি। আছেন দিলরুয়ান পেরেরা ও লক্ষণ সান্দাকানের মতো কার্যকরী স্পিনার। ব্যাটিং স্বর্গে প্রথম ইনিংসে তিন স্পিনার নিয়েছেন ৬টি উইকেট। তাই দ্বিতীয় ইনিংসে আরও ভয়ংকর হয়ে উঠবেন আশা করতেই পারে লঙ্কান শিবির।

তাই অনুমিতভাবেই লিডের চেয়ে নিজেদের স্বাভাবিক ব্যাটিংয়ের দিকেই মনোযোগ দিচ্ছেন সফরকারীরা। চতুর্থ দিনের লাঞ্চ পর্যন্ত ব্যাট করার পর সিদ্ধান্ত নেবেন কি করা যায়। সামারিবারার ভাষায়,  ‘আমরা লিড নিয়ে ভাবছি না। আমরা যতক্ষণ সম্ভব ব্যাট করে যেতে চাই। কমপক্ষে চতুর্থ দিনের লাঞ্চ পর্যন্ত ব্যাট করতে চাই, এরপর দেখবো কি করা যায়।’

চট্টগ্রাম টেস্টের তৃতীয় দিন শেষে ৯ রানে পিছিয়ে থেকেও চালকের আসনে শ্রীলঙ্কা। আর এ পথটা গড়ে দিয়েছেন ডাবল সেঞ্চুরির কাছে গিয়ে থামা দুই ব্যাটসম্যান ধনাঞ্জয়া ডি সিলভা ও কুশল মেন্ডিস। তাদের তাই প্রাপ্য কৃতিত্ব দিতে ভোলেননি সামারাবিরা, ‘বাংলাদেশ ৫২৩ রান করার পর আমরা তাদের বলেছিলাম আমাদের ব্যাট করে যেতে হবে। আমার মনে হয় পুরো কৃতিত্ব পুরো কৃতিত্ব দুই ব্যাটসম্যান ধনাঞ্জয়া ও কুশল মেন্ডিসের। শুরুতে উইকেট হারানোর পরও তারা ৩০০ রানের জুটি গড়েছে।’

সর্বাধিক পঠিত

Comments

এই পেইজের আরও খবর

মোবাইল অ্যাপ ডাউনলোড করুন

nazrul