adimage

২৪ এপ্রিল ২০১৮
সকাল ০১:২৮, মঙ্গলবার

১৫ বাংলাদেশির স্বজনদের ডিএনএ নমুনা সংগ্রহ

আপডেট  03:28 PM, মার্চ ১৮ ২০১৮   Posted in : জাতীয়    

১৫বাংলাদেশিরস্বজনদেরডিএনএনমুনাসংগ্রহ

ঢাকা, ১৮ মার্চ : নেপালে বিমান দুর্ঘটনায় নিহত ১৫ বাংলাদেশির স্বজনরা ডিএনএ পরীক্ষার নমুনা দিয়েছেন। পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) ফরেনসিক ল্যাবে স্বজনদের কাছ থেকে নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।

সিআইডির সহকারী পুলিশ সুপার শারমিন জাহান জানান, গত ১২ মার্চ নেপালে বিমান দুর্ঘটনায় পাইলট ও ক্রুসহ নিহত বাংলাদেশিদের পরিচয় শনাক্তের জন্য বিভিন্নভাবে চেষ্টা করেন স্বজনরা। পরিচয় নিশ্চিত করতে এরইমধ্যে নেপালে গেছেন সিআইডির ফরেনসিক টিমের দুই সদস্য।

সেখানে এখনো শনাক্ত না হওয়া মরদেহের ডিএনএ নমুনা সংগ্রহ করে স্বজনদের ডিএনএর সঙ্গে মেলানো হবে। শনাক্ত হওয়ার পর স্বজনদের কাছে মরদেহ হস্তান্তর করা হবে।

শারমিন জাহান আরো জানান, মরদেহগুলো যেন সঠিকভাবে শনাক্ত করা যায় সেজন্য স্বজনদের এই নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। গত দুই দিনে (শনি ও রোববার) সিআইডির ডিএনএ ল্যাবে স্বজনদের নমুনা নেওয়া হয়েছে। বাবা-মা আর ভাইবোন ছাড়াও পরিবারের স্বজনদের কাছ থেকে এই নমুনা সংগ্রহ করা হয়। ডিএনএ টেস্টের পর নিহতদের সঙ্গে তা মেলানো হবে।’

গত ১২ মার্চ ইউএস-বাংলা এয়ারলাইনসের একটি ফ্লাইট নেপালের কাঠমান্ডুর ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণের সময় পাশের একটি ফুটবল মাঠে বিধ্বস্ত হয়।

ওই ফ্লাইটে চারজন ক্রুসহ ৭১ জন আরোহী ছিলেন। এর মধ্যে ৫১ জন আরোহী নিহত হয়। নিহতদের মধ্যে বিমানটির চারজন ক্রুসহ ২৬ জন বাংলাদেশি, ২২ জন নেপালি ও চীনের একজন যাত্রী রয়েছেন। আহত ২২ জন আরোহীর মধ্যে ১০ জন বাংলাদেশি, ১১ জন নেপালি ও একজন মালদ্বীপের।

গতকাল শনিবার পর্যন্ত নিহতদের মধ্যে ২৮ জনের পরিচয় নিশ্চিত হওয়া গেছে। এর মধ্যে বাংলাদেশের ১৭ জনের মরদেহ রয়েছে। নেপালের ত্রিভুবন ইউনিভার্সিটি টিচিং হাসপাতালে এই ১৭ বাংলাদেশির মরদেহ শনাক্তের কথা জানানো হয়েছে।

এদিকে শনাক্ত হওয়া ১৭ বাংলাদেশির মরদেহ আগামীকাল সোমবার বিকেল ৪টায় ঢাকায় নিয়ে আসা হবে। বিমান বাহিনীর একটি বিশেষ ফ্লাইটে মরদেহগুলো আনা হবে।

সর্বাধিক পঠিত

Comments

এই পেইজের আরও খবর

মোবাইল অ্যাপ ডাউনলোড করুন

nazrul