Print Paper - www.news69bd.com - Publish Date : 31 May 2019

‘ইয়াবা ডন’ সাইফুল ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

‘ইয়াবা ডন’ সাইফুল ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

কক্সবাজার, ৩১ মে : কক্সবাজারে টেকনাফে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ সাইফুল করিম (৪০) নামের এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। তিনি ‘ইয়াবা ডন’ নামে পরিচিত বলে জানিয়েছে পুলিশ।

শুক্রবার ভোরে টেকনাফের নাফ নদের স্থলবন্দর এলাকায় এ ‘বন্দুকযুদ্ধের’ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ জানায়, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর ও গোয়েন্দা সংস্থার ইয়াবা ব্যবসায়ীর তালিকায় সাইফুলের নাম এক নম্বরে রয়েছে। তিনি টেকনাফের সিলবনিয়া পাড়ার ডা.মোহাম্মদ হানিফের ছেলে।

টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রদীপ কুমার দাশ এসব তথ্য জানিয়েছেন।

পুলিশ জানায়, সাইফুল করিমকে কক্সবাজার থেকে আটক করার পার তার দেওয়া তথ্য অনুযায়ী পুলিশ জানতে পারে, মিয়ানমার থেকে ইয়াবার একটি বড় চালান এনে টেকনাফের নাফ নদের স্থলবন্দর এলাকায় মজুদ রাখা হয়েছে, তার দেওয়া তথ্যর ভিত্তিতে তাকে নিয়ে বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে ইয়াবা উদ্ধার অভিযানে যায় পুলিশের একটি দল। এ সময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে তার সহযোগী অস্ত্রধারী ইয়াবা ব্যবসায়ীরা পুলিশের ওপর গুলি চালায়। পরে পুলিশ আত্মরক্ষার্থে ৫২ রাউন্ড পাল্টা গুলি ছোড়ে। ইয়াবা ব্যবসায়ীরা পিছু হটলে ঘটনাস্থল থেকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় সাইফুলকে উদ্ধার করে টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসা হয়।

পুলিশের দাবি, ‘বন্দুকযুদ্ধের’ ঘটনায় পুলিশের তিন সদস্য আহত হয়েছেন। তারা হলেন-এসআই রাসেল আহমদ, কনস্টেবল মো. সালমান ও ইমাম হোসেন।  ঘটনাস্থল ১ লাখ পিস ইয়াবা এবং  ৯টি দেশীয় অস্ত্র (এলজি), ৪২টি গুলি ও ৩৩ রাউন্ড গুলির খোসা উদ্ধার করেছে পুলিশ।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক প্রণয় রুদ্র বলেন, সাইফুলের বুকে, বাহু ও পেটে চারটি গুলির চিহ্ন দেখা গেছে। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে কক্সবাজার নেওয়ার পথে তিনি মারা যান। পুলিশ সদস্যদের প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

ওসি প্রদীপ কুমার দাশ বলেন, সাইফুল করিম দেশের এক নম্বর ইয়াবা ব্যবসায়ী ছিলেন। তার বিরুদ্ধে টেকনাফ থানায় মাদক ও হুন্ডিসহ একাধিক মামলা আছে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, গোয়েন্দা সংস্থা ও মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের ইয়াবা ব্যবসায়ীদের তালিকায় তার নাম এক নম্বরে রয়েছে।  সূত্র: সমকাল