২৯ মে ২০১৭
সকাল ৭:৫৭, সোমবার

সাভারের ‘জঙ্গি আস্তানা’য় ভয়াবহ বিস্ফোরণ

সাভারের ‘জঙ্গি আস্তানা’য় ভয়াবহ বিস্ফোরণ 

988

সাভার, ২৭ মে : ঢাকার সাভারের মধ্যগ্যান্ডা এলাকায় জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে ঘিরে রাখা বাড়িটি থেকে ভয়াবহ বিস্ফোরণের শব্দ শোনা গেছে। আজ শনিবার দুপুর ১২টার দিকে এই বিস্ফোরণ ঘটে।

এর আগে  আজ শনিবার বেলা ১১ টার দিকে পুলিশের বোম্ব ডিসপোজাল ইউনিট সেখানে পৌঁছানোর পর কিছুক্ষণ বিরতি দিয়ে অভিযান শুরু করে পুলিশ।

বিস্ফোরক নিষ্ক্রীয় করতে এবং বিস্ফোরণের সম্ভাব্য আশংকা থেকে ওই বাড়ির আশেপাশের ভবনের বাসিন্দাদের সরিয়ে নিতে শুরু করেছে পুলিশ।

অন্যদিকে মাইকিং করে পুলিশের কাজে সহযোগিতার পাশাপাশি আতঙ্কিত না হবার কথাও বলছে পুলিশ।

এদিকে পৌনে ১২ টার দিকে বিস্ফোরণের আশঙ্কা থেকে ঘটনাস্থলের কাছে মোতায়েন করা হয়েছে ফায়ার ব্রিগেডের দুটি ইউনিট। ইতোমধ্যে সর্তকতার অংশ হিসেবে ভবনটি ছাড়াও আশেপাশের ভবনের বিদ্যুত ও গ্যাসের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করার প্রক্রিয়া শুরু করেছেন অভিযানকারীরা।

সেখানে ঢাকা জেলা পুলিশের সহযোগিতায় অভিযানে অংশ নিচ্ছে পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট ছাড়াও বোম্ব ডিসপোজাল ইউনিট ও গোয়েন্দা পুলিশ।

পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের উপ কমিশনার (ডিসি)মবিনুল ইসলাম খান জানান, অভিযানের বিষয়টি টের পেয়ে জঙ্গিরা আগেভাগে সটকে পড়লেও সেখানে তারা রেখে গেছে বিপুল পরিমাণ বিস্ফোরক।

ঢাকা জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কাজী আশরাফুল আজীম জানান, আজ দিনের আলোর মধ্যেই অভিযান শেষ করা হবে।

এর আগে গতকাল রাত সোয়া নয়টার দিকে ডিএমপির কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্স ন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিট ও ঢাকা জেলা পুলিশ যৌথভাবে সাভারের মধ্যগ্যান্ডা এলাকার নির্মাণাধীন ছয়তলা একটি বাড়ি ঘিরে ফেলে। এর আগে নামাগ্যান্ডা এলাকার একটি বাড়িতে অভিযান চালায় পুলিশ।

মধ্যগ্যান্ডা এলাকায় ঘিরে রাখা বাড়িটির দোতলা পর্যন্ত নির্মাণ শেষ হয়েছে। বাড়ির মালিক সৌদি আরবপ্রবাসী। সিরাজুল নামের এক কেয়ারটেকারের কাছ থেকে ওই লোকজন বাড়ি ভাড়া নিয়েছেন।

এর আগে গতকাল বিকেল চারটার দিকে নামাগ্যান্ডা এলাকায় জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে সিটিটিসি ও ঢাকা জেলা পুলিশ যৌথভাবে একটি পাঁচতলা বাড়ি ঘিরে ফেলে। সাভার মডেল থানার সহকারী পুলিশ সুপার মাহবুবুর রহমান বলেন, ওই বাড়ির দুটি ফ্ল্যাটের একটিতে স্ত্রী ও তিন সন্তানকে নিয়ে থাকতেন মণির হোসেন নামের এক ব্যক্তি। তার বিরুদ্ধে ‘জঙ্গি’ সংশ্লিষ্টতার তথ্য পাওয়া গেছে। আরেক ফ্ল্যাটে স্ত্রী-সন্তানদের নিয়ে থাকতেন অপর এক ‘জঙ্গি’। অভিযানের আগে মণির পালিয়ে গেলেও তাঁর স্ত্রী রিমু আক্তার দুই শিশুপুত্র ও এক মেয়েকে নিয়ে ফ্ল্যাটেই ছিলেন। তাদের আপাতত বাড়ির মালিকের হেফাজতে দেওয়া হয়েছে।

ঢাকা জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আশরাফুল আজীম বলেন, নামাগ্যান্ডায় অভিযান শেষ করে মধ্যগ্যান্ডায় বাড়িটি ঘিরে রাখা হয়।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

সাভারে ‘জঙ্গি আস্তানা': বোম ডিজপোজাল ইউনিটের অপেক্ষা 

88

সাভার, ২৭ মে : সাভারে ‘জঙ্গি আস্তানা’ সন্দেহে ঘিরে রাখা ছয়তলা বাড়িতে অভিযানের প্রস্তুতি নিয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

শনিবার সকালে ঢাকা থেকে বোম ডিজপোজাল ইউনিটের সদস্যরা সাভারের উদ্দেশে রওনা দিয়েছে। তারা এলে শুক্রবার উদ্ধার বোমাগুলো নিষ্ক্রিয় করা হবে।

এছাড়া ওই বাড়িতে আর কোনো বোমা ও বিস্ফোরক আছে কিনা তার সন্ধানে অভিযান চালানো হবে বলে পুলিশ সূত্রে জানা গেছে।

পুলিশ জানায়, মধ্য গেন্ডা মহল্লার সাকিব মিয়ার ছয়তলা বাড়ির দোতলায় দুটি ফ্ল্যাটে শুক্রবার জঙ্গি আস্তানার সন্ধান পায় ঢাকা জেলা পুলিশ।

পরে ঢাকা জেলা পুলিশ সুপার শাহ মিজান শাফিউর রহমানের সহয়তায় পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট ওই বাড়িতে অভিযান চালিয়ে দোতলার ফ্ল্যাট থেকে বিপুল পরিমাণ বোমা, বোমা তৈরির ব্যাটারি, জিহাদি বই ও ল্যাপটপ উদ্ধার করে।

এর আগে শুক্রবার সন্ধ্যা ৭টা থেকে সাভার পৌর এলাকার গেন্ডার দুটি বাড়িতে জঙ্গি ধরতে অভিযান চালায় পুলিশ।

প্রাথমিকভাবে সন্দেহজনক স্থানীয় আনোয়ার মোল্ল্যার বাড়িতে পুলিশি অভিযানের আগেই বাড়ির নিচ তলার একটি ফ্লাটে অবস্থানরত বাবুল নামে এক জঙ্গি পরিবারসহ পালিয়ে যায় বলে পুলিশ জানিয়েছে।

তবে ওই ফ্লাট থেকে কোনো বিস্ফোরক দ্রব্য পাওয়া যায়নি। বাবুলকে আশ্রয় দেয়া ওই বাড়ির ভাড়াটিয়া মুনির ও তার পরিবারকে স্থানীয় কাউন্সিলারের জিম্মায় রাখা হয়েছে।

এই অভিযানের মধ্যেই মধ্য গেন্ডা মহল্লার সাকিব মিয়ার বাড়িতে অভিযান চালিয়ে পুলিশ বোমা, বিস্ফোরক উদ্ধার করে।

তবে শুক্রবার রাতে সেগুলো নিষ্ক্রিয় করা হয়নি। শনিবার বোম ডিজপোজাল ইউনিটের সদস্যরা ঘটনাস্থলে পৌঁছলে এগুলো নিষ্ক্রিয় করা হবে।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

সাভারে আটক যুবক ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত 

588

ঢাকা, ২৬ মে : সাভারে পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে এক যুবক নিহত হয়েছেন। নিহতের নাম মুক্তার হোসেন মুক্তি (৪৫)। তিনি শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী বলে দাবি করেছে পুলিশ। আজ শুক্রবার ভোররাতে সাভারের বিরুলিয়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

সাভার মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এস এম কামরুজ্জামান দাবি সাভারের ছোটবলি মেহের এলাকায় আখতার হোসেসের ছেলে মুক্তার হোসেন মুক্তি দীর্ঘদিন ধরে এলাকায় মাদক বিক্রি করে আসছিলেন। পরে গতকাল তাঁকে পুলিশ ধরে নিয়ে যায়।

‘আজ ভোররাতে তাঁকে নিয়ে অন্য মাদক ব্যবসায়ীদের ধরতে গেলে বিরুলিয়া এলাকায় সন্ত্রাসীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। এ সময় দুই পক্ষের গুলিতে মুক্তি নিহত হয়।’

পুলিশ এ সময় ঘটনাস্থল থেকে একটি বিদেশি পিস্তল ও তিনটি গুলি উদ্ধার করে বলে দাবি করেন ওসি। মুক্তির বিরুদ্ধে সাভারসহ বিভিন্ন থানায় নারী পাচার, মাদক ব্যবসাসহ বিভিন্ন অভিযোগে প্রায় ১৮টি মামলা রয়েছে।

পুলিশ লাশ ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

সেরা ৬ বিজয়ীকে পুরস্কৃত করেছে কিডজ্ 

অনলাইন ডেস্ক, ঢাকা, ২০ মে : শুক্রবার বিকালে রাজধানীর জাহাঙ্গীর গেটের পাশে অবস্থিত Capricorn’s World এ এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন Kidz ব্র্যান্ড-এর প্রধান শামীমা নাসরিন । ফেসবুকের মাধ্যমে নির্বাচিত ১০০০ শিশুর ছবি থেকে লাইক ও ভোটের মাধ্যমে বিজয়ীদের নির্বাচিত করা হয়।

অনুষ্ঠানে বিজয়ী ৩ জনকে ঢাকা ব্যাংকক ঢাকা এবং অন্য ৩ জনকে ঢাকা কক্সবাজার ঢাকা বিমান টিকিট দেয়া হয়।

প্রথম বারের মত ৫ বছরের কম বয়সী শিশুদের ছবি নিয়ে ফেসবুকে Kidz ব্যান্ড এই প্রতিযোগিতা আয়োজন করে। Kidz কতৃপক্ষ প্রথমে তাদের ফেসবুক পেজ সর্বচ্চ ৫ বছর বয়সি শিশুদের ছবি পাঠানোর আহ্বান করেন। প্রায় ৬০ হাজার প্রতিযোগী থেকে এক হাজার ছবি বাছাই করে পেজ এ আপলোড করা হয়। প্রতিযোগীতায় like সংগ্রহ ও ভোটের মাধম্যে বিজয়ী নির্বাচিত করা হয়।

পরে Kidz ব্র্যান্ড-এর প্রধান শামীমা নাসরিন বলেন,প্রতিটি শিশুই স্বরগীয়।কয়েক লাখ মানুষ লাইক দিয়ে অংশগহনের মাধ্যমে প্রতিযোগীতায় বিজয়ি নিরবাচন করেছেন। আমি তাদের ধন্যবাদ জানাচ্ছি। ডায়াপার এবং ওয়েটটিস্যু সহ শিশুদের বেশ কিছু পন্য বাজারজাত করছে Kidz নামের এই প্রতিষ্ঠানটি।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

আশুলিয়ায় বিস্ফোরকসহ দুই ‘জঙ্গি’ গ্রেফতার 

09

ঢাকা, ৮ মে : ঢাকার আশুলিয়ায় অভিযান চালিয়ে আইইডি (ইম্প্রোভাইজড এক্সপ্লোসিভ ডিভাইস) তৈরীর রাসায়নিক পদার্থ সরবরাহকারী জঙ্গি সদস্য ইমরান ও তার সহযোগী রফিক নামে দু’জনকে গ্রেফতারের দাবি করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)।

আজ সোমবার সকালে র‌্যাব সদর দফতরের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক মুফতি মাহমুদ খান এক ক্ষুদে বার্তায় সাংবাদিকদের এ তথ্য জানিয়েছেন।

র‌্যাব জানায়, অভিযানে বিভিন্ন ধরনের বিস্ফোরক ও আইইডি তৈরির সরঞ্জমাদি উদ্ধার করা হয়েছে। দুপুরে কারওয়ান বাজারে র‌্যাব সদর দফতরের মিডিয়া সেন্টারে সংবাদ সম্মেলনে এ বিষয়ে বিস্তারিত জানানো হবে।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

রাঙামাটির কাপ্তাই লেকে ফরমালিন মুক্ত গ্রীষ্মকালীন ভাসমান ফলের হাঁট 

0

হাবিব সরোয়ার আজাদ, ঢাকা, ৬ মে : এশিয়া মহাদেশের সর্ববৃহ ও বাংলাদেশের পার্বত্য অঞ্চলের রাঙামাটির কাপ্তাই লেকে ভ্রমণে আসা পর্যটকদের প্রচন্ড তাপদাহ থেকে কিছুটা স্বস্থি এনে দিতে লেকের পানিতে এবার বসেছে ফরমালিন মুক্ত গ্রীষ্মকালীন ভাসমান ফলের হাঁট।

দেশের অন্যান্য স্থানের তুলনায় গ্রীষ্মকালে পার্বত্য অঞ্চলে গরম ও তাপদাহ কিছুটা বেশী থাকায় ভ্রমণ পিপাসু পর্যটকরাও রাঙামাটি এসে ঘুরতে ঘুরতে যখন তাপদাহে কবলে পড়ে অস্থস্থিবোধ করেন ঠিক সে সময় ইচ্ছে করলে কাপ্তাই লেকের দৃষ্টি নন্দন ঝুলন্ত ব্রিজের আশে পাশে সারি সারি বোটের মধ্যে রাখা গ্রীষ্মকালীন রসালো ফল, লেচু, আনাসর, পেঁপে, আতাফল,জামরুল, জাম, কাঁচা-পাঁকা আম, তরমুজ, ডালিম, মুসাম্বির, কলা, বেল , কাঠাল, ডাবের পানি ও লেবুর শরবত সহ নানা গ্রীষ্মকালীন রসালো ফল –ফলাদী ফল সুলভে ক্রয় করে আহার ও পান করতে পারছেন। আবার অনেকেই এখান থেকে ফল-ফলাদী কিনে বাড়িও নিয়ে যাচ্ছেন।
এসব রসালে ফল-ফলাদী কাপ্তাই লেকের আশে পাশের টিলা ও বস্থিতে থাকা পাহাড়ি- বাঙালিরা  তাদের নিজস্ব ঝুঁমেই সার- কীটনাশক মুক্ত প্রক্রিয়ায় উৎপাদন করছেন এবং সরাসরি রাঙ্গামাটির কাপ্তাই লেক সহ আশে পাশের হাটগুলোতে সরবরাহ করে আসছেন।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

মোঃ আতাউর রহমান প্রধানকে লালমনিরহাট জেলা সমিতির সংবর্ধনা 

3

নাহিদ হাসান, ঢাকা, ৬ মে : রুপালী ব্যাংকের ব্যবস্হাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা(সিইও) হিসেবে নিয়োগপ্রাপ্ত হওয়ায় জনাব মোঃ আতাউর রহমান প্রধানকে সংবর্ধনা দিয়েছে লালমনিরহাট জেলা সমিতি, ঢাকা।

শুক্রবার বিকেলে জাতীয় শিক্ষা ব্যবস্থাপনা একাডেমি (নায়েম) মিলনায়তনে এ সংবর্ধনা দেওয়া হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের মাননীয় প্রতিমন্ত্রী জনাব মোঃ নুরুজ্জামান আহমেদ এম.পি। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন লালমনিরহাট-৩ আসনের মাননীয় সাংসদ জনাব ইঞ্জিঃ আবু সালেহ মোঃ সাঈদ দুলাল।

সংগঠনটির সভাপতি মোঃ শফিউল আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মোঃ আহসান কামাল চৌধুরী (সোহাগ)।

অনুষ্ঠানে লালমনিরহাট জেলা ছাত্র কল্যাণ সমিতি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক সভাপতি আব্দুল্লাহ আল মোত্তালেব শাওন, সাবেক সাধারণ সম্পাদক এস এম নাহিদ হাসান নয়ন সহ লালমনিরহাট জেলার বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ উপস্হিত ছিলেন।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

দেশে অনলাইন গণমাধ্যমের অগ্রযাত্রা কেউ ব্যহত করতে পারবেনা : ইকবাল সোবহান 

ঢাকা, ৪ মে : গতকাল ০৩ মে জাতীয় প্রেস ক্লাবে বোমার উদ্যোগে বিশ্ব মুক্ত গণমাধ্যম দিবস-২০১৭ উপলক্ষে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এবারের প্রতিপাদ্য বিষয় “সঙ্কটকালের পর্যালোচনামূলক ভাবনা : সকলের অংশগ্রহণমূলক, ন্যায়ভিত্তিক শান্তিপূর্ণ একটি সমাজকে এগিয়ে নিতে গণমাধ্যমের ভূমিকা” শীর্ষক এক আলোচনা সভা ও সাংবাদিক সম্মাননা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বোমার সাধারণ সম্পাদক এ কে এম শরিফুল ইসলাম খানের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি ছিলেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের  মাননীয় তথ্য বিষয়ক উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী।

গতকাল বুধবার বিকাল ৪ টায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের কনফারেন্স লাউঞ্জে বাংলাদেশ অনলাইন মিডিয়া এসোসিয়েশনের উদ্যোগে বিশ্ব মুক্ত গণমাধ্যম দিবস-২০১৭ আলোচনা সভার অনুষ্ঠিত হয়েছে। বাংলাদেশে যেকোনো সময়ের চেয়ে বর্তমান সরকার বেশি গণমাধ্যমবান্ধব। বর্তমানে গণমাধ্যম সবচেয়ে বেশি স্বাধীনভাবে কার্যক্রম পরিচালনা করছে। তবে স্বাধীনতার নামে গণমাধ্যমের অপপ্রয়োগ যাতে না হয় তার জন্যও সচেতন থাকতে হবে সাংবাদিক ও গণমাধ্যম মালিকদের।

বুধবার সন্ধ্যায় জাতীয় প্রেসক্লাবের কনফারেন্স হলরুমে বাংলাদেশ অনলাইন মিডিয়া এসোসিয়েশনের (বোমা) উদ্যোগে আয়োজিত বিশ্ব মুক্ত গণমাধ্যম দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভায় প্রধানমন্ত্রীর তথ্য বিষয়ক উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, গণতন্ত্র আর গণমাধ্যম একটি আরেকটির পরিপূরক। যেখানে গণমাধ্যম যত বেশি শক্তিশালী সেখানে গণতন্ত্রও তত বেশি শক্তিশালী। পরমত সহিষ্ণুতাই গণতন্ত্রের সবচেয়ে বড় কথা। আলোচনা, মতপ্রকাশ, ঐক্য, সংহতি হলো গণতন্ত্রের গুরুত্বপূর্ণ সিঁড়ি। মৌলিক অধিকার হলো মতপ্রকাশের স্বাধীনতা।

তিনি আরো বলেন, অনলাইন সাংবাদিকতাকে একটি নীতিমালার আওতায় এনে শক্তিশালী গণমাধ্যম হিসেবে প্রতিষ্ঠা করতে প্রধানমন্ত্রী অত্যন্ত আন্তরিক। দ্রুততম সময়ে এই নীতিমালা চূড়ান্ত করা হবে। অনলাইন গণমাধ্যমের অগ্রযাত্রা কেউ দাবিয়ে রাখতে পারবে না।

অনলাইন সংবাদ মাধ্যমের মালিকদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, এ মাধ্যমে নিয়োজিত সংবাদকর্মীদের পারিশ্রমিক যথাযথভাবে প্রদান করুন। অর্থের অভাবে যাতে তারা অপসাংবাদিকতায় লিপ্ত না হয়।

আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের মহাসচিব ওমর ফারুক বলেন, যারা অনলাইন পত্রিকায় কাজ করেন, তাদের বেতন-ভাতা মালিকরা নিশ্চিত করবেন। আমরা প্রয়োজনে অনলাইন গণমাধ্যমের অগ্রগতিতে সহযোগিতায় প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করব। আশা করি, তিনি বিগত সময়ে গণমাধ্যমের বিভিন্ন সহযোগিতার মতো অনলাইন গণমাধ্যমের বিকাশে সহায়তা করবেন।

অনুষ্ঠানে তার বক্তব্যে বাংলাদেশ অনলাইন মিডিয়া এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক এবং নিউজ ২১ বিডির সম্পাদক ও এ কে এম শরিফুল ইসলাম খান বলেন যদিও সংবিধানে গণমাধ্যম রাষ্ট্রের চতুর্থ স্তম্ভ কিন্তু সরকার বিগত এক যুগেও অনলাইন গণমাধ্যমকে কোন স্বীকৃতি প্রধান করতে পারে নাই। গত ৫ বছরে অক্লান্ত পরিশ্রম করে কমিটি একটি খসরা নিতিমালা জমা দিলেও আজও তা বাস্তবায়নের জন্য কোন উদ্যোগ নেয়নি, বরং নিবন্ধনের নামে সারাদেশে অনলাইন গণমাধ্যম মালিক বা প্রকাশকদের নানা হয়রানি করছে আইন শরিলিংখলা। কমিটির সুপারিশ অনুযায়ী একটি স্বাধীন অনলাইন কমিশন গঠন না করে জোর করে সম্প্রচার কমিশনের অধীনে চাপিয়ে দেয়ার চেষ্টা করছে যা অনলাইনের সাথে সংশ্লিষ্টরা কখনো মেনে নিবেনা। এছারা অন্যান্য দেশের থাকলেও বাংলাদেশে কোন ডোমেইন নীতিমালার উদ্যোগ সরকার এখনো নেয়নি।সরকার অনলাইন গণমাধ্যম এর সাথে বিমাতা সুলভ আচরন করে পরিস্থিতি জটিল করছে। এই বিষয়ে পদক্ষেপ নিতে অবিলম্বে বাবস্থা নিতে অনুরোধ জানাচ্ছি।

প্রতি বছরের ন্যায় এবারেও যে ৩ জনকে বোমা সম্মাননা দেয়া হয়েছে তারা হলেন  ফটো নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকমের সম্পাদক আবু সুফিয়ান, দৈনিক সময় সংবাদের পক্ষে  সম্পাদক ও ব্যবস্থাপনা সম্পাদক আরিফ মোতাহার এবং সাপ্তাহিক জনতার গোয়েন্দার সম্পাদক মোহাম্মদ মহসিন। এছাড়া মরণোত্তর সম্মাননা দেয়া হয় মরহুম সাংবাদিক সফিউদ্দিন আহমেদকে, বাংলাদেশ সাংবাদিক সমিতির সাবেক সভাপতি।

বিশ্ব মুক্ত গণমাধ্যম দিবসের আলোচনা অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বোমার প্রতিস্তাতা উপদেষ্টা খালেকুজ্জামান চৌধুরী, ইউএনবির ব্যবস্থাপনা পরিচালক ব্যারিস্টার জাকির হোসাইন, নিউজ২১ বিডির ব্যবস্থাপনা সম্পাদক সৈয়দ হোসাইন সৈকত, দৈনিক সময় সংবাদের ব্যবস্থাপনা সম্পাদক আরিফ মোতাহার, হুমায়ন কবির, কাউসারুল ইসলাম প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন এসোসিয়েশনের সভাপতি সাংবাদিক নেতা জয়ন্ত আচার্য্য। সভায় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বাংলাদেশ অনলাইন মিডিয়া এসোসিয়েশনের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক শাহাদৎ স্বপন।

অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ মিডিয়া এসোসিয়েশনের ক্যাপেন্টন রেজাউল করিম সম্পাদক আমাদের সংবাদ, তুসার আহমেদ সম্পাদক মোহাম্মাদী নিউজ এজেন্সী,খালেদ সাইফুল্লাহ সম্পাদক প্রকাশক ডিজিটাল সময়,  মনোয়ার হোসেন সিদ্দিকি সম্পাদক দৈনিক বাংলার ডাক, ফটো নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকমের সম্পাদক আবু সুফিয়ান, টোটাল নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকমের সম্পাদক মাহফুজা ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক ও মু্ক্তি নিউজের সম্পাদক মোঃ শাহপান সিদ্দিকী( তারেক), নতুন দিনের সম্পাদক তাজউদ্দীন উল্লাস, নিউজ টুডের সম্পাদক রিয়াজুদ্দিন, বিডিটুডেস এর সম্পাদক সজিব খান, বিবিসি নিউজ এর সম্পাদক নাইম, ঢাকা নিউজ ১৬ এর সম্পাদিকা শেখ লাবণ্য হক, পিপলস নিউজের মেহেদি হাসান, আমরা মুক্তিযোদ্ধার সন্তান কেন্দ্রীয় কমিটির প্রেসিডিয়াম সদস্য প্রেসিডিয়াম সদস্য , মো. নুরুজ্জামান ভুট্ট, ভিনিউজের নিউজ এডিটর নুরে আলম সিদ্দিকী খোকন প্রমু্খ।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

মহান মে দিবস উপলক্ষ্যে আলোচনা সভা 

0

ঢাকা, ৩০ এপ্রিল : বাংলাদেশ লেবার ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশন (বিএলএফ) এর উদ্যোগে মহান মে দিবস উপলক্ষ্যে ৩০ এপ্রিল রবিবার সকাল ১০.০০ টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে “টেকসই উন্নয়নের লক্ষ্য মাত্রা অর্জনে প্রয়োজন নিরাপদ কর্মস্থল, ট্রেড ইউনিয়ন অধিকার ও বাচাঁর মত মজুরী” শীর্ষক একটি আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ লেবার ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশন (বিএলএফ) এর সভাপতি আবদুস সালাম খান। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের মাননীয় প্রতিমন্ত্রী মুজিবুল হক চুন্নু এবং মূল প্রবন্ধ পাঠ করেন বাংলাদেশ লেবার ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশনের মহাসচিব জেড এম কামরুল আনাম।

উক্ত অনুষ্ঠানে ট্যানারী ওয়ার্কার্স ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক আবদুল মালেক, গার্মেন্টস শ্রমিক কল্যাণ পরিষদের সদস্যসচিব বদরুদ্দোজা নিজাম, ইউনাইটেড ফেডারেশন অব গার্মেন্টস ওয়ার্কার্স এর সাধারণ সম্পাদক নুরুল ইসলাম। সভায় ট্যানারী, রেডিমেড গার্মেন্ট শিল্প, অভ্যন্তরীন ক্ষুদ্র গার্মেন্ট শিল্প, কৃষি সহ অন্যান্য সেক্টরের নেতৃবৃন্দ ও শ্রমিক ভাই ও বোনেরা উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান অতিথির ভাষনে মন্ত্রী বলেন, যারা অপ্রাতিষ্ঠানিক শ্রমিক তাদের জন্য  ১মে প্রভিডেন্ট স্কীম করার ঘোষনা করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। একজন শ্রমিক মারা গেলে তাকে আইনের বাইরে সরকার ৫ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ দিবেন। অপ্রতিষ্ঠানিক শ্রমিকেরা মারা গেলে ২ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে। বর্তমান শ্রমিক বান্ধব সরকার শ্রমিকদের জন্য পেশাগত রোগ চিকিৎসার জন্য টঙ্গী ও নারায়ণগঞ্জে ২টি বিশেষায়িত হাসপাতাল, মহিলা শ্রমিকদের জন্য নারায়ণগঞ্জে ডরমেটরির ব্যবস্থা করবেন। শ্রম আইন অনুযায়ী প্রতিটি কারখানায় সেফটি কমিটি গঠন, ৫০০ শ্রমিকের বেশি হলে ক্লিনিক ও ডাক্তারের ব্যবস্থা থাকবে। গৃহভিত্তিক শ্রমিকের জন্য কাজের সময় ৮ ঘন্টা নির্ধারণ করা দরকার এ জন্য আমাদের মানসিকতা পরিবর্তন করতে হবে, সচেতন হতে হবে। সর্বোপরি তিনি শ্রমিক সার্থে সকল প্রকার সহযোগীতার আশ্বাস দেন।

সুপারিশ সমূহ :
১.    মালিক, শ্রমিক ও ব্যবস্থাপনার মধ্যে শ্রম আইন সম্পর্কে সচেতনতা বৃদ্ধি করা
২.    আইনের প্রতি সকলের শ্রদ্ধাশীল হওয়া
৩.    সকল প্রাতিষ্ঠানিক- অপ্রাতিষ্ঠানিক সকল শ্রমিকের জন্য ট্রেড ইউনিয়ন করার অধিকার নিশ্চিত করা
৪.    অধিক লাভের প্রবণতা পরিহার করে মানবিক মূল্যবোধ জাগ্রত করা
৫.    শ্রমিকদের সংগঠিত হওয়ার ও সঠিক নেতৃত্ব বিকাশের পথ সুগম করা এবং ঐক্যবদ্ধ ট্রেড ইউনিয়ন গড়ে তোলা
৬.    সংশ্লিষ্ট দপ্তরের মনিটরিং জোরদার করা
৭.    আইনের প্রয়োগ নিশ্চিত করা
৮.    আইনের দূর্বলতা দুর করা/শ্রম আইনের সংশোধন করা
৯.    সেফটি কমিটি গঠন এবং সচেতনতা বৃদ্ধিমূলককর্মসূচী গ্রহন করা
১০.    সামাজিক সংলাপ চালু করা
১১.    ক্ষতিপূরণ এর পরিমাণ বৃদ্ধি করা

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

ক্লেমন ইনডোর ইউনি ক্রিকেট টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি 

0

সোহেল আহসান নিপু, ঢাকা, ১৫ এপ্রিল : বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি “৪র্থ ক্লেমন ইনডোর ইউনি ক্রিকেট” টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করেছে। গত বৃহস্পতিবার (১৩ এপ্রিল ২০১৭) টুর্নামেন্টের ফাইনালে তারা সাউদার্ন ইউনিভার্সিটিকে ১৭ রানে পরাজিত করে শিরোপা নিজেদের করে নিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়টি।

এ নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়টি প্রথমবারের মতো ক্লেমন ক্রিকেট টুর্নামেন্টে শিরোপা অর্জনের কৃতিত্ব দেখালো। এর আগে গত বছর অনুষ্ঠিত একই টুর্নামেন্টে রানার্সআপ হয় তারা।

বৃহস্পতিবার মিরপুর ইনডোর স্টেডিয়ামে টস হেরে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি নির্ধারিত ৮ ওভারে ৩ উইকেট হারিয়ে ১৮০ রান সংগ্রহ করে। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৫২ রান করেন সোহেল রানা। এছাড়া মেহরাব হোসেন জোসি ৫০ এবং রায়হান আরিফ ৩৫ রান করেন। সাউদার্ন ইউনিভার্সিটির রাব্বি ৫৮ রানের বিনিময়ে ২ উইকেট লাভ করেন।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে সাউদার্ন ইউনিভার্সিটির অধিনায়ক রিপন এবং রাব্বির দৃঢ়তায় রানের চাকা সচল রাখার চেষ্টা করলেও বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটির বোলারদের নিয়ন্ত্রিত বোলিং এর কাছে শেষ পর্যন্ত পেরে ওঠেননি তারা। নির্ধারিত ৮ ওভার শেষে ২ উইকেটের বিনিময়ে শেষ পর্যন্ত ১৬৩ রান সংগ্রহ করতে সক্ষম হন তারা। দলের পক্ষে রিপন সর্বোচ্চ ৫৪ রান করেন। বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটির শফিকুল ৪০ রানের বিনিময়ে ২ উইকেট লাভ করেন।

ফাইনালে ৫২ রান করে ম্যাচসেরা হয়েছেন বিইউ’র সোহেল রানা। ম্যান অব দ্য টুর্নামেন্ট হয়েছে বিইউ’র সামিউল ইসলাম সুমন। টুর্নামেন্টে তিনি ২৮০ রান এবং ১৭টি উইকেট দখল করেন।

চ্যাম্পিয়ন দল বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি- ট্রফির পাশাপাশি ৫ লাখ টাকার প্রাইজমানি পেয়েছে। খেলাশেষে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রনালয়ের মাননীয় প্রতিমন্ত্রী ড. শ্রী বীরেন শিকদার। এসময় অন্যাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আয়োজক কমিটির আহবায়ক জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক আকরাম খান, ওয়ালটনের অতিরিক্ত পরিচালক জনাব ফিরোজ আলম, গোল্ডেন হার্ভেস্ট এর মার্কেটিং ম্যানেজার জনাব আশরাফুল ইসলাম, আকিজ গ্রুপের হেড অব মার্কেটিং জনাব হিন্দোল রায় প্রমুখ।

উল্লেখ্য, ছয়দিন ব্যাপি অনুষ্ঠিত ৪র্থ ক্লেমন ইনডোর ইউনি ক্রিকেট টুর্নামেন্টে দেশের পাবলিক এবং বেসরকারি ইউনিভার্সিটির মোট ৩২টি দল অংশগ্রহণ করে। টুর্নামেন্টের টাইটেল স্পন্সর ছিলো কোমল পানীয় কোম্পানী “ক্লেমন”।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

প্রলোভন দেখিয়ে সাভারে ৫০০ পরিবারের ৫০ লাখ টাকা নিয়ে উধাও 

সাভার, ১৩ এপ্রিল : পল্লী দারিদ্র্য বিমোচন ফাউন্ডেশনের দারিদ্র্য বিমোচনের নামে সাভার পৌর জামসিং এলাকার ৫০০ গ্রাহকের ৫০ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়া হয়েছে। এসব গ্রাহকের অর্ধেকই এখন ঋণখেলাপি। আমানতকারীরা ঋণের অনূকুলে রাখা সঞ্চয়ের অর্থসহ সর্বস্ব হারিয়ে এখন দিশেহারা হয়ে পড়েছেন।

অথচ তাদের নামে ঋণ নিয়েছেন স্থানীয় প্রভাবশালী, ঋণ বিতরণকারী মাঠ কর্মকর্তা ও পদস্থ কর্মকর্তাদের আত্মীয়স্বজন বা ঘনিষ্ঠ ব্যক্তিরা।

ঋণদানকারী এই আর্থিক প্রতিষ্ঠানের নাম পল্লী দারিদ্র্য বিমোচন ফাউন্ডেশন (ইউপিপিআরপি) ও (ইউএনডিপি), (ডিএফআইডি) এবং (বিজিডি)। সরকারের পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন এই স্বায়ত্ত্বশাসিত প্রতিষ্ঠানটি ‘শতভাগ সফল ও স্বয়ংসম্পূর্ণ’ বলে দাবি করেছিলেন লিপি আক্তার নামের প্রতিষ্ঠানটির এক কর্মী। এনজিওর কর্মী পরিচয়ে এই লিপি আক্তারই সাধারণ অসহায় দরিদ্র মানুষের নিকট হতে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন।

গ্রামের গরিব মানুষকে ক্ষুদ্রঋণ দিয়ে স্বাবলম্বী করা এর কাজ হলেও গত সাত বছরের চিত্র এর সম্পূর্ণ বিপরীত। এই সময়ের মধ্যে ঋণ দেওয়ার ক্ষেত্রে নানা জালিয়াতি হয়েছে,  প্রায় অর্ধ কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়ে উধাও হয়েছে কর্তৃপক্ষ। ভুয়া নাম-ঠিকানা ব্যবহার করে মাঠকর্মীরা কোটি কোটি টাকা ঋণ দিয়েছেন।

ঋণ বিতরণ বেশি দেখিয়ে খেলাপি ঋণ ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টাও করা হয়েছে। অনেক কর্মী টাকা ব্যাংকে জমা না দিয়ে নিজেরাই ব্যবসা-বাণিজ্য করছেন। ইউপিপিডিআরপি অভ্যন্তরীণ নিরীক্ষায় এই দুর্নীতি ও লুটপাটের চিত্র বেরিয়ে এসেছে।

খোদেজা নামের এক স্থানীয় বাসিন্দা বলেন, এসব এনজিওর কোনো বৈধ কাগজপত্র নেই। অধিকাংশই ভুয়া কাগজপত্র দিয়ে কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। এতে করে এনজিও পরিচালকরা আঙ্গুল ফুলে কলাগাছ হচ্ছে। আর দরিদ্র নিরীহ মানুষদের শোষণ এবং চাকরির নামে প্রতারণার মাধ্যমে জমজমাট ব্যবসা চালিয়ে, কিস্তির সুদ আদায় করে হাতিয়ে নিচ্ছে কোটি কোটি টাকা।

প্রতারিত পরিবারের লোকজনদের দাবি, এসব দুর্নীতি, অনিয়ম ও লুটপাট করে গেলেও এসব বন্ধের জন্য প্রশাসন ও সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করছে না। তারা এসব দেখেও না দেখার ভান করে থাকেন। এসব অনিয়ম-দুর্নীতি লুটপাট বন্ধে সরকার পদক্ষেপ না নিলে আরও বেশি মানুষ প্রতারিত হতে পারেন।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটির ফার্মেসী বিভাগের নবীন বরণ এবং বিদায় অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত 

0

সোহেল আহসান নিপু, ঢাকা, ১১ এপ্রিল : বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্যদিয়ে বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটিতে স্প্রিং সেমিষ্টারে ফার্মেসী বিভাগের ভর্তিকৃত ছাত্রছাত্রীদেরকে আজ মঙ্গলবার (১১ এপ্রিল ২০১৭) এক আড়ম্বরপূর্ণ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে বরণ করে নেয়া হয়। ইউনিভার্সিটির ফার্মেসী বিভাগ এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

ফার্মেসী বিভাগের প্রধান প্রফেসর ফরিদা বেগমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের বোর্ড অব ট্রাষ্টিজ এর সেক্রেটারি ইঞ্জি: এম.এ. গোলাম দস্তগীর। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিইউ’র উপাচার্য প্রফেসর ড. মোঃ আনোয়ারুল হক শরীফ, কোষাধ্যক্ষ কামরুল হাসান এবং বিজ্ঞান, প্রযুক্তি ও প্রকৌশলী অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. মোঃ ইমামউদ্দিন, অনুষ্ঠানের স্বাগত বক্তব্য রাখেন ড. আনোয়ারুল হক।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিইউ সেক্রেটারী নবাগত ছাত্রছাত্রীদের বিশ্ববিদ্যালয়ে স্বাগত জানিয়ে ঔষধ শিল্পে ফার্মাসীষ্টদের অবদান এবং ফার্মেসী শিক্ষার ভবিষ্যত নিয়ে আলোকপাত করেন।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বক্তারা কঠোর পরিশ্রমের মাধ্যমে ছাত্রজীবনের মূল উদ্দেশ্য সফল করার জন্য শিক্ষার্থীদের সময়ের সদ্ব্যবহারের প্রতি গুরুত্বারোপ করেন। তারা সুশিক্ষিত জাতি গঠনে সঠিক জ্ঞানার্জন করে নিজেদেরকে দক্ষ জনশক্তিতে পরিনত করে দায়িত্বশীল সুনাগরিক হিসেবে দেশ ও জাতির কল্যানে আত্মনিয়োগ করতে ছাত্রছাত্রীদের প্রতি আহবান জানান।

অনুষ্ঠানে বিভাগের কৃতি শিক্ষার্থীদেরকে স্মারক সম্মাননা প্রদান করা ছাড়া বিভাগ থেকে ২১ তম ব্যাচের পাশকৃত ছাত্রছাত্রীদেরকে বিদায় সংবর্ধনা দেওয়া হয়। দ্বিতীয় পর্বে বিভাগের ছাত্রছাত্রীদের অংশগ্রহণে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে বিপুল সংখ্যক ছাত্রছাত্রী ছাড়াও শিক্ষক, কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

সিটিং সার্ভিস বন্ধ করার সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে যাত্রী অধিকার আন্দোলন 

27

মাহমুদুল হাসান সাকুরী, ঢাকা, ৪ এপ্রিল : সিটিং সার্ভিস বন্ধ করার সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়ে এ ধরণের সিদ্ধান্ত নেয়ায় বাস মালিকদের ধন্যবাদ জানিয়েছেন যাত্রী অধিকার আন্দোলন।

আজ মঙ্গলবার সন্ধ্যায় যাত্রী অধিকার আন্দোলনের আহবায়ক কেফায়েত শাকিল ও যুগ্ম আহবায়ক অন্তু মুজাহিদ গণমাধ্যমে পাঠানো এক যৌথ বির্বৃতিতে ঢাকা পরিবহন মালিক সমিতিকে ধন্যবাদ জানান।

বিবৃতিতে তারা বলেন, জনসাধারণের দাবির প্রেক্ষিতে বাস মালিকরা নগরীর সিটিং বাস তুলে দেয়ার ঘোষণা দেয়ায় এবং নারী আসন নিশ্চিত করণ ও সংরক্ষণের প্রতিশ্রুতি দেয়ায় যাত্রী অধিকার আন্দোলনের পক্ষ থেকে বাস মালিকদের ধন্যবাদ জানাচ্ছি।

তারা বলেন, আমরা বাস মালিকদের নেয়া সিদ্ধান্তে খুশি হয়েছি। তবে এই সিদ্ধান্তের সঙ্গে শিক্ষার্থীদের ভাড়ার বিষয়টি উল্লেখ করলে আমরা আরো খুশি হতাম।

বির্বৃতিতে তারা আশা প্রকাশ করে বলেন, আমরা আশা করছি বাস মালিক সমিতি শিগগিরই শিক্ষার্থীদের ভাড়ার বিষয়টি বিবেচনা করবেন এবং এই বিষয়ে তাদের বক্তব্য তুলে ধরবেন।

তারা আরো বলেন, আজ সিটিং বাস বন্ধের সিদ্ধান্তে রাজধানীবাসী স্বস্থি পেয়েছে। আমরা আশা করছি সেই স্বস্থি বহাল থাকবে। বাসগুলোতে যথাযথ সেবা পাবেন যাত্রীরা।

এসময় তারা রাজধানীতে যথাযথ মানসম্পন্য কিছু এসি/নন এসি স্পেশাল সার্ভিস চালুর পরামর্শ দেন।

উল্লেখ্য, গণপরিবহনে যাত্রী অধিকার নিশ্চিতের লক্ষ্যে সিটিংবাসের নৈরজ্য বন্ধসহ ৮ দফা দাবিতে আন্দোলন করে আসছে যাত্রী অধিকার আন্দোলন নামের সংগঠনটি।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

সিটিং বাসের নামে চিটিংবাজী বন্ধে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালিত 

00

মাহমুদুল হাসান সাকুরী, ঢাকা, ১ এপ্রিল : গণপরিবহনে যাত্রী অধিকার নিশ্চিতের লক্ষ্যে ১ এপ্রিল (শনিবার) সকাল সাড়ে ১০টায় রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করেছে যাত্রী অধিকার আন্দোলন।

এতে সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত মুখপাত্র দাউদ ফেরদাউস লিখিত বক্তব্যে বলেন, রাজধানীসহ সারাদেশে গণপরিবহনে যাত্রী হয়রানী চরম আকার ধারণ করেছে। একদিকে সিটিং বাসের নামে যাত্রীদের থেকে আদায় করা হচ্ছে বাড়তি ভাড়া, অন্যদিকে নূন্যতম সেবাও পাচ্ছে না যাত্রীরা। বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ(বিআরটিএ) এসব পরিবহনে ভাড়া নির্ধারণ করে দিলেও গুটিকয়েক ছাড়া কেউ মানছে না সেই নির্দেশনা।

তিনি আরো বলেন, এসব পরিবহনে শিক্ষার্থীদের হাফ ভাড়ার বিষয়টি বরাবরই উপেক্ষিত। শিক্ষার্থী পরিচয় দিলে তাদের পরিবহনে উঠানো হয় না। জোর করে উঠলেও তাদের সাথে অযাচিত আচরণ করা হয়। যা সকল শিক্ষিত সমাজের অবমাননা। অথচ আজকের শিক্ষার্থীরাই আগামী দিনের সম্পদ। তারাই আগামী দিনের দেশেকে নেতৃত্ব দিবে। তাই আমরা সংগঠনের পক্ষ থেকে জোরালোভাবে দাবি জানাচ্ছি রাজধানীসহ সব নগর-মহানগরে শিক্ষার্থীদের জন্য হাফ ভাড়া ও দুরপাল্লার যানে শিক্ষার্থীদের ২৫ শতাংশ ভাড়া ছাড় দিতে হবে।

আমাদের দেশে পরিবহনে মহিলা ও শিশুদের জন্য সংরক্ষিত আসন থাকলেও তা প্রয়োজনের তুলনায় কম। সিট খালি না থাকার উসিলায় অধিকাংশ সময় মহিলা যাত্রীদের বাসে উঠানো হয় না। এতে কর্মক্ষেত্র থেকে বাসায় ফিরতে ভোগান্তিতে পড়তে হয় নারী যাত্রীদের। তাদের জন্য অবিলম্বে প্রয়োজনীয় যানবাহনের ব্যবস্থা করা এবং সকল পরিবহনে মহিলা যাত্রীদের অগ্রাধিকার দিতে হবে বলে দাবি তোলেন তিনি।

এসময় তিনি যাত্রীদের অধিকার রক্ষার স্বার্থে সংগঠনের পক্ষ থেকে লিখিত ৮ দফা দাবি তুলে ধরেন।

দাবি সমূহ:

১। সারাদেশে গণপরিবহনে সরকার নির্ধারিত ভাড়া কার্যকর করতে হবে।

২। রাজধানীসহ দেশের নগর-মহানগর ও আন্তজেলার গণপরিবহনে শিক্ষার্থীদের হাফ ভাড়া কর্যকর করতে হবে এবং দূর পাল্লার পরিবহনে শিক্ষার্থীদের ২৫ শতাংশ ভাড়া ছাড় দিতে হবে।

৩। যানজট নিয়ন্ত্রণ, সড়ক দুর্ঘটনা রোধ ও যাত্রীদের যথাযথ সেবা নিশ্চিতে যত্রতত্র যাত্রী উঠা-নামা বন্ধ করতে হবে।

৪। নামে-বেনামে চালু হওয়া সিটিং সার্ভিসের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে। বিআরটিএ’র অনুমতিক্রমে কিছু স্পেশাল পরিবহন চলাচল করতে পারে, তবে তা অবশ্যই যথাযথ মানের হতে হবে।

৫। গণপরিবহনের ভাড়ায় সমতা আনতে হবে। প্রতিটি গাড়িতে ভাড়ার চার্ট রাখতে হবে। অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করলে শাস্তির ব্যবস্থা রাখতে হবে।

৬। পরিবহন নৈরাজ্য বন্ধে বিআরটিএ’কে নিয়মিত ‘কার্যকর’ অভিযান পরিচালনা করতে হবে এবং সড়ক দুর্ঘটনা রোধে মৃত্যুদণ্ডের বিধান রেখে আইন করতে হবে।

৭। প্রাইভেট পরিবহনের চাপ কমাতে উন্নতমানের এসি, নন-এসি সার্ভিস চালু করতে হবে।

৮। ট্রাফিক পুলিশের চাঁদাবাজী বন্ধে কার্যকর পদক্ষেপ নিতে হবে।

আর এ সময় তিনি ২-১৫ তারিখ ক্যাম্পাসে ক্যাম্পাসে মানববন্ধন ও গণস্বাক্ষর অভিযানের ঘোষণা এবং তা বাস্তবায়নে সারাদেশের সকল কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের আহ্বান জানান।

বিক্ষোভ সমাবেশে আরো বক্তব্য রাখেন, যাত্রী অধিকার আন্দোলনের আহ্বায়ক কেফায়েত শাকিল, যুগ্ম আহ্বায়ক মুজাহিদুল ইসলাম, বার্তা সচিব মাহমুদুল হাসান সাকুরী, আহ্বায়ক কমিটির সদস্য মুঈন উদ্দিন আরিফ, অর্ণব সাদনিম, তাকবির মাহিন, ওয়াহিদা আক্তার তৃষ্ণা, হুমায়ুন কবির, জাহিদ হাসান, আনোয়ার হোসেন প্রমুখ।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

২৫ মার্চের গণহত্যাকে আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি দিতে হবে : ঢাবি উপ-উপাচার্য 

0000

নিউজ৬৯বিডি ডেস্ক, ২৫ মার্চ : ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য(প্রশাসন) অধ্যাপক মোঃ আখতারুজ্জমান বলেছেন,“২৫ মার্চের গণহত্যাকে আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি দিতে হবে”।

২৫ মার্চ শনিবার বিকাল ৪টায় জাতীয় গণহত্যা দিবস উপলক্ষে স্বেচ্ছাসেবী ও সামাজিক সংগঠন চেতনা পরিষদ,ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার উদ্যোগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ডাকসু ক্যাফেটেরিয়া মিলনায়তনে “২৫মার্চ : বিশ্বের ইতিহাসে নৃশংসতম গণহত্যা” শীর্ষক বিশেষ আলোচনা সভা তিনি একথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, ২৫ মার্চের কালোরাত বিশ্বের ইতিহাসের কলঙ্কজনক ঘটনা। নিরস্ত্র মানুষের উপর পাকিস্তানী সামরিক জান্তারা সেদিন গণহত্যা চালিয়েছিলো তা নজিরবিহীন। তাই সার্বিক বিবেচনায় এই দিনটিকে আন্তর্জাতিক গণহত্যা দিবস হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়ার দাবি জানান বক্তারা।

আলোচনা সভায়, বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন, বাংলাদেশ আনসার ও ভিডিপির উপ-মহাপরিচালক(যুগ্ন-সচিব) ড. ফোরকান উদ্দিন আহাম্মদ, ঢাকা ইউনিভার্সিটি এলামনাই নিউজ সম্পাদক আলী নিয়ামত, অনলাইন সংবাদ মাধ্যম বিডিভিউ ২৪ ডট কমের প্রধান সম্পাদক জনাব মোতাহের হোসেন চৌধুরী রাশেদ।

আলোচনা সভায় মূলপ্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন আন্তর্জাতিক অপরাধ বিশ্লেষক কাজী তিউনি বিনতে জিন্নাত।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর