২৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৭
সকাল ৭:১৯, রবিবার

খুলনার ১০ জেলায় অনির্দিষ্টকালের পরিবহন ধর্মঘট

খুলনার ১০ জেলায় অনির্দিষ্টকালের পরিবহন ধর্মঘট 

77712

খুলনা, ২৫ ফেব্রুয়ারি : রবিবার ভোর ৬টা থেকে খুলনা অনির্দিষ্টকালের জন্যে সকল প্রকার যানবাহন বন্ধের কর্মসূচি ঘোষণা করছে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের আঞ্চলিক কার্যালয়।

খুলনা বিভাগের দশ জেলায় এ কর্মসূচি পালন করা হবে। শনিবার বেলা ১২টায় বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন খুলনা বিভাগীয় আঞ্চলিক কমিটির সেক্রেটারি আব্দুর রহিম বক্স দুদু এ কর্মসূচি ঘোষণা করেন।

শ্রমিকদের দাবির মুখে এ কর্মসূচি দেয়া হয়েছে বলে জানা যায়।

মানিকগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় সাংবাদিক মিশুক মুনীর ও চলচিত্রকার তারেক মাসুদ নিহত হওয়ায় সম্প্রতি বাসচালক জামির হোসেনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের প্রতিবাদে এ কর্মসূচি দেওয়া হয়।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

ডাকাতির প্রস্তুতিকালে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ একজন নিহত 

055

খুলনা, ২৪ ফেব্রুযারি : খুলনা মহানগরীর হরিণটানায় ডাকাতির প্রস্তুতিকালে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ জিয়া সানা ওরফে হাতকাটা জিয়া নিহত হয়েছেন। পুলিশের দাবি, এসময় তাদের ৫ সদস্যও আহত হয়েছে। জিয়া চরমপন্থি সংগঠন ‘নিউ বিপ্লবী কমিউনিস্ট পার্টি’র সেকেন্ড ইন কমান্ড ছিলেন।

​শুক্রবার ভোরে হরিণটানার সাউথ বাংলা আবাসিক প্রকল্প এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

হরিণটানা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান জানান, কয়েকজন যুবক ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছে- এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সাউথ বাংলা আবাসিক প্রকল্প এলাকায় অভিযান চালানো হয়। এসময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে ডাকাতরা গুলি ছোড়ে। পুলিশও আত্মরক্ষার্থে গুলি চালালে হাতকাটা জিয়া গুলিবিদ্ধ হয়। তবে অন্যরা পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়। পরে তাকে উদ্ধার করে খুলনা মেডিক্যাল কলেজ (খুমেক) হাসপাতালে নিয়ে এলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ওসি জানান, ঘটনাস্থল থেকে দু’টি আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে ৬টি হত্যা মামলাসহ বিভিন্ন অপরাধে ৯টি মামলা রয়েছে।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

এক হাজার টন কয়লা নিয়ে লাইটার জাহাজডুবি 

21

বাগেরহাট, ১৩ জানুয়ারি : মোংলা বন্দর চ্যানেলে ফেয়ারওয়ে বয়া এলাকায় এক হাজার টন কয়লা নিয়ে একটি লাইটার জাহাজ ডুবে গেছে। জাহাজের আরোহী ১২ জনকে উদ্ধার করা হয়েছে।

শুক্রবার ভোরে মোংলা বন্দর থেকে বেশ কিছুটা দূরে ওই জায়গায় এমভি আইসগাতি নামে ওই লাইটার জাহাজটি ডুবে যায়।

জাহাজটির পণ্য খালাসকারী প্রতিষ্ঠান নুরু অ্যান্ড সন্সের স্বত্বাধিকারী এইচ এম দুলালের ভাষ্য, ফেয়ারওয়ে বয়া বন্দর চ্যানেল থেকে জাহাজটি মোংলার দিকে আসছিল। তীব্র স্রোত ও ঢেউয়ে জাহাজটি ডুবে যায়।

এইচ এম দুলাল বলেন, জাহাজে ১২ জন কর্মচারী ও চারজন নিরাপত্তাকর্মী ছিলেন। তাদের সবাইকে পাশের আরেকটি লাইটার জাহাজে করে নিয়ে আসা হয়েছে।

বেলা দুইটার দিকে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ডুবে যাওয়া লাইটার জাহাজটি উদ্ধার করা যায়নি।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

খুলনায় বাস খাদে, নিহত ৩ 

3666

খুলনা, ৬ জানুয়ারি : খুলনায় যাত্রীবাহী একটি বাস খাদে পড়ে তিনজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন অন্তত ২০ জন। বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে জেলার রূপসা উপজেলার কুদিরবটতলা এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

বাসটি সাতক্ষীরা থেকে বনভোজনে যাওয়া যাত্রীদের নিয়ে পটুয়াখালীর কুয়াকাটায় যাচ্ছিল বলে পুলিশ জানিয়েছে।

নিহত তিনজন হলেন—রোকনুজ্জামান (৩৫), সাদ্দাম (৩২) ও  জহিরুল হক (৫০)। আহত ব্যক্তিদের পরিচয় জানা যায়নি। তাঁদের খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও খুলনা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এর মধ্যে পাঁচজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

টাকা লুটের সময় ২ ইরানি আটক 

images

খুলনা, ১৩ ডিসেম্বর : খুলনায় দোকানে ঢুকে ক্যাশ বাক্স থেকে টাকা লুট করে নিয়ে চলে যাওয়ার সময় ইরানের দুই নাগরিককে জনতা আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে।

সোমবার রাতে নগরীর শেখপাড়া লোহাপট্টি থেকে স্থানীয়রা তাদের আটক করে সোনাডাঙ্গা থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে। আটককৃত ইরানিরা হলেন- গোলাম আব্বাস (৪০) ও আব্বাস ছুরি (৪৫)।

এলাকাবাসী জানান, মাগরিবের নামাজের সময় গোলাম আব্বাস ও আব্বাস ছুরি নগরীর শেখপাড়া লোহাপট্টির একটি দোকানে এক হাজার টাকার নোট ভাঙানোর অজুহাতে ঢুকে ক্যাশ বাক্স থেকে টাকা লুটে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। এ সময় দোকানের কর্মচারীসহ আশপাশের লোকজন তাদের আটক করে সোনাডাঙ্গা থানায় সোপর্দ করে।

সোনাডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুকুমার বিশ্বাস ইরানের  নাগরিক গোলাম আব্বাস ও আব্বাস ছুরির আটকের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

কৌশলে ৩ এতিম শিশুকে ধর্ষণ 

wfwq3vkr

খুলনা, ১১ ডিসেম্বর : মহানগরীর সরকারি টুটপাড়া মডেল প্রাথমিক বিদ্যালয়ে তিন এতিম শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ বিদ্যালয়ের দপ্তরি বাচ্চু হাওলাদারকে আটক করেছে। ঘটনা প্রকাশ হওয়ার পর রোববার সকালে এলাকাবাসী বিক্ষোভ মিছিল করেন।

পুলিশ জানায়, সরকারি শিশু সদনের ৩ এতিম শিশু টুটপাড়া প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম শ্রেণিতে পড়ে। গত ৪ ডিসেম্বর ওই ৩ ছাত্রীকে কৌশলে পর্যায়ক্রমে বিদ্যালয়ের বাথরুমে নিয়ে ধর্ষণ করে দপ্তরি বাচ্চু হাওলাদার। বিষয়টি অভিভাবকরা ম্যানেজিং কমিটির সভাপতিকে জানালেও অভিযুক্তের বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা না নেওয়ায় রোববার সকালে বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা বিক্ষোভ করেন। পরে পুলিশ এসে দপ্তরি বাচ্চু হাওলাদারকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। তার বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

লাকী বেগম ও কুলসুম নামের দুই অভিভাবক বলেন, স্কুলে ক্লাস শুরর আগে ও ছুটির পরে নানা প্রলোভন ও ভয় দেখিয়ে বিদ্যালয় ভবনের কক্ষ ও বাথরুমে ডেকে নিয়ে ওই ছাত্রীদের ধর্ষণ করে দপ্তরি বাচ্চু। এক সপ্তাহ আগে ধর্ষিত শিশুরা অসুস্থ হয়ে পড়ে। তারা আমাদের বাচ্চাদের কাছে এ ঘটনা খুলে বলে। পরে আমরা ওই বাচ্চাদের মুখে ঘটনা শুনি। বাচ্চাদের কথা মতো বাথরুমে গিয়ে রক্তমাখা টিস্যু পেপার দেখতে পাই। এরপর বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি এম এম মাসুদ মাহমুদ ও ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক সঞ্জয়কে জানালে তারা কোনও পদক্ষেপ নেননি।

খুলনা মডেল থানার ওসি শফিকুল ইসলাম জানান, শিৰার্থী ও অভিভাবকদের বিক্ষোভের খবর পেয়ে তারা বিদ্যালয়ে যান। সেখান থেকে দপ্তরি বাচ্চুকে আটক করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি চলছে। বাচ্চুর বাড়ি নগরীর টুটপাড়া এলাকায়।

খবর পেয়ে দুপুরে বিদ্যালয় পরিদর্শন করেন খুলনা-২ আসনের সংসদ সদস্য মিজানুর রহমান মিজান ও জেলা প্রশাসক নাজমুল আহসান। তারা দায়ী ব্যক্তির শাস্তির আশ্বাস দিলে অভিভাবকরা শান্ত হন।

বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি এস এম মাসুদ মাহমুদকে বিদ্যালয়ে পাওয়া যায়নি।

বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক সঞ্জয় বলেন, গত বৃহস্পতিবার তারা ঘটনাটি জানতে পারেন। এরপর শনিবার দপ্তরি বাচ্চুকে শোকজ করা হয়।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

সুন্দরবনে পর্যটকবাহী লঞ্চের আগুন নিয়ন্ত্রণে 

05

মোংলা, ৩ ডিসেম্বর : পূর্ব সুন্দরবনের চাঁদপাই রেঞ্জে পর্যটকবাহী এমভি ফেলিকেন-১ নামের একটি লঞ্চের অগ্নিকাণ্ড নিয়ন্ত্রণে এসেছে। এতে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।

শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় বন বিভাগের হাড়বাড়িয়া টহল ফাঁড়ির সামনে পশুর নদীতে লঞ্চটিতে আগুন লাগে। প্রায় আড়াই ঘণ্টা পর রাত ৯টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।

ঘটনাস্থলে থাকা হাড়বাড়িয়া টহল ফাঁড়ির কর্মকর্তা মো. কামরুল ইসলাম জানান, ‘পুরো লঞ্চটি দাউ দাউ করে জ্বলছিল। লঞ্চের পর্যটক ও স্টাফরা হাড়বাড়িয়া ফরেস্ট কার্যালয়ে নিরাপদে রয়েছেন। রাত ৯টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।’

দুর্ঘটনার খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে রওনা দেন মংলা বন্দর কর্তৃপক্ষ, বন বিভাগ, কোস্টগার্ড এবং ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের সদস্যরা। তাঁরাই আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। লঞ্চটিতে ২৬ জন পর্যটকসহ ৩৬ লোক ছিল।

বন বিভাগ জানায়, ঢাকার উইনস্টার ট্যুরিজম কোম্পানির মালিকানাধীন এমভি ফেলিকেন-১ আজ ভোরে ২৬ জন পর্যটক নিয়ে খুলনা থেকে মংলা বন্দরের উদ্দেশে ছেড়ে আসে। এরপর সুন্দরবন ভ্রমণের জন্য বন বিভাগের ঢাংমারী স্টেশন থেকে অনুমোদন পাস নিয়ে সকাল ৯টার দিকে পশুর নদী হয়ে সুন্দরবনে প্রবেশ করে। এ দিন সন্ধ্যায় লঞ্চটি পশুর নদীর হাড়বাড়িয়ায় বন বিভাগের টহল ফাঁড়ির অদূরে নোঙর করে। এ সময় হঠাৎ করেই লঞ্চটির পেছনের অংশে আগুন জ্বলতে দেখে পর্যটকরা চিৎকার শুরু করেন।

মুহূর্তেই আগুন লঞ্চটির সর্বত্র ছড়িয়ে পড়ে। এর আগেই পর্যটক ও কর্মকর্তাদের উদ্ধার অভিযান শুরু করে বন বিভাগ।

কোস্টগার্ড পশ্চিম জোনের অপারেশন কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট কমান্ডার রাহাতুজ্জামান জানান, অগ্নিকাণ্ডের খবর পাওয়ার পর কোস্টগার্ডের উদ্ধারকারী একটি দল ঘটনাস্থলে পৌঁছে উদ্ধারকাজে শুরু করে।

বন বিভাগের ঢাংমারী স্টেশন কর্মকর্তা আবদুল মান্নান জানান, শুক্রবার সকালে ফেলিকন-১ নামের লঞ্চটি ২৬ জন দেশীয় পর্যটকের পাস নিয়ে বনের গহিন অংশে প্রবেশ করে। পর্যটকবাহী এ লঞ্চটিকে শুধু ২৪ ঘণ্টা বনের ভেতর অবস্থানের অনুমতি দেওয়া হয়েছিল।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

সাংবাদিক মানিক সাহা হত্যায় ৯ জনের যাবজ্জীবন 

58

খুলনা, ৩০ নভেম্বর : খুলনা প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি সাংবাদিক মানিক সাহা হত্যা মামলায় নয়জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

দণ্ড পাওয়া আসামিদের প্রত্যেককে ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা, অনাদায়ে আরও এক বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

দীর্ঘ এক যুগ পর আজ বুধবার দুপুরের দিকে চাঞ্চল্যকর এই হত্যা মামলার রায় ঘোষিত হলো। খুলনা বিভাগীয় দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক এম এ রব হাওলাদার এই রায় ঘোষণা করেন।

একই ঘটনায় বিস্ফোরকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে দায়ের হওয়া মামলার রায়ও আজ ঘোষণা করা হয়। একই আদালতে এই মামলায় ১০ আসামির সবাই খালাস পেয়েছেন।

মামলার রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী এনামুল হক বলেন, রায়ের কপি হাতে পাওয়ার পর তা দেখে তাঁরা পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেবেন।

একুশে পদক পাওয়া সাংবাদিক মানিক সাহাকে ২০০৪ সালের ১৫ জানুয়ারি খুলনা প্রেসক্লাবের মাত্র ৫০ গজ দূরে সন্ত্রাসীরা বোমা মেরে হত্যা করে।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

৬৫ বছর বয়সে পিএসসি পরীক্ষার্থী! 

355

গাংনী (মেহেরপুর), ৮ নভেম্বর : শিক্ষা মানুষকে মানুষ হতে শেখায়, আলোকিত করে। শিক্ষার কোন বয়স নেয়। শিক্ষা ছাড়া মানুষের জীবনে উন্নতি সম্ভব নয়- এই কথাগুলো ৬৫ বছর বয়সে হলেও উপলব্ধি করতে পেরেছেন বাছিরন নেছা নামের এক বৃদ্ধা। চলতি বছর তিনি পঞ্চম শ্রেণির পিএসসি পরীক্ষায় অংশ নেবেন।

বাছিরন মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার হোগলবাড়ীয়া পূর্বপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৫ম শ্রেণির ছাত্রী বাছিরন নেছা। তিনি হোগলবাড়ীয়া মাঠপাড়ার মৃত রহিলউদ্দীনের স্ত্রী। পাঁচ বছর আগে প্রথম শ্রেণিতে ভর্তি হন। তারপর থেকেই নিয়মিত স্কুলে যাওয়া-আসা। স্কুলে উপস্থিতি তার শতভাগ। ছোট ছোট বন্ধু-বান্ধবদের পিছনে ফেলে প্রতি ক্লাসেই ক্রমিক নম্বর ২ থেকে ৪ এর মধ্যে থাকে।

এত বছর বয়সে স্কুলে ভর্তির বিষয়ে পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রী বাছিরন জানান, আমার তিন সন্তান। এক ছেলে ও দুই মেয়ে।ছোট ছোট ছেলে-মেয়ে রেখে আমার স্বামী প্রায় ৩৫ বছর আগে মারা গেছেন। আমার স্বপ্ন ছিল ছেলে মেয়েদের লেখাপড়া শিখিয়ে আদর্শ মানুষ হিসাবে গড়ে তুলবো। অন্তত হাই স্কুল পর্যন্ত পড়াব।কিন্তু আমার পারিবারিক অসচ্ছলতার কারনে তাদের লেখাপড়া শেখাতে পারিনি।

বাছিরনের বড় মেয়ে জাহানারা খাতুনের তিন ছেলে-মেয়ে, একমাত্র ছেলে মহিরউদ্দীনের দুই ছেলে। বড় নাতি জাহিদ কুষ্টিয়া সরকারি কলেজের ছাত্র অন্যজন নাহিদ গ্রামের স্কুলের ৬ষ্ঠ শ্রেণির ছাত্র। ছোট মেয়ে বানেরা খাতুনের এক ছেলে জসীম।

তিনি জানান, আমার ছেলে ও বউমা আমাকে স্কুলে যেতে সহায়তা করে। আমার প্রতিবেশী বিভিন্ন বয়সী মানুষ ও গ্রামবাসীরা আমাকে উত্সাহিত করেন।

বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা আনারকলি জানান, স্কুলের ছোট ছোট সহপাঠীদের সাথে নিয়মিত ক্লাস করেন তিনি। লেখাপড়াতে তার খুব আগ্রহ। সহপাঠীদের সাথে খেলাধুলা করতে, মিশতে বা মানিয়ে নিতে কোনই সমস্যা হয়নি তার।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হেলালউদ্দীন আহমেদ জানান, নাছিরন নেছা এবছর পিএসসি পরীক্ষার্থী। আমি ত্র আগ্রহ দেখে স্কুলে ভর্তি করেছি। তিনি এলাকার নিরক্ষর মানুষের জন্য একটা উদাহরণ সৃষ্টি করেছেন।

এ ব্যাপারে উপজেলা শিক্ষা অফিসার আকবর আলী জানান, আমি প্রধান শিক্ষকের নিকট বৃদ্ধা নাছিরনের কথা শুনেছি। তার আগ্রহের খবরে আমি খুব খুশি। এরকম নিরক্ষর মানুষ শিক্ষায় এগিয়ে আসলে সরকারের সবার জন্য শিক্ষা কর্মসূচি সফল হবে।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

খুলনায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ বোমা বেলাল নিহত 

47

খুলনা, ৮ নভেম্বর : খুলনা জেলার ফুলতলায় পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে বেলাল হোসেন ওরফে বোমা বেলাল (৩৪) নামে এক ডাকাত নিহত হয়েছে।

এ ঘটনায় চার পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে বলে দাবি করেছে পুলিশ।

সোমবার মধ্যরাতে ফুলতলা উপজেলার দামোদর ইউনিয়নে  মুক্তেশ্বরী গ্রামে এ বন্দুকযদ্ধের ঘটনা ঘটে।

ঘটনাস্থল থেকে একটি শাটার গান, বোমা ও গুলি উদ্ধার করেছে পুলিশ।

ফুলতলা থানার ওসি আসাদুজ্জামান জানান, রাতে পুলিশের টহল দল ঘটনাস্থলে পৌঁছালে ডাকাত দল পুলিশের ওপর গুলিবর্ষণ করে। এসময় পুলিশও পাল্টা গুলি করলে ডাকাতদল পিছু হটে যায়।

পরে ঘটনাস্থলে একজনের লাশ পাওয়া যায়।

মঙ্গলবার সকালে স্থানীয়রা তাকে বেলাল হোসেন ওরফে বোমা বেলাল নামে সনাক্ত করেন।

ঘটনাস্থল থেকে একটি শাটার গান, বোমা, গুলি উদ্ধার করা হয়েছে। এ সময় চার পুলিশ সদস্যও আহত হয়েছেন।

নিহত বোমা বেলালের নামে ১০টি মামলা রয়েছে বলে জানান ওসি।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

ঝিনাইদহে অস্ত্র-গুলিসহ ইউপি সদস্য গ্রেফতার 

45

ঝিনাইদহ, ৭ নভেম্বর : ঝিনাইদহ সদর উপজেলার ডাকবাংলা এলাকা থেকে একটি বিদেশি পিস্তল ও ২ রাউন্ডগুলিসহ ইউপি সদস্য আব্দুল আলিমকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সোমবার ভোররাতে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

আব্দুল হালিম জেলার কোটচাঁদপুর উপজেলার লক্ষ্মীপুর গ্রামে জমির উদ্দিনের ছেলে।

ঝিনাইদহের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আজবাহার আলী শেখ জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গেল রাতে ডাকবাংলা এলাকায় অভিযান চালায় পুলিশ। সেসময় একটি নাই্ন এম এম পিস্তল, ২ রাউন্ডগুলিসহ আব্দুল হালিমকে গ্রেফতার করা হয়। তার নামে ঝিনাইদহের বিভিন্ন থানায় ১০ হত্যা, একটি ডাকাতি, একটি অস্ত্র আইনে মামলাসহ মোট ১৩টি মামলা আছে।

জানা গেছে, গ্রেফতারকৃত আব্দুল হালিম একসময়ের চরমপন্থী সংগঠন পূর্ববাংলার কমিউনিস্ট পার্টির আঞ্চলিক নেতা ছিলেন। পুলিশের হাতে গ্রেফতার হয়ে তিনি দীর্ঘদিন কারাগারে ছিলেন। এখন আব্দুল আলিম কোটচাঁদপুর উপজেলার দোড়া ইউনিয়নের একজন মেম্বার।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

ঘূর্ণিঝড় নাডার আঘাতে নিখোঁজ ৮৫ জেলে 

74

খুলনা, ৭ নভেম্বর : ঘূর্ণিঝড় নাডার প্রভাবে বঙ্গোপসাগরে ১১টি মাছ ধরার ট্রলার ডুবে গেছে। নিখোঁজ রয়েছেন ৮৫ জেলে। তাদের উদ্ধারে খুলনা জোনের নৌবাহিনীর দুইটি উদ্ধারকারী জাহাজ, বরগুনা জেলা ট্রলার মালিক সমিতি, বরিশাল র‌্যাব-৮ ও পাথরঘাটা কোস্ট গার্ডের আটটি ট্রলার অভিযান চালিয়ে যাচ্ছে।

ডুবে যাওয়া ট্রলারগুলোর মধ্যে এফবি শুকতারা, এফবি নজমুল, এফবি ভাই ভাই, এফবি মা-বাবার দোয়া, এফবি মায়ের দোয়া, এফবি হাবিব, এফবি মা-বাবার দোয়া-১, এফবি জলিল ও এফবি গাজীর নাম পাওয়া গেছে। ডুবে যাওয়া ট্রলারসহ সকল জেলের বাড়ি কলাপাড়া, মহিপুর, পাথরঘাটা ও ভাণ্ডারিয়া উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে। এদিকে, নিখোঁজ ট্রলারগুলো হলো এফবি মেহেরীন, এফবি নুরবানু, এফবি রোমানা, এফবি তামান্না ও এফবি আসলাম।

কোস্ট গার্ডের পশ্চিম জোনের কমান্ডিং অফিসার কমান্ডার হাসান জানিয়েছেন, ঘূর্ণিড়ের প্রভাবে সকালের দিকে সাগরে প্রচণ্ড ঢেউ শুরু হয়। এসময় গভীর সমুদ্র থেকে শত শত মাছ ধরার ট্রলার সুন্দরবন এলাকায় নিরাপদ আশ্রয় আসছিল। সকাল ৮টার সময় শতাধিক ট্রলার সুন্দরবনের ভিতরে আশ্রয় নিলেও ১১টি ট্রলার ঢেউয়ের তোড়ে সাগরের বিশখালী ও বলেশ্বরের মোহনায় ডুবে যায়। ট্রলারে থাকা লাইফ জ্যাকেট, বয়া ইত্যাদি ধরে জেলেরা ভাসতে থাকলে পাথরঘাটার একটি ফিশিং ট্রলারে জেলেদের উদ্ধার করে পাথরঘাটায় নিয়ে যাওয়া হয়।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

ট্রেন লাইনচ্যুত, খুলনার সঙ্গে রেল যোগাযোগ বন্ধ 

13677

খুলনা, ১৯ অক্টোবর : যশোরে মালবাহী ট্রেন লাইনচ্যুত হওয়ায় খুলনার সঙ্গে সারা দেশের রেল যোগাযোগ বন্ধ হয়ে গেছে।

বুধবার ভোরে সিংগিয়া রেলস্টেশনে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

এদিকে এ দুর্ঘটনার পর ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা খুলনাগামী যাত্রীবাহী চিত্রা এক্সপ্রেস ট্রেনটি যশোর রেলওয়ে জংশনে আটকে আছে।

সকালে খুলনা থেকে যাত্রীবাহী কপোতাক্ষ, বেনাপোল কমিউটার ও রূপসা এক্সপ্রেস ট্রেন ছেড়ে আসার কথা থাকলেও কোনও ট্রেনটি যাত্রা করেনি।

যশোর রেলওয়ে জংশনের সহকারী স্টেশন মাস্টার সাইদুজ্জামান জানান, ভোর ৪টার দিকে যশোরের সিংগিয়া রেলওয়ে স্টেশনে মালবাহী ট্রেনের একটি বগি লাইনচ্যুত হয়। ফলে সেই সময় থেকেই খুলনার সঙ্গে রেল যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে।

লাইনচ্যুত ট্রেনটি সরিয়ে নেয়ার জন্য খুলনা থেকে রিলিফ ট্রেন আসছে। দুর্ঘটনাকবলিত ট্রেনটি সরিয়ে নেয়ার পর রেল যোগাযোগ ফের চালু হবে বলে জানান তিনি।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

জঙ্গি আরিফের ফাঁসি কার্যকর 

168

খুলনা, ১৭ অক্টোবর : দুই বিচারককে হত্যার দায়ে জেএমবি নেতা আসাদুল ইসলাম ওরফে আরিফের ফাঁসির রায় কার্যকরকে কেন্দ্র করে খুলনা জেলা কারাগার এলাকায় কঠোর নিরাপত্তা নেওয়া হয়েছে। ছবি : ফোকাস বাংলা

ঝালকাঠির দুই বিচারককে হত্যার দায়ে জামায়াতুল মুজাহিদীন বাংলাদেশের (জেএমবি) নেতা আসাদুল ইসলাম ওরফে আরিফের ফাঁসির রায় কার্যকর করা হয়েছে।

রবিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে খুলনা জেলা কারাগারে এ রায় কার্যকর করা হয়। এ সময় সেখানে খুলনা জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, সিভিল সার্জনসহ সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

২০০৫ সালের ১৪ নভেম্বর ঝালকাঠি জেলার জ্যেষ্ঠ সহকারী জজ সোহেল আহম্মেদ ও জগন্নাথ পাঁড়ের গাড়িতে বোমা হামলা চালিয়ে তাঁদের হত্যার করা হয়। সেই হত্যা মামলায় ফাঁসির দণ্ডাদেশপ্রাপ্ত ছিলেন আসাদুল।

আসাদুলের বাড়ি বরগুনা জেলা সদরে। আসাদুল ২০০৮ সাল থেকে খুলনা জেলা কারাগারে বন্দি ছিলেন। ফাঁসির দণ্ড কার্যকরকে কেন্দ্র করে কারাগার এলাকায় কঠোর নিরাপত্তাব্যবস্থা নেওয়া হয়।

আসাদুল ইসলাম ওরফে আরিফকে কারাগারের ৩ নম্বর কনডেম সেলে ছিলেন। দুপুর ১টা দিকে খুলনা জেলার সিভিল সার্জন এস এম আব্দুর রাজ্জাক আরিফের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করেন।

এর পর দুপুর ২টার দিকে স্ত্রী, তাঁর দুই কন্যা, ছয় বোনসহ মোট ১২ জন আরিফের সঙ্গে কারাগারে দেখা করে। ঘণ্টাখানেক পর তারা করাগার থেকে বেরিয়ে আসে।

পরে বিকেল ৫টার দিকে আরিফের স্ত্রী তাঁর দুই কন্যাকে নিয়ে আবারো স্বামীর সঙ্গে দেখা করতে যান।

সাক্ষাৎ শেষে আরিফের ভাইপো মো. জামাল জানান, আরিফ পরিবারের সদস্যদের জানিয়েছেন, তাঁকে যেন অপরিচিত কোনো স্থানে দাফন করা হয়। সে কারণে আরিফকে নিজ এলাকায় দাফন না করে তাঁর শ্বশুরবাড়ি বাগেরহাট জেলার মোল্লাহাট উপজেলার উদয়পুর গ্রামে দাফন করা হবে।

মো. জামাল আরো জানান, সাত বোনের একমাত্র ভাই আরিফ।

খুলনা জেলা কারাগারে প্রায় এক যুগ পর কোনো ফাঁসির দণ্ড কার্যকর করা হলো। এর আগে সর্বশেষ ২০০৪ সালের ১০ মে খুলনা জেলা কারাগারে কুখ্যাত খুনি এরশাদ শিকদারের ফাঁসি কার্যকর করা হয়েছিল।

জেলা কারাগার সূত্রে জানা যায়, ২০০৫ সালের ১৪ নভেম্বর ঝালকাঠি জেলার জ্যেষ্ঠ সহকারী জজ সোহেল আহম্মেদ ও জগন্নাথ পাঁড়ের গাড়িতে বোমা হামলা চালিয়ে তাঁদের হত্যা করা হয়। ওই ঘটনায় বোমা হামলাকারী ইফতেখার হোসেন মামুন, জেলা জজ আদালতের চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী আবদুল মান্নান ও দুধ বিক্রেতা বাদশা মিয়া আহত হন।

২০০৬ সালের ২৯ মে এ হত্যা মামলার রায়ে ঝালকাঠির অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ রেজা তারিক আহম্মেদ সাতজনের ফাঁসির দণ্ডাদেশ দেন। এরই মধ্যে জেএমবির শীর্ষ নেতা শায়খ আবদুর রহমান, সিদ্দিকুল ইসলাম ওরফে বাংলা ভাই, শায়খ আবদুর রহমানের ভাই আতাউর রহমান সানি, জামাতা আবদুল আউয়াল, ইফতেখার হোসেন মামুন, খালেদ সাইফুল্লাহ ওরফে ফারুকের ফাঁসি কার্যকর হয়েছে। ২০০৭ সালের ২৯ মার্চ শীর্ষ এ ছয় জেএমবি সদস্যের মৃত্যুদণ্ডাদেশ কার্যকর হয়।

অপরদিকে একই মামলার রায়ে মৃত্যুদণ্ডাদেশপ্রাপ্ত জেএমবি নেতা আরিফ ২০০৭ সালের ১০ জুলাই ময়মনসিংহ থেকে গ্রেপ্তার হন। এরপর তিনি আপিল করেন। চলতি বছরের ২৮ আগস্ট প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার নেতৃত্বাধীন পাঁচ বিচারপতির বেঞ্চ জেএমবি নেতা আসাদুল ইসলাম ওরফে আরিফের রিভিউ আবেদন খারিজ করে মৃত্যুদণ্ডাদেশ বহাল রাখেন।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

খুলনায় প্রতিপক্ষের ছুরিকাঘাতে মাদক ব্যবসায়ী খুন 

84

খুলনা, ১৩ অক্টোবর : খুলনায় প্রতিপক্ষের ছুরিকাঘাতে নাদিম (৪৮) নামে এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছে। বুধবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে নগরীর খালিশপুর বিটিসিএল অফিসের সামনে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। এ সময় মেহেদী নামে তার এক সহযোগীও জখম হয়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, রাত সাড়ে ৯টার দিকে নাদিম স্থানীয় শাহাদাতের চায়ের দোকানে বসে ছিলেন। এ সময় তার প্রতিপক্ষ মাদক ব্যবসায়ী নজরুলসহ কয়েকজন এসে তাকে উপর্যুপরি ছুরিকাঘাত করে। আশঙ্কাজনক অবস্থায় উদ্ধার করে তাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ (খুমেক) হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। আহত মেহেদীকে খুমেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

খালিশপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমীর তৈমুর ইলী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, নাদিমের পেটে ও বুকে বেশ কয়েকটি ছুরির আঘাত রয়েছে। মাদক ব্যবসাকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষরা তাকে হত্যা করেছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। নিহত নাদিমের বিরুদ্ধে খালিশপুর থানায় ৮টি মামলা রয়েছে বলেও জানান তিনি।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর