২০ আগস্ট ২০১৭
সন্ধ্যা ৭:৩৩, রবিবার

সেপটিক ট্যাঙ্ক পরিষ্কার করতে গিয়ে ৩ যুবকের মৃত্যু

সেপটিক ট্যাঙ্ক পরিষ্কার করতে গিয়ে ৩ যুবকের মৃত্যু 

2555

গোপালগঞ্জ, ১৬ জুন : গোপালগঞ্জে নির্মাণাধীন ভবনের সেপটিক ট্যাঙ্ক পরিষ্কার করার সময় বিষাক্ত গ্যাসে আক্রান্ত হয়ে তিন যুবক শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে।

শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে শহরের থানাপাড়া এলাকার একটি নির্মাণাধীন ভবনে এ ঘটনা ঘটে।

মৃত তিন যুবক হলেন- গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার আড়পাড়া গ্রামের হারেজের ছেলে নূর ইসলাম (৩০), একই গ্রামের আসাদ মুন্সির ছেলে জাহিদুর মুন্সি (১৮) ও সুমন (২৭)।

গোপালগঞ্জ পৌরসভার ২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. নুরুল আমিন শেখ বিপ্লব জানান, শুক্রবার সকাল ১০টার দিকে থানা পাড়ার ব্যবসায়ী হায়দার মুন্সির নির্মাণাধীন বাড়ির বহুতল ভবনের আন্ডারগ্রাউন্ডের নিচে সেপটিক ট্যাঙ্ক পরিষ্কার করতে তিন শ্রমিক নামেন। এক পর্যায়ে তারা অক্সিজেন স্বল্পতায় এবং বিষাক্ত গ্যাসে আক্রান্ত হয়ে মারা যান।

শ্রমিক গৌতম মজুমদার এ প্রতিবেদককে বলেন, সকালে সেপটিক ট্যাঙ্কে নেমে আমাদের ওই তিন সহকর্মী কাজ শুরু করেন। এক পর্যায়ে তারা উঠে না আসলে সন্দেহ হয়। অন্য সহকর্মীরা নিচে নেমে তাদের ছটফট করতে দেখে। পরে খবর পেয়ে আমিও ঘটনাস্থলে ছুটে গিয়ে তাদের ছটফট করতে দেখি। উদ্ধারের জন্য বাড়ির মালিকসহ স্থানীয়রা এগিয়ে আসেন। কিন্তু তারা ট্যাঙ্কের মাঝখানে থাকায় তাদের উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি।

গোপালগঞ্জ সদর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) তন্ময় সাহা ওই তিন শ্রমিকের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করে বলেন, গোপালগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের একটি দল দুপুর ১২টা থেকে মরদেহ উদ্ধারে কাজ শুরু করেছে।

গোপালগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার নিয়ামুল ইসলাম বলেন, বিল্ডিং থেকে শ্রমিকদের উদ্ধারের কাজের আধুনিক যন্ত্রপাতি ব্যবহার করা হচ্ছে। দ্রুত নিহত শ্রমিকদের উদ্ধার করা সম্ভব হবে।

ফায়ার সার্ভিসের ডিএডি মো. জানে আলম এ প্রতিবেদককে বলেন, আমরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে তাদের মৃত দেখতে পাই। তখন আমাদের আর কিছুই করার ছিল না। নির্মাণাধীন ভবনের সেপটিক ট্যাঙ্কে পানি ছিল। সেখানে মাত্রাতিরিক্ত কার্বন কমোঅক্সাইড তৈরি হয়। এ গ্যাসের মাত্রা সেখানে মানবদেহের জন্য অসহনীয় অবস্থায় থাকায় অক্সিজেন স্বল্পতায় তাদের মৃত্যু হয়েছে।-সমকাল

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

গোপালগঞ্জে হত্যার অভিযোগে পাঁচজনের ফাঁসির রায় 

5

গোপালগঞ্জ, ২৫ মে : গোপালগঞ্জে দেড় যুগ আগে এক গ্রাম্য মহাজনকে হত্যার দায়ে পাঁচজনের ফাঁসির রায় দিয়েছেন আদালত। গোপালগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মো. নাজির আহমেদ বৃহস্পতিবার এ রায় ঘোষণা করেন। ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন জাকারিয়া শাপু, আলীউজ্জামান খোকন মাস্টার, শাহাদত হোসেন, হেমায়েত উদ্দিন ও শাজাহান। তাদের মধ্যে শাপু ও শাজাহান পলাতক।

পাঁচজনকে সর্বোচ্চ সাজার আদেশ দেওয়ার পাশাপাশি ওই হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় ১৭ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড এবং তিনজনকে ১০ বছর করে সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন বিচারক।

আদালতের এপিপি শহীদুজ্জামান পিকু জানান, যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিদের প্রত্যেককে ৩০ হাজার টাকা করে জরিমানা, অনাদায়ে আরও এক বছরের সাজার আদেশ দেওয়া হয়েছে। আর ১০ বছরের সাজাপ্রাপ্ত তিনজনকে ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা দিতে হবে, তা না হলে আরও ছয় মাস জেল খাটতে হবে তাদের। যাবজ্জীবনপ্রাপ্ত ১৭ জনের মধ্যে তিনজন পলাতক। ১০ বছরের সাজাপ্রাপ্ত তিনজনের মধ্যে দুজন পলাতক।

মামলার বিবরণ থেকে জানা যায়, কাশিয়ানী উপজেলার আড়ুয়াকান্দি গ্রামের মহাজন সিরাজুল হক ছিরু মোল্লাকে ১৯৯৯ সালের ১০ অক্টোবর কুপিয়ে হত্যা করা হয়। ওই দিন দুপুরে জুমার নামাজ পড়ে ছিরু মোল্লা নৌকায় বাড়ি ফেরার পথে আসামিরা নৌকায় হামলা চালিয়ে তাকে কুপিয়ে হত্যা করে। ছিরুর স্ত্রী আমেনা বেগম পরদিন ৩৭ জনের বিরুদ্ধে কাশিয়ানী থানায় এই হত্যা মামলা দায়ের করেন।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

স্কুলছাত্রীকে বিবস্ত্র করে ভিডিও ধারণ 

গোপালগঞ্জ, ১১ ফেব্রুয়ারি : গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া উপজেলায় স্কুলছাত্রীকে বিবস্ত্র করে ভিডিওচিত্র ধারণের দৃশ্য সোশ্যাল মিডিয়ায় ছেড়ে দেওয়ার হুমকি দিয়েছে বখাটেরা। আর এ অপমান সইতে না পেরে ওই স্কুলছাত্রী বিষপানে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছে।

এ ঘটনা ফাঁস করলে স্কুলছাত্রীর পরিবারের সদস্যদের হত্যা করা হবে বলে হুমকি দিয়েছে বখাটেরা। ভয়ে নির্যাতিতার পরিবার থানায় অভিযোগ করতে সাহস পাচ্ছে না। পরিবারের পক্ষ থেকে এ ঘটনার বিচার দাবি করা হয়েছে। ওই ছাত্রী কোটালীপাড়া উপজেলার  পিঞ্জুরী ইউনিয়ন উচ্চবিদ্যালয় থেকে এ বছর এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নেয়। এ ঘটনার পর থেকে ওই ছাত্রী এসএসসি পরীক্ষা দেওয়া বন্ধ করে দিয়েছে।

ওই ছাত্রীর পিতা পেশায় স্কুলশিক্ষক। গত রবিবার বিষপানের পর প্রথমে ওই ছাত্রীকে কোটালীপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। পরে গোপালগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে তার অবস্থার উন্নতি হলে ফের কোটালীপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি রেখে চিকিৎসা দেওয়া হয়। ওই ছাত্রী জানিয়েছে, রবিবার রাতে সে ঘরের বারান্দায় বসে পড়াশোনা করছিল। মা-বাবা ঘরে ঘুমাচ্ছিলেন।

বারান্দা থেকে বের হয়ে বাইরে ওয়াশরুমে যাওয়ার সময় পিঞ্জুরী গ্রামের শ্রীধাম মণ্ডলের ছেলে সম্রাট মণ্ডল, তার সহযোগী বঙ্কিম বিশ্বাসের ছেলে সজল বিশ্বাস ও নির্মল বসুর ছেলে মিঠু বসু তার মুখ চেপে ধরে তাদের ওয়াশরুমের কাছে নিয়ে যায়। সেখানে তাকে বিবস্ত্র করে ওয়াশরুমের বৈদ্যুতিক আলোয় মোবাইলে ভিডিওচিত্র ধারণ করে এবং ওই ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেয়। এ অপমান সইতে না পেরে ঘটনার পরই সে বিষপানে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। সম্রাট মণ্ডল তাকে প্রেম নিবেদন করে ব্যর্থ হয়ে এ ঘটনা ঘটিয়েছে বলে ওই শিক্ষার্থী জানায়।

ওই ছাত্রীর পিতা স্কুলশিক্ষক বলেন, ‘এ ঘটনা ফাঁস করলে বখাটেরা আমাদের হত্যার হুমকি দিয়েছে। তাদের ভয়ে আমি থানায় অভিযোগ দায়ের করতে সাহস পাচ্ছি না।

এ ঘটনার পর আমার মেয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এসএসসি পরীক্ষা দিতে পারছে না। আমি এর বিচার চাই। ’ কোটালীপাড়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মোস্তাফিজুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ‘ওই ছাত্রীর বাবা আজ (গতকাল) বিকালে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। বিষয়টি তদন্ত করে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

২ ট্রাকের সংঘর্ষে মা-ছেলে নিহত 

গোপালগঞ্জ, ২৬ নভেম্বর : গোপালগঞ্জের সদর উপজেলায় দুই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে মা ও ছেলে নিহত হয়েছে।

শনিবার ভোর সাড়ে ৬টার দিকে উপজেলার চন্দ্রা দিঘলিয়া এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হল- মা রুবি বেগম (৩০) ও ছেলে শিশু রেফাত (০৩)।

গোপীনাথপুর পুলিশ ফাঁড়ির এসআই আবদুস সুবাহান জানান, ভোরে ঢাকা থেকে বাসা পরিবর্তন করে মালামাল নিয়ে বাবা-মা ও এক শিশু সদরের হরিদাসপুর এলাকায় যাচ্ছিল।

পথে উপজেলার চন্দ্রা-দিঘলিয়া এলাকায় গেলে বিপরীত দিক থেকে আসা ওপর একটি ট্রাকের সঙ্গে ওই ট্রাকের সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই মা ও ছেলে মারা যায়।

আহত বাবাকে এসময় খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

নিহতদের মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সদর জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে বলে জানান এসআই।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রীকে বিয়ে করলেন ইউপি চেয়ারম্যান 

3688

গোপালগঞ্জ, ১ সেপ্টেম্বর : কাশিয়ানীতে এক ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ১২ বছরের স্কুলছাত্রীকে বিয়ে করার অভিযোগ উঠেছে।

উপজেলার নিজামকান্দি ইউপির নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান মোহাব্বত হোসেন জুয়েলের বিরুদ্ধে এ বাল্যবিয়ের অভিযোগ উঠেছে।

জানা গেছে, উপজেলার নিজামকান্দি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাব্বত হোসেন জুয়েল পার্শ্ববর্তী ভ্যানচালক ঠাণ্ডু কাজীর মেয়ে ও নিজামকান্দি উচ্চবিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রী আনিরা খানমকে বিয়ে করেন যা ১৪ আগস্ট আইনগত স্বীকৃতি দিতে নোটারি পাবলিকের মাধ্যমে এফিডেভিট করেন।

এ ঘটনায় সাধারণ মানুষের মধ্যে তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে।

নিজামকান্দি উচ্চবিদ্যালয়ে গিয়ে দেখা গেছে, ভর্তি রেজিস্ট্রারে আনিরা খানমের জন্ম তারিখ ১৫ সেপ্টেম্বর ২০০৪ ইং। সে অনুযায়ী বর্তমানে তার বয়স হয়েছে প্রায় ১২ বছর।

নিজামকান্দি উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রঞ্জন কুমার মজুমদার জানান, ৯ আগস্টের পর আনিরা খানম আর স্কুলে ক্লাস করতে আসেনি।

ইউপি চেয়ারম্যানের বড় ভাই এম এম হোসেন (মুকুল) বাল্যবিয়ের কথা স্বীকার করে বলেন, সে যে কাজ করেছে মারাত্মক অন্যায় করেছে। তার উপযুক্ত বিচার হওয়া উচিত।

স্কুলছাত্রীর বাবা ঠাণ্ডু কাজী মেয়ের বিয়ের কথা অস্বীকার করে বলেন, ‘বিয়ে হয়নি, তবে চেয়ারম্যানের সঙ্গে বিয়ের কথা হচ্ছে।’

এদিকে, চেয়ারম্যানের সঙ্গে ওই স্কুলছাত্রীর প্রেমের সম্পর্কের কথা জানতে পেরে তার আগের স্ত্রী এক সন্তানের জননী হ্যাপী বেগম ঘটনার এক সপ্তাহ আগে ডিভোর্স দিয়ে বাবার বাড়িতে চলে গেছেন।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

শোক দিবসে টুঙ্গিপাড়ায় মহিউদ্দিনের মেজবান 

08711

গোপালগঞ্জ, ১৫ আগস্ট : জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে সোমবার দুপুরে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় ৩৮ হাজার অতিথিকে আপ্যায়ন করবে চট্টগ্রাম নগর আওয়ামী লীগ। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য চট্টগ্রাম নগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর নেতৃত্বে একটি দল ইতোমধ্যে টুঙ্গিপাড়া এসে পৌঁছেছে।

এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর এপিএস মো. ওসমান গনি বলেন, ‘শোক দিবস উপলক্ষে টুঙ্গিপাড়ায় শেখ মুজিবুর রহমান বিশ্ববিদ্যালয় কলেজমাঠে ৩০ হাজার ও বালাডাঙ্গা এসএম মুছা উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে ৮ হাজার মানুষের জন্য চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহী মেজবানের আয়োজন করা হয়েছে।’

চট্টগ্রাম নগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর নেতৃত্বে প্রতিবছরই টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিসৌধের বেদিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ শেষে মেজবানের আয়োজন করা হয়। গত বছরও টুঙ্গিপাড়ায় প্রায় ৩৬ হাজার অতিথিকে আপ্যায়ন করা হয়। ১৫ বছর ধরে এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী এ আয়োজন করে আসছেন। এবারও মেজবানে এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী উপস্থিত থেকে তদারকি করবেন বলে মো. ওসমান গনি জানান।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

গোপালগঞ্জে ট্রাকের ধাক্কায় ২ যুবক নিহত 

06

গোপালগঞ্জ, ৪ আগস্ট : গোপালগঞ্জ সদরে ট্রাকের ধাক্কায় দুইজন নিহত হয়েছেন; আহত হয়েছেন আরো দুইজন।

বুধবার রাত সাড়ে ১০ টার দিকে উপজেলার মান্দারতলায় এ দুর্ঘটনা ঘটে বলে সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সেলিম রেজা জানান।

নিহতরা হলেন গোপালগঞ্জ শহরের কুয়াডাঙ্গা মুন্সিপাড়া এলাকার শহর আলীর ছেলে হায়দার আলী (২৮) ও আব্বাস কাজীর ছেলে জসীম কাজী (২৫)। তাদের লাশ সদর হাসপাতালে রয়েছে।

আহত সঞ্জয় ঢালীকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ও শামীম শেখকে গোপালগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ওসি সেলিম বলেন, মান্দারতলায় বিকল একটি পিকআপ মেরামত করছিলেন ওই চারজন। এ সময় একটি ট্রাকের ধাক্কায় ঘটনাস্থলেই হায়দার নিহত হন।

আহতদের উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে নেওয়া হলে সেখানে জসীমের মৃত্যু হয় বলে জানান তিনি।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

গোপালগঞ্জে শিশুকে গলা কেটে হত্যা 

58787

গোপালগঞ্জ, ২২ জুন : গোপালগঞ্জের মুকসুদপুর উপজেলার বামনডাঙ্গা গ্রামে লামিয়া খানম (৭) নামের এক শিশুকে গলা কেটে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা।

আজ বুধবার সকালে একটি পাটক্ষেত থেকে লামিয়ার গলা কাটা লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

লামিয়া বামনডাঙ্গা গ্রামের কেরামত খালাসীর মেয়ে ও বামনডাঙ্গা দাখিল মাদ্রাসার প্রথম শ্রেণির ছাত্রী।

মুকসুদপুর থানার ওসি আজিজুর রহমান জানান, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বাড়ি থেকে নিখোঁজ হয় লামিয়া। রাতে অনেক খোঁজ করেও পরিবারের লোকজন তার সন্ধান পায়নি। সকালে বাড়ির কাছের একটি পাটক্ষেতে তার গলা কাটা লাশ দেখে এলাকাবাসী থানায় খবর দেয়।

পরে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গোপালগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

গোলাপগঞ্জে আহমদ শফি আসছেন, স্বাগত জানাতে ব্যাপক প্রস্তুতি 

200

আজিজ খান, গোলাপগঞ্জ (সিলেট) : হেফাজতে ইসলামের আমীর দেশ বরেণ্য আলেম হযরত মাওলানা আহমদ শফি গোলাপগঞ্জে আসছেন। আগামী ২৮ মে নব-প্রতিষ্ঠিত গোলাপগঞ্জ তথা সিলেটের অন্যতম বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান মার্ভেলাস টাওয়ারের উদ্বোধন উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে তিনি উপস্থিত থাকবেন। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন হেফাজতে ইসলামের মহাসচিব প্রখ্যাত আলেম আল্লামা মোহাম্মদ জুনেদ বাবু নগরী।

অনুষ্ঠানকে সামনে রেখে মার্ভেলাস টাওয়ার কর্তৃপক্ষ ব্যাপক উদ্যোগ গ্রহন করেছেন। এ উপলক্ষে ২৭মে শুক্রবার সিলেটের বিভিন্ন মাদ্রাসার মুফাচ্ছির ও মোহাদ্দিসদের উপস্থিতিতে খতমে কোরআন এবং বুখারী শরিফের খতম অনুষ্ঠিত হবে বলে টাওয়ারের চেয়ারম্যান হাফিজ মাওলানা নুরুল হুদা জানিয়েছেন।

এদিকে বাংলাদেশ তথা উপমহাদেশের অন্যতম শ্রেষ্ঠ আলেম হেফাজতে ইসলামের আমীর আল্লামা আহমদ শফির আগমনকে সফল করতে মার্ভেলাস টাওয়ার কর্তৃপক্ষ ছাড়াও গোলাপগঞ্জ ও সিলেটের বিভিন্ন মাদ্রাসা-ইসলামী শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে ব্যাপক উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। প্রাপ্ত সংবাদে জানা যায়, এদিন গোলাপগঞ্জে ব্যাপক সংখ্যক আলেম-উলামা ও ধর্মপ্রাণ মুসলমান উপস্থিত থাকবেন।

এ উপলক্ষে আয়োজকদের পক্ষ থেকে সমাজের বিভিন্ন পেশা ও শ্রেণীর মানুষের সঙ্গে মতবিনিময় করা হয়েছে। শুরুতে প্রশাসন ও পৌরসভা কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে পদক্ষেপ গ্রহণ করা হলে সর্বশেষ বিশিষ্ট নাররিকদের উপস্থিতিতে সম্প্রতি এক সভা অনুষ্ঠিত হয়। গোলাপগঞ্জ বাজার বণিক সমিতির সভাপতি আলহাজ্ব হাফিজুর রহমান চৌধুরীর সভাপতিত্বে চৌমুহনীস্থ মাইক্রোবাস চালক সমিতির কার্যালয়ে এ বিয়য়ে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হলে, বিভিন্ন পেশার মানুষের সহযোগীতা কামনা করে বক্তব্য রাখেন মার্ভেলাস টাওয়ারের চেয়ারম্যান হাফিজ মাওলানা নুরুল হুদা।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন গোলাপগঞ্জ প্রেসক্লাব সভাপতি ও বাজার বণিক সমিতির সেক্রেটারী আব্দুল আহাদ, গোলাপগঞ্জ মাইক্রোবাস চালক সমিতির সভাপতি আব্দুস সামাদ, সেক্রেটারী এমরান আহমদ, বণিক সমিতির যুগ্ম সম্পাদক বদরুল ইসলাম, কোষাধ্যক্ষ আবিদুর রহমান, সিএনজি অটোরিক্সা চালক সমিতির সভাপতি মাখন মিয়া, সাংবাদিকদের মধ্যে এম আব্দুল জলিল, মাহবুবুর রহমান চৌধুরী, আব্বাস উদ্দিন, রিক্সা চালক সমিতির সভাপতি আব্দুল হান্নান হানু মিয়া, তাবলীগ জামায়াতের দেলওয়ার হোসেন খান, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী কামরুল ইসলাম চৌধুরী, বিলাল আহমদ প্রমুখ।

এ সময় উপস্থিত নেতৃবৃন্দ আল্লামা আহমদ শফির আগমনকে সফল করার লক্ষে সব ধরনের সহযোগীতার আশ্বাস প্রদান করেন।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

অর্থ আত্মসাতের মামলায় শিক্ষক গ্রেফতার 

3366

গোপালগঞ্জ, ৮ মার্চ : বিদ্যালয়ের তহবিল আত্মসাতের অভিযোগে দায়ের করা মামলায় গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীতে নুর আলম তালুকদার নামে এক শিক্ষককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সোমবার রাতে উপজেলার খায়েরহাটের নিজ বাড়ি থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। মঙ্গলবার তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। নুর আলম তালুকদার কাশিয়ানী জিসি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক।

কাশিয়ানী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুল ইসলাম জানান, জিসি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নুর আলম তালুকদার স্কুল ফান্ড থেকে ২৭ লাখ টাকা আত্মসাৎ করেছেন – এমন অভিযোগে ওই স্কুলের অভিভাবক সদস্য সৈয়দ আজমুল হক আজু ২০১৫ সালের ০৫ নভেম্বর গোপালগঞ্জ আমলি আদালতে একটি অভিযোগ দায়ের করেন।  এ অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে তার নামে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করে আদালত। এতে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানান ওসি।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

বঙ্গবন্ধুর সমাধিস্থলে বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির শ্রদ্ধা নিবেদন 

বঙ্গবন্ধুর সমাধিস্থলে বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির শ্রদ্ধা নিবেদন

শফিউল ইসলাম সৈকত, বেরোবি ৪ মার্চ : জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদন ও জিয়ারত করেছেন বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির নবনির্বাচিত কার্যকরী সংসদের সদস্যবৃন্দ। স্বাধীনতার স্থপতি হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে সমিতির পক্ষ থেকে আজ শুক্রবার (৪ মার্চ) পুষ্পাঞ্জলি অর্পণের মাধ্যমে এই শ্রদ্ধা জানান তাঁরা। এ সময় জাতির জনকের কবর জিয়ারত করেন শিক্ষকবৃন্দ।

বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি ড. আর এম হাফিজুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক তাবিউর রহমানের নের্তৃত্বে সমিতির সদস্যবৃন্দ গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় আসেন। শুক্রবার সকাল ১১টায় শিক্ষকবৃন্দকে সাথে নিয়ে বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে পুষ্পাঞ্জলি অর্পণের মাধ্যমে শ্রদ্ধা জানান সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক।

এসময় ফাতেহা পাঠ করা হয় ও মোনাজাত করা হয়। জাতির জনকের সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদনের পর বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকবৃন্দ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পৈত্রিক নিবাস পরিদর্শন করেন এবং সমিতির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পরিদর্শন বইয়ে স্বাক্ষর করেন।

এদিকে শিক্ষক সমিতির প্রতিনিধি দল শুক্রবার সকালে গোপালগঞ্জে পৌছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. খোন্দকার নাসিরউদ্দিনের আতিথিয়তা গ্রহণ করে। পরে বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকবৃন্দের সঙ্গে বিভিন্ন বিষয়ে মত বিনিময় করেন উপাচার্য প্রফেসর নাসিরউদ্দিন।

উল্লেখ, গত ২০ জানুয়ারি বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে নিরঙ্কুশ জয়লাভ করে শিক্ষকদের সংগঠন ‘মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় প্রগতিশীল শিক্ষক সমাজ’। এর পর গত ০৯ ফেব্রুয়ারি আনুষ্ঠানিক দায়িত্বভার গ্রহণ করে প্রথম বারের মতো টুঙ্গিপাড়ায় জাতির জনকের সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে সমিতি।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

যে কারণে অঝোরে কাঁদলেন কাদের সিদ্দিকী 

যে কারণে অঝোরে কাঁদলেন কাদের সিদ্দিকী

গোপালগঞ্জ, ৬ ফেব্রুয়ারি : অঝোরে কাঁদলেন বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী। পিতার কবর জেয়ারাতের সময় কোন সন্তান কি আর ঠিক থাকতে পারে? তবে নিজের জন্মদাতা পিতা নয়, অন্য পিতার জন্য কাঁদলেন এই বীর উত্তম। পিতা-পুত্রের এই টান রক্তের নয়, আত্মার। এর পেছনে রয়েছে স্পর্শকাতর অনেক স্মৃতি, আদর্শিক সম্পর্ক, লড়াই-সংগ্রামের ইতিহাস।

বৃহস্পতিবার হাইকোর্টের রায়ে টাঙ্গাইল-৪ (কালিহাতী) আসনের উপনির্বাচনে মনোনয়নপত্র বাতিলের পর শুক্রবার গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় যান কাদের সিদ্দিকী। পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে গিয়ে কান্না আর ধরে রাখতে পারলেন না পুত্র বঙ্গবীর।

‘৭৫-এ পিতা হত্যার প্রতিশোধ নিতে অস্ত্র তুলে নিয়েছিলেন তার বীর সন্তান কাদেরিয়া বাহিনীর প্রধান। দীর্ঘদিন নির্বাসিত জীবন শেষে ১৯৯০ সালের ১৮ ডিসেম্বর দেশে ফিরে নিজের হাতে এ সমাধি পরিষ্কার করেছিলেন তিনি। বানিয়েছিলেন কবরে যাওয়ার রাস্তাও।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, শুক্রবার দুপুরের পর কাদের সিদ্দিকী টুঙ্গিপাড়ায় যান। গাড়ি থেকে নেমেই শেখ বাড়ি মসজিদে নামাজ পড়েন। এরপর বঙ্গবন্ধুর কবরের যে পাশে পা, সেখানে গিয়ে বসেন। অঝোরে কাঁদেন। অনেকক্ষণ নিশ্চুপ থেকে, মোনাজাত করে সোজা চলেন আসেন ঢাকা।

এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ নেতা ফরিদ আহমেদ, যুব আন্দোলনের আহ্বায়ক হাবিব উন নবী সোহেল, টাঙ্গাইল জেলা ছাত্র আন্দোলনের সভাপতি নিয়ন সিদ্দিকী প্রমুখ।

এদিকে বঙ্গবন্ধুর মাজার জিয়ারত শেষে বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী বলেন, ”যখনই মানসিক শান্তি প্রয়োজন হয়, চলে আসি বঙ্গবন্ধুর মাজারে।

মনোনয়নপত্র বাতিলের বিষয়ে তিনি বলেন, ”মহামান্য হাইকোর্ট রায়ে আমাদের নির্বাচন কমিশন ট্রাইব্যুনালে যেতে বলেছেন। কিন্তু নির্বাচন কমিশন ট্রাইব্যুনাল তো নির্বাচনের পরে, আর আমাদের মামলা তো নির্বাচনের আগে। তাই আমরা ভেবে দেখছি কী করা যায়।’

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা 

Hasina01452233829

গোপালগঞ্জ, ৮ জানুয়ারি : গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শুক্রবার বেলা পৌনে ১২টায় বাবার সমাধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা। এরপরে বোন শেখ রেহানাকে সঙ্গে নিয়ে সুরা ফাতিহা পাঠ ও বিশেষ মোনাজাতে অংশ নেন তিনি।

দুপুরে জাতির জনকের সমাধিসৌধের মুক্তমঞ্চে টুঙ্গিপাড়া পৌরসভার নবনির্বাচিত মেয়র, কাউন্সিলর ও মহিলা কাউন্সিলরদের সঙ্গে মতবিনিময় করবেন প্রধানমন্ত্রী।

এর আগে বেলা সাড়ে ১১টায় প্রধানমন্ত্রী টুঙ্গিপাড়া পৌঁছান। পরে তিনি শেখ রাসেল পৌর শিশুপার্কের উদ্বোধন করেন।

বিকাল ৩টায় টুঙ্গিপাড়া হেলিপ্যাড থেকে হেলিকপ্টারযোগে প্রধানমন্ত্রীর ঢাকার উদ্দেশে রওনা দেওয়ার কথা রয়েছে।

এদিকে, প্রধানমন্ত্রীর আগমনকে কেন্দ্র করে টুঙ্গিপাড়াসহ পুরো জেলায় নেওয়া হয়েছে কঠোর নিরাপত্তাব্যবস্থা।

জানা গেছে, বর্তমান সরকারের দুই বছর পূর্ণ হওয়া উপলক্ষে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য টুঙ্গিপাড়া সফর করছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তার আগমনকে কেন্দ্র করে বঙ্গবন্ধুর সমাধিসৌধ কমপ্লেক্সকে সাজানো হয়েছে নতুন আঙ্গিকে। সমাধিসৌধের মূল স্তম্ভ, বঙ্গবন্ধু ভবন, মুক্তমঞ্চ, লাইব্রেরি, সংগ্রহশালা, ক্যাফেটেরিয়া, মসজিদ, বকুলতলা চত্বর এলাকার উন্নয়নে কাজ সম্পন্ন হয়েছে।

টুঙ্গিপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল হালিম জানান, প্রধানমন্ত্রীর টুঙ্গিপাড়া সফর নিয়ে নেতা-কর্মীদের মধ্যে আনন্দ-উদ্দীপনা বিরাজ করছে । এ সফর সফল করতে ইতিপূর্বে সভা করা হয়েছে।

গোপালগঞ্জ পুলিশ সুপার এস এম এমরান হোসেন জানান, প্রধানমন্ত্রীর টুঙ্গিপাড়া সফরকে কেন্দ্র করে পুরো জেলায় নেওয়া হয়েছে তিন স্তরের নিরাপত্তাব্যবস্থা। সাদাপোশাকের পুলিশের পাশাপাশি গোয়েন্দা পুলিশসহ অন্যান্য আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী নিয়োজিত রয়েছে।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

মায়ের প্রেমিক গ্রেফতার 

মায়ের প্রেমিক গ্রেফতার

গোপালগঞ্জ, ৭ ডিসেম্বর : গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার কাজুলিয়া ইউনিয়নের ভোজেরগাতি গ্রামের আলোচিত দুই শিশু পুত্র হত্যার প্রধান আসামি মা জান্নাতুল ফেরদৌস কুলসুমের কথিত প্রেমিক সাহেব আলী ওরফে রানাকে (৩৮) গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

শনিবার রাতে মাদারীপুর শহরের পুরান বাজার এলাকায় নিজ ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। রবিবার দুপুরে আদালতে হাজির করে সাত দিনের রিমান্ড চেয়েছে পুলিশ। গোপালগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) সওগাতুল আলম জানান, দুই শিশু পুত্র হত্যার প্রধান আসামি মা জান্নাতুল ফেরদৌস কুলসুমের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে মাদারীপুরে অভিযান চালায় পুলিশ।

এ সময় প্রেমিক সাহেব আলী ওরফে রানাকে গ্রেফতার করে রাতেই গোপালগঞ্জ সদর থানায় নিয়ে আসা হয়। পরে গতকাল দুপুরে গোপালগঞ্জের অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. মামুনুর রশীদের আদালতে হাজির করে সাত দিনের রিমান্ডের আবেদন জানিয়েছে পুলিশ।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

গোপালগঞ্জে মাকে বেঁধে দুই শিশুকে শ্বাসরোধে হত্যা 

gopalgong20151121043525

গোপালগঞ্জ, ৪ ডিসেম্বর : গৃহবধূকে বেঁধে রেখে তার সামনেই দুই ছেলে শিশুকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাত ৯টার দিকে সদর উপজেলার ভোজেরগাতী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহতরা হচ্ছে, রায়হান (১০) ও তার ভাই রইচ (৬)। তাদের বাবার নাম ইউসুফ সরদার। গোপালগঞ্জ জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আব্দুল্লাহ আল মামুন সাংবাদিকদের এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

পুলিশ কর্মকর্তা মামুন সাংবাদিকদের বলেন, রায়হান ও রইচ রাতের খাবার খাওয়ার সময় অপরিচিত দুই ব্যক্তি হঠাৎ ঘরে ঢুকে তাদের মা কুলসুম বেগমকে বেঁধে ফেলে। এরপর তার সামনেই দুই ভাইকে শ্বাসরোধে হত্যা করে পালিয়ে যায়। শিশু রায়হান ভোজেরগাতী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির শিক্ষার্থী।

নিহত দুই শিশুর বাবা ইউসুফ টুঙ্গীপাড়ার গওহরডাঙ্গা মাদ্রাসার শিক্ষক। মাদ্রাসার কাজে ঢাকা গিয়েছিলেন তিনি। ঘটনার আধা ঘণ্টা পর তিনি বাড়ি পৌঁছান। কে বা কারা কেন এ হত্যাকান্ড ঘটিয়েছে সে বিষয়ে তাৎক্ষণিকভাবে কিছু জানাতে পারেননি অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মামুন।

ঘটনার পরই তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। আর খুব দ্রুত সময়ের মধ্যেই এর রহস্য উদঘাটন করা সম্ভব হবে বলে তিনি আশা ব্যক্ত করেছেন।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর