১৮ আগস্ট ২০১৭
বিকাল ৪:৫৭, শুক্রবার

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বন্দুকযুদ্ধে ডাকাত নিহত

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বন্দুকযুদ্ধে ডাকাত নিহত 

896969

ব্রাহ্মণবাড়িয়া, ১০ আগস্ট : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলায় পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে মামুন মিয়া (৩২) নামে এক ডাকাত নিহত হয়েছেন।

বুধবার রাত ৩টার দিকে উপজেলার শাহ্জাদাপুর ইউনিয়নের দেওড়া গ্রামের এ ঘটনা ঘটে।নিহত মামুনের বিরুদ্ধে সরাইল থানায় দু’টি ডাকাতিসহ চারটি মামলা রয়েছে। তিনি উপজেলার কুট্টাপাড়ার মৃত শফিউদ্দিনের ছেলে।

সরাইল থানা পুলিশের পরিদর্শক (তদন্ত) মো. কামরুজ্জামান জানান, গত ২ আগস্ট রাতে দেওড়া গ্রামের কাজীবাড়ির বাসিন্দা আবু হান্নান খুনের সঙ্গে মামুন জড়িত ছিলেন।

তিনি আারো জানান, বুধবার বিকেলে জেলার নবীনগর উপজেলা থেকে মামুনকে গ্রেফতার করে সরাইল থানায় আনা হয়। পরে তার দেয়া তথ্য মতে রাতে তাকে নিয়ে দেওড়া গ্রামে অস্ত্র উদ্ধারে যায় পুলিশ। এসময় সেখানে থাকা মামুনের সহযোগীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়ে তাকে ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে। এসময় পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। কিছুক্ষণ বন্দুকযুদ্ধের পর মামুনের সহযোগীরা পালিয়ে যায়। ঘটনাস্তলেই গুলিবিদ্ধ মামুনের মৃত্যু হয়। মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে পাইপগান, দুই রাউন্ড গুলি, আট রাউন্ড গুলির খোসা, রামদা এবং বল্লম উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন এই পুলিশ কর্মকর্তা।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

আখাউড়ায় ট্রেন লাইনচ্যুত 

68

ব্রাহ্মণবাড়িয়া, ৯ জুলাই : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া রেলস্টেশনে যাত্রীবাহী একটি ট্রেন লাইনচ্যুত হয়েছে। তবে এতে হতাহতের কোনো খবর পাওয়া যায়নি।

শনিবার রাত পৌনে ২টার দিকে সিলেট থেকে ছেড়ে আসা চট্টগ্রামগামী আন্তঃনগর উদয় এক্সপ্রেসের পেছনের তিনটি বগি লাইনচ্যুত হয়। দুর্ঘটনার পর দ্রুত রিলিফ ট্রেন এনে উদ্ধার তৎপরতা শুরু করে কর্তৃপক্ষ, যা সকাল ৬টায় শেষ হয়।

প্রত্যক্ষদর্শী ও ট্রেনের যাত্রীরা জানান, ট্রেনটি যাত্রাবিরতি দেওয়ার জন্য আখাউড়া রেলস্টেশনে ঢোকার সময় পেছনের তিনটি বগি লাইনচ্যুত হয়। এ সময় বিকট শব্দ ও ঝাঁকুনিতে আতঙ্কিত হয়ে পড়েন যাত্রীরা। ঘটনার পরপরই আখাউড়া লোকো সেড থেকে উদ্ধারকারী রিলিফ ট্রেন এনে উদ্ধার তৎপরতা শুরু করা হয়। সকাল ৬টায় উদ্ধার তৎপরতা শেষ হয়।

আখাউড়া রেলওয়ের লোকো সেড ইনচার্জ প্রকোশলী কান্তি বিশ্বাস বলেন, ট্রেনটি ৪নং লাইনে দুর্ঘটনায় পতিত হওয়ায় অন্যকোনো ট্রেন চলাচলে সমস্যা হয়নি। দুর্ঘটনার পর দ্রুততম সময়ে উদ্ধার কাজ সম্পন্ন করা হয়েছে।

তবে দুর্ঘটনার কারণ সম্পর্কে তাৎক্ষণিকভাবে কিছু জানাতে পারেননি তিনি।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

চার রুটে দেড় ঘণ্টা পর ট্রেন চলাচল শুরু 

877

ব্রাহ্মণবাড়িয়া, ১১ জুন : বাহ্মণবাড়িয়ার কসবায় ট্রেন বিকল হয়ে ঢাকা-চট্টগ্রামসহ চার রুটে দেড় ঘণ্টা বন্ধ থাকার পর ট্রেন চলাচল শুরু হয়েছে।

আজ রবিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে যোগাযোগ স্বাভাবিক হয়।

কসবা রেলস্টেশন মাস্টার লুৎফুর রহমান মোল্লা জানান, আখাউড়া জংশন থেকে বিকল্প একটি ইঞ্জিন এসে বিকল ট্রেনটি নিয়ে যায়। এরপর এই রুটে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয়।

এর আগে সকাল ৯টার দিকে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলার ব্রাহ্মণগ্রাম এলাকায় নোয়াখালী থেকে ঢাকাগামী উপকূল এক্সপ্রেস ট্রেনের ইঞ্জিন বিকল হয়ে পড়ে।

এতে ঢাকা-চট্টগ্রাম, চট্টগ্রাম-সিলেট, নোয়াখালী-ঢাকা, নোয়াখালী-সিলেট রুটে সব ধরনের ট্রেন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

এর আগে শনিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে মৌলভীবাজারের লাউয়াছড়া বনে ভেঙে পড়া একটি গাছের সঙ্গে ধাক্কা লেগে ট্রেন লাইনচ্যুত হয়ে সিলেটের সঙ্গে সারা দেশের রেল যোগাযোগ ১০ ঘণ্টা বন্ধ থাকে। রোববার সকাল ৮টায় আবার ট্রেন চলাচল শুরু হয়।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

ঢাকা-চট্টগ্রামসহ ৪ রুটে ট্রেন চলাচল বন্ধ 

98

ব্রাহ্মণবাড়িয়া, ১১ জুন : ঢাকা-সিলেট রুটে ১০ ঘণ্টা বন্ধ থেকে ট্রেন চলাচল চালু হওয়ার এক ঘণ্টা পর ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলার ব্রাহ্মণগ্রাম এলাকায় নোয়াখালী থেকে ঢাকাগামী উপকূল এক্সপ্রেস ট্রেনের ইঞ্জিন বিকল হয়ে পূর্বাঞ্চল রেলওয়ের কয়েকটি রুটে ট্রেন চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে।

আজ রবিবার সকাল ৯টা থেকে ঢাকা-চট্টগ্রাম, চট্টগ্রাম-সিলেট, নোয়াখালী-ঢাকা, নোয়াখালী-সিলেট রুটে সব ধরনের ট্রেন চলাচল বন্ধ রয়েছে।

কসবা রেলস্টেশন মাস্টার লুৎফুর রহমান মোল্লা জানান, আখাউড়া জংশন থেকে বিকল্প একটি ইঞ্জিন এসে ট্রেনটি নিয়ে যাবে। এরপর এই রুটে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হবে।

এর আগে শনিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে মৌলভীবাজারের লাউয়াছড়া বনে ভেঙে পড়া একটি গাছের সঙ্গে ধাক্কা লেগে ট্রেন লাইনচ্যুত হয়ে সিলেটের সঙ্গে সারা দেশের রেল যোগাযোগ ১০ ঘণ্টা বন্ধ থাকে। রোববার সকাল ৮টায় আবার ট্রেন চলাচল শুরু হয়।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ১ 

57

ব্রাহ্মণবাড়িয়া, ৭ জুন : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলার গোপিনাথপুর ইউনিয়নের চণ্ডিদ্বার গ্রামে পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে ইব্রাহিম মিয়া (৩৫) এক ব্যাক্তি নিহত হয়েছেন।

মঙ্গলবার দিনগত মধ্যরাতে  এ ঘটনা ঘটে। পুলিশের দাবি, ইব্রাহিম তার সহযোগীদের গুলিতে নিহত হয়েছেন।

নিহত ইব্রাহিমের বাড়ি কসবা উপজেলার লতুয়ামোড়া গ্রামে। তার পিতার নাম মৃত সমরাজ মিয়া।

কসবা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহিউদ্দিন জানান, মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে কসবা থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) রফিকুল ইসলামের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল ৬ কেজি গাঁজাসহ ইব্রাহিমের স্ত্রী রেনুয়ারা বেগমকে (৩০) আটক করে।

ওসি জানান, পরে রেনুয়ারাকে নিয়ে থানায় আসার পথে ইব্রাহিম তার সহযোগীদের নিয়ে পুলিশের উপর হামলা চালায়। ইব্রাহিম ধারালো দা দিয়ে এসআই রফিকুলের মাথায় কোপ দেন।  এ সময় ইব্রাহিম ও তার সহযোগীরা আটক রেনুয়ারাকে ছিনিয়ে নেয়ার জন্য পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি চালালে পুলিশও নিজেদের আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি চালায়। এ ঘটনায় গুলিবিদ্ধ হয়ে ইব্রাহিম ঘটনাস্থলেই মারা যান।

ওসি আরো জানান, পুলিশ ১৮ রাউন্ড গুলি ছুঁড়েছে, তবে ইবরাহিম তার সহযোগীদের ছোঁড়া গুলিতেই নিহত হয়েছেন।

ঘটনাস্থল থেকে তিন রাউন্ড কার্তুজ, তিনটি রামদা ও একটি দা উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানান ওসি।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

মন্ত্রীর আগমন ঠেকাতে আ. লীগের হরতাল, ১৪৪ ধারা 

44

ব্রাহ্মণবাড়িয়া, ২৩ এপ্রিল : মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী ছায়েদুল হকের আগমন ঠেকাতে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগরে হরতাল ডেকেছে স্থানীয় আওয়ামী লীগ। দলটির ডাকা হরতালে উত্তেজনা বিরাজ করায় বিজয়নগরসহ জেলার চার উপজেলায় ১৪৪ ধারা জারি করেছে প্রশাসন।

শনিবার মধ্যরাতে বিজয়নগর, ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর, আশুগঞ্জ ও সরাইল উপজেলায় ১৪৪ ধারা জারি করা হয়।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট ড. মোহাম্মদ শাহানুর আলম জানান, মন্ত্রীর অনুষ্ঠান ঘিরে উত্তেজনা দেখা দেওয়ায় চারটি উপজেলায় রবিবার সকাল ৬টা থেকে রাত ১২টা পর্যন্ত ১৪৪ ধারা বহাল থাকবে।

এদিকে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতির আশঙ্কায় শনিবার সন্ধ্যা থেকেই বিজয়নগরে দুই প্লাটুন বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি), পাঁচ সেকশন র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) ও এপিবিএন সদস্য এবং দেড়শ’ পু্লিশ সদস্য মোতায়েন রয়েছে।

প্রসঙ্গত, রবিবার সকাল ১০টায় বিজয়নগরে নবনির্মিত উপজেলা প্রাণিসম্পদ হাসপাতাল উদ্বোধন অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ার কথা মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী ছায়েদুল হকের। তবে এ অনুষ্ঠানে স্থানীয় সংসদ সদস্য (ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৩ আসন) উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরীকে আমন্ত্রণ না জানানোয় স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও এর বিভিন্ন সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে। তারা বৃহস্পতিবার সংবাদ সম্মেলন করে মন্ত্রী ছায়েদুল হকের অনুষ্ঠান বর্জন ও সকাল-সন্ধ্যা হরতালের ঘোষণা দেন।

এর পরদিন শুক্রবার দুপুরে বিজয়নগর উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তাকে মারধর ও কার্যালয় ভাঙচুর করে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। এ সময় হামলাকারীরা মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রীর উদ্বোধনী নামফলকও ভেঙে ফেলে।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

প্রাণিসম্পদ মন্ত্রীর অনুষ্ঠান ঘিরে ৪ উপজেলায় ১৪৪ ধারা 

ব্রাহ্মণবাড়িয়া, ২৩ এপ্রিল : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগরে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী ছায়েদুল হকের আগমন ঠেকাতে স্থানীয় আওয়ামী লীগের ডাকা হরতাল ও উত্তেজনা থাকায় বিজয়নগরসহ জেলার চার উপজেলায় ১৪৪ ধারা জারি করেছে প্রশাসন।

শনিবার মধ্যরাতে বিজয়নগর, ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর, আশুগঞ্জ ও সরাইল উপজেলায় ১৪৪ ধারা জারি করা হয়।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট ড. মোহাম্মদ শাহানুর আলম জানান, মন্ত্রীর অনুষ্ঠান ঘিরে উত্তেজনা দেখা দেয়ায় চারটি উপজেলায় রবিবার সকাল ছয়টা থেকে রাত ১২টা পর্যন্ত ১৪৪ ধারা বহাল থাকবে।

এর আগে শনিবার সন্ধ্যায় আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতির আশঙ্কায় বিজয়নগরে দুই প্লাটুন বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি), পাঁচ সেকশন র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) ও এপিবিএন সদস্য এবং দেড়শ’ পু্লিশ সদস্য মোতায়েন রয়েছে।

প্রসঙ্গত, রবিবার সকাল ১০টায় বিজয়নগরে নবনির্মিত উপজেলা প্রাণিসম্পদ হাসপাতাল উদ্বোধন অনুষ্ঠানে যোগ দেয়ার কথা মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী ছায়েদুল হকের। তবে এ অনুষ্ঠানে স্থানীয় সংসদ সদস্য (ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৩ আসন) উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরীকে আমন্ত্রণ না জানানোয় স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও এর বিভিন্ন সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে। তারা বৃহস্পতিবার সংবাদ সম্মেলন করে মন্ত্রী ছায়েদুল হকের অনুষ্ঠান বর্জন ও সকাল-সন্ধ্যা হরতালের ঘোষণা দেন। এর পরদিন শুক্রবার দুপুরে বিজয়নগর উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তাকে মারধর ও কার্যালয় ভাঙচুর করে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। এসময় হামলাকারীরা মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রীর উদ্বোধনী নামফলকও ভেঙে ফেলে।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

আশুগঞ্জ বিদ্যুৎকেন্দ্রের ২টি ইউনিটের উৎপাদন শুরু 

768

ব্রাহ্মণবাড়িয়া, ২০ এপ্রিল : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের বন্ধ হওয়া তিনটি ইউনিটের মধ্যে দুটি ইউনিটের উৎপাদন শুরু হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সকাল ৮টার দিকে ১৫০ মেগাওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন ইউনিট-৪ ও ২২৫ মেগাওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন কম্বাইন্ড সাইকেল পাওয়ার প্লান্টের উৎপাদন শুরু হয়।

এর আগে বুধবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে গ্রিড লাইনে ত্রুটির কারণে বিকট শব্দে আশুগঞ্জ তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের বড় তিনটি ইউনিটের উৎপাদন বন্ধ হয়ে যায়। তিনটি ইউনিট বন্ধ হয়ে যাওয়ায় জাতীয় গ্রিডে পাঁচশ ২৫ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ হ্রাস পায়। এসময় ব্রাহ্মণবাড়িয়া, কিশোরগঞ্জ ও নরসিংদীসহ কয়েকটি জেলার বিদ্যুৎ সরবরাহ তাৎক্ষণিকভাবে বন্ধ হয়ে যায়।

আশুগঞ্জ তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের প্রধান প্রকৌশলী মো. শাহআলম খান জানান, রাতে প্রচণ্ড বৃষ্টির সঙ্গে বজ্রপাত হচ্ছিল। এসময় হঠাৎ করে জাতীয় গ্রিড লাইনে ত্রুটি দেখা দিলে বিকট শব্দে তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের ১৩০ মেগাওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন ইউনিট-৩, ১৫০ মেগাওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন ইউনিট-৪ ও ২২৫ মেগাওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন কম্বাইন্ড সাইকেল পাওয়ার প্লান্টের উৎপাদন তাৎক্ষণিকভাবে বন্ধ হয়ে যায়। বিদ্যুৎকেন্দ্রের নিজস্ব প্রকৌশলীরা মেরামতের কাজ শুরু করে বন্ধ হওয়া সব ইউনিট সচল করলেও জাতীয় গ্রিডে চাহিদা না থাকায় ১৩০ মেগাওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন ইউনিট-৩ এর উৎপাদন আপাতত বন্ধ রয়েছে। তবে চাহিদার সঙ্গে সঙ্গে ইউনিট-৩ এর উৎপাদন শুরু হবে।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় ইউপি চেয়ারম্যান ও ছাত্রদল নেতা নিহত 

ব্রাহ্মণবাড়িয়া, ৫ এপ্রিল : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ উপজেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় ইউপি চেয়ারম্যান ও ছাত্রদল নেতা নিহত হয়েছেন। বুধবার ভোর রাতে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের বেড়তলায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হচ্ছেন-নাসিরনগর উপজেলার ২নং ভলাকুট ইউপি চেয়ারম্যান বাকী বিল্লহ জুয়েল ও জেলা ছাএদলের যুগ্ম সম্পাদক রনি ভূইয়া।

সরাইল খাটিঁহাতা হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হুমায়ূন কবীর জানান, মঙ্গলবার রাতে মহাসড়কে আশুগঞ্জের বেড়তলা শান্তিনগর নামক স্থানে একটি মালবাহী ট্রাক তাদের পিছনের দিক থেকে ধাক্কা দিলে তারা গুরুতর আঘাতপ্রাপ্ত হন।

তাদের ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে পাঠানো হলে কর্তব্যরত ডাক্তার রনি ভূইয়াকে মৃত ঘোষণা করে।  আহত বাকী বিল্লাহ জুয়েলকে আশংকাজনক অবস্থায় উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় প্রেরণ করা হলে নরসিংদী যাওয়ার পর তিনি মারা যান। পুলিশ ট্রাকটি আটক করতে পারেনি।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

বি.বাড়িয়ায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ কালা জহির নিহত 

ব্রাহ্মণবাড়িয়া, ১৮ মার্চ : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলায় পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ জহুরুল ইসলাম সরকার ওরফে কালা জহির (৩৫) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন।

শনিবার ভোর ৪টার দিকে উপজেলার তৈয়দাবাদ এলাকার হাজীপুর গ্রামে এ বন্দুকযুদ্ধ হয়।

পুলিশের দাবি, সহযোগীদের গুলিতেই জহির নিহত হয়েছেন। তার নামে আইনমন্ত্রীর বাড়িতে ডাকাতিসহ ৬টি মামলা রয়েছে।

নিহত জহির উপজেলার কামালপুরের বসুমিয়া সরকারের ছেলে। এ ঘটনায় পুলিশের তিন সদস্য আহত হয়েছেন বলেও জানানো হয়েছে।

কসবা থানার ওসি মোহাম্মদ মহিউদ্দিন জানান, গতকাল শুক্রবার সকালে ওয়ারেন্টভুক্ত আসামি জহিরকে গ্রেফতার করে পুলিশ। তার দেয়া তথ্যে শনিবার ভোরে ওই এলাকায় অভিযানে যায় পুলিশ।

এ সময় হাজীপুর গ্রামের মেম্বারের বাড়ির সামনে আগে থেকে ওঁৎ পেতে থাকা জহিরের সহযোগিরা পুলিশের ওপর হামলা চালায়। পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়।

এ সময় বেশ কিছুক্ষণ উভয়পক্ষের মধ্যে বন্দুকযুদ্ধ হয়। এক পর্যায়ে পালাতে গিয়ে সহযোগীদের গুলিতে ঘটনাস্থলেই জহিরের মৃত্যু হয়।

ঘটনাস্থল থেকে একটি পাইপগান, চার রাউন্ড গুলি, ১৬টি ককটেলসহ দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে।

এ ঘটনায় এসআই মুনিরসহ তিন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। তারা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিয়েছেন বলে জানান ওসি।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বন্দুকযুদ্ধে ‘জঙ্গি’ মামা হুজুর নিহত 

ব্রাহ্মণবাড়িয়া, ১৬ মার্চ : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবায় পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে তাজুল ইসলাম মাহমুদ ওরফে মামা হুজুর নামে (৪৫) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। পুলিশের দাবি, মামা হুজুর জঙ্গি সংগঠনের সদস্য।

এ ঘটনায় কসবা থানা পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) বেলাল হোসেনসহ পাঁচ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। পু্লিশ ঘটনাস্থল থেকে ৩৫টি ককটেল, পাঁচটি পাইপগান, নয় রাউন্ড কার্তুজ ও পাঁচটি চাপাতি উদ্ধার করেছে।

বুধবার দিবগত রাত দেড়টার দিকে উপজেলার কুটি এলাকায় এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে বলে জানান কসবা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মহিউদ্দিন আহাম্মেদ।

নিহত মামা হুজুরের বাড়ি হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলার কুরশি ইউনিয়নের সাদুল্লাপুর গ্রামে।

ওসি মো. মহিউদ্দিন আহাম্মেদ জানান, নিহত মামা হুজুর জঙ্গি সংগঠনের সদস্য। এ বছরের ১৭ ফেব্রুয়ারি দিনগত রাতে উপজেলার কায়েমপুর ইউনিয়নের জগন্নাথপুর গ্রামের কবিরাজ ফরিদ মিয়া হত্যা মামলার অন্যতম অাসামি। এ মামলায় গ্রেফতার হওয়া অারেক অাসামির ১৬৪ ধারার জবানবন্দিতে এ হত্যার ঘটনায় মামা হুজুরের সংশ্লিষ্টতার বিষয়টি উঠে অাসে।

তিনি আরও জানান, রাতে নাশকতার খবরে পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে হাজির হলে মামা হুজুরের লোকজন পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ও ককটেলের বিস্ফোরণ ঘটায়। আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি ছুড়লে মামা হুজুরের লোকজন পালিয়ে যান। পরে ঘটনাস্থলে মামা হুজুরের গুলিবিদ্ধ মরদেহ পাওয়া যায়।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

আখাউড়া স্থলবন্দরে আমদানি-রপ্তানি বন্ধ 

37

ব্রাহ্মণবাড়িয়া, ১৩ মার্চ : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া স্থলবন্দর দিয়ে আজ সোমবার সব ধরনের পণ্য আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রম বন্ধ থাকবে।

দোলপূর্ণিমা ও হোলি উৎসবের কারণে ভারতীয় ব্যবসায়ীরা এ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। তবে আমদানি-রপ্তানি বন্ধ থাকলেও আখাউড়া-আগরতলা ইন্টিগ্রেটেড চেকপোস্ট (আইসিপি) দিয়ে দুই দেশের পাসপোর্টধারী যাত্রী পারাপার স্বাভাবিক থাকবে বলে জানিয়েছে ইমিগ্রেশন কর্তৃপক্ষ।

আখাউড়া স্থলবন্দরের আমদানি-রপ্তানিকারক অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মনির হোসেন বাবুল  জানান, দোলপূর্ণিমা ও হোলি উৎসবের কারণে আজ শ্রমিকরা পণ্য পরিবহন করতে পারবেন না। এ জন্য আজ পণ্য আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রম বন্ধ থাকবে। তবে আগামীকাল  মঙ্গলবার সকালে যথারীতি সব ধরনের পণ্য আমদানি-রপ্তানি শুরু হবে।

প্রতিদিন আখাউড়া স্থলবন্দর দিয়ে ভারতের সেভেন সিস্টার খ্যাত সাতটি অঙ্গরাজ্যে মাছ, পাথর, প্লাস্টিক, সিমেন্টসহ অর্ধশতাধিক পণ্য রপ্তানি করা হয়।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

কসবায় পল্লী চিকিৎসককে গলা কেটে হত্যা 

ব্রাক্ষণবাড়িয়া, ১৮ ফেব্রুয়ারি : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলায় ফরিদ মিয়া (৪৫) নামের এক পল্লী চিকিৎসককে গলা কেটে হত্যা করা হয়েছে। শনিবার সকাল ৯টার দিকে নিজ বাড়ি থেকে তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

নিহত ফরিদ মিয়া কসবা উপজেলার কাইয়ূমপুর ইউনিয়নের জগন্নাথপুর গ্রামের মৃত আবদুর রাজ্জাকের ছেলে। তিনি পেশায় একজন পল্লী চিকিৎসক ছিলেন বলে জানিয়েছে পুলিশ।

কসবা থানার ওসি মো. মহিউদ্দিন জানান, শনিবার সকালে এলাকার লোকজনের কাছ থেকে খবর পেয়ে পুলিশ নিহতের নিজ বাড়ির বারান্দা থেকে তার গলা কাটা মরদেহ উদ্ধার করেছে। ফরিদ মিয়াকে শুক্রবার মধ্যরাতের কোন একসময় দুর্বৃত্তরা ধারালো অস্ত্র দিয়ে গলা কেটে হত্যা করেছে।

ওসি আরো জানান, ঠিক কি কারণে এ হত্যাকাণ্ড ঘটেছে সেটি এখনো স্পষ্ট করে জানা যায়নি। তদন্ত চলছে। নিহতের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানোর হয়েছে।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

ইউপি চেয়ারম্যান আতিকুর সাময়িক বরখাস্ত 

ঢাকা, ২৩ জানুয়ারি : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরে হিন্দু সম্প্রদায়ের মন্দির ও বাড়িঘরে হামলার ঘটনায় গ্রেপ্তার অন্যতম প্রধান সন্দেহভাজন হরিপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান দেওয়ান আতিকুর রহমান আঁখিকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের উপসচিব মো. মাহাবুবুর রহমান স্বাক্ষরিত এক আদেশে এ সিদ্ধান্তের কথা জানানো হয়।

১৫ জানুয়ারি উপসচিব স্বাক্ষরিত এই দাপ্তরিক আদেশটি আজ সোমবার নাসিরনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে পৌঁছায়।

নাসিরনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. লিয়াকত আলী বলেন, ‘সোমবার দুপুরে চিঠিটি আমাদের হাতে এসেছে। চিঠির পরিপ্রেক্ষিতে ইউপি সদস্য শেখ দ্বীন ইসলামকে প্রথম প্যানেল চেয়ারম্যান করা হয়েছে। এখন থেকে তিনি ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করবেন। তিনি ছাড়াও অন্য প্যানেল চেয়ারম্যানরা হলেন ইউপি সদস্য প্রফুল্লা দাশ ও শাহানা বেগম।

৫ জানুয়ারি আতিকুরকে ঢাকার ভাটারা এলাকা থেকে আটক করে ব্রাহ্মণবাড়িয়া পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়। নাসিরনগর গৌরমন্দিরে হামলা, ভাঙচুর ও লুটপাটের ঘটনায় করা মামলায় তাঁকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়। এ ছাড়া উপজেলার হরিপুর ইউনিয়নের রসরাজ দাসের বড় ভাই দয়াময় দাসের করা মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে আতিকুরকে দুই দিনের রিমান্ডেও নেওয়া হয়।

রসরাজের ভাইয়ের করা মামলায় এক যুবক গ্রেপ্তার

উপজেলার হরিপুর ইউপির হরিণবেড় গ্রামে রসরাজ দাসের বাড়িঘরে হামলা-ভাঙচুরে জড়িত সন্দেহে জালাল মিয়া (২৬) নামের এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পু্লিশ। আজ বিকেলে উপজেলার হরিপুর ইউনিয়নের শংকরাদহ গ্রাম থেকে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়। জালাল শংকরাদহ গ্রামের ছবুর মিয়ার ছেলে।

নাসিরনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আবু জাফর জানান, বিকেলে পুলিশ শংকরাদহ গ্রাম থেকে জালালকে গ্রেপ্তার করে। হরিপুর ইউনিয়নের হরিণবেড় গ্রামে রসরাজ দাসের বাড়িঘরে হামলা-ভাঙচুরের সঙ্গে জালাল জড়িত বলে প্রমাণ রয়েছে।

গত ৩০ অক্টোবর রাতে নাসিরনগরের রসরাজ দাস নামের এক ব্যক্তির ফেসবুক থেকে ধর্মীয় অবমাননাকর পোস্ট নিয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগর উপজেলা সদরে হিন্দু বসতি ও মন্দিরে হামলার ঘটনা ঘটে। নাসিরনগর সদর থেকে ১৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-পূর্বে হরিণবেড়ে রসরাজদের বাড়িও ভাঙচুর করা হয়। এরপর আরও চার দফায় হিন্দুদের বাড়িঘরে অগ্নিসংযোগ করা হয়। এসব ঘটনায় আটটি মামলা হয়েছে। এসব মামলায় আতিকুরসহ ১০৫ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

নাসিরনগরে হামলার ‘ইন্ধনদাতা’ আঁখি গ্রেফতার 

ঢাকা, ৫ জানুয়ারি : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরে হিন্দুদের বাড়িতে হামলা, মন্দির ভাঙচুর, লুটপাট ও অগ্নিসংযোগের ঘটনার ‘ইন্ধনদাতা’ হরিপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আতিকুর রহমান আঁখিকে গ্রেফতার করেছে ডিবি পুলিশ।

বৃহস্পতিবার বিকেলে ঢাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয় বলে জানিয়েছেন নাসিরনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) শওকত হোসেন।

তিনি জানান, ব্রাহ্মণবাড়িয়া ডিবি পুলিশ ঢাকার পুলিশের সহযোগিতায় বৃহস্পতিবার বিকাল ৩টার দিকে ঢাকার ভাটারা এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করে।

ফেসবুকে ইসলাম অবমাননার অভিযোগ তুলে ৩০ অক্টোবর দুপুর থেকে বিকাল পর্যন্ত নাসিরনগরে ১৫টি মন্দিরসহ হিন্দুদের শতাধিক বাড়িঘরে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটে।

ওই ঘটনার পাঁচ দিন পর গত ৩ নভেম্বর গভীর রাতে কয়েকটি হিন্দু বাড়িঘরে অগ্নিসংযোগ করা হয়। এছাড়া গত ১৩ নভেম্বর ভোরেও ফের একটি বাড়িতে আগুন দেয় দুর্বৃত্তরা।

এরপর নাসিরনগরে হামলায় জড়িতদের ধরিয়ে দিলে জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে এক লাখ টাকা পুরস্কার ঘোষণা করা হয়।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর