২৪ জুন ২০১৭
বিকাল ৪:২০, শনিবার

সীমান্তে নিহত ২ কিশোরের লাশ ফেরত দিয়েছে বিএসএফ

সীমান্তে নিহত ২ কিশোরের লাশ ফেরত দিয়েছে বিএসএফ 

565

ঝিনাইদহ, ২২ জুন : ঝিনাইদহের মহেশপুর সীমান্তের ওপারে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফ এর গুলিতে নিহত দুই কিশোরের লাশ ফেরত দেওয়া হয়েছে। বুধবার রাতে সোহেল (১৬) ও হারুনের (১৫) লাশ বিজিবির কাছে হস্তান্তর করে বিএসএফ।

৫৮ বিজিবির পরিচালক লে. কর্নেল জিল্লুর রহমান জানান, মঙ্গলবার ভোররাতে মহেশপুরের খোসালপুর সীমান্ত দিয়ে অবৈধভাবে ভারতে গরু আনতে যায় একদল বাংলাদেশি। ফেরার পথে সীমান্তের কাছাকাছি পৌঁছালে ভারতের কুমারী ক্যাম্পের বিএসএফ সদস্যরা তাদেরকে লক্ষ্য করে গুলি ছোঁড়ে। এতে গুলিবিদ্ধ হয়ে সোহেল তরফদার ও হারুন ঘটনাস্থলেই নিহত হয়। পরে তাদের লাশ নিয়ে যায় কুমারী ক্যাম্পের বিএসএফ সদস্যরা। পরে তাদের লাশ কৃষ্ণপুর হাসপাতাল মর্গে ময়নাতদন্ত করা হয়। এ ঘটনায় মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ১ম দফায় ব্যাটালিয়ন পর্যায়ে একটি পতাকা বৈঠক হয়।

মঙ্গলবার পতাকা বৈঠকের পরও লাশ ফেরত দেয়নি। পরবর্তীতে বুধবার সন্ধ্যা ৭টা ১৫ মিনিটে বিজিবির কাছে লাশ হস্তান্তর করে। নিহত সোহেল মহেশপুর উপজেলার খোশালপুর গ্রামের সহিদুল ইসলাম তরফদারের ছেলে ও হারুন একই উপজেলার শ্যমকুড় গ্রামের কওছার আলীর ছেলে।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

কালীগঞ্জে শিশু অপহরণের সময় আটক ১ 

666

ঝিনাইদহ, ২১ জুন : ঝিনাইদহের কালীগঞ্জের চাদপাড়া গ্রামে সজনী নামের ৫ বছরের এক শিশুকে অপহরণ করার সময় শফিউদ্দিন (৪৮) নামের একজনকে আটক করেছে পুলিশ।

বুধবার বেলা ১২টার দিকে এ ঘটনা ঘটে বলে জানান কালীগঞ্জ থানার ওসি আমিনুল ইসলাম।

আটক শফিউদ্দিন কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার মৃত এমদাদ মন্ডলের ছেলে এবং আর উদ্ধারকৃত সজনী কালীগঞ্জ উপজেলার চাদপাড়া গ্রামের জাহাঙ্গীর হোসেনের মেয়ে।

ওসি আমিনুল ইসলাম জানান, সজনী তার দাদির সাথে বাড়ির পাশের মাঠে গিয়েছিল। সজনীর দাদি পাটের পাতা কাটতে জমিতে ঢুকলে শফিউদ্দিন তাকে খেজুর খাওয়ানোর লোভ দেখিয়ে অপহরণের চেষ্টা করে। এসময় সে চিৎকার করলে তার দাদি সজনীকে উদ্ধার করার জন্য অপহরণকারীকে জাপটে ধরে। পরে মাঠের কৃষকরা এসে অপহরণকারীকে উত্তম মাধ্যম দিয়ে পুলিশ সোপর্দ করে। তিনি জানান, এ ঘটনায় থানায় একটি মামলার প্রস্তুতি চলছে।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

ঝিনাইদহে বিএসএফের গুলিতে ২ বাংলাদেশি নিহত 

FILES-INDIA-BANGLADESH-POLITICS

ঝিনাইদহ, ২০ জুন : ঝিনাইদহের মহেশপুরের খোশালপুর সীমান্তে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফের গুলিতে সোহেল ও হারুন নামে দুই বাংলাদেশি নিহত হয়েছেন।

আজ মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে খোশালপুর সীমান্তে এ ঘটনা ঘটৈ।

ভারতের কুমারী ক্যাম্পের বিএসএফ সদস্যরা গুলি করলে তারা ঘটনাস্থলেই মারা যান।

নিহত সোহেল (৩২) খোশালপুর গ্রামের শহীদুল ইসলামের ছেলে ও হারুন (৩০) শ্যামপুর গ্রামের কাউসার আলীর ছেলে।

দুইজন নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন স্থানীয় নেপা ইউনিয়ন চেয়ারম্যান শামছুল হক মৃধা। তিনি জানান, বিএসএফ সদস্যরা নিহতদের লাশ ভারতের অভ্যন্তরে নিয়ে যায়।

এ বিষয়ে খোশালপুর বিজিবি ক্যাম্পের কমান্ডার আবু তাহের জানান, বিএসএফের গুলিতে দুই বাংলাদেশি নিহতের খবর স্থানীয়রা জানিয়েছে। বিষয়টি আমরা খতিয়ে দেখছি।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

আম চাষীরা অধিক লাভবান হওয়ার স্বপ্ন দেখছে 

00

জাহিদুর রহমান তারিক, ঝিনাইদহ, ১৫ জুন : ঝিনাইদহের হরিণাকুন্ডু উপজেলা খাদ্যে উদ্বৃত উপজেলার খেতাব অর্জনের পর এবার ফলের রাজা আম বিদেশে রপ্তানি করে বৈদেশিক মুদ্রা উপার্জনের এক সোনালী ইতিহাস গড়তে যাচ্ছে। কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগের সহায়তায় এ বছর হরিণাকুন্ডু উপজেলার ব্যাগিং পদ্ধতিতে আম উৎপাদনে আগ্রহী চাষীদের তালিকা তৈরী করে তাদেরকে হাতে কলমে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। পরে বিদেশে আম রপ্তানিকারকদের সাথে চাষীদের চুক্তিবদ্ধ করতে সহায়তা করা হয়। চুক্তি মোতাবেক সুন্দর, আকর্ষণীয়, লাবন্যময় স্বাস্থ্যসম্মত কীটনাশক মুক্ত আম উৎপাদন নিশ্চিত করতে নিবিড় পরিচর্যা প্রদান অব্যাহত রাখা হয়।

ইতিমধ্যে চায়না থেকে মান সম্মত ব্যাগ প্রাপ্তি এবং পরানোর কৌশল চাষীদের জন্য সহজ লোভ্য করা হয়। এসকল স্তর শেষে আম পাকার মৌসূমের শুরুতে রপ্তানিকারদের সাথে বাগানে বসে চাষীরা আমের মূল্য নির্ধারণ করে। এবার তারা মৌসূমে প্রথমে প্রাপ্ত হিম সাগর আম বাগান থেকে বিক্রয় মূল্য পাচ্ছে ৪০ টাকা এবং ব্যাগিং করা একই আম বিক্রি করছে ৮৫ টাকা কেজি। সাধারন আমের চেয়ে ব্যাগিং করা আম প্রতিটি ব্যাগ পরানোসহ আনুসঙ্গিক খাতে ১০ টাকা ব্যয় ধরলেও প্রতি কেজিতে অতিরিক্ত ৩৫ টাকা লভ্যাংশ ঘরে তুলছে আম চাষীগন।

ঝিনাইদহ জেলায় প্রথম বিদেশে আম রপ্তানি করে বৈদেশিক উপার্জন করছে হরিণাকুন্ডু উপজেলার মালিপাড়া গ্রামের চাষী শহিদুল ইসলাম বিপ্লব। তার মত আরো কয়েকজন চাষী এ বছর পরীক্ষা মূলক ভাবে ব্যাগিং পদ্ধতি অবলম্বলন করে আম চাষে লাভবান হওয়ার স্বপ্ন দেখছে। এসকল চাষীদের প্রাথমিক সাফল্য দেখে আগামী মৌসূমে অনেক সাধারণ আম বাগানের মালিক ব্যাগিং করে আম চাষের প্রত্যয় ব্যক্ত করছে। উপজেলার ভবানীপুর গ্রামের বিশিষ্ট আম চাষী বদর উদ্দীন মোল্লা তার ২একর বিশিষ্ট সমগ্র বাগানটি আগামী মৌসূমে ব্যাগিং পদ্ধতি অবলম্বন করার কথা জানান। পাশাপাশি অনেক পতিত জমির মালিকগন পড়ে থাকা জায়গায় আম বাগান করে নিজের ও দেশের ভাগ্য বদলাতে অবদান রাখবেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

মাঠের তরমুজ ফসল পরিদর্শন করলেন জেলা প্রশাসক 

55-2

জাহিদুর রহমান তারিক, ঝিনাইদহ, ১৪ জুন : মঙ্গলবার বিকাল ৩টায় ঝিনাইদহের মাধবপুর মাঠের তরমুজ ফসল পরিদর্শন করেছেন জেলা প্রশাসক জাকির হোসেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সরকারের উপ-পরিচালক আবু ইউসুফ মো: রেজাউর রহমান, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আছাদুজ্জামান, সদর উপজেলা কৃষি অফিসার ড.খাঁন মোঃ মনিরুজ্জামান, ইউপি চেয়ারম্যান নাসির উদ্দীন মালিথা,সফল কৃষক আলতাফ হোসেন, উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার মোঃ রোকনুজ্জামান,কৃষক নেতা রবিউল ইসলাম, গৌতম অধিকারী,উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধি, ইউনিয়নের সরকারী কর্মকর্তা, সুশীলসমাজ, কৃষকসহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন। পরিদর্শন শেষে মাধবপুর মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত হয়েছে। বিভিন্ন কৃষক তরমুজ প্রদর্শন করেন। ২০১৭-১৮/ খরিদ-১ মৌসুমে কৃষি প্রনোদনা কর্মসূচীর আওতায় তরমুজের মাছি পোকা দমনে সেক্্র থ্রেমন প্রদর্শনীর মাঠ দিবস।

কৃষি সম্প্রসারণ অফিসের আয়োজনে কৃষি প্রনোদনা আওতায় তরমুজ ফসলে ফ্রেমন ট্রাফ এর উপর মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত হয়। এ ইউলক্ষে এক আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা কৃষি বিভাগের পরামর্শে মাধবপুর মাঠে ১৫/২০ হেক্টর গ্রীস্মকালীন তরমুজ চাষ হচ্ছে। সদর উপজেলা কৃষি অফিসার ড.খাঁন মোঃ মনিরুজ্জামান জানান,স্বাস্থ্য সম্মত ও নিরাপদ তরমুজ চাষ করে গান্নার কৃষককুল খুবই লাভবান হচ্ছেন।বিজ্ঞান সম্মত চাষ পদ্ধতিতে গান্নার কৃষকগন  তরমুজ চাষে ঝুকে পড়েছেন।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

বিশ্ব শিশু শ্রম উপলক্ষে র‌্যালী, মানবন্ধন ও আলোচনা সভা 

3

জাহিদুর রহমান তারিক, ঝিনাইদহ, ১৩ জুন : ঝিনাইদহের বিশ্ব শিশু শ্রম প্রতিরোধ দিবস পালিত হয়েছে। কালীগঞ্জের স্থানীয় এনজিও সোনার বাংলা ফাউন্ডেশন সোমবার সকালে দিবসটি উপলক্ষে র‌্যালী, মানবন্ধন ও আলোচনা সভা করে। সোনার বাংলা ফাউন্ডেশনের স্টপ ওভার হোম থেকে এক র‌্যালী বের করে শহর প্রদক্ষিণ করে। র‌্যালী শেষে মেইন বাসস্ট্যান্ডে আধাঘন্টা ব্যাপী মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়।

মানববন্ধন শেষে সোনার বাংলা ট্রেনিং সেন্টারে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে সংগঠনের নির্বাহী পরিচালক শিবুপদ বিশ্বাসের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা খন্দকার শরিফা আক্তার, উপজেলা পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা আবু বিল্লাল হোসেন, সোনার বাংলা ফাউন্ডেশনের ভিজিডি প্রকল্পের সমন্বয়কারী কুদরাত-ই-খুদা, সুপার ভাইজার আসাদুজ্জামান পাটোয়ারি, কর্মজীবী শিশু বৃষ্টি প্রমুখ।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

বেগবতি নদীতে বাঁশের সেতু, ভোগান্তিতে এলাকাবাসী 

জাহিদুর রহমান তারিক, ঝিনাইদহ, ১১ জুন : ঝিনাইদহ রাজবংশের স্মৃতি বিলুপ্তি হলেও শেষ রাজা প্রমূথ ভূষন দেবরায়ের স্মৃতি বিজড়িত অনেক স্মৃতি সংরক্ষণ করা না হলেও শ্রী শ্রী সিদ্ধেশ্বরী মন্দিরের প্রায়ত সাঃ সম্পাদক অতুল অধিকারীর সাময়িক সংস্কারের ফলে এখনও মাথা উঁচু করে দাড়িয়ে আছে করেকটি মন্দির। সোনতন ধর্মালম্বী মানুষের কাছে তীর্থস্থান হিসাবে এই শ্রী শ্রী সিদ্ধেশ্বরী মায়ের বাড়ি মন্দিরটি বিশেষ ভাবে পরিচিতি লাভ করলেও  মূল ফটকের সামনের রাস্তাটি ইট, বালি, পীচের সমন্ময়ে জরাজীর্ণ অবস্থায় থাকলেও মন্দিরের পিছনের দিকটা দিয়ে ঝুঁকিপূর্ণ ভাবে চলাচল করতে হয় দূর দূরান্ত থেকে আগত মন্দিরের দর্শনার্থী ও এলাকার কর্মজীবি জনসাধারনকে।

ঝিনাইদহ সদর থানা এবং কালীগঞ্জ থানার মধ্যকার সংযোগ স্থানটি বেগবতি নদীর কারনে বিচ্ছিন্ন হলেও বাঁশের সেতুটি সংযোগকে স্থাপন করতে সক্ষম হয়েছে। ফলে দুই উপজেলার মানুষের ভোগান্তিরও শেষ নেই এই বাঁশের সেতুকে ঘিরে। বাঁশের তৈরি সাকো বানিয়ে গ্রামবাসী যোগাযোগ ব্যবস্থা ঠিক রাখার চেষ্টা করলেও বছরের বেশির ভাগ সময় সেতু মেরামতের কাজে ব্যস্থ  রাখতে হয় নিজেদেরকে আর বর্ষা মৌসুমে তো কথায় নেই। বেগবতি নদীর উপর অবস্থিত বাঁশের এই সেতুটি দুই উপজেলার সীমান্তবর্তী হওয়ার কারনে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা সে ভাবে গুরুত্ব দেন না । সেতু কর্তপক্ষের সাথে কথা বললে তারা বিষয়টি দেখবেন বলে বার বার এড়িয়ে যান। জনগনের ধারনা জনপ্রতিনিধিদের ঠেলাঠেলি এবং প্রশাসনের গাফলতির কারনে সেতুটি নির্মান হচ্ছে না।

সেতুটির অভাবে এলাকার জীবনযাত্রার মান উন্নয়ন হচ্ছে না অপরদিকে বছরের পর বছর জনপ্রতিনিধি সহ সরকারী অফিসে অনেক ধর্ণা দেওয়া হলেও কোন ফল হচ্ছে না। অথচ ভোটের সময়ে বিভিন্ন জনপ্রতিনিধিরা সেতু করার জোর প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করলেও নির্বাচন শেষ হওয়ার পর তা স্বপ্ন হতে থাকে।  স্কুলগামী শিক্ষার্থীদের মাঝে মাঝে পড়তে হয় বিপদে  তার পর ও ঝূকিপূর্ণ ভাবে পার হতে হয়  ক্ষুদে শিক্ষার্থীদের। মন্দির কমিটির অর্থায়নে এবং বিভিন্ন মানুষের কাছ থেকে দানের টাকা দিয়ে প্রতিবছর মেরামত করা হয়ে থাকে বাঁশের সেতুটি।

স্থানীয় জনগনের সাথে কথা বললে তারা বলেন-এ স্থানটি সরকারী অফিস আদালত, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সহ রাজ বংশের ঐতির্য্যের কারনে পর্যটন কেন্দ্র হিসাবে বিশেষ পরিচিতি লাভ করেছে অথচ আজও আমরা কোন সেতুর ব্যবস্থা করতে পারলাম না। আর কত কাল, আমরা ডিজিটাল যুগে বাস করে আদিম যুগের সাকো পদ্ধতি অবলম্বন করব। ঝিনাইদহ সদরের থানার নলডাঙ্গা ইউ.পি চেয়ারম্যান কবির হোসেন এর সাথে মুঠো ফোনে আলাপ কালে তিনি বলেন-এম.পি মহোদয় সহ সেতু বিভাগের সাথে কথা বলেছি সবাই আমাকে আশ্বস্থ করেছে। এই স্থানটিতে সেতু নির্মিত হলে দুই থানার মানুষের স্বপ্ন সহ দূরদূরান্ত থেকে আগত মানুষের কষ্ট লাঘব হবে এমনটি প্রত্যাশা করে শান্তিকামী এলাকাবাসী।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

ঝিনাইদহে ৫ মাসে ২২ লাশ 

274

জাহিদুর রহমান তারিক, ঝিনাইদহ, ৫ জুন : ঝিনাইদহ জেলায় গত ৫ মাসে ২২ জনের লাশ উদ্ধার হয়েছে। এর মধ্যে ১৯ জন খুন হয়েছেন। মৃত্যুর সঠিক কারণ নির্নয়ে তিন জনের লাশ ময়না তদন্ত শেষে রিপোর্টের জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। জঙ্গী বিরোধী অভিযান ও বন্দুক যুদ্ধে নিহত হয়েছেন ৪ জন। পুলিশের রেকর্ড থেকে এ সব তথ্য জানা গেছে। বিভিন্ন থানা ও পত্রপত্রিকায় প্রকাশিত রিপোর্ট থেকে জানা গেছে, ২০১৭ সালে জানুয়ারী থেকে ৩১ মে পর্যন্ত ঝিনাইদহ সদর উপজেলায় ৭ জন, শৈলকুপায় ৫ জন, কালীগঞ্জে ৩ জন, হরিণাকুন্ডুতে ১ জন, মহেশপুরে ৩ জন ও কোটচাঁদপুরে ৩ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়।

এ সব হত্যাকাণ্ড ও লাশ উদ্ধারের বিষয়ে ঝিনাইদহ পুলিশের মুখপাত্র অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আজবাহার আলী শেখ জানান, সারা জেলার সার্বিক আইনশৃংখলা পরিস্থিতি খুবই ভাল। তবে যে সব হত্যাকান্ড ঘটছে তা সবই সামাজিক বিরোধ ও পুর্ব শত্রুতার কারণে। তিনি দাবী করেন, সব হত্যার আসামী গ্রেফতার ও আদালতে স্বীকারোক্তি মুলক জবানবন্দি রয়েছে। তিনি আরো বলেন জেলা থেকে মাদক, জঙ্গী ও পেশাদার অপরাধীদের বিরুদ্ধে নিয়মিত পুলিশ অভিযানের কারণে অপরাধ নিয়ন্ত্রনে রাখা সম্ভব হয়েছে।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

ঝিনাইদহে অস্ত্রসহ ৪ ডাকাত আটক 

3254

ঝিনাইদহ, ৩ জুন : ঝিনাইদহে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে অস্ত্রসহ চার ডাকাতকে আটক করেছেন র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব-৬) সদস্যরা। গোপন খবরের ভিত্তিতে শুক্রবার রাতে সদর উপজেলার মিয়াকুন্ডু গ্রামে অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়।

আজ শনিবার সকালে ঝিনাইদহ র‌্যাব ক্যাম্পের কমান্ডার মেজর মনির আহম্মেদ এ তথ্য জানান।

আটক চারজন হলেন- ঝিনাইদহ সদর উপজেলার দক্ষিণ শিকারপুর গ্রামে নরেন্দ্রনাথ শিকদারের ছেলে ডা. তিব্বত শিকদার (৪৫) একই গ্রামের ঠাকুর সরকারের ছেলে কুমোদ সরকার (২৬), কালিগঞ্জের নাটোপাড়া গ্রামের মকছেদ খানের ছেলে শুকুনুর রহমান (৩০) ও মাগুরা জেলার শালিখা উপজেলার থৈপাড়া গ্রামের বিমল বিশ্বাসসের ছেলে বিকাশ বিশ্বাস (৩৫)।

তাদের কাছ থেকে একটি রাইফেল, একটি দোনলা বন্দুক, একটি একনলা বন্দুক, একটি হাসুয়া ও নয় রাউন্ড গুলি জব্দ করা হয়। মেজর মনির আহম্মেদ জানান, গ্রেপ্তার চারজনকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে ঝিনাইদহ সদর থানার মাধ্যমে আদালতে পাঠানো হবে।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

ঝিনাইদহে নব্য জেএমবি’র ৫ সদস্য গ্রেফতার 

888

ঝিনাইদহ, ২ জুন : ঝিনাইদহে নব্য জেএমবি’র পাঁচ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব।

বৃহস্পতিবার দিনগত রাতে ঝিনাইদাহ শহর থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

র‌্যাবের মেজর মনির আহম্মেদ জানান, বৃহস্পতিবার দিনগত রাতে বড় ধরণের নাশকতার পরিকল্পনার সময় নব্য জেএমবি’র পাঁচ সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

গ্রেফতারকৃতদের শুক্রবার সকাল ১০টায় আদালতে পাঠানো হয়েছে বলে জানান তিনি।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ২ চরমপন্থী নিহত 

22

ঝিনাইদহ, ৩১ মে : ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর উপজেলায় র‍্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ সন্দেহভাজন দুই চরমপন্থী নিহত হয়েছেন।

মঙ্গলবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে উপজেলার কুশনা গ্রামে এই ঘটনা ঘটে।

নিহত দুই ব্যক্তি হলেন কোটচাঁদপুর উপজেলার বকশিপুর গ্রামের মাইদুল ইসলাম ওরফে রানা (৪৫) ও বহরমপুম গ্রামের আলিম উদ্দিন (৫৭)।

র‍্যাব ও পুলিশের ভাষ্য, মাইদুল ও আলিম চরমপন্থী পূর্ব বাংলা কমিউনিস্ট পার্টির সদস্য ছিলেন।

র‍্যাবের বরাত দিয়ে কোটচাঁদপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বিপ্লব কুমার সাহা বলেন, র‍্যাবের একটি দল টহল দিচ্ছিল। টহলের অংশ হিসেবে তারা ঘটনাস্থলে যায়। এ সময় র‍্যাবের গাড়ি লক্ষ্য করে গুলি ছোড়া হয়। র‍্যাবও পাল্টা গুলি করে। এতে ঘটনাস্থলে দুজন নিহত হন। পরে তাদের পরিচয় জানা যায়।

পুলিশ জানায়, ঘটনাস্থল থেকে দুটি বিদেশি বন্দুক, একটি পিস্তল, ১৫টি গুলি ও একটি ধারালো অস্ত্র উদ্ধার করার কথা জানিয়েছে র‍্যাব।

ওসি বিপ্লব কুমার সাহা বলেন, মাইদুল ও আলিমের বিরুদ্ধে একাধিক মামলা আছে। তাদের লাশ উদ্ধার করে থানায় আনা হয়েছে। লাশের ময়নাতদন্ত হবে।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

রাইস ট্রান্স প্লান্টার ব্যবহারে ঝুঁকছে কৃষক 

0

জাহিদুর রহমান তারিক, ঝিনাইদহ, ৩০ মে : তৃণমুল পর্যায়ের কৃষিতে দিন দিন বাড়ছে প্রযুক্তির ব্যবহার। যে কারণে অল্প খরচে স্বল্প সময়ে অধিক ফলন পাচ্ছে কৃষক। এরই ধারাবাহিকতায় কৃষি বিভাগের সহযোগিতায় ঝিনাইদহের শৈলকুপা উপজেলার কৃষকেরা ঝুঁকছে রাইস ট্রান্স প্লান্টার ব্যবহারে। তারা বাড়ির আঙ্গিনায় করছে ধানের বীজতলা তৈরীর কাজ। যার মাধ্যমে সময় ও খরচ দুই’ই কমেছে। কৃষি বিভাগ বলছে প্রযুক্তি ব্যবহারে সকল প্রকার সহযোগিতা করা হচ্ছে।

শৈলকুপা উপজেলার গোসাইডাঙ্গা গ্রামের কৃষক মিটুল জানান, কয়েক বছর আগেও তার ৫ বিঘা জমিতে ধানের বীজতলা দেওয়া ও ধান লাগাতে খরচ হতো কয়েক হাজার টাকা। এছাড়া নিজের দিন-রাত কঠোর পরিশ্রম তো রয়েছেই। গত ২ বছর হলো কৃষি বিভাগের সহযোগিতায় রাইস ট্রান্স প্লান্টার মেশিনের মাধ্যমে ধানের আবাদ শুরু করেন তিনি। নিজ বাড়ির উঠানে ৫ বিঘা জমির ধানের বীজতলা তৈরী করছেন। পরিচর্যা করছেন বাড়ির অন্যান্য সদস্যরা। এতে নিজের সময়ের সাশ্রয়ের সাথে সাথে খরচও হচ্ছে কম। সুবিধা পাওয়ায় তার দেখা দেখি ওই গ্রামের কয়েকজন কৃষক শুরু করেছে এই পদ্ধতিতে ধানের আবাদ।

এছাড়া এই পদ্ধতিতে ধান লাগানোর ফলে ফলন বৃদ্ধি পাচ্ছে তাই খুশি ওই এলাকার কৃষক। কৃষি বিভাগের সহযোগিতার মাধ্যমে এই এলাকায় দিন দিন বাড়ছে ধানের ফলন। সেজন্য কৃষকদের সকল প্রকার সহযোগিতা করা হচ্ছে বলে জানান সারুটিয়া ব্লকের উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা মসলেহ উদ্দিন তুহিন। শৈলকুপা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সঞ্জয় কুমার কুন্ডু জানান, শৈলকুপা উপজেলার সারুটিয়া ব্লকে বর্তমানে রাইস ট্রান্স প্লান্টার মেশিনের মাধ্যমে ধানের আবাদ করা হচ্ছে। কৃষক নিজ বাড়ির আঙ্গিনায় বা মাঠে ট্রে ও পলিথিন পদ্ধতিতে বীজতলা তৈরী করছে। ১৫ থেকে ২০ দিনের মধ্যে চারা লাগানোর উপযোগি হয়।

এক বিঘা জমিতে পুর্বে ৪ জন শ্রমিক লাগতো। কিন্তু বর্তমানে রাইস ট্রান্স প্লান্টার মেশিনের ব্যবহারের মাধ্যমে ৪০ থেকে ৫০ মিনিটের মধ্যেই ধান লাগাতে পারে মাত্র একজন শ্রমিক। যেখানে এক একর জমিতে চারা রোপণ করতে খরচ হয় ৪ হাজার টাকা, এ মেশিন ব্যবহারে প্রতি একরে প্রায় ২ হাজার ৫শ’ টাকা সাশ্রয় হবে। তাই পরিবেশ বান্ধব এ মেশিন ব্যবহারে কৃষকদের পরিশ্রম কম হবে এবং লাভ বেশি হবে। এ মেশিন সরকারের কাছ থেকে কৃষকরা ভর্তুকি মূল্যেও ক্রয় করতে পারবেন। ভর্তুকির মাধ্যমে রাইস ট্রান্স প্লান্টার মেশিন ব্যবহারে তৃণমুল পর্যায়ের কৃষকদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হলে ধান চাষে আরও একধাপ এগিয়ে যাবে বাংলাদেশ এমনটিই মনে করেন সচেতন মহল।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

বাল্য বিয়ে প্রতিরোধে বাইসাইকেল বিতরণ 

মোঃ জাহিদুর রহমানতারিক, ঝিনাইদহ, ২৬ মে : ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে উপজেলা নারী উন্নয়ণ ফোরামের উদ্যোগে নারী ও শিশু উন্নয়নে সচেতনতা ও উদ্বুদ্ধকরণ কর্মসূচির আওতায় উপজেলায় বাল্য বিবাহ প্রতিরোধে স্কুলের মেয়ে শিক্ষার্থীদের মাঝে বাইসাইকেল বিতরণ করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলা চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে বিভিন্ন বিদ্যালয়ের ১০জন মেয়েকে বাইসাইকেল দেয়া হয়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন ঝিনাইদহ ৪ আসনের এমপি আনোয়ারুল আজীম আনার, উপজেলা চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর সিদ্দিক ঠান্ডু, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মতিয়ার রহমান মতি, নারী  উন্নয়ন ফোরামের সভানেত্রী ও উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান শাহনাজ পারভীন, উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা খন্দকার শরিফা আক্তার, উপজেলা প্রকৌশলী হাফিজুর রহমান ও উপজেলা সমাজ সেবা কর্মকর্তা আইনাল হক প্রমুখ। একই অনুষ্ঠানে ৪ জনকে সেলাই মেশিন, বিভিন্ন ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে ৫০টি সোলার প্যানেল বিতরণ করা হয়।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

ভবন নির্মাণের শুভ উদ্বোধন করেন ডিআইজি দিদার আহম্মেদ 

মোঃ জাহিদুর রহমানতারিক, ঝিনাইদহ, ২৬ মে : ঝিনাইদহের শৈলকূপা উপজেলার কচুয়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ভবন নির্মাণ কাজের শুভ উদ্বোধন করা হয়েছে। খুলনা রেঞ্জ ডিআইজি দিদার আহম্মেদ পায়রা ও বেলুন উড়ানোর মধ্য দিয়ে ২৬শে মে শুক্রবার এই কেন্দ্রের উদ্বোধন করেন। এলাকার ডাঃ মোঃ শহিদুল ইসলামের দান করা ১০১শতক জমির উপর তিন কোটি টাকা ব্যয়ে গণপূর্ত বিভাগ এই ভবন তৈরি করেছেন। উদ্বোধন উপলক্ষে তদন্ত কেন্দ্রের মধ্যে সুধী সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

এতে সভাপতির বক্তব্য রাখেন ঝিনাইদহ পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান। প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন খুলনা রেঞ্জ ডিআইজি দিদার আহম্মেদ। সেসময় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন খুলনা রেঞ্জের এডিশনাল ডিআইজি হাবিবুর রহমান, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কনক কান্তি দাস,এডিএম (জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট) আসাদুজ্জামান, গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী আল-আমিন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আজবাহার আলী শেখ,জমিদাতা ডাঃ মোঃ শহিদুল ইসলাম,শৈলকূপা উপজেলা চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন সোনা শিকদার, জেলা গয়েন্দা পুলিশের ওসি দাউদ হোসেন, শৈলকুপা থানার ওসি তরিকুল ইসলাম, ও কাঁচেরকোল ইউপি চেয়ারম্যান সালাহ উদ্দিন মামুন জোয়ার্দ্দার প্রমূখ। এছাড়াও সুধী সমাবেশ এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপিস্থত ছিলেন।

এসময় প্রধান অতিথি বলেন এই তদন্ত কেন্দ্রটি আজ নির্মাণ করা হলো জনগণের সেবা দেওয়ার জন্য। আজ পুলিশ যে বেতন পায় সেটি জনগনের ট্যাক্সের টাকায়। তাই যারা আমাদের খেতে দেবে, ভালভাবে থাকতে দেবে তাদেরকেও ভাল রাখার দায়িত্ব পুলিশের। আজ আপনারা আমাদের সহযোগীতা করবেন আমরাও আপনাদের ভাল আইন শৃংঙ্খলা দেওয়ার চেষ্টা করবো।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

ইসলাম কখনও মানুষ হত্যার কথা বলে না : ডিআইজি দিদার আহম্মদ 

0

মোঃ জাহিদুর রহমানতারিক, ঝিনাইদহ, ২৬ মে : খুলনা রেঞ্জের ডিআইজি দিদার আহম্মদ বলেছেন, ইসলাম কখনও মানুষ হত্যার কথা বলে না। ইসলাম সন্ত্রাস, নাশকতা, মাদক ও জঙ্গিবাদে বিশ্বাসী নয়। তাই যারা ইসলামের অপব্যাখ্যা করে দেশে সন্ত্রাসবাদ প্রতিষ্ঠা করতে চাই, ঐক্যবদ্ধ হয়ে তাদেরকে প্রতিহত করতে হবে। মাদককে না বলতে হবে। নাশকতা ও জঙ্গিবাদকে নির্মূল করতে হবে।

শুক্রবার বিকেলে ঝিনাইদহ সদর উপজেলার পোড়াহাটি ইউনিয়নের মধুপুর মাধ্যমিক মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠে আয়োজিত সন্ত্রাস নাশকতা মাদক ও জঙ্গিবাদ বিরোধী সমাবেশে তিনি এ কথা বলেন। তিনি আরও বলেন, এদেশ শান্তির দেশ। এদেশে কেউ সন্ত্রাসী কার্যক্রমের সাথে জড়িত হয়ে দেশে অশান্তি সৃষ্টি করবেন না। বাংলাদেশ এখন মধ্যম আয়ের দেশ হিসাবে খ্যাত। দেশকে আরও সামনের দিকে একধাপ এগিয়ে নিতে সকলকে কাজ করতে হবে।

ডিআইজি বলেন, বর্তমান ও ভবিষ্যত প্রজন্মের সামনে একটি সুস্থ সমাজ তুলে ধরতে হলে মাদক, সন্ত্রাস, নির্মূল করতে হবে। এজন্য প্রয়োজন সকলের সহযোগীতা। জেলা কমিউনিটি পুলিশ আয়োজিত জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাস, নাশকতা  ও মাদক বিরোধী সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান। ঝিনাইদহের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আজবাহার আলী শেখ ও সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) হরেন্দ্রনাথ সরকার এর সার্বিক তত্বাবধানে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন খুলনা র‌্যাব-৬ এর অধিনায়ক খন্দকার রফিকুল ইসলাম, অতিরিক্ত রেঞ্জ ডিআইজি হাবিবুর রহমান, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কনক কান্তি দাস, ঝিনাইদহ র‌্যাব ক্যাম্পের কোম্পানী কমান্ডার মেজর মনির আহমেদ, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আছাদুজ্জামান, পৌরসভার মেয়র ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাইদুল করিম মিন্টু ও প্রেসক্লাব সভাপতি এম রায়হান।

এ সমাবেশে সদর উপজেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে শিক্ষক-শিক্ষার্থী, অভিবাবক, সুশীল সমাজের প্রতিনিধিসহ সর্বস্তরের মানুষ অংশ নেয়। অনুষ্ঠানের শেষে উপস্থিত ব্যক্তি বর্গ জঙ্গিবাদ, নাশকতা, মাদক ও  সন্ত্রাসকে না বলে অঙ্গিকার বদ্ধ হয়।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর