১৭ অক্টোবর ২০১৭
দুপুর ১২:১১, মঙ্গলবার

কুড়িগ্রাম-২ আসনে সম্ভাব্য এম,পি প্রার্থীদের চলছে নির্বাচনী তৎপরতা

কুড়িগ্রাম-২ আসনে সম্ভাব্য এম,পি প্রার্থীদের চলছে নির্বাচনী তৎপরতা 

0000

জাহাঙ্গীর আলম, কুড়িগ্রাম, ২ অক্টোবর : কুড়িগ্রাম সদর, রাজারহাট, ফুলবাড়ী উপজেলা ও কুড়িগ্রাম পৌরসভা নিয়ে গঠিত ২৬, কুড়িগ্রাম-২ সংসদীয় আসন। আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন ঘিরে দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী সম্ভাব্য এম.পি প্রার্থীরা রাজনৈতিক দলগুলোর, বিশেষ করে বড় দলগুলোতে নেতাদের তৎপরতা জোরেসোরে চলছে। জাতীয় সংসদের ২৬ নম্বর আসনটিতে বর্তমান সংসদ সদস্য জাতীয় পাটির কেন্দ্রীয় নেতা তাজুল ইসলাম চৌধুরী। তিনি সংসদে বিরোধী দলের চিফ হুইপ। দলের নেতাকর্মীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, আগামী নির্বাচনে তাজুল ইসলাম দলীয় মনোনয়ন পাওয়ার ক্ষেত্রে শক্ত দাবিদার হলেও নানা কারণে অন্য কাউকে প্রার্থী করা যায় কি না, এমন ভাবনাও রয়েছে। অন্যদিকে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পাওয়ার জন্য পুরনো-নতুন মিলিয়ে বেশ কয়েকজন চেষ্টা করছেন বলে জানা গেছে। তবে দলের নেতাকর্মীরা বলছে, দলের প্রার্থী মনোনয়ন পাওয়ার বিষয়ে তারা সংশয়ে আছে। কেননা জোটগত নির্বাচন হলে এবারও হয়তো জাতীয় পার্টিকে আসনটি ছেড়ে দিতে হতে পারে। বিএনপির প্রার্থী হিসেবে দলের জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবীর রিজভীর নাম সবার আগে উচ্চারিত হচ্ছে। তিনি এখানে নির্বাচন না করলে স্থানীয় নেতার মধ্যে কেউ মনোনয়ন পাবেন বলে আলোচনা রয়েছে। জাতীয় পার্টি কুড়িগ্রাম-২ আসনের বর্তমান সংসদ সদস্য তাজুল ইসলাম চৌধুরী ১৯৭৯ সাল থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত টানা পাঁচবার নির্বাচিত হন। জিয়া ও এরশাদ আমলে তিনি মন্ত্রীও ছিলেন। বিগত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সময় তিনি ফেরদৌস আহমেদ কোরেশীর প্রগতিশীল গণতান্ত্রিক দলে (পিডিপি) যোগ দেন। পরে আবার জাতীয় পার্টিতে ফেরার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়ে বিএনপির টিকিট নিয়ে ২০০৮ সালে নির্বাচন করেন তিনি। কিন্তু জাতীয় পাটির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের কাছে হেরে যান তাজুল ইসলাম। পরে উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী মো. জাফর আলীর কাছেও শোচনীয়ভাবে হারেন তিনি। জাতীয় পার্টিতে ফিরে ২০১৪ সালে দলের টিকিটে নির্বাচন করে জয়লাভ করেন তাজুল ইসলাম। দলীয় সূত্রে জানা গেছে, তাজুল ইসলাম চৌধুরী এমনিতেই নির্বাচনী এলাকায় কম আসেন। তার ওপর বেশ কয়েক মাস ধরে তিনি অসুস্থ। বন্যার সময় চিকিৎসার জন্য তিনি বিদেশে ছিলেন। অসুস্থতার কারণে তিনি আগামী নির্বাচনে প্রার্থী হতে পারবেন কি না, এ নিয়ে দলের ভেতর আলোচনা থাকলেও এখন পর্যন্ত তিনিই প্রার্থীতার শক্ত দাবিদার। যদিও তাঁর জনপ্রিয়তা আগের মতো নেই। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, কুড়িগ্রাম-২ নির্বাচনী এলাকায় জাতীয় পাটির সাংগঠনিক ভিত্তি খুবই দুর্বল। জেলা ও উপজেলায় পাল্টাপাল্টি কমিটির কারণে সাংগঠনিক কোনো তৎপরতা নেই। ভিড় নেই পাটির কার্যালয়েও। সংসদ সদস্য পছন্দের কয়েকজনকে দিয়ে তাঁর কর্মকান্ড চালাচ্ছেন বলে অভিযোগ নেতাকর্মীদের। অবশ্য আগামী নির্বাচনে অংশগ্রহণের সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন তাজুল ইসলাম চৌধুরী। তিনি বলেন, ‘জাতীয় সংসদের অধিবেশন থাকায় এলাকায় আসতে না পারলেও সব নেতাকর্মীর সঙ্গে যোগাযোগ রাখছি। ’ এদিকে তাজুল ইসলাম চৌধুরীর প্রাক্তন এপিএস মানু কুড়িগ্রাম জেলায় বিভিন্ন ব্যক্তিকে চাকুরী দেয়ার নাম করে টাকা পয়সা হাতিয়ে নেয়ায় এলাকায় এম.পি’র বিরুদ্ধে জাপা’র কিছু নেতা-কর্মীদের মধ্যে ক্ষোভ দেখা গেছে। অপর দিকে জাতীয় পাটির বিকল্প প্রার্থী হিসেবে বাংলাদেশ বিমানের সাবেক পরিচালক মেজর (অব.) আব্দুস সালামের নাম আলোচিত হচ্ছে। তিনি বিভিন্ন এলাকায় বিলবোর্ড লাগিয়ে জনগণকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। মাঝেমধ্যে নির্বাচনী এলাকায় গণসংযোগ করেন মেজর সালাম। এলাকার বিপুলসংখ্যক মানুষকে কাজের ব্যবস্থা করে দিয়ে পরিচিতি পেয়েছেন তিনি। মেজর সালাম জানিয়েছেন, নির্বাচন কমিশনের বিধিমালার কারণে সরকারি চাকরি থেকে অবসরের তিন বছর পূর্ণ না হওয়ায় বিগত নির্বাচনে মনোনয়ন পাননি। তবে তিনি মনোনয়ন পাওয়ার ব্যাপারে যথেষ্ট আশাবাদী। জাতীয় পাটির বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, তাজুল ইসলাম চৌধুরী মনোনয়ন না পেলে মেজর সালাম অথবা হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ নিজেই প্রার্থী হতে পারেন এ আসনে। এ ছাড়া দলের সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে কুড়িগ্রাম সদর উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান পনির উদ্দিন আহমদের নামও শোনা যাচ্ছে। জেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রার্থী হয়ে হেরে যাওয়া পনির উদ্দিন জাতীয় পাটির মনোনয়ন চাইতে পারেন বলে ধারণা করছে তাঁর অনুসারীরা। আওয়ামী লীগের সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে সাবেক সংসদ সদস্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ জাফর আলীর নাম আলোচনার শীর্ষে রয়েছে। এ ছাড়া সাবেক জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) আমসা-আ-আমিন, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আমিনুল ইসলাম মন্ডল, সহ-সভাপতি চাষী করিম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আমান উদ্দীন আহমেদ মঞ্জু, জেলা আইনজীবি সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট আব্রাহাম লিংকন, সাংগঠনিক সম্পাদক সাঈদ হাসান লোবান, চলচ্চিত্র পরিচালক আবু সুফিয়ান, জেলা যুবলীগের আহবায়ক আলহাজ্ব এডভোকেট রুহুল আমিন দুলাল ও ঢাকার পঙ্গু হাসপাতালের সাবেক পরিচালক ডা. হামিদুল হক খন্দকারের নাম শোনা যাচ্ছে। তাঁদের অনেকেই নিয়মিত গণসংযোগ করছেন এবং বিলবোর্ড ও পোস্টার লাগিয়ে পরিচিতি অর্জনের চেষ্টাও করছেন। বিগত নির্বাচনে দলের জনপ্রিয় নেতা মোঃ জাফর আলী মনোনয়ন পেলেও জাতীয় পাটির সঙ্গে ‘সমঝোতার’ কারণে আসনটি ওই দলের প্রার্থী তাজুল ইসলাম চৌধুরীকে ছেড়ে দিতে হয়। এবারও জাতীয় পার্টিকে আসনটি ছাড়তে হয় কি না, তা নিয়ে দলে জোর গুঞ্জন রয়েছে। নেতাকর্মীরা এবার নিজেদের প্রার্থী দেওয়ার দাবি করছে। আওয়ামী লীগ সূত্রে জানা গেছে, কুড়িগ্রামের চারটি সংসদীয় আসনে দলটির সংসদ সদস্য নেই। তাই দলের নেতাকর্মীদের মনোবল সংহত রাখতে জাফর আলীকে জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন দেওয়া হয়। বিপুল ভোটে নির্বাচিত হওয়ার পর বিভিন্ন এলাকায় ব্যাপক গণসংবর্ধনাও পেয়েছেন তিনি। একই সঙ্গে আগামী সংসদ নির্বাচনের প্রস্তুতিও সেরে নিয়েছেন তিনি। অবশ্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার কারণে সংসদ নির্বাচনে তাঁকে মনোনয়ন দেওয়া হবে কি না, তা নিয়ে সংশয় কাটেনি। তবে সাম্প্রতিক সময়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সফরকে ঘিরে জাফর আলীর কর্মতৎপরতা সবার নজর কেড়েছে। দলের বেশির ভাগ নেতাই প্রধানমন্ত্রী ও জেলার দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতাদের জানিয়েছেন, সদর আসনটি আবার জাতীয় পার্টিকে ছেড়ে দিলে দলের জন্য বড় ক্ষতির কারণ হবে। জাফর আলীকে মনোনয়ন দেওয়ার ব্যাপারে তাঁদের জোর সুপারিশও রয়েছে। জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জাফর আলী বলেন, ‘বিগত কয়েক বছরে জেলায় ব্যাপক উন্নয়ন কর্মকান্ড পরিচালিত হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুত অর্থনৈতিক অঞ্চল এবং বিশ্ববিদ্যালয়সহ বেশ কয়েকটি প্রকল্প বাস্তবায়নাধীন। ফলে ভোটাররা আওয়ামী লীগের প্রার্থীদের ভোট দেওয়ার জন্য প্রস্তুত। নেত্রী যাঁকে মনোনয়ন দেবেন দলের সবাই ঐক্যবদ্ধ হয়ে তাঁর জন্য কাজ করবো। ’ সংসদের বাইরে থাকা বিএনপির প্রার্থী হিসেবে দলের জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবীর রিজভীর নাম সবার আগে উচ্চারিত হচ্ছে। ২০০৬ সালে বাতিল ঘোষিত নির্বাচনে তিনি এ আসনে বিএনপির প্রার্থী ছিলেন। কুড়িগ্রাম শহরের চামড়াগোলা এলাকায় তাঁর বাড়ি রয়েছে। মাঝে একবার স্থানীয় নেতাদের বিরোধ মেটাতে ব্যর্থ হয়ে তিনি কুড়িগ্রামের ব্যাপারে নেতিবাচক মন্তব্য করেন। তবে বর্তমানে এ আসনে প্রার্থী হওয়ার ব্যাপারে তাঁর অবস্থান নমনীয় বলে জানিয়েছেন জেলার শীর্ষ নেতাদের কয়েকজন। এ ছাড়া এই আসনে প্রার্থী হিসেবে দলের জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক সাইফুর রহমান রানা, কুড়িগ্রাম পৌরসভার সাবেক মেয়র আবু বকর সিদ্দিক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সোহেল হোসনাইন কায়কোবাদ, জেলা বিএনপি’র সাবেক সহ-সভাপতি লুৎফর রহমান, সাবেক সাধারন সম্পাদক উমর ফারুখ এর নাম শোনা যাচ্ছে। জনপ্রিয়তা ও মাঠে কর্মতৎপরতার দিক থেকে এগিয়ে রয়েছেন সোহেল হোসনাইন কায়কোবাদ।

বিএনপি সূত্রে জানা গেছে, সোহেল হোসনাইন ও সাইফুর রহমান রানার পক্ষে নেতাকর্মীরা ভেতরে ভেতরে দ্বিধাবিভক্ত হয়ে যাচ্ছে। যদিও তাঁরা দুজন ঘনিষ্ঠ আত্মীয়। তাই এ নিয়ে টানাপড়েন চললেও মুখোমুখি কোনো আলোচনা হচ্ছে না। এ ব্যাপারে সাইফুর রহমান রানা বলেন, ‘দুটি আসনেই মনোনয়ন চাইব। কেন্দ্র বিবেচনা করবে। ’অন্যদিকে সোহেল হোসনাইন বলেন, ‘দীর্ঘদিন ধরে জনসংযোগ করে পাটির জনভিত্তি দাঁড় করিয়েছি। তৃণমূলের নেতাকর্মীরা চান আমি নির্বাচন করি। তাই মনোনয়ন চাইব। কেন্দ্র যা ভালো মনে করবে, তা-ই মেনে নেব। ’ নাশকতার মামলা বিচারাধীন থাকলেও হাল ছেড়ে দিতে নারাজ কুড়িগ্রাম পৌরসভার সাবেক মেয়র জেলা বিএনপির সহসভাপতি আবু বকর। অনেক সতীর্থ তাঁকে ছেড়ে গেলেও যোগ্যতার মাপকাঠি ও ত্যাগী নেতা হিসেবে দলের মনোনয়ন পাবেন বলে তিনি আশা করছেন। অন্যদিকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে কুড়িগ্রাম সদর উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইচ চেয়ারম্যান সমাজ সেবায় অতীশ দীপঙ্কর স্বর্ণ পদক প্রাপ্ত সমাজ সেবী মোঃ নুরনবী সরকার ও বাম দলগুলোর মধ্যে বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দলের (বাসদ) কেন্দ্রীয় নেতা জাহিদুল হক মিলু প্রার্থী হতে পারেন। এ আসনে ইসলামী আন্দোলনের উল্লেখযোগ্য ভোট রয়েছে। তবে এই দল থেকে কে প্রার্থী হবেন, তা এখনো ঠিক হয়নি। তবে মাওলানা ইয়াছিন আলীর নাম শোনা যাচ্ছে।

 

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

কুড়িগ্রামে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণ, থানায় মামলা 

%e0%a6%97

জাহাঙ্গীর আলম, কুড়িগ্রাম,  ২ অক্টোবর : কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে এক স্কুল ছাত্রীকে সারা রাত ধরে ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। ধর্ষিতা ওই ছাত্রী উপজেলার বালার হাট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেনী পড়ে। এ ব্যাপারে ধর্ষিতা নিজে বাদী হয়ে গত রোববার সন্ধ্যায় ধর্ষকদের  বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে ফুলবাড়ী থানায় একটি ধর্ষন মামলা দায়ের করেছে।

মামলার এজাহার ও এলাকাবাসী সুত্রে জানাগেছে, উপজেলার খলিশা কোটাল গ্রামের মনছুর আলীর কন্যার (১৫) সাথে অত্র উপজেলার নওদাবশ গ্রামের মোকছেদুল হকের পুত্র এ বি আল-আমিনের (১৯) সাথে দীর্ঘদিন থেকে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে তাদের মাঝে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এমতাবস্থায় মুন্নী আক্তারের বাবা শিমুলবাড়ী ইউনিয়নের বোর্ডের হাট এলাকায় কথিত এক ছেলের সঙ্গে বিয়ে দেন। বিয়ের কথা জানতে পেরে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে ফুসলীয়ে আল আমিন সুকৌশলে তার ভাতিজা রিপন মিয়া(১৮) সহ গত শনিবার রাত সাড়ে ৮ টায় উপজেলার খড়িবাড়ী বাজার সংলগ্ন টিন শেড “সুর সপ্তক সংগীত একাডেমী” ঘরে এনে সারা রাতধরে ধর্ষণ করে। পরে ওই ধর্ষিতা বিয়ের ব্যাপারে চাপ দিলে তাকে বড়ভিটা বাজারের পাঁকা রাস্তার মাথায় রেখে পালিয়ে যান তারা। সহযোগী রিপন মিয়া নওদাবশ গ্রামের জয়নাল আবেদীনের পুত্র।

এ ব্যাপারে ফুলবাড়ী থানার তদন্ত কারী এস আই মহুবর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ধর্ষিতাকে মেডিকেল পরীক্ষার জন্য কুড়িগ্রামের সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

ফুলবাড়ীতে সংঘর্ষে আহত-২, আটক-৩ 

9

জাহাঙ্গীর আলম কুড়িগ্রাম, ১ অক্টোবর : ফুলবাড়ীতে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে রাম দা দিয়ে কুপিয়ে এক জনকে মারাত্বক আহত ও ১ জনকে বেধরক মারপিট করার ঘটনা ঘটেছে । রবিবার দুপুর ১২টার দিকে ফুলবাড়ী সদর ইউনিয়নের আমতলা বাজারে ঘটনাটি ঘটে। এসময় উপস্থিত জনতা বাবা ছেলে সহ ৪ জনকে আটক করে রাখে।  পুলিশ এসে স্থানীয় জনতাকে শান্ত করে বাবাকে ছেড়ে দিয়ে ৩ ছেলেকে থানায় নিয়ে আসে। পরে শেষ বিকেলের দিকে ওই তিন আক্রমনকারীকে পুলিশ ছেড়ে দেয়।

এলাকাবাসীরা জানান, উপজেলার সদর ইউনিয়নের আমতলা বাজারের শাহ আলমের নিজ বাড়ীতে গাছের পাতা পাশের বাড়ীর মোবারক হোসেন মগার বোনের ছাগল খেয়ে ফেললে নিজেদের মধ্যে বাক-বিতন্ডতা হয়। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে আমতলা বাজারে শাহ আলম চলে আসলে স্থানীয় মোবারক হোসেন মগার ছেলে এরশাদ, টুকু ও বাবুল তারা চাইনিজ কুড়াল ও দা নিয়ে এলোপাতাড়ি ভাবে কোঁপ দেয়। এ সময় নৈমুদ্দিনের ছেলে আনোয়ার হোসেনের ঘাড়ে ও মাথায় কোঁপ দিলে মারাত্বক আহত করে। উপস্থিত এলাকাবাসীরা একত্রিত হয়ে আক্রমন কারীদের ধাওয়া দিয়ে ধরে একটি দোকানের ভিতর  আটকিয়ে রাখে। মুমুর্ষ অবস্থায় আনোয়ারকে স্থানীয় জনতা উদ্ধার করে প্রথমে ফুলবাড়ী হাসপাতাল পরে অবস্থার অবনতি হলে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করে। তার অবস্থা আশংকাজনক।

এ বিষয়ে ফুলবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ খন্দকার ফুয়াদ রুহানী বলেন, আক্রমনকারীদের বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ না পাওয়ায় তাদেরকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

 

 

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

ফুলবাড়ী সীমান্তে ২৬ কেজি গাঁজা উদ্ধার 

00

জাহাঙ্গীর আলম, কুড়িগ্রাম, ২৮ সেপ্টেম্বর : কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী সীমান্তে ২৬ কেজি গাঁজা উদ্ধার করেছে ফুলবাড়ী থানার পুলিশ। সোমবার (২৫ সেপ্টেম্বর) রাত সাড়ে ১০ টার দিকে উপজেলার  সীমান্ত ঘের্ষা নাওডাঙ্গা ইউনিয়নের পূর্বফুলমতির বকুলতলা এলাকায় পুলিশ মাদক চোরকারবারীকে ধাওয়া করলে ধাওয়া খেয়ে গাঁজা ফেলে পালিয়ে যায়। উদ্ধারকৃত গাঁজা থানায় নিয়ে আসা হয় যার আনুমানিক মূল্য ২ লক্ষ ৬০ হাজার টাকা।

এ প্রসঙ্গে ফুলবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খন্দকার ফুয়াদ রুহানী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

ধর্মীয় ভাবগম্ভীর্যের মধ্যে দিয়ে শুরু শারদীয় দূর্গাপূজা 

0000

জাহাঙ্গীর আলম, কুড়িগ্রাম, ২৮ সেপ্টেম্বর : কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে বিপুল উৎসাহ, উদ্দীপনা, আনন্দঘন পরিবেশে ও ধর্মীয় ভাবগম্ভীর্যে মধ্যে দিয়ে শুরু হল হিন্দু ধর্মালম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দূর্গাপূজা। যথাযথভাবে পালন করতে হিন্দু সম্প্রদায়ের মধ্যে চলছে মহা ধুমধাম। মণ্ডপে মণ্ডপে চলছে আনন্দের বারতা। মায়ের আগমনে পৃথিবী হতে হিংসা, পাপ, বিদ্ধেষ,ভয় মুছে যাবে। অশুভ শক্তির বিনাশ হবে। সুখ, শান্তি প্রতিষ্ঠা হবে এই জগৎ সংসারে । এই শুভ কামনায়  ২৬ সেপ্টম্বর সকালে ৯ ঘটিকায় উপজেলা কেন্দ্রীয় মন্দিরে ষষ্টী পূজার মাধ্যমে শুরু হয়ে পূজা চলবে  ৩০ সেপ্টম্বর পর্যন্ত । দেবী দূর্গার ত্রি-সন্ধ্যা পূজা, আরতী আর আরাধনার মধ্যে দিয়ে হিন্দু সম্প্রদায়ের ধর্মীয় শারদীয় দূর্গাপূজার উপজেলার ৭২টি পূজা মন্ডপে চলছে শারদীয় দূর্গা পূজা।

দর্শানার্থীদের মনমুগ্ধ করতে পূজা উদযাপন কমিটি মণ্ডপের সামনে তৈরী করছে সুনিপুন কারুকার্যের গেট ও প্যান্ডেল। আশেপাশের এলাকার রাস্তাগুলো লাইটিংয়ের ব্যবস্থা করা হয়েছে। প্রথবারের মত ফুলবাড়ী কেন্দ্রীয় পূজা মন্দিরে জমকালো আয়োজনে উজেলা পরিষদ চত্বরে ডিজিটাল লাইটিংয়ের মাধ্যমে মায়ের প্রতিমা দর্শনসহ অঞ্চলের নামকরা শিল্পীদের নিয়ে ভজন ও আরতী সন্ধ্যার ব্যবস্থা করেছে কর্তৃপক্ষ।

এদিকে পূজায় দর্শনার্থী নারী, পুরুষ ও শিশু তথা বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষেরা যাতে নির্বিঘ্নে পূজা দেখাসহ স্বাচ্ছন্দে ঘোরাফেরা করতে পারে সেজন্য আয়োজক কমিটির আহবানে মন্ডপগুলোতে বিভিন্ন স্তরেরের আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীসহ আনসার ভিডিবি বাহিনী নিরাপত্তার জন্য তৎপর থাকবে বলে জানিয়েছেন ফুলবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ খন্দকার ফহাদ রুহানী।

এ ব্যাপারে উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি সৌরেন্দ্র নাথ গেস্বামী পল্টু ও কেন্দ্রীয় পূজা মন্দিরের সভাপতি ভারত চন্দ্র রায় জানান, এ বছর ফুলবাড়ী উপজেলার ছয়টি ইউনিয়নে ৭২ টি মন্দিরে দূর্গা উৎসব পালিত হচ্ছে। ২৬ সেপ্টেম্বর বিল্লবরণ ও ষষ্ঠী পূজার মধ্য দিয়ে চার দিন ব্যাপী দূর্গা উৎসব শুর হল। পরে সপ্তমী, মহাঅষ্টমী ও মহানবমী শেষে ৩০ সেপ্টেম্বর বিজয়া দশমীর মাধ্যমে মা দূর্গাদেবীকে বিসর্জন দিয়ে উৎসবের সমাপ্তী ঘটবে। এ বছর মা দেবীদূর্গা নৌকায় মর্তলোকে আসবেন এবং ঘোটকে মা দূর্গা গমন করিবেন।

শারদীয় দুর্গাপূজার সার্বিক বিষয়ে উপজেলা কেন্দ্রীয় মন্দির পূজা কমিটির সাধারণ সম্পাদক বীরেন্দ্রনাথ রায়ের সাথে কথা হলে তিনি জানান, সকলের সহাযোগিতায় বিগত বছরের চেয়ে  জাঁকজমক ও শান্তিপূর্ন পরিবেশে এ বছর শারদীয় দুর্গাপূজা সম্পন্ন হবে বলে আশা রাখি।

এব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দেবেন্দ্র নাথ উরাঁও জানান, দূর্গা উৎসব সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব। এই উৎসব যেন তারা শান্তিপূর্ণ ভাবে পালন করতে পারে তাই উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সকল ধরনের সহযোগিতা করা হবে।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

ফুলবাড়ীতে আ.লীগ নেতার উপর হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন 

0000

জাহাঙ্গীর আলম, কুড়িগ্রাম, ২২ সেপ্টেম্বর : জেলা পরিষদ সদস্য ও সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান এবং উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সাংগাঠনিক সম্পাদক আহম্মদ আলী পোদ্দার রতনের উপর হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়েছে। আজ শুক্রবার সকালে কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে উপজেলা শহরের তিনকোণা মোড়ে মানববন্ধন কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধনে প্রায় পাঁচ শতাধিক সর্বস্তরের জনগণ অংশ গ্রহণ করে।

এ সময় মানব বন্ধন কর্মসূচী থেকে বক্তব্য রাখেন,উপজেলার কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক ও সদর ইউপি সদস্য আব্দুল লতিফ,নাওডাঙ্গা ইউনিয়নের সাংগঠনিক সম্পাদক রেজাউল ইসলাম বন্ধন,উপজেলা সেচ্ছাসেবকলীগের আহবাহক আব্দুল খালেক বসুনিয়া,প্রভাষক জাকারী মিয়া,সাবেক ছাত্র নেতা সুমন,সাবেক বিজিবির সদস্য আইয়ুব আলী প্রমূখ। বক্তারা অভিযুক্ত উপজেলা ছাত্রলীগের সাংগাঠনিক সম্পাদক মেহেদী হাসানসহ সাত ছাত্রলীগ নেতাকর্মী ও সমর্থকদের আগামী ২৪ ঘন্টার মধ্যে গ্রেফতারের দাবী জানান। তারা আরও জানান, দ্রুত সময়ে আসামীদেরকে গ্রেফতার না করলে বৃহত্তর আন্দোলন গড়ে তোলার ঘোষণা দেন।

উল্লেখ্য যে মঙ্গলবার রাতে ফুলবাড়ী সদর ইউনিয়নের জেলেপাড়ায় নারী সংক্রান্ত বিরোধ মীমাংসা করতে যান জেলা পরিষদ সদস্য ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক আহম্মদ আলী পোদ্দার রতন। শালিসে উপজেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মেহেদী হাসানের সাথে রতনের বাক-বিতন্ডা হয়। এক পর্যায়ে মেহেদী ও তার সাঙ্গপাঙ্গরা রতনের উপর হামলা চালায়। তাদের এলোপাথারি কিল-ঘুষি ও ইটের আঘাতে মাথায় আঘাত পেয়ে গুরুতর আহত হলে তাকে উদ্ধার করে ফুলবাড়ী উপলক্ষে স্বাস্থ্য কমপ্ল্রেক্সে করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে পরে তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। ঘটনার পরপরই রতনের উত্তেজিত সমর্থকরা লাঠি হাতে মেহেদী ও তার সঙ্গীদের খোঁজে বেড়িয়ে পড়ে। গোটা উপজেলা সদরের পরিস্থিতি থমথমে হয়। তবে তাদের খুঁজে পায়নি প্রতিপক্ষরা।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

জেলা পরিষদ সদস্যকে মারপিটের প্রতিবাদে হরতাল ও বিক্ষোভ মিছিল 

00

জাহাঙ্গীর আলম, কুড়িগ্রাম, ২০ সেপ্টেম্বর : কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে জেলা পরিষদ সদস্যকে মারপিটের প্রতিবাদে ২০ সেপ্টেম্বর বুধবার অর্ধদিবস হরতাল ও বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। স্থানীয় জনতা, আওয়ামীলীগ ও বিভিন্ন অঙ্গ সংগঠনের নেতা কর্মীদের স্বতঃস্ফুর্ত অংশগ্রহণে সকাল ৬ টা থেকে দুপুর পর্যন্ত ফুলবাড়ী বাজারে এ হরতাল পালিত হয়। এ সময় বাজারের দোকানপাট ও সকল প্রকার যানবাহন চলাচল বন্ধ ছিল। হরতাল শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিল ফুলবাড়ী সদরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে জিরো পয়েন্টে বিক্ষোভ সমাবেশ করে। এতে বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক বড়ভিটা মহাবিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ নূর মোহাম্মদ মিয়া, উপজেলা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবকলীগের আহ্বায়ক আব্দুল খালেক বসুনিয়া, উপজেলা কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক সদর ইউপি সদস্য আব্দুল লতিফ, প্রভাষক জাকারিয়া মিঞা, উপজেলা জাতীয় পার্টির সদস্য জুলিয়াস আলম সরকার বিলু প্রমূখ। বক্তারা আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ঘটনার সাথে জড়িতদের আইনের আওতায় এনে শাস্তির ব্যবস্থা গ্রহনের দাবি জানান। অপরাধীরা যেন আওয়ামীলীগের কোন অঙ্গ সংগঠনে স্থান না পায় সে ব্যাপারে দলীয় নেতৃবৃন্দকে অনুরোধ জানান।

 

জানা যায়, উপজেলা সদরের জলমহাল ফুলসাগর নিয়ে স্থানীয় মাঝিপাড়ার মৎস্যজীবীদের সাথে ইউনিয়ন চেয়ারম্যান হারুন অর রশিদের মধ্যে দীর্ঘদিন থেকে বিরোধ চলে আসছিল। ১৩ সেপ্টেম্বর মাঝিপাড়ার মৎস্যজীবীদের সংগঠন ফুলবাড়ী মৎস্যজীবী সমবায় সমিতি হাইকোর্ট থেকে প্রাপ্ত রায়ে জলমহাল ফুলসাগরের ইজারা পায়। যেকোন মূল্যে জলমহাল দখলে রাখার জন্য ফুলবাড়ী মৎস্যজীবী সমবায় সমিতির সহ-সভাপতি কৃষ্ণ চন্দ্র বিশ্বাস টাংরুকে বাড়ি থেকে তুলে আনার জন্য উপজেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মেহেদী হাসানের নেতৃত্বে শিবলু, সোহেল, বাবু, লাকু, নয়ন, তহিদুল, শাকিলসহ তার দল টাংরুর বাড়িতে যায়। এ সময় তারা টাংরুর কাছে চাঁদাও দাবি করে। খবর পেয়ে কুড়িগ্রাম জেলা পরিষদের সদস্য আহাম্মদ আলী পোদ্দার রতন সেখানে গেলে মেহেদী ও তার দলের সাথে বাকবিতন্ডার এক পর্যায়ে মেহেদীগংরা তার ওপর হামলা করে। এতে তিনি গুরুতর আহত হলে তাকে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এবং পরে রাতেই রংপুর মেডিকেল কলেজে ভর্তি করা হয়।

এ ব্যাপারে টাংরু জানান, আমরা কোর্ট থেকে ফুলসাগরের ইজারা স্বত্ত্ব পেয়েছি। আমাদের ভয়ভীতি দেখিয়ে জোর করে তারা ফুলসাগর দখলে রাখতে চায়। আমার কাছ থেকে তারা চাঁদা দাবি করে বাড়ি থেকে তুলে আনার চেষ্টা করে। রতন ভাই আসায় তাদের চেষ্টা ব্যর্থ হয়। এসময় তারা রতন ভাইকে মারপিট করে। লোকজন আসতে থাকলে তারা পালিয়ে যায়।

এ ব্যাপারে ফুলবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ জানান, অভিযোগ পেলে দ্রুত দোষীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

উপজেলা নিবার্হী অফিসার দেবেন্দ্র নাথ উরাঁও জানান, দোষী ব্যক্তিদেরকে আইনের আওতায় এনে উপযুক্ত শাস্তির ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য ওসিকে নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

দক্ষিণ কুরিয়ায় সাংস্কৃতিক উৎসবে যোগ দিতে যাচ্ছেন ভাওয়াইয়া শিল্পী ভূপতি ভূষণ বর্মা 

0000

জাহাঙ্গীর আলম, কুড়িগ্রাম, ১৯ সেপ্টেম্বর : দক্ষিণ কুরিয়ার সর্ব বৃহৎ বহুজাতিক অভিবাসী সাংস্কৃতিক উৎসবে এই প্রথম যোগ দিচ্ছেন বাংলাদেশের একটি সাংস্কৃতিক দল। দলের অন্যতম শিল্পী হিসেবে যোগ দিতে কুড়িগ্রাম থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওয়ানা দিচ্ছেন প্রখ্যাত ভাওয়াইয়া শিল্পী ও ভাওয়াইয়া বন্ধু ভূপতি ভূষণ বর্মা। তাঁর সাথে দলে থাকছেন, কুদ্দুস বয়াতী, ব্যান্ড লালন নিগার সুলতানা সুমি, নৃত্যশিল্পী সাদকিয়া ইসলাম মৌ ও ফারহানা খানসহ আরও অনেকে। দলের সাথে নেতৃত্ব দেবেন সংস্কৃতি মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর ও রাষ্ট্রদূত জুলফিকার রহমান।

আগামী ২৭ তারিখে বাংলাদেশ থেকে বিমান যোগে দক্ষিণ কুরিয়ায় যাবেন তারা। বিদেশের মাটিতে বাংলাদেশের কৃষ্টি ও সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যকে তুলে ধরার ক্ষেত্রে এ দলটি বিশেষ ভূমিকা রাখবে বলে আশা করা হচ্ছে।

দক্ষিণ কুরিয়ার ছাংউয়ন ইয়ংজি কালচারাল পার্কে এ মাসের ২৯ তারিখে এ উৎসব শুরু হয়ে আক্টোবর মাসের ১ তারিখে শেষ হবে।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

ছাত্রলীগ নেতার মারপিটে জেলা পরিষদ সদস্য আহত, এলাকাবাসীর বিক্ষোভ 

00

জাহাঙ্গীর আলম, কুড়িগ্রাম, ১৯ সেপ্টেম্বর : কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে ছাত্রলীগ নেতার মারপিটে  জেলা পরিষদের সদস্য গুরুত্বর আহত হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে  মঙ্গলবার শেষ বিকালে কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলার মাঝিটারী গ্রামে।

জানাগেছে, ফুলবাড়ী সদর ইউনিয়নের মাঝিপাড়ার টাংরু– মাঝির বাড়ীতে গিয়ে ফুলবাড়ী উপজেলার ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মেহেদী হাসান ও তার দল চাঁদা দাবী করলে খবর পেয়ে কুড়িগ্রাম জেলা পরিষদের ৬ নং ওয়ার্ডের সদস্য ও আশি নব্বই দশকের ছাত্রলীগ নেতা আহম্মদ আলী পোদ্দার রতন সেখানে গিয়ে বাধা দেওয়ায় এক পর্যায়ে ছাত্রলীগ নেতা তাকে বেধম মারপিট করে পালিয়ে যায়। গুরুত্বর আহত জেলা পরিষদ সদস্যকে এলাকাবাসী উদ্ধার করে ফুলবাড়ী সদর হাসপাতালে নিয়ে আসে সেখানে তার শারিরিক অবস্থার অবনতি হলে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। পরে  বিচারের দাবীতে এলাকাবাসী ফুলবাড়ী বাজারে বিক্ষোভ মিছিল করে ও আগামী কাল বুধবার ফুলবাড়ী বাজারে সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত শান্তিপুর্ন হরতালের ডাক দেয়।

এ ব্যাপারে ফুলবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ জানান, অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যাবস্থা নেওয়া হবে।

উপজেলা নিবার্হী অফিসার দেবেন্দ্র নাথ উরাওঁ জানান, দোষী ব্যক্তিদেরকে আইনের আতায় এনে উপযুক্ত শাস্তির ব্যাবস্থা নেওয়ার জন্য ওসিকে নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে।

 

 

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

ফুলবাড়ীতে মাদক মামলার সাজাপ্রাপ্ত আসামী গ্রেফতার 

1483799379_33

জাহাঙ্গীর আলম, ঢাক, ১৯ সেপ্টেম্বর : কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে মাদক মামলায় এক বছরের সাজাপ্রাপ্ত আসামীকে গ্রেফতার করছেন পুলিশ। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০ টায় দিকে ফুলবাড়ী থানার এস আই মহুবর ফুলবাড়ী বাজারের পানের দোকানের সামন থেকে ওই আসামী হাতে নাতে গ্রেফতার করেন।

গ্রেফতারকৃত আসামী হলেন, উপজেলার শিমুলবাড়ী ইউনিয়নের তালুক শিমুলবাড়ী গ্রামের আব্দুল জব্বারের ছেলে আব্দুল জলিল(৩৬)।

উল্লেখ্য যে, ২০১২ সালে পুলিশ বাদী হয়ে তার বিরুদ্ধে ফুলবাড়ী থানায় মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দায়ের করেছিল। আসামী র্দীঘদিন ধরে পলাতক ছিলেন।

এব্যাপারে ফুলবাড়ী থানার ওসি খন্দকার ফুয়াদ রুহানী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

রোহিঙ্গাদের উপর গণহত্যা ও নির্যাতনের প্রতিবাদে মানববন্ধন 

0000

জাহাঙ্গীর আলম, কুড়িগ্রাম, ১৮ সেপ্টেম্বর : কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে মায়ানমারে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠির উপর নির্যাতন, গণহত্যা, ধর্ষণ ও নিপীড়নের প্রতিবাদে ও বিশ্ব বিবেক জাগ্রত হওয়ার আহ্বান জানিয়ে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল জাসদ উদ্যোগে মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করা হয়েছে।  সোমবার সকালে উপজেলার জিরো পয়েন্ট চত্বরে মানববন্ধনে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল জাসদের ফুলবাড়ী উপজেলার সভাপতি মকবুল, সাধারন সম্পাদক আব্দুল আজিজ বাবুল, দপ্তর সম্পাদক ওবাইদুল হক, জেলা পরিষদের সদস্য আহম্মদ আলী পোদ্দার রতন, উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আবুবক্কর সিদ্দিক মিলন প্রমুখ।

মানববন্ধনে বক্তরা, জাতিসংঘ, ওআইসি সহ বহিঃ বিশ্বের শক্তিধর নেতাদের প্রতি রোহিঙ্গা নির্যাতন বন্ধের আহ্বান জানান এবং বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিয়ে নাগরিকত্ব দেবারও দাবী জানান।

 

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

ফুলবাড়ীতে পৃথক অভিযানে ৪০ কেজি গাঁজা জব্দ 

8988

কুড়িগ্রাম, ১৪ সেপ্টেম্বর : কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী সীমান্তে পুলিশ ও বিজিবি পৃথক অভিযান চালিয়ে ৪০ কেজি গাঁজা জব্দ করেছে। তবে কাউকে আটক করতে পারেনি।

এই ঘটনায় পুলিশ পলাতক আসামি উপজেলার তালুক শিমুলবাড়ি টেপরীর বাজার গ্রামের সোহরাব হোসেনের ছেলে মানিক মিঞা (২৪) সহ অজ্ঞাত আরও একজনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেছে। জব্দকৃত গাঁজার আনুমানিক মূল্য প্রায় চার লাখ টাকা।

পুলিশ ও বিজিবি সূত্র জানায়, বৃহস্পতিবার ভোরে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ফুলবাড়ী থানার ওসি খন্দকার ফুয়াদ রুহানীর নেতৃত্বে ও সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার, নাগেশ্বরী সার্কেল আসাদুজ্জামানের তত্ত্বাবধানে পুলিশ সদস্যরা উপজেলার চন্দ্রখানা চৌধুরীটারী এলাকায় ফাঁদ পাতেন। এ সময়  সীমান্ত এলাকা থেকে কয়েকজন মাদক ব্যবসায়ী গাঁজা নিয়ে ওই পথে যাওয়ার সময় পুলিশ সদস্যরা তাদের গতিরোধ করেন। পুলিশ দেখে গাঁজা ফেলে পালিয়ে যায় মাদক ব্যবসায়ীরা। পরে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ২৭ কেজি গাঁজা জব্দ করে থানায় নিয়ে আসে।

অন্যদিকে গত বুধবার দিনগত রাত ৮টার দিকে উপজেলার নাওডাঙ্গা ইউনিয়নের সীমান্তবর্তী বালাতাড়ী এলাকা দিয়ে গাঁজাসহ লালমনিরহাট অভিমুখে যাওয়ার সময় কয়েকজন মাদক ব্যবসায়ী বালারহাট ক্যাম্পের বিজিবি’র টহলদলের সামনে পড়ে। তৎক্ষণাৎ বিজিবি’র সদস্যদের দেখে গাঁজার পোটলা ফেলে পালিয়ে যায় মাদক ব্যবসায়ীরা। পরে বিজিবি ঘটনাস্থল থেকে ১৩ কেজি গাঁজা জব্দ করে ক্যাম্পে নিয়ে আসে।

ফুলবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ খন্দকার ফুয়াদ রুহানী, কুড়িগ্রাম ৪৫ বিজিবি’র অধীন বালারহাট ক্যাম্পের হাবিলদার ইয়াহিয়া ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

ফুলবাড়ীতে ৬০ দিন ব্যাপী দুঃস্থ মহিলাদের সেলাই প্রশিক্ষণের উদ্বোধন 

4

জাহাঙ্গীর আলম, কুড়িগ্রাম, ১৩ সেপ্টেম্বর : কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে ১৫ জন দুঃস্থ মহিলাকে ৬০ দিন ব্যাপী   সেলাই   প্রশিক্ষণের  উদ্বোধন   করা   হয়েছে।   বুধবার সকালে উত্তর বড়ভিটা নারী কল্যাণ সমিতির উদ্যোগে সেলাই প্রশিক্ষণের উদ্বোধন করেন মহিলা বিষয়ক কর্মকতা প্রভাতী মাহাতো।এ   সময়   উপস্থিত   ছিলেন,উপজেলা   মহিলা   ভাইস চেয়ারম্যান   আর্জিনা   বেগম, উপজেলা   মহিলা   বিষয়ক অধিদপ্তরের প্রশিক্ষক আর্জিমা বেগম, উত্তর বড়ভিটা নারী কল্যাণ   সমিতির   উপদেষ্টা   কমিটির   সভাপতি   আফজাল হোসেন, সদস্য   হাবিবুর   রহমান, সভানেত্রী   মনজু বেগম, সম্পাদিকা   বেগম   আমিনা   সুলতানা, বড়ভিটা মহাবিদ্যালয়ে   ভারপ্রাপ্ত   অধ্যক্ষ   নুর   মোহাম্মদ   মিয়া,   শিশু সাহিত্যিক ও বাংলাদেশ বেতার এর গীতিকার তৌহিদ উল ইসলাম প্রমুখ

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

বন্যার্তদের মাঝে জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের ঔষধ বিতরণ 

0000

জাহাঙ্গীর আলম, কুড়িগ্রাম, ৩০ আগস্ট : কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে ৪ শত বন্যার্ত মানুষের মাঝে ঔষধ বিতরণ করছেন জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগ। বুধবার শিমুলবাড়ী ইউনিয়নের সোনাইকাজী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের আয়োজনে দিনব্যাপী বিভিন্ন প্রকার ঔষধ বিতরণ করেন। ঔষধ বিতরণকালে উপস্থিত ছিলেন, জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি মেহেদী হাসান মিলন, যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক মমিনুল ইসলাম তাজ, ফুলবাড়ী উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের আহবায়ক আব্দুল খালেক বসুনিয়া, যুগ্ন আহবায়ক একরামুল হক, সহ যুগ্ন আহবায়ক জাহাঙ্গীর আলম, তোফাজ্জল হোসেন, সদস্য সামসু জামান বন্ধন, সোহরাব হোসেন, আক্কাছ আলী, সোনাইকাজী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রাধান শিক্ষক আনিছুর রহমান বাবু, শিমুলবাড়ীর ইউপির সদস্য মোজাম্মেল হক প্রমূখ।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

কুড়িগ্রামের সঙ্গে তিন উপজেলার যোগাযোগ বন্ধ 

8583

কুড়িগ্রাম, ১৮ আগস্ট : উত্তরাঞ্চলের কুড়িগ্রামে বন্যা পরিস্থিতির কোন উন্নতি হয়নি। আগের মতই অবস্থা বিরাজ করছে। এ কারণে বঙ্গসোনাহাট স্থলবন্দরসহ আরো তিন উপজেলার সঙ্গে জেলার সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। এতে দূর্ভোগে পড়েছেন হাজারও মানুষ।

কুড়িগ্রাম সদরের প্রায় ১৪০কিলোমিটার সড়ক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এছাড়াও জেলায় বন্যায় ৪৪ কিলোমিটার বাঁধ ভেঙে গেছে।

কুড়িগ্রাম-রংপুর মহাসড়কের দু’দিক ভেঙে যাওয়ায় গাড়ি চলাচলে ব্যহত হচ্ছে। অনেক রাস্তার ইট সুঁড়কি উঠে গিয়ে গর্তের সৃষ্টি হয়েছে।

স্থানীয়রা বলছেন, পানি কমলেও ক্ষতিগ্রস্ত রাস্তাগুলো ব্যবহারের উপযোগী করতে সময় লাগবে।

জেলা প্রশাসনের কন্ট্রোল রুমের তথ্য মতে, ৯টি উপজেলার ৬২টি ইউনিয়নের ৭২৪টি গ্রাম ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। পানিবন্দি হয়েছে ৪ লাখ ২২ হাজার মানুষ। গেল এক সপ্তাহে বন্যায় ১৯ জন মারা গেছে। ৫০ হাজার ০১ হেক্টর জমির ফসল তলিয়ে গেছে। এতে ৩ লাখ ৪৩ হাজার ৩৩৫ কৃষক ক্ষতির সম্মুখিন হবেন।

অপরদিকে নদী ভাঙনে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ১০ হাজার ৬১২টি পরিবার। ভেসে গেছে ২৩টি ব্রিজ ও কালভার্ট। বানভাসি ২৫ হাজার পরিবার ৪০৮টি আশ্রকেন্দ্রে আশ্রয় নিয়েছে।

এ পর্যন্ত সরকারিভাবে ৬৫২ মেট্রিক টন চাল, ১৭ লাখ ৫ হাজার টাকা এবং ২ হাজার প্যাকেট শুকনো খাবার বন্যার্তদের মাঝে বিতরণ করা হয়েছে। মজুদ আছে ৪৫০ মেট্রিক টন চাল ও ২২ লাখ ৫০ হাজার টাকা এবং শুকনা খাবার দু’হাজার প্যাকেট।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর