২৩ মে ২০১৭
রাত ১:৩১, মঙ্গলবার

লালমনিরহাটে বিএনপি’র বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ

লালমনিরহাটে বিএনপি’র বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ 

00

আসাদুজ্জামান সাজু, লালমনিরহাট, ২১ মে : বিএনপি’র চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার রাজনৈতিক কার্যালয়ে পুলিশী তল্লাশীর প্রতিবাদে লালমনিরহাটে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে বিএনপি। রোববার বিক্ষোভ মিছিল শেষে এক প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এতে বক্তব্য রাখেন, জেলা বিএনপি’র সম্পাদক হাফিজুর রহমান বাবলা, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান একেএম মমিনুল হক, জেলা বিএনপি’র যুগ্ন-সম্পাদক এ্যাড. ফজুলুল হক সরকার, জেলা যুবদলের সভাপতি আফজাল হোসেন, জেলা যুবদল সম্পাদক আব্দুল হালিম, জেলা যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক মফিজুর রহমান জিএস বাবু, কেন্দ্রীয় ছাত্রদল সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক এ্যাড. মহিউদ্দিন আহম্মেদ লিমন, সদর উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান এ্যাড. আনজুমান আরা শাপলা ও জেলা সেচ্ছাসেবক দলের সম্পাদক সাজু পাটোয়ারী প্রমুখ।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

লালমনিরহাটে ছাত্রলীগের দু’গ্রুপে সংঘর্ষ, আহত-৩ 

songghorsho

আসাদুজ্জামান সাজু, লালমনিরহাট, ২১ মে : লালমনিরহাটে ছাত্রলীগের কমিটি ঘোষনা নিয়ে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি শহিদুল ইসলামসহ ৩জন আহত হয়েছেন। রোববার দুপুরে লালমনিরহাট সরকারী কলেজ চত্ত্বরে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও শিক্ষার্থীরা জানান, লালমনিরহাট সরকারী কলেজ ছাত্রলীগের কোন কমিটি না থাকায় দীর্ঘদিন ধরে কমিটি গঠনের দাবি জানিয়ে আসছে সাধারণ ছাত্ররা। কিন্তু জেলা ছাত্রলীগ বিভিন্ন কারণে বিলম্ব করায় ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে সাধারন ছাত্ররা।

এরই মাঝে রোববার দুপুরে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম ও সম্পাদক আবু বক্কর সিদ্দিক কলেজ ছাত্রলীগের একটি কমিটি কলেজ অধ্যক্ষের নিকট জমা দেন।

ওই কমিটিতে কলেজ ছাত্রলীগের রানু গ্রুপের শিক্ষার্থীদের নাম না থাকায় জেলা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের সাথে বিতর্কে জড়ান রানু গ্রুপের কর্মীরা। এর এক পর্যায়ের উভয়ের মাঝে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে সদর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেন। এতে জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি শহিদুল ইসলাম, যুগ্ন সম্পাদক ইমনসহ ৩জন আহত হয়েছেন।

এ ঘটনায় গোটা শহর ঝুড়ে আতংক বিরাজ করছে। ছাত্রলীগের এ গ্রুপের মাঝে আবারও যে কোন সময় ঘটতে পারে অপ্রীতিকর কোন ঘটনা। সকল অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে শহরে পুলিশী টহল বাড়ানো হয়েছে।

লালমনিরহাট পুলিশ সুপার এসএম রশিদুল হক জানান, ঘটনার সাথে সাথে সেখানে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করেছে। পরবর্তীতে যেন এ রকম ঘটনা না ঘটে এ জন্য সেখানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

খালেদার জিয়ার কার্যালয়ে তল্লাশী পরিকল্পিত- দুলু 

0000

আসাদুজ্জামান সাজু, লালমনিরহাট, ২১ মে : পরিকল্পিত ভাবে বিএনপি’র চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার রাজনৈতিক কার্যালয়ে পুলিশী তল্লাশীর মাধ্যমে প্রমান হয় দেশে কোনো রাজনীতি নেই উল্লেখ করে বিএনপি’র কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক উপমন্ত্রী অধ্যক্ষ আসাদুল হাবিব দুলু বলেছেন, যে রাজনীতি আছে সেটা অপরাজনীতি। যার দৃষ্টান্ত অনেক আগেও দেখেছে এদেশের জনগণ। খালেদা জিয়ার কার্যালয়ে তল্লাশির মাধ্যমে সেটা আবার দেখলো বাংলাদেশের জনগণ। এ পুলিশী তল্লাশী সম্পুর্ণ পরিকল্পিত। হাওরসহ নানা ঘটনায় সরকার যে বিপর্যস্ত সেদিক থেকে দৃষ্টি ফেরাতে এটি করানো হয়েছে। এটি খালেদা জিয়াকে অপমাণিত ও বিপর্যস্ত করার কঠিন ও পাতানো ষড়যন্ত্রের অংশ।

তিনি বলেন, আমরা ২০৩০ ভিশনে উল্লেখ করেছি যে, বাংলাদেশে নতুন সংস্কৃতি ফিরিয়ে আনার জন্য। হারিয়ে যাওয়া ভোটের অধিকার ফিরে দিবে এ ভিশন। এমন একটি সংস্কৃতি বিএনপি গড়ে তুলবো যাতে আগামী প্রজন্ম সুন্দর সমৃদ্ধ দেশের নাগরিক হতে পাবে।

তিনি শনিবার রাতে লালমনিরহাট জেলা অডিটোরিয়াম হল রুমে সদর উপজেলা বিএনপি’র সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা গুলো বলেন।

সম্মেলন প্রস্তুত কমিটির আহবায়ক বাবু নগেন্দ্র নাথ রায়ের সভাপতিত্বে উক্ত সম্মেলনে বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন, জেলা বিএনপি’র সম্পাদক হাফিজুর রহমান বাবলা, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান একেএম মমিনুল হক  ও জেলা বিএনপি’র যুগ্ন-সম্পাদক এ্যাড. ফজুলুল হক সরকার। বক্তব্য রাখেন, জেলা যুবদলের সভাপতি আফজাল হোসেন, জেলা যুবদল সম্পাদক আব্দুল হালিম, কেন্দ্রীয় ছাত্রদল সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক এ্যাড. মহিউদ্দিন আহম্মেদ লিমন, সদর উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান এ্যাড. আনজুমান আরা শাপলা, ও জেলা সেচ্ছাসেবক দলের সম্পাদক সাজু পাটোয়ারী প্রমুখ।

বিএনপি নেতা ও সাবেক উপমন্ত্রী দুলু বলেন, বাংলাদেশে যদি অবাধ সুষ্ঠু নির্বাচন হয় সেই নির্বাচনে বাংলাদেশের জনগণ বিএনপিকে ভোট দেবেন। খালেদা জিয়ার মাধ্যমে বিএনপি ২০৩০ বাস্তবায়ন করবে। দলের ১৯ দফা কর্মসূচির উপর ভিত্তি করে বিএনপি চেয়ারপারসন ২০৩০ ভিশন দেশের মানুষকে উপহার দিয়েছেন। যে ভিশনে শহীদ জিয়াউর রহমানের চিন্তা ও চেতনার ধারণ রয়েছে।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

শেখ হাসিনা শিক্ষায় বিপ্লব এনে দিয়েছে- এম পি মোতাহার 

আসাদুজ্জামান সাজু, লালমনিরহাট, ১৯ মে : প্রাথমিক ও গণ শিক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির সভাপতি মোতাহার হোসেন এম পি বলেছেন, শেখ হাসিনা বাংলাদেশের শিক্ষায় বিপ্লব এনে দিয়েছেন। সকালে ঘুম থেকে উঠে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা জানতে পারে তাদের বিদ্যালয় গুলো সরকারী করা হয়েছে। শেখ হাসিনার সরকার শিক্ষা বন্ধব সরকার। সে কারণে শেখ হাসিনার উন্নয়ন কর্মসুচী বাস্তবায়নে শিক্ষকদের এগিয়ে আসতে হবে।

তিনি শুক্রবার লালমনিরহাটের হাতীবান্ধায় শিক্ষার মান উন্নয়ন কর্মশালা ও শিক্ষকদের বিদায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি বক্তব্যে এ কথা গুলো বলেন।

ওই উপজেলার রমনীগঞ্জ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে হাতীবান্ধা আওয়ামীলীগের সম্পাদক মাহমুদুল হাসান সোহাগের সভাপতিত্বে উক্ত কর্মশালায় বক্তব্য রাখেন, প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের রংপুর বিভাগীয় কর্মকর্তা মাহবুক এলাহী ও হাতীবান্ধা উপজেলা চেয়ারম্যান লিয়াকত হোসেন বাচ্চু।

শাকিলা খন্দকার মুনা ও কল্পনা কিবরিয়ার উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, লালমনিরহাট জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা নবেজ উদ্দিন সরকার, হাতীবান্ধা উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অধ্যক্ষ আবু বক্কর সিদ্দিক শ্যামল ও হাতীবান্ধা উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা হাসান আতিকুর রহমান প্রমুখ।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

আঁন্ধার পুঁজার নামে গৃহবধুকে ধর্ষনের চেষ্টা 

আসাদুজ্জামান সাজু, লালমনিরহাট, ১৯ মে : আঁন্ধার পুঁজার নামে এক গৃহবধুকে ধর্ষনের চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে মনি কবিরাজ নামে স্বঘোষিত এক কবিরাজের বিরুদ্ধে। ধর্ষনের চেষ্টার শিকার আহত ওই গৃহবধু ও তার স্বামীকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে গত মঙ্গলবার রাতে লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলার ভাদাই ইউনিয়নের ঘুঘুজান গ্রামে।

আদিতমারী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ওই গৃহবধু বলেন, বেশ কিছু দিন ধরে আমার শারীরে নানা রোগ দেখা দিয়েছে। চিকিৎসার জন্য প্রতিবেশী মনি কবিরাজের কাছে গেলে তিনি আঁন্ধার পুঁজার কথা বলেন। তার কথা মতো আমি খেয়া ঘাটের পানি, ৩ টি টিউবওয়েলের পানি, কামাড়ের দোকানের পানি, লাঙলের ফলা সংগ্রহ করি। গত মঙ্গলবার রাতে আমার বাড়িতে এসে ওই কবিরাজ আঁন্ধার পুঁজার আয়োজন করেন। পুঁজার এ পর্যায়ে অন্ধকার ঘরে দরজা বন্ধ করে দিয়ে আমাকে ধর্ষনের চেষ্টা করেন ওই মনি কবিরাজ। আমার চিৎকারে আমার স্বামীসহ স্থানীয় লোকজন ছুটে এসে মনি কবিরাজকে আটক করেন। পরে ওই কবিরাজের লোকজন এসে আমাকে ও আমার স্বামী অতুল চন্দ্রকে মারধর করে কবিরাজকে নিয়ে যায়। পরে স্থানীয় লোকজন আমাদের উদ্ধার করে আদিতমারী হাসপাতালে ভর্তি করান। এ ঘটনায় আমি স্থানীয় থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করলেও এখন পর্যন্ত কোন আইনী ব্যবস্থা নেয় নেই পুলিশ। ঘটনার পর থেকেই মনি কবিরাজ গা-ঢাকা দিয়েছে।

এ বিষয়ে মনি কবিরাজের সাথে একাধিক বার চেষ্টা করা হলেও তার কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

আদিতমারী থানার ওসি তদন্ত ফিরোজ কবির বলেন, অভিযোগটি তদন্ত করা হচ্ছে। তদন্ত শেষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

বিয়ের কথা বলে বাড়িতে নিয়ে প্রেমিকাকে মারধর 

আসাদুজ্জামান সাজু, লালমনিরহাট, ১৯ মে : বিয়ে করার জন্য প্রেমিকাকে তার দাদার বাড়ি থেকে নিয়ে গিয়ে মারধর করার অভিযোগ উঠেছে প্রেমিকের পরিবাবের বিরুদ্ধে। আহত ওই প্রেমিকাকে বৃহস্পতিবার সকালে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তবে প্রেমিকের দাবি, তাকে আমার বাসায় নিয়ে আসি নাই। সে নিজেই আমার বাসায় এসেছিল। ঘটনাটি ঘটেছে, লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলার ভেলাগুড়ি ইউনিয়নের জাওরানী গ্রামে।

হাতীবান্ধা উপজেলার ভেলাগুড়ি ইউনিয়নের পূর্ব কাদমা এলাকার আব্দুল করিমের মেয়ে রোমানা আক্তার বলেন, দুই বছর আগে পাশ্ববর্তী জাওরানী গ্রামের কাজিমুদ্দিনের ছেলে শামীম হোসেনের সাথে আমার প্রেমের সর্ম্পক গড়ে ওঠে। ওই সর্ম্পকের জের ধরে গত রোববার শামীম আমাকে বিয়ে করার কথা বলে তাদের বাড়ি নিয়ে যায়। কিন্তু এই বিয়েতে বাঁধা হয়ে দাড়াঁয় শামীমের পরিবারের লোকজন। শুরু হয় আমার উপর নিযার্তন। বিয়ের কথা বলে বৃহস্পতিবার রাতে উভয় পক্ষের মধ্যে বৈঠক বসে। কিন্তু বিয়ে না দিয়ে উল্টো আমার উপর আরও নিযার্তন করা হয়। পরে আমার পরিবারের লোকজন আমাকে অসুস্থ্য অবস্থায় উদ্ধার করে শুক্রবার সকালে হাতীবান্ধা হাসপাতালে ভর্তি করান। শামীমের ভাই-বোন আমার মোবাইল ফোন ও মেমোরী কার্ড ভেঙ্গে ফেলেছে। সেই ফোনে শামীম আর আমার অনেক ছবি ও রেকোর্ড ছিল।

শামীম হোসেন বলেন, তার সাথে আমার প্রেমের সর্ম্পক ছিল একটা ঠিক। কিন্তু এখন নাই, ভেঙ্গে গেছে। তাকে আমি আমার বাসায় নিয়ে আসিনি। সে নেজেই আমার বাসায় এসে উঠেছিল। আর তাকে কোন মারধর করা হয় নাই।

হাতীবান্ধা থানার ওসি রেজাউল করিম বলেন, এ রকম কোন অভিযোগ আমি পাইনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

হাতীবান্ধায় পোল্ট্রি খামার পরিদর্শন করলেন যুব উন্নয়নের পরিচালক 

আসাদুজ্জামান সাজু, লালমনিরহাট, ১৮ মে : লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলায় লেয়ার মুরগীর পোল্ট্রি ফার্ম পরিদর্শন করেছেন যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের পরিচালক আখতার আলী সরকার। বৃহস্পতিবার বিকালে ওই উপজেলার পশ্চিম গ্রামের লুবা পোল্ট্রি ফার্ম পরিদর্শন করেন তিনি।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন, লালমনিরহাট জেলার উপ-পরিচালক আকবর আলী, হাতীবান্ধা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দ এনামুল কবির, নওদাবাস ইউপি চেয়ারম্যান বাবু অসনী কুমার প্রমুখ। লুবা পোল্ট্রি ফার্মের মালিক জাকির হোসেন বলেন, বর্তমান আমার খামারে ১৫ শত মুরগী আছে। সেখান থেকে প্রতিদিন ১৩ শ ডিম পাওয়া যায়।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

হাতীবান্ধায় মাদক, জঙ্গি ও বাল্য বিয়ে বিরোধী কর্মশালা 

আসাদুজ্জামান সাজু, লালমনিরহাট, ১৫ মে : লালমনিরহাটের হাতীবান্ধায় মাদক, জঙ্গি ও বাল্য বিয়ে বিরোধী দিনব্যাপী কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার উপজেলা হলরুমে ইউএনও সৈয়দ এনামুল কবিরের সভাপতিত্বে উক্ত কর্মশালায় বক্তব্য রাখেন, উপজেলা চেয়ারম্যান লিয়াকত হোসেন বাচ্চু, এসিল্যান্ড আজিজুর রহমান, উপজেলা ভাইচ চেয়ারম্যান মাকতুফা ওয়াসিম বেলী, জেলা তথ্য কর্মকর্তা মাহাফুজার রহমান, হাতীবান্ধা এস এস হাইস্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ রেজাউল করিম প্রধান জুয়েল, কৃষক লীগের সভাপতি আলা উদ্দিন মিয়া, মহিলা লীগের সম্পাদিকা রসিদা বেগম, প্রেসক্লাব সভাপতি ইলিয়াস বসুনিয়া পবন ও বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরামের জেলা সম্পাদক আসাদুজ্জামান সাজু প্রমুখ।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

প্রতিবন্ধী শিশুদের একীভুত শিক্ষা বাস্তবায়নে শিক্ষক প্রশিক্ষণ 

আসাদুজ্জামান সাজু, লালমনিরহাট, ১৩ মে : ইউনেষ্কো ও শিক্ষা মন্ত্রনালয়ের সহযোগিতায় লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলায় বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন প্রতিবন্ধী শিশুর একীভুত শিক্ষা বাস্তবায়নে সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের ৫ দিনের প্রশিক্ষণ কর্মসূচী অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার দুপুরে উপজেলার খাতাপাড়া এলাকায় মানসিকা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এ প্রশিক্ষণ কর্মসূচীর উদ্বোধন করেন লালমনিরহাট জেলা পরিষদ প্রশাসক এ্যাডভোকেট মতিয়ার রহমান। উপস্থিত ছিলেন, সংরক্ষিত নারী আসনের এম পি সফুরা বেগম রূমী। মানসিকা’র সভাপতি আব্দুস সালাম বকুলের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, অধ্যক্ষ রেজাউল আলম মানিক, মানসিকার নির্বাহী পরিচালক শামসুল হক, ব্যবস্থাপনা পরিচালক আসাদুজ্জামান। এ প্রশিক্ষণে উপজেলার ২৬ টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ২৬ জন শিক্ষক অংশ গ্রহণ করেন।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

স্কুল ছাত্রের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার 

আসাদুজ্জামান সাজু, লালমনিরহাট, ১২ মে : লালমনিরহাট পৌরসভায় সামিউল ইসলাম শাহারুখ(১৭) নামে এক স্কুল ছাত্রের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে সদর থানা পুলিশ।

শুক্রবার(১২ মে) সকালে মরেদহটি লালমনিরহাট সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়  পুলিশ। এর আগে বৃহস্পতিবার(১১ মে) দিনগত রাতে নিজ বাসা থেকে তার ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করা হয়। নিহত সামিউল ইসলাম শাহরুখ লালমনিরহাট শহরের বসুন্ধরা এলাকার অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্য জাহিদুল ইসলামের ছেলে। সে লালমনিরহাট টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজের দশম শ্রেনীর বিল্ডিং ট্রেডের ছাত্র।

লালমনিরহাট সদর থানার উপ পরিদর্শক(এসআই) সেলিম রেজা জানান, স্থানীয়দের খবরে তার নিজ বাসা থেকে ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে। তার শরীরে আঘাতের কোন চিহ্ন নেই। শাহরুখের বন্ধুরা জানায়, পরিবারের অনুশাসনকে সে বিরক্তিকর বলে মনে করতো। এ কারনে বৃহস্পতিবার(১১ মে) রাতে নিজ ঘরে বিছানার চাদর গলায় পেঁচিয়ে আতœহত্যা করে সামিউল ইসলাম শাহরুখ। পরে কোন সাড়া শব্দ না পেয়ে দরজা ভেঙ্গে তার ঝুলন্ত মরদেহ দেখে পুলিশে খবর দেয় তার পরিবার।

সদর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) রফিকুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এ ঘটনায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

বাংলাদেশীকে ধরে নিয়ে গেছে ভারতীয় বিএসএফ 

16

আসাদুজ্জামান সাজু, লালমনিরহাট, ৭ মে : লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ সীমান্তে রসুল মিয়া সেল্টু নামে এক বাংলাদেশীকে সাউন্ড গ্রেনেড ছুড়ে আহত করে ধরে নিয়ে গেছে ভারতীয় সীমান্ত রক্ষী বাহিনী বিএসএফ। রোববার সকালে ওই উপজেলার বুড়িরহাট সীমান্ত থেকে তাকে ধরে নিয়ে যায়।

লালমনিরহাট ১৫ বিজিবি অধিনায়ক লে. কর্ণেল গোলাম মোর্শেদ বলেন, ওই উপজেলার গোড়ল ইউনিয়নের সেবকদাস গ্রামের হযরত আলী ছেলে রসুল মিয়া সেল্টু সীমান্তে ৯১৫ নং মূল পিলারের ৫ সাব পিলারের কাছে গরু আনতে যায়। এ সময় ভারতের কুচবিহার জেলার দক্ষিন চামটা ১০০ বিএসএফ’র টহল দলের সদস্যরা তাকে লক্ষ্য করে সাউন্ড গ্রেনেড ছুড়ে। এতে সে আহত হয়। পরে তাকে আটক করে নিয়ে য়ায়। এ ঘটনায় বিজিবি’র পক্ষ থেকে প্রতিবাদ জানিয়ে পতাকা বৈঠক আহবান জানানো হয়েছে বিএসএফকে।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

পাটগ্রামে বিদ্যুৎ এর দাবীতে বিক্ষোভ মিছিল ও সড়ক অবরোধ 

55

আসাদুজ্জামান সাজু, লালমনিরহাট, ৭ মে : বিদ্যুৎতের দাবীতে দুই দিন ধরে লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলায় বিক্ষোভ মিছিল ও সড়ক অবরোধ করেছে স্থানীয় বিক্ষুপ্ত লোকজন। প্রথমত বিক্ষুপ্ত লোকজন শনিবার মধ্য রাতে জেলার পাটগ্রাম উপজেলার বাইপাস মোড়ে বিদ্যুৎতের দাবীতে বিক্ষোভ মিছিল করেন ও টায়ারে আগুন দিয়ে বুড়িমারী-ঢাকা মহা সড়ক অবরোধ করেন। ওই সময় ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পাটগ্রাম থানার ওসি অবনী সংকর রায় আন্দোলনকারীদের বলেন, কিছু ক্ষনের মধ্যে বিদ্যুৎ আসবে। ওসির ওই আশ্বাসে বিক্ষুপ্ত লোকজন অবরোধ তুলে নেয়। কিন্তু রোববার দুপুর পর্যন্ত বিদ্যুৎ না আসায় বিক্ষুপ্ত লোকজন আবারও মহা সড়কে টায়ারে আগুন দিয়ে অবরোধ করেন। রোববার দুপুর ৩ টার দিকে বিদ্যুৎ এলে বিক্ষুপ্ত লোকজন অবরোধ তুলে নেয়। এ ঘটনায় পাটগ্রাম শহরে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

পাটগ্রাম থানার ওসি অবনী শংকর রায় বলেন, বিদ্যুৎ বিভাগের লোকজনের সাথে কথা বলে বিদ্যুৎ সমস্যা সমাধানের চেষ্টা চলছে।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

গুলিবিদ্ধ বাংলাদেশিকে ধরে নিয়ে গেল বিএসএফ 

55

লালমনিরহাট, ৭ মে : লালমনিরহাটের কালিগঞ্জ উপজেলার বুড়িরহাট সীমান্তে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফ এলোপাতাড়ি গুলিবর্ষণ করেছে। এ সময় বিএসএফের গুলিতে আহত রসুল মিয়া (৩১) নামের এক বাংলাদেশিকে টেনে হেঁচড়ে ধরে নিয়ে গেছে বিএসএফ।

রবিবার ভোর সাড়ে পাঁচটার দিকে বুড়িহাট সীমান্তে ১০/১২ জনের একদল গরু ব্যবসায়ী গরু আনতে গেলে তাদের লক্ষ্য করে এলোপাতাড়ি গুলি ছোড়ে বিএসএফ। এ সময় গুলিতে আহত হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়লে রসুল মিয়া নামের ওই ব্যবসায়ী। পরে তাকে টেনে হেঁচড়ে নিয়ে যায় বিএসএফ। রসুল মিয়া কালিগঞ্জ উপজেলার সেবকদাশ গ্রামের হযরত আলীর ছেলে।

বিজিবি সূত্র জানান, রবিবার ভোরে উপজেলার বুড়িরহাট সীমান্তের মেইন পিলার ৯১৫-এর ৫ নম্বর সাব পিলার সংলগ্ন সীমান্তের কাছে রসুলসহ ১০/১২ জন গরু ব্যবসায়ী ভারতের ওপারে গরু আনতে গেলে ভারতীয় ১০০-সাউদ চামটা বিএসএফ ক্যাম্পের টহল দল তাদের ধাওয়া গুলি ছোড়েন। এ সময় অন্যরা পালিয়ে আসতে সক্ষম হলেও গুলিবিদ্ধ হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন রসুল। এ ঘটনায়  বিজিবি পতাকা বৈঠকের আহ্বান করলেও বিএসএফ সাড়া দেয়নি বলে জানা গেছে।

লালমনিরহাট-১৫ বিজিবি ব্যাটালিয়নের পরিচালক লেফটেন্যান্ট কর্নেল গোলাম মোর্শেদ এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

মোঃ আতাউর রহমান প্রধানকে লালমনিরহাট জেলা সমিতির সংবর্ধনা 

3

নাহিদ হাসান, ঢাকা, ৬ মে : রুপালী ব্যাংকের ব্যবস্হাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা(সিইও) হিসেবে নিয়োগপ্রাপ্ত হওয়ায় জনাব মোঃ আতাউর রহমান প্রধানকে সংবর্ধনা দিয়েছে লালমনিরহাট জেলা সমিতি, ঢাকা।

শুক্রবার বিকেলে জাতীয় শিক্ষা ব্যবস্থাপনা একাডেমি (নায়েম) মিলনায়তনে এ সংবর্ধনা দেওয়া হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের মাননীয় প্রতিমন্ত্রী জনাব মোঃ নুরুজ্জামান আহমেদ এম.পি। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন লালমনিরহাট-৩ আসনের মাননীয় সাংসদ জনাব ইঞ্জিঃ আবু সালেহ মোঃ সাঈদ দুলাল।

সংগঠনটির সভাপতি মোঃ শফিউল আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মোঃ আহসান কামাল চৌধুরী (সোহাগ)।

অনুষ্ঠানে লালমনিরহাট জেলা ছাত্র কল্যাণ সমিতি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক সভাপতি আব্দুল্লাহ আল মোত্তালেব শাওন, সাবেক সাধারণ সম্পাদক এস এম নাহিদ হাসান নয়ন সহ লালমনিরহাট জেলার বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ উপস্হিত ছিলেন।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

পুরাতন কাপড় সেলাইয়ের ফাঁকে আঁখি মনি ডাক্তার হওয়ার স্বপ্ন দেখে 

3

আসাদুজ্জামান সাজু, লালমনিরহাট, ৫ মে : আঁখি মনি মায়ের সাথে পুরাতন কাপড় সেলাই করে এসএসসিতে গোল্ডন এ প্লাস পেয়েছে। জন্মের পর মায়ের মুখে শুনেছে তার বাবা আলী আজম জ্বরে অসুস্থ্য হয়ে চিৎকিসার অভাবে মানসিক ভারসাম্যহীন হয়ে নিরুদেশ হয়ে যায়। তখন থেকে মা জয়নব নেছা বাড়ির পাশে বাজারে পুরাতন কাপড় সেলাই করে সংসার চালায়। বাবা হারানোর সেই কষ্ট থেকে জীর্ণশীর্ণ কুটিরে জন্মে নিয়ে আঁখি মনি এবার ডাক্তার হওয়ার স্বপ্ন দেখছেন। যদিও সেই স্বপ্ন পূরণে পথে রয়েছে সংশয় ও নানা বাঁধা। তারপরও এগিয়ে যেতে চায় আঁখি মনি। তার মতে, চা বিক্রিতা থেকে যদি নরেন্দ্র মোদী ভারতের প্রধানমন্ত্রী হতে পারে, তাহলে আমি আঁখি মনি ডাক্তার হতে পাবো না কে ? আঁখি মনি লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলার গড্ডিমারী দ্বি মুখী উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এবার এসএসসি গোল্ডন এ প্লাস পেয়েছে। মাসহ আখি মনি মধ্য গড্ডিমারী গ্রামের জনৈক সফিয়ার রহমানের বাড়িতে অশ্রিত থাকেন।

আঁখি মনির মা জয়নব নেছা বলেন, বাড়ির পাশে গড্ডিমারী হাটখোলাতে পুরাতন কাপড় সেলাই করে দুই মেয়েকে নিয়ে কোন রকম বেচেঁ আছি। মেয়ের ইচ্ছা লেখাপড়া করা কিন্তু আমার সেই আর্থিক সমর্থন নেই। কিছু টাকা পেলে ওই টাকা দিয়ে নতুন কাপড় কিনে ছোট বাচ্চা ও মেয়েদের কাপড় তৈরী করে গ্রামে গ্রামে ঘুরে বিক্রি করে যে লাভ হবে তা দিয়ে মেয়ের লেখাপড়ার খরচ চালাতে পারবো। কিন্তু সেই অর্থ আমার নেই।

আঁখি মনি বলেন, যত বাঁধাই হোক, আমি এগিয়ে যাবো। আমার মত আর কেউ যেনো চিকিৎসার অভাবে বাবা হারা না হয়। সেই লক্ষেই আমাকে এগিয়ে যেতে হবে।

ওই স্কুলের প্রধান শিক্ষক আতোয়ার রহমান বলেন, মেয়েটি পিএসসি ও জেএসসিতে গোল্ডন এ প্লাস ও বৃক্তি পেয়েছে। সুযোগ পেলে সে তার স্বপ্ন পূরণ করতে পারবে। এত কিছুর মাঝেও এগিয়ে যেতে চলছে আঁখি মনির নিরন্তর চেষ্টা। কিন্তু জীবনের ফুল ফোঁটাবে কি ভাবে? এই ভাবনা তাকে কুড়ে কুড়ে খাচ্ছে প্রতিনিয়ত।

হাতীবান্ধা উপজেলার গড্ডিমারী ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য আব্দুল লতিফ বলেন, আঁখি মনি মেধাবী ও গরীব। তার মা অন্যের বাড়িতে আশ্রিত। তার লেখাপড়ার জন সহযোগিতা প্রয়োজন।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর