২২ জুলাই ২০১৭
দুপুর ২:৫০, শনিবার

ঠাকুরগাঁওয়ে মাদকসহ ইউপি চেয়ারম্যানের ছেলে আটক

ঠাকুরগাঁওয়ে মাদকসহ ইউপি চেয়ারম্যানের ছেলে আটক 

555

ঠাকুরগাঁও, ৬ জুন : ঠাকুরগাঁও সদরে ইয়াবা ও গাঁজাসহ এক চেয়ারম্যানের ছেলেকে আটক করেছে পুলিশ।

আটক মো. তুহিন (২০) উপজেলার জামালপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নজরুল ইসলামের ছেলে।

সোমবার রাত ৯টার দিকে জামালপুরের হাটপুকুর এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয় বলে ঠাকুরগাঁও সদর থানার এসআই নবিউল ইসলাম জানান।

তিনি বলেন, গোপন সংবাদে হাটপুকুরে অভিযানে যায় পুলিশ। এ সময় ২০ টি ইয়াবা ট্যাবলেট ও দেড়শ গ্রাম গাঁজাসহ তুহিনকে আটক করা হয়।

এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানান এসআই নব

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

বিদ্যুত বিভ্রাট ঠাকুরগাঁওয়ে জন-জীবন বির্পযস্ত 

সোহেল পারভেজ, ঠাকুরগাঁও, ৩ মে : কালবৈশাখী ঝড়ের অজুহাত দেখিয়ে গত দুদিন ধরে ঠাকুরগাঁওয়ে বিদ্যুত বিভ্রাটে জনজীবন হাফিয়ে উঠেছে । অফিস-আদালত, ব্যাংক-বীমা, ব্যবসা-প্রতিষ্ঠান স্বাভাবিক র্কাযক্রম অচলাব্যস্থা বিরাজ করছে ।

হঠাৎ আলোর ঝলকানি। এরপর হারিয়ে যাচ্ছে বিদ্যূৎ। মঙ্গলবার ভোর থেকে বুধবার সারাদিন এ ভোগান্তির মুখে পড়েছে মানুষ। হাসপাতাল সুত্রে জানা গেছে,বিদ্যূৎ বিপর্যয়ের কারণে অনেক জটিল অপারেশনের সময় পিছিয়ে দেয়া হয়।

ঠাকুরগাঁও বিদ্যুৎ বিতরণ কেন্দ্রের কর্মকর্তা অরুনাংশু চন্দ্র রায় জানান, জাতীয় গ্রিডে সমস্য দেখা দেয়ায় এই অচল অবস্থা সৃষ্টি হয়েছে।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

হাওড়ের মানুষের কাঁন্না থামাতে সরকার ব্যর্থ : মির্জা ফখরুল 

সোহেল পারভেজ, ঠাকুরগাঁও, ২৯ এপ্রিল : বিএপির মহা সচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন,বর্তমান সরকারের প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা ভারতে গিয়ে শূণ্য হাতে দেশে ফিরেছে। এই সরকার হাওড়ের মানুষের কাঁন্না থামাতে পারছে না। দেশ এক ভয়াবহ অবস্থায় পরিণত হয়েছে।

শনিবার ঠাকুরগাঁও জেলা পরিষদ মিলনায়তনে আয়োজিত জেলা জাতীয়তাবাদী ছাত্র দলের দ্বি-বার্ষিক সম্মেলনে বিকালে প্রধান অতিথির ভাষনে তিনি এ সব কথা বলেন।

জেলা ছাত্র দলের সভাপতি রাশেদ আলম লাবুর সভাপতিত্বে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন, জেলা বিএনপির আহবায়ক তৈমুর রহমান, ঠাকুরগাঁও পৌরসভার মেয়র মির্জা ফয়সাল আমিন, ছাত্র দলের কেন্দ্রিয় সংসদের সভাপতি রাজীব আহসান, সহ-সভাপতি তরিকুল ইসলাম টিটু, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান সোহাগ, নুরুল হুদা বাবু প্রমুখ।

মির্জা ফখরুল ২৫ মিনিটের বক্তব্যে আরও বলেন,নতজানু ও তাঁবেদার এই সরকার ক্ষমতা কুক্ষিগত করে দেশে স্বৈর শাষন কায়েম করে দেশের মানুষকে বনসাই করে রেখেছে। গণতন্ত্র, স্বাধীনতা, সার্বভৌমত্ব আজ বিপন্য। তিনি বলেন, দেশের রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক অবস্থা নাজুক। চাল-ডাল সহ নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য মূল্যের উর্দ্বগতিতে সাধারণ মানুষ ভাল নেই। বিএনপির মহা-সচিব বলেন, আওয়ামীলীগ জানে বিএনপি ক্ষমতায় এলে আর আওয়ামীলীগ ক্ষমতায় আসতে পারবেনা ভেবে রাষ্ট্রযন্ত্রকে দলীয়যন্ত্রে পরিনত করেছে। সরকার বিচার বিভাগকে অযৌক্তিক ভাবে হস্থক্ষেপ করছে যা গণতন্ত্র ও স্বাধীণ বিচার ব্যবস্থা ভুলনটিত হচ্ছে। প্রবৃদ্ধির হার বেড়েছে। তবে ধনীদের। সাধারণ মানুষ গরিব থেকে আরও গরিব হচ্ছে। মির্জা ফখরুল এই অন্যায়ের প্রতিবাদে সবাইকে রুখে দাঁড়ার আহবান জানান।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

বিনা চিকিৎসায় রোগেীর মৃত্যু, হরিপুরে বিক্ষোভ 

সোহেল পাররেভজ, ঠাকুরগাঁও, ২৬ এপ্রিল : ঠাকুরগাঁওয়ের হরিপুরে এক ব্যক্তির বিনা চিকিৎসায় মৃত্যুর ঘটনায় জনরোষ আকার ধারণ করেছে। ক্ষোভ থেকে বিক্ষোভে পরিণত হয়েছে। বিক্ষুব্ধরা হাসপাতালের গেট ভাংচুর করে বন্ধের দাবি জানিয়ে আন্দোলন করছে।

গত ১৬ এপ্রিল জেলা মাসিক উন্নয়ন সভায় হরিপুর উপজেলার চেয়ারম্যান স্থাণীয়দের এই দাবি তুলে ধরেন। উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ নুরুল ইসলাম অভিযোগ করে বলেন, হরিপুর উপজেলা হাসপাতালের (হেল্থ কমপ্লেক্স) বেহাল অবস্থা। চিকিৎসের অভাবে ঐ উপজেলার মানুষ স্বাস্থ্য সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের ইউনিট ডেপুটি কমান্ডার সোলায়মান আলী ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন,মিটিং করে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে হাসপাতালে তালা ঝুলিয়ে দেয়ার। তার অভিযোগ যেখানে মানুষ চিকিৎসা পাচ্ছেনা! অযথা সরকারের তহবিল খালি হবে এটা হরিপুরের মানুষ মেনে নিতে পারছে না। একই সুর মিলালেন হরিপুর ইউপি চেয়ারম্যান আতাউল ইসলাম মংলা ।

গত ১১ এপ্রিল কালবৈশাখীর ঝড়ের তান্ডবে সীমান্তে সোলার প্যানেল ভেঙ্গে পড়ে। এই প্যানেলের আঘাতে উপজেলার কান্দাল গ্রামের খোরশেদ আলম সরকার মানিক (৩২) ও তার স্ত্রী মৌসুমী আক্তার (২৬) গুরুতর জখম হন। ঐ সময় স্থাণীয়রা তাদের উদ্ধার করে হরিপুর উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি করে। কিন্তু ডাক্তার না থাকায় বিনা চিকিৎসায় খোরশেদ আলম সরকার মারা যান। মৌসুমীকে পরে রাণীশংকৈল উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় এলাকা বাসী ক্ষুব্ধ হয়ে হাসপাতালের গেট ভাংচুর ও বিক্ষোভ করে।

হাসপাতাল সুত্রে জানা গেছে, হরিপুর হেল্থ কমপ্লেক্স সহ উপজেলার ইউনিয়ন স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ২৮ জন চিকিৎসকের মধ্যে এখন ১ জন চিকিৎসক কর্মরত রয়েছে। হাসপাতালের কর্মরত চিকিৎসক ডা. অমিত কুমার ঘোষ বলেন,তার পক্ষে একাই এলাকার মানুষকে স্বাস্থ্য সেবা দেয়া সম্ভব হচ্ছে না। তিনি জানান, তাকে ডেপুটিশনে (প্রেষণে) হরিপুরে অতিরিক্ত দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। এক্স-রে মেশিন, এম্বুলেন্স, ইসিজি মেশিন বিকল হয়ে পড়ে আছে। সার্জারী ও অর্থপেডিক চিকিৎসার যন্ত্র পাতিও নষ্ট হচ্ছে দীর্ঘ দিন পড়ে থাকায়।

এ বিষয়ে ঠাকুরগাঁও সিভিল সার্জন ডা.আবু মোহাম্মদ খয়রুল কবির বলেন, ঐ উপজেলার মানুষের স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করতে ডাক্তার পোষ্টিং দেয়া হয়েছে। এর মধ্যে ২ জন ছুটিতে আছে।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

ঠাকুরগাঁও হাজীপাড়া স্কুলের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠান 

00

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি: ঠাকুরগাঁও হাজীপাড়া আদর্শ উচ্চ-বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগীতা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার বিদ্যালয় মাঠে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সাদেক কুরাইশী।

এ সময় প্রধান শিক্ষক মিনহাজুল ফেরদৌসের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, আশরাফুল হক চৌধুরী, সুলতান আহম্দে আবুল, আনজুমান আরা বন্যা ও অন্যরা।
অনুষ্ঠানটির সঞ্চালক ছিলেন মামুনুর রশিদ।

বক্তারা বলেন, দেশের যে কোন ক্রান্তিময় মুহূর্তে তরুনদেরই পাশে দাড়াতে হবে। প্রতিযোগীতা শেষে বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করা হয়।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

ঝড় ও শিলা বৃষ্টিতে ঠাকুরগাঁওয়ে মরিচ-ভুট্টা ক্ষেতের ব্যপক ক্ষতি 

সোহেল পারভেজ, ঠাকুরগাঁও, ১৭ এপ্রিল : কালবৈশাখীর ঝড় ও শিলা বৃষ্টিতে ঠাকুরগাঁওয়ে বিশাল এলাকা জুড়ে শত-শত বিঘা জমির মরিচ, ভুট্টা সহ বিভিন্ন ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে।

শনিবার ঝড়ের তান্ডব ও শিলা বৃষ্টির আঘাতে গাছগুলো মাটিতে নুয়ে পড়ে। মরিচের ফুল ঝরে পরে। ভুট্টার পাতা ছিন্ন বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে। এতে ফলনের মারাত্বক হ্রাস পাবে বলে জানিয়েছে ক্ষতিগ্রস্থ কৃষকরা। সদর উপজেলার বাঁকসিড়ি আরাজি ফকদনপুর গ্রামের কৃষক প্রতাব চন্দ্র রায় বলেন,তিনি ৫বিঘা জমিতে মরিচ ও ৬বিঘা জমিতে ভুট্টা এবং ১০ বিঘা জমিতে সবজির আবাদ করেছিলেন। ঝড়ে তার ফসল লন্ড-ভন্ড হয়ে গেছে। একই অবস্থায় পড়েছে জেলার বালিয়াডাঙ্গী, পীরগঞ্জ ও সদর উপজেলার সহস্রাধিক কৃষক।

কৃষি বিভাগ জানিয়েছে প্রায় ১০ হাজার বিঘা জমির মরিচ-ভুট্টা-বোরো ধ্না ও শাক সবজি এই প্রাকৃতিক দূর্যোগে বিনষ্ট হয়েছে। কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক কেএম মাউদুদুল ইসলাম বলেন, এখনও ফসলের ক্ষয় ক্ষতি সম্পূর্ন ভাবে নিরুপন করা সম্ভব হয় নি। তিনি জানান, ক্ষতির পরিমাণ বাড়তে পারে ।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

শিক্ষার্থী শারিরীক নির্যাতনের শিকার 

2

সোহেল পারভেজ, ঠাকুরগাঁও, ১১ এপ্রিল : শিক্ষকের ডাস্টারের আঘাতে শিশু শিক্ষার্থী লিমন গুরুতর আহত হয়ে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

হাসপাতাল ও পুলিশ সুত্রে জানা গেছে,সোমবার দুপুরে লিমনকে তার পরিবার রক্তাক্ত অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করে।

লিমন জানায়, সে ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার কালিকাগাঁও সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণীর ছাত্র। শ্রেণী কক্ষে ক্লাস চলাকালে সে তার শিক্ষক মিজানুর রহমানকে নালিশ দিতে গেলে তাকে লক্ষ্যকরে ডাস্টার ছুড়ে মারে ঐ শিক্ষক। ডাস্টারের আঘাতে তার মাথা ফেটে যায়। হাসপাতালের কর্মরত চিকিৎসক ডা. শুভেন্দু চন্দ্র রায় জানান, লিমন এখন সুস্থ। এ ঘটনার পর ঐ শিক্ষক গা ঢাকা দিয়েছে।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

ঠাকুরগাঁও শহরে অগ্নিকাণ্ড, আহত ১৩ 

সোহেল পারভেজ, ঠাকুরগাঁও, ১০ এপ্রিল : ঠাকুরগাঁও শহরের বিএনপি অফিস সংলগ্ন একটি এল্যুমিনিয়াম দোকান আগুনে ভস্মিভুত হয়েছে। আগুন নেভানোর সময় কমপক্ষে দোকান কর্মচারী সহ ১৩ জন আহত হয়েছেন ।

সোমবার সন্ধ্যা ৭ টার সময় আকস্মিক ভাবে ঐ দোকনে আগুনের লেলিহান শিখা ছড়িয়ে পড়ে। এতে আনুমানিক ৫০ লাখ টাকার মালামাল পুরে যায়।

দমকল বাহিনী খবর পেয়ে ঘটনা স্থলে উপস্থিত হয়ে প্রায় ২ ঘন্টা অভিযান চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনে।

ঠাকুরগাঁও দমকল বাহিনীর উপ-পরিচালক আনিসুর রহমান বলেন, অগ্নিকান্ডের সুত্রপাত নির্ণয়ের কাজ চলছে। তবে প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে বৈদ্যূতিক শর্ট সার্কিট থেকে এ অগ্নি কাণ্ডের সুত্রপাত ঘটতে পারে।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

মমতার বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছে বালিহাঁসের ঝাঁক 

0

সোহেল পারভেজ, ঠাকুরগাঁও, ৮ এপ্রিল : জল ও বন জঙ্গল বাসিন্দা বালিহাঁসের ঝাঁক ঠাকুরগাঁওয়ের একটি বাড়িতে মমতার বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছে । ভোর হলেই আহারের খোঁজে উড়ে যায় খাল-বিল ও নদী-নালায়। আর সন্ধ্যায় ফিরে আসে ঐ বাড়িতে । মানুষ ও পাখির ভালবাসার এমন বিরল দৃষ্টান্ত এবাদুল হকের বাড়িতে। এ যেন মানুষ আর প্রকৃতির মধ্যে এক আত্মীয়তার বন্ধন ।

জানা গেছে দুই বছর আগে আকস্মিক কালবৈশাখীর ঝড়ে নীড়হারা এই বালিহাসের ঝাঁক ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার কহরপাড়া গ্রামের এবাদুল হকের বাড়িতে ঢুকে পড়ে। সেই থেকে ১৪টি বাচ্চা নিয়ে মা-বাবা পাখি তার বাড়িতে আশ্রয় নেয়। পাখি প্রেমিক এবাদুলও তার বাড়িতে আসা বালিহাঁস গুলোকে আপ্যায়ন করে গোয়াল ঘরের একটি কোনে থাকতে দেয়। সকাল হলেই পাখির কল-কাকলিতে মুখরিত হয়ে ওঠে এবাদুলের বাড়ি। কিন্তু এলাকার পাখি শিকারীদের লোলুপ দৃষ্টি পড়ে পাখিগুলোর উপর। শিকারীদের অত্যাচারে মা ও বাবা বালিহাঁস দুটি চলে গেলে অসহায় হয়ে পড়ে ১৪টি বাচ্চা। পাখিপ্রেমিক এবাদুল হক সন্তানের মত আদর যতনে বাচ্চা গুলোকে বড় করে। বছর গড়িয়ে বাচ্চা গুলো খোলা আকাশে উড়তে শেখে। পরিচিত হয়ে যায় এলাকার সকলের। বনের পাখি আকাশে উড়ে গেলে আর ফিরে আসেনা। কিন্তু বালিহাঁস গুলো যেন এবাদুলের ভালবাসার টানে আবার ফিরে আসে। এ যেন বিনিসুতোয় গাঁথা এক বন্ধন। কিন্তু শিকারীদের হাত থেকে রেহাই পাচ্ছে না পাখি গুলো। কমতে কমতে এখন দাঁড়িয়েছে ৩ টিতে। এবাদুল হক জানায়, তিনি পেশায় দিন মজুর। যা আয় করেন তার একটি অংশ পাখিগুলোর পেছনে খরচ করেন। সরকারি ভাবে সহায়তা পেলে পাখিগুলো পরিচর্যার মাধ্যমে বংশ বৃদ্ধি করা সম্ভব হতো।

মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল করিম বলেন, এবাদুল হকের বাড়িটি পাখির কল-কাকলিতে অন্যরকম নৈর্শগিক পরিবেশ তৈরি হয়েছে। স্থাণীয় বন সংরক্ষক কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, বন ও বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ আইন অনুযায়ী পাখিগুলোকে মুক্ত আকাশে ছেড়ে দেয়া উচিৎ। তবে বন কর্মকর্তার এই বক্তব্য প্রসংগে পাখি প্রেমিক এবাদুল হক বলেন, সন্তানের মত সেগুলোকে তিনি লালন পালন করে বড় করেছেন। তিনি আরো বলেন, পাখি গুলো ভোরে খাল-বিল, নদী-নালায় আহারের খোঁজে যায়। আবার সন্ধ্যা হলে তার বাড়িতে ফিরে আসে। জেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা রফিকুল ইসলাম বলেন,নিবিড় ভালোবাসার টানে পাখিগুলো তার বাড়িতে বাস করছে।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

বিএনপি নির্বাচনের জন্য প্রস্তুত : ঠাকুরগাঁওয়ে মির্জা ফখরুল 

2

আনজুমান আরা বন্যা, ঠাকুরগাঁও, ১৯ মার্চ : বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, বিএনপি সব সময় নির্বাচনের জন্য প্রস্তুত। এজন্য পরিবেশ তৈরি করতে হবে সরকারকে।

রোববার সকালে নিজ শহর ঠাকুরগাঁওয়ের তাঁতীপাড়া পৈত্তিক বাসভবনে দলীয় নেতাকর্মীদের সাথে মতবিনিময় শেষে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন তিনি।

এসময় জেলা বিএনপির আহবায়ক তৈমুর রহমান,ঠাকুরগাঁও পৌরসভার মেয়র মির্জা ফয়সাল আমিন সহ দলীয় নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

মির্জা ফখরুল আরও বলেন,দেশ ও জনগনের কল্যানে গণতন্ত্র অপরিহার্য্য। গণতন্ত্র মানুষের মৌলিক অধিকার আদায়ের একটি উত্তম মাধ্যম। জন বিচ্ছিন্ন এই সরকার এক নায়ক তন্ত্র কায়েম করে ক্ষমতা ধরে রাখতে চায়। সরকার আগামি জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পরিবেশ তৈরি করতে ব্যর্থ হলে এর দায় ভার সরকারকেই নিতে হবে।

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন,দেশে গণতন্ত্র বিপন্ন হওয়ায় জঙ্গীদের উত্থান ঘটছে। এই সমস্যা মোকাবেলায় জাতীয় ঐক্যের দরকার। আর এই ঐক্য গড়েতোলার দায়িত্ব সরকারের।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তর শেষে তিনি ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা দেন।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

চা পান করে ২ শিশুর মৃত্যু, অসুস্থ আরো ৪ জন 

সোহেল পারভেজ, ঠাকুরগাঁও, ১২ মার্চ : ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার রায়পুর ইউনিয়নের হরিন্দা গ্রামে ভুলক্রমে চা পাতা না দিয়ে চায়ে দানাদার বিষ (কিটনাশক) দিয়ে চা তৈরি করে পান করায় একই পরিবারের ২ শিশুর মৃত্যু সহ ৪ জন অসুস্থ হয়েছে। অসুস্থদের ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

রবিবার বেলা ২টায় এ ঘটনা ঘটে। মৃতরা হলেন, সোহান (৭), সোহানা (২)। অসুস্থরা হলেন, জমিলা (৫০), সরুফা (৪০), সাবিনা (২৫), সাদিয়া (৫)।

পারিবারিক সুত্রে জানা গেছে, সদর উপজেলা রায়পুর ইউনিয়নের হরিন্দা গ্রামের আলাউদ্দিনের স্ত্রী জামেলা (৫০) বাড়িতে মেহমান আসলে চায়ে চা পাতা না দিয়ে ভুলক্রমে দানাদার বিষ দিয়ে চা তৈরি করে। সেই চা পরিবারের ৬ জন পান করেন। এ সময় তাৎক্ষনিক বিষক্রীয় হয়ে শিশু সোহান (৭) ঘটনাস্থলেই মারা যায়। অসুস্থ হয় আরো ৫ জন। পারিবারের লোক অসুস্থদের উদ্ধার করে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন। পরে হাসপাতালে সোহানা (২) মারা যায়।

ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে কর্তব্যরত চিকিৎসক রফিকুল হক জানান, সকলকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ভর্তি করে নেওয়া হয়েছে।

স্থানীয় চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম জানান, আমার ইউনিয়নে হরিন্দা এলাকায় এক বয়স্ক মহিলা চা তৈরি করার সময় ভুলক্রমে বিষ দেয়। এ সময় এক শিশু মারা যায়। অসুস্থ আরো ৫ জনকে আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে আরেক শিশু সোহানা (২) মারা যায়।

ঠাকুরগাঁও থানার ওসি মশিউর রহমান জানান, পুলিশ তাৎক্ষনিক ঘটনাস্থলে গিয়েছে। শক্রুতাক্রমে এমনটি হয়েছে কিনা তা খতিয়ে দেখা হবে।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

পুরুষশুন্য গ্রাম, অসহায় শিশু ও নারীদের কাঁন্নার রোল 

0000

সোহেল পারভেজ, ঠাকুরগাঁও, ১১ মার্চ : টেংরিয়া দিলগাঁও গ্রামের শতাধিক পরিবারের উপার্জনক্ষম ব্যক্তি এখন ঘর-বাড়ি ছাড়া। এতে শিশু সন্তান নিয়ে অসহায় হয়ে পড়েছে এ গ্রামের নারীরা। সংসারে আয় রোজগার না থাকায় অর্ধহারে-অনাহারে মানবেতর দিনযাপন করছে এই অসহায় পরিবার গুলো। হয়রানী আর আতংকে নির্ঘুম রাত কাটাচ্ছে নারী ও শিশুরা। আর দিনে শুধু ওই গ্রামে কাঁন্না আর আহাজারী। অসহায়দের পাশে কেউ  না থাকায় কাঁন্নার রোল থামছেনা। অচেনা লোককে দেখলেই মুহূর্তেই আতংক ছড়িয়ে পড়ে গ্রামে।

এই পরিস্থিতির উদ্ভব হয়েছে ঠাকুরগাঁওয়ের হরিপুর উপজেলার ভাতুরিয়া ইউনিয়নের  টেংরিয়া দিলগাঁও গ্রামে। গত ২৬ ফেব্রুয়ারি সকালে পাশের গ্রাম লেহেম্বার কুলিক নদীতে মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ হয়। এতে কয়েকজন আহত হন। এদের মধ্যে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিরেশ চন্দ্র রায় (৩৫) মারা যান। এ ঘটনায় নিরেশের ভাই মহেন্দ্র নাথ রায় বাদী হয়ে দিলগাঁও গ্রামের ৭জনকে আসামী করে রানীশংকৈল থানায় মামলা দায়ের করেন। এজাহার ভুক্ত আসামীদের খুঁজে না পেয়ে পুলিশ গ্রামবাসীদের হয়রানী করছে বলে অভিযোগ ওঠেছে। ভুক্তভোগীদের অভিযোগ, পুলিশের হয়রানী ও গণগ্রেপ্তারের ভয়ে ওই গ্রামের পুরুষরা বাড়ি ছেড়েছে। দুলালী বেগমের স্বামী নাসিরুল ইসলাম পনের দিন ধরে পরিবার ছেড়ে লাপাত্তা হয়েছে। দুলালী কেঁদে কেঁদে বলেন, তার স্বামী পেশায় দিনমজুর। দুয়ারে দুয়ারে ঘুরে তিন মেয়ের মুখে খাবার তুলে দিচ্ছি। সে (নাসিরুল) না থাকায় শিশু সন্তানদের নিয়ে দারুন কষ্টে আছি। একই কষ্টের কথা জানালেন, মোকসেদা বেগম। তিনি বলেন, দুই ছেলে ঢাকায় লেখা পড়া করে। এক ছেলে অষ্টম শ্রেণিতে পড়ে এলাকার একটি স্কুলে। তার স্বামী সলিমউদ্দিনও দিনমজুর। আয় রোজগার না থাকায় টাকা পাঠাতে পারছেনা মোকসেদা। গ্রামের আবুল হাসেমও স্ত্রী-ছেলে-মেয়ে ফেলে বাড়ি ছেড়েছেন। তার বড় মেয়ে হুসনে আরা দশম শ্রেণীর ছাত্রী। হুসনে আরা কেঁদে বলেন,বাবা না থাকায় লেখা পড়ার খরচ বন্ধ হয়েছে। এ কারণে সে আর স্কুলে যাচ্ছে না। একই অবস্থার শিকার এ গ্রামের অনেক পরিবার। স্কুল শিক্ষক শওকত আলী জানান,তার গ্রামের মসজিদে ভয়ে কেউ নামাজ পড়তে যায় না। হাট বাজারে লোক সমাগম কমে গেছে। তিনি আরও বলেন, পুরুষরা বাড়িতে না থাকায় ক্ষেত খামার নষ্ট হচ্ছে।

এ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন,ভাতুরিয়া ইউপি চেয়ারম্যান মোহাম্মদ শাহজাহান। তিনি নিরপরাধী মানুষকে হয়রাণী না করতে পুলিশকে অনুরোধ করেছেন।
অ্যাড. সোহরাব হোসেন প্রধান বলেন,এজাহার ভুক্ত ৭ জন আসামী আছে এবং এজাহার কারী সুনিদিষ্ট ভাবে কে কি ভাবে হত্য করেছে এটা স্পর্ষ্ট করা আছে। তবুও পুলিশ শুধু মাত্র হয়রাণী করার জন্য ওই গ্রামে হানা দিচ্ছে। আইনে এ ধরণের কোন ব্যাখ্যা নেই। তিনি পুলিশের ভুমিকা নিয়ে প্রশ্ন তোলে বলেন, এটা মানবাধিকার লংঘন। স্বাধীন দেশে এটা কাম্য নয়।

মামলার বাদি মহেন্দ্র নাথ রায় চিহারুরও দাবি, নিরপরাধী কোন মানুষ যেন হয়রাণীর শিকার না হয়। হত্যাকান্ডের সঙ্গে যারা জড়িত তাদের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবি করেছেন নিহতের স্বজনরা।

এ প্রসঙ্গে রাণীশংকৈল থানার ওসি রেজাউল করিম মুঠোফোনে বলেন, আমরা কী কাউকে পাহাড়া দিয়ে বাড়িতে রাখব? এ বলে তিনি এড়িয়ে যান।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

ঠাকুরগাঁওয়ে বাল্যবিবাহ প্রতিরোধে গোল টেবিল বৈঠক 

সোহেল পারভেজ, ঠাকুরগাঁও, ৬ মার্চ : ঠাকুগাঁওয়ে বাল্যবিবাহ, শিশু শ্রম,নির্যাতন ও শিশুদের স্কুল মুখী করতে গোল টেবিল বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। রোববার একটি বে-সরকারী উন্নয়ন সংস্থা ওয়াল্ড ভিশন এ অনুষ্ঠান আয়োজন করে। এতে সরকারী কর্মকর্তা, শিক্ষক, সাংবাদিক, জনপ্রতিনিধি সহ বিভিন্ন পেশা জীবি নারী পুরুষ অংশ নেয় ।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

গণ ধর্ষনের দায়ে ৪ জনের আমৃত্যু কারাদণ্ড 

সোহেল পারভেজ, ঠাকুরগাঁও, ৬ মার্চ : ঠকুরগাঁওয়ে এক গৃহবধূকে গণধর্ষনের দায়ে আলমগীর হোসেন, ইসমাইল হোসেন, ইউসুফ আলী ও আরিফ হোসেনকে যাবজ্জীবন সশ্রম কাদণ্ড ও প্রত্যেককে এক লাখ টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো ৩মাস সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত। দন্ডপ্রাপ্তদের বাড়ি সদর উপজেলার  রুহিয়া মাধবপুর ও উত্তর বোয়ালিয়া গ্রামে।

সোমবার দুপুরে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালতের বিচারক মীর্জা মোহাম্মদ আয়ুব আলী এ রায় দেন।

মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০১৫ সালের ১৭ জুন দিবাগত রাতে সদর উপজেলার উত্তর বোয়ালিয়া গ্রামের মিজানুর রহমানের স্ত্রী আঞ্জুয়ারা বেগমের বাড়িতে প্রবেশ করে ওই গ্রামের  আলাউদ্দিনের ছেলে আলমগীর, জমসের আলীর ছেলে ইসমাইল, আমির হোসেনের ছেলে আরিফ হোসেন ও মৃত বারেকের ছেলে ইউসুফ আলী। ওই গৃহবধূর স্বামী ঐ দিন  বাড়িতে না থাকার সুযোগে ধারালো অস্ত্র নিয়ে প্রবেশ করে গণধর্ষন করে। এ ঘটনায় পরদিন বাদী হয়ে ওই গৃহবধু ৪জনকে আসামী করে থানায় মামলা দায়ের করে। এ ঘটনায় পুলিশ ৩জনকে আটক করে। ঘটনার পর থেকে আরিফ হোসেন পলাতক রয়েছে। দীর্ঘদিন সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে ঘটনা প্রমাণিত হওয়ায় এই রায় দেন আদালত।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

শিশুদের চিকিৎসা চলছে খোলা আকাশে 

00

সোহেল পারভেজ, ঠাকুরগাঁও, ৩ মার্চ : পুঁতিময় গন্ধ, আলোবাতাস নেই, নেই পানির সরবরাহ। ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালের চিত্র এটি। শয্যার অভাবে করিডোর ও হাসপাতাল চত্বরের খোলা আকাশের নিচে চলছে শিশুদের চিকিৎসা। সদর উপজেলার আখানগর ইউনিয়নের মাধবপুর গ্রামের সোলায়মান আলীর ১০ মাসের শিশু জিসান পেটের পীড়ায় আক্রান্ত হলে তাকে বুধবার সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। কিন্তু হাসপাতালের শিশু ওয়ার্ডে তিল ধারণের ঠাঁই নেই। শেষতক সিভিল সার্জন কার্যালয় চত্বরে খোলা আকাশের নিচে তার শিশুর চিকিৎসা নেন সোলায়মান আলী। ঐ দিন খোলা আকাশের নিচে ৩৫ শিশুর চিকিৎসা দেন নার্স-ডাক্তার।

পঞ্চগড়ের জগদল গ্রামের রেহেনা বেগম অভিযোগ করে বলেন, এ হাসপাতালে চিকিৎসার কোন পরিবেশ নেই। পঁচা, দূগন্ধে থাকা যায় না। এ ছাড়া শৌচাগারে পানির ব্যবস্থা নেই। রাতে বাতিও জলে না। এরকম অবস্থায় তাদের চিকিৎসা নিতে হচ্ছে। রেহেনার সুরে বিউটি রাণীর অভিযোগ হাসপাতাল থেকে কোনও ওষুধ পাওয়া যাচ্ছে না। সব কিছুই দোকান থেকে নিতে হচ্ছে। আকচা ইউনিয়নের বৈকন্ডপুর গ্রামের ইউনুস আলীর অভিযোগ নার্সরা রোগীদের স্বজনদের সঙ্গে অস্বাদ আচরণ ও দায়িত্বে অবহেলা করছে। ওয়ার্ডে কর্মরত ডাক্তারকে অভিযোগ করলে তারা বলেন,সব কিছু ঠিক আছে। কিন্তু কোন প্রতিকার হচ্ছে না।তিনি বলেন সিভিল সার্জন কে খুঁজে পাওয়া যায়না। অফিস সুত্রে জানা গেছে বিশেষ কাজে  সিভিল সার্জন ঢাকায় অবস্থান করছেন।

শুক্রবার হাসপাতাল ঘুরে দেখা গেছে, সাহপাতালের বারান্দায় দুপাশের ঘর গুলোর দরজায় দরজায় শুধুই রোগী আর তাদের স্বজনদের ভিড়। বোঁটকা দূগন্ধে রোগীরা নাকে কাপড় ঢেকেছে। হাসপাতালের আবাসিক কর্মকর্তা ডা.আব্দুল জব্বার বলেন, ৫০ শয্যার হাসপাতাল থেকে ১শ শয্যায় উন্নতি করে উদ্বোধনী ভিত্তি প্রস্থর স্থাপন করা হয়েছে ১৯৯৭ সালে। গত বছর ভবন সম্প্রসারণের কাজ শুরু হয়েছে। ফলে এই সমস্য দেখা দিয়েছে।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর