২৯ মে ২০১৭
সকাল ৭:৫৪, সোমবার

রাজধানীতে এক পশলা স্বস্তির বৃষ্টি

রাজধানীতে এক পশলা স্বস্তির বৃষ্টি 

655

ঢাকা, ২৮ মে : রাজধানীতে এক পশলা বৃষ্টি হয়ে গেল। আজ রবিবার বেলা ১২টার দিকে এই স্বস্তির বৃষ্টি হয়। বেশ কয়েকদিনের দুর্বিষহ তাপপ্রবাহের পর হঠাৎ বৃষ্টিতে জনজীবনে একটু স্বস্তির ছোঁয়া লাগলো।

কাওরান বাজারে আসা ব্যবসায়ী মোস্তাফিজ জানান, কয়েকদিনের টানা গরমে একেবারে অস্থির হয়ে গেছেন। ঢাকার বাইরে থেকে মালামাল নিয়ে তার ঢাকায় আসতে ইচ্ছে করছিল না। তবু জীবীকার জন্য আসতেই হয়। আর এই বৃষ্টিতে হাফ ছেড়ে বাঁচলেন তিনি।

তিনি আরো বললেন, এই বৃষ্টির ফলে শীতল বাতাসে রোজা পালন ভাল ভাবেই করা যাবে।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

আজ থেকে ব্যাংকে লেনদেন দুপুর আড়াইটা পর্যন্ত 

65

ঢাকা, ২৮ মে : পবিত্র রমজান মাস উপলক্ষে ব্যাংকের কর্মঘণ্টা ও লেনদেনের সময়সূচিতে পরিবর্তন এনেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

নতুন সময় অনুযায়ী রমজান মাসে লেনদেন হবে সকাল সাড়ে ৯টা থেকে দুপুর আড়াইটা পর্যন্ত। আর অফিস চলবে সকাল সাড়ে ৯টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত।

এর আগে বাংলাদেশ ব্যাংকের অফসাইট সুপারভিশন ডিপার্টমেন্ট এবং আর্থিক প্রতিষ্ঠান ও বাজার বিভাগ গত ১৭ ও ১৮ মে দু’টি পৃথক সার্কুলারে এ সময়সূচি নির্ধারণ করে।

ওই সার্কুলারে বলা হয়, সরকারি সিদ্ধান্ত অনুযায়ী দেশে কার্যরত সব তফসিলি ব্যাংক ও অন্যান্য আর্থিক প্রতিষ্ঠান পবিত্র রমজান মাসে সকাল সাড়ে ৯টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত খোলা থাকবে। এর মধ্যে দুপুর ১টা ১৫ মিনিট থেকে ১টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত জোহরের নামাজের বিরতি থাকবে। তবে এ বিরতির সময় অভ্যন্তরীণ সমন্বয়ের মাধ্যমে ব্যাংকের লেনদেন অব্যাহত রাখা যাবে।

সাধারণ সময়ে সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ব্যাংকে লেনদেন হয়। ব্যাংক ও ব্যাংকবহির্ভূত আর্থিক প্রতিষ্ঠানের অফিস সময় থাকে সকাল ১০টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত।

ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের মতো বাংলাদেশ ব্যাংকেরও অফিস সময় হবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত। এ সময়ের মধ্যে ব্যাংকগুলোকে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সঙ্গে দাফতরিক কাজ সম্পন্ন করতে হবে।

সার্কুলারে আরও বলা হয়, পবিত্র রমজান মাস অতিবাহিত হওয়ার পরে অফিস সময়সূচি পূর্বাস্থায় ফিরে আসবে।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

বিএনপি নেতা আসলাম চৌধুরীর জামিন বহাল 

32

ঢাকা, ২৮ মে : রাষ্ট্রদ্রোহ মামলায় বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব আসলাম চৌধুরীকে হাইকোর্টের দেওয়া জামিন বহাল রেখেছেন আপিল বিভাগ। আজ রবিবার প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বে চার বিচারপতির বেঞ্চ রাষ্ট্রপক্ষর আবেদন খারিজ করে দিয়ে এ আদেশ দেন। আদালতে আসলাম চৌধুরীর আইনজীবী মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেন, জামিনাদেশ বহাল থাকায় তার এখন জামিনে মুক্তি পেতে আর কোনো বাধা নেই। শুনানিতে রাষ্ট্রপক্ষের হয়ে উপস্থিত ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।

ভারতে গিয়ে ইসরায়েলি গোয়েন্দা সংস্থা মোসাদের এক কর্মকর্তার সঙ্গে ‘সরকার উৎখাতের’ জন্য আলোচনা করার অভিযোগ ছিল আসলাম চৌধুরীর বিরুদ্ধে। গত বছর দিল্লি ও আগ্রার তাজমহল এলাকায় ইসরায়েলের সেন্টার ফর ইন্টারন্যাশনাল ডিপ্লোমেসি অ্যান্ড অ্যাডভোকেসির প্রধান লিকুদ পার্টির নেতা মেন্দি এন সাফাদির সঙ্গে আসলাম চৌধুরীর বিভিন্ন অনুষ্ঠানে দেখা-সাক্ষাতের বেশ কিছু ছবি প্রকাশিত হলে দেশ-বিদেশে তোলপাড় শুরু হয়।

এরপর ২০১৬ সালের ১৫ মে সন্ধ্যায় রাজধানীর কুড়িল বিশ্বরোড এলাকা থেকে আসলাম চৌধুরী ও তার ব্যক্তিগত সহকারী মো. আসাদুজ্জামান মিয়াকে আটক করে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ। পরে তাদের ডিবি কার্যালয়ে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। পরদিন ১৬ মে ৫৪ ধারায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে তাদের দুজনের ১০ দিন করে রিমান্ডের আবেদন করে পুলিশ। আদালত সাত দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অনুমতি পাওয়ার পর ওই বছরের ২৬ মে আসলাম চৌধুরীর বিরুদ্ধে গুলশান থানায় দায়ের করা হয় রাষ্ট্রদ্রোহিতার মামলাটি। দণ্ডবিধির ১২০ (বি), ১২১ (৩) ও ১২৪ (এ) ধারায় ডিবির পরিদর্শক গোলাম রাব্বানী বাদী হয়ে মামলাটি করেন। বিচারিক আদালতে জামিন চেয়ে ব্যর্থ হওয়ার পর ১৮ মে বিচারপতি মিফতাহ উদ্দিন চৌধুরী এবং এ এন এম বসিরউল্লাহর হাইকোর্ট বেঞ্চ রাষ্ট্রদ্রোহ মামলায় আসলাম চৌধুরীর জামিন মঞ্জুর করেন। রাষ্ট্রপক্ষ এই আদেশের বিরুদ্ধে আপিল করেছিল।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

কুমিল্লায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রকে কুপিয়ে হত্যা 

6

কুমিল্লা, ২৮ মে : কুমিল্লায় বন্ধুদের কোপে নিহত হয়েছেন স্থানীয় ব্রিটানিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্র।

সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে নগরীর নজরুল এভিনিউ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত ছাত্রের নাম শাহজাদা (২০)। সে স্থানীয় ব্রিটানিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ছিল। সে নগরীর সুজানগর এলাকার সহিদ মিয়ার ছেলে।

কুমিল্লার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (দক্ষিণ) আবদুল্লাহ আল মামুন জানান, ঢাকায় নেয়ার পথে রাত সোয়া ১০ টার দিকে শাহজাদার মৃত্যু হয়।

পুলিশ জানায়, নিহত শাহজাদার সঙ্গে কুমিল্লা শিক্ষা বোর্ড মডেল কলেজের উচ্চ মাধ্যমিকের ছাত্র সাফায়াতের বন্ধুত্ব ছিল। কিছু দিন যাবৎ তাদের মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল। সন্ধ্যার দিকে নগরীর নজরুল এভিনিউ এলাকায় সাফায়াতসহ আরও ৩/৪ জন শাহজাদাকে কুপিয়ে মারাত্মক আহত করে পালিয়ে যায়।

স্থানীয়রা আহত শাহজাদাকে উদ্ধার করে প্রথমে কুমেক হাসপাতাল ভর্তি করে। পরে অবস্থার অবনতি হলে ঢাকায় নেয়ার পথে রাত সোয়া ১০ টার দিকে তার মৃত্যু হয়।

কোতয়ালী মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সালাহ উদ্দিন জানান, হত্যাকাণ্ডের বিস্তারিত কারণ এখনো জানা যায়নি।

ঘটনাস্থলে পাওয়া একটি ব্যাগের সূত্র ধরে অর্পণ নামে এক ছাত্রকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। সে নগরীর মডার্ন স্কুলের নবম শ্রেণির ছাত্র।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

পাকিস্তানের বিপক্ষে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ 

1452

স্পোর্টস ডেস্ক, ২৭ মে : চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে মাঠে নামার আগে নিজেদের ঝালিয়ে নিতে প্রথম প্রস্তুতি ম্যাচে পাকিস্তানের বিপক্ষে টস জিতে ব্যাট করছে বাংলাদেশ দল। এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত বাংলাদেশের সংগ্রহ বিনা উইকেটে ৭ রান। তামিম ১ ও সৌম্য ৫ রান নিয়ে ব্যাট করছেন।

পাকিস্তানের বিপক্ষে বাংলাদেশ সর্বশেষ ওয়ানডে খেলেছিল ২০১৫ সালে। তিন ম্যাচের ওই সিরিজে পাকিস্তানকে ৩-০তে হোয়াইটওয়াশ করেছিলেন টাইগাররা। তবে আগের সিরিজের ফল নিয়ে ভাবছেন না টাইগার অধিনায়ক। আর সামনে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি। এবার প্রেক্ষাপটও ভিন্ন। চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে ভালো করতে প্রস্তুতি ম্যাচটিকে গুরুত্বের সঙ্গে নিচ্ছেন টাইগার অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। প্রস্তুতি ম্যাচ বলে ব্যাপারটা হালকাভাবে নিতে নারাজ মাশরাফি। বলেন, ‘প্রস্তুতি ম্যাচগুলো খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আয়ারল্যান্ড ও ইংল্যান্ডের উইকেট খানিকটা ভিন্ন। পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ থেকে আমরা বেশ কিছুই শিখতে পারব। আমি মনে করি, এগুলো খুব বড় ম্যাচ।’

আসন্ন চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে `এ` গ্রুপে রয়েছে বাংলাদেশ। টাইগারদের সঙ্গী ইংল্যান্ড নিউজিল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়া। এই গ্রুপটিকে তো মাশরাফি দেখছেন ‘গ্রুপ অব ডেথ’ হিসেবেই। বাংলাদেশ অধিনায়ক বলেন, ‘আমরা যে গ্রুপে পড়েছি, সেটা বলতে গেলে “গ্রুপ অব ডেথ”। বিশ্বের বড় তিনটি দলের বিপক্ষে খেলতে হবে আমাদের। তাদের বিপক্ষে কোন কিছুই ভবিষ্যদ্বাণী করা যাবে না।’

বাংলাদেশ দল : মাশরাফি বিন মুর্তজা (অধিনায়ক), ইমরুল কায়েস, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মেহেদী হাসান মিরাজ, মোসাদ্দেক হোসেন, মুশফিকুর রহিম, মোস্তাফিজুর রহমান, রুবেল হোসেন, সানজামুল ইসলাম, সাব্বির রহমান, শফিউল ইসলাম, সাকিব আল হাসান, সৌম্য সরকার, তামিম ইকবাল ও তাসকিন আহমেদ।

পাকিস্তান দল : সরফরাজ আহমেদ (অধিনায়ক), আহমেদ শেহজাদ, আজহার আলী, বাবর আজম, ফাহিম আশরাফ, ফখার জামান, হাসান আলী, ইমাদ ওয়াসিম, জুনাইদ খান, মোহাম্মদ আমির, মোহাম্মদ হাফিজ, শাদাব খান, শোয়েব মালিক, উমর আকমল ও ওয়াহাব রিয়াজ।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

‘মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় নির্মিত ভাস্কর্য অপসারণের সুযোগ নেই’ 

25

ঢাকা, ২৭ মে : মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় নির্মিত কোনো ভাস্কর্য অপসারণের সুযোগ নেই বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেছেন, সারাদেশে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় নির্মিত ভাস্কর্য ও আগামীতে যেগুলো নির্মিত হবে সেগুলো অপসারণ করার প্রশ্নই উঠে না। সরকার এক্ষেত্রে অনড় ও অটল অবস্থানে রয়েছে।

আজ শনিবার সকালে নারায়ণগঞ্জের কাঁচপুরে ঢাকা-চট্টগ্রাম ও ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের যানজট নিরসন ও রাস্তা সম্প্রসারণ কাজ পরিদর্শনে গিয়ে সেতুমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি ও চেতনা নিয়ে বাংলাদেশে যেসব ভাস্কর্য স্থাপিত হয়েছে, সেগুলোর সঙ্গে সুপ্রিম কোর্টের ভাস্কর্যের কোনো সম্পর্ক নেই। এসব ভাস্কর্য আছে এবং ভবিষ্যতেও সরকারি অনুদানে নির্মিত হবে।

প্রধানমন্ত্রীর কথা উল্লেখ করে সেতুমন্ত্রী বলেন, যার অসীম সাহসের কারণে চিহ্নিত যুদ্ধাপরাধীদের বিচার সম্পন্ন হয়েছে, তার অবস্থান নিয়ে কথা বলা যৌক্তিক নয়। জাতির জনকের কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আল্লাহ ছাড়া কারো কাছে আত্মসমর্পণ করেন না।

রোজার ঈদকে সামনে রেখে জনভোগান্তি কমাতে মহাসড়কের দুই পাশের অবৈধ স্থাপনা অপসারণ ও পার্কিং করা ট্রাকসহ যানবাহন সরিয়ে নেওয়ারও নির্দেশ দেন সেতুমন্ত্রী।

এ সময় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা) ছরোয়ার হোসেন, সোনারগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মঞ্জুর কাদের ও কাঁচপুর হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শরিফুল আলম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, গত ডিসেম্বরে সুপ্রিমকোর্ট প্রাঙ্গণে ন্যায়বিচারের প্রতীক গ্রিক দেবী থেমিসের মূর্তির আদলে স্থাপন করা হয়েছিল একটি ভাস্কর্য। এটি স্থাপনের পর থেকেই তা অপসারণের দাবিতে হেফাজতে ইসলামীসহ বেশ কয়েকটি ধর্মভিত্তিক সংগঠন আন্দোলনে নামে।

গত ১০ এপ্রিল গণভবনে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কওমি মাদ্রাসার আলেম-ওলামাদের বৈঠকেও ভাস্কর্য সরানোর বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হয়। সেদিন প্রধানমন্ত্রী জানান, তিনি ব্যক্তিগতভাবে মনে করেন না এই ভাস্কর্য সেখানে থাকা উচিত।

পরবর্তীতে বিচারপতিদের বাসভবন উদ্বোধন উপলক্ষে কাকরাইল গিয়ে বিষয়টি নিয়ে প্রধান বিচারপতির সঙ্গে কথা বলেন তিনি। এর দেড় মাসের মাথায় গত বৃহস্পতিবার দিবাগত গভীর রাতে ভাস্কর্যটি অপসারণ করা হয়।

ভাস্কর্য সরানোর কয়েক ঘণ্টা পর রাজধানীতে একটি শোকরানা মিছিল বের করে হেফাজতে ইসলাম। মিছিল শেষে দেশে স্থাপিত সব ভাস্কর্যকে ‘মুর্তি’ আখ্যা দিয়ে সেগুলোতে অপসারণের দাবি জানায় ধর্মভিত্তিক সংগঠনটির নেতারা।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

মাদকসহ আটক চোরাকারবারি পায়রা 

85

নিউজ৬৯বিডি ডেস্ক, ২৭ মে : পিঠে ব্যাকপ্যাকে মাদকসহ আটক হলো চোরাকারবারি পায়রা। কুয়েতের ঘটনা। চোরাকারবারিদের কৌশলে তাজ্জব হয়ে গেছেন শুল্ক কর্মকর্তারা। মাদক চোরাচালান রোধে তারা এখন নতুন কৌশল খুঁজছেন।

কুয়েতের কাস্টমস অফিসের ছাদে এসে বসেছিল পায়রাটা। পোড় খাওয়া শুল্ক কর্মকর্তা তখন কিঞ্চিত হাল্কা মেজাজে জানলা দিয়ে ছাদের দিকে চেয়ে। হঠাৎ চোখে পড়ে পায়রাটি। না পায়রা তো কতই দেখা যায়, অফিসার অবাক হন পায়রার পিঠটি দেখে। চেয়ার ছেড়ে উঠে ভাল করে পর্যবেক্ষণ করতেই নজরে আসে একটা ‘ব্যাকপ্যাক’। তারপরই আটক করা হয় ওই সন্দেহজনক শান্তির দূতটিকে। কিন্তু কী ছিল ওই থলীতে?

ব্যাগ খুলতেই চক্ষু চড়কগাছ সকলের! দেখা যায় ব্যাগ ভর্তি মাদক। কুয়েতের শুল্ক আধিকারিক ও গোয়েন্দাদের অনুমান, পায়রাটিকে পাঠানো হয়েছে ইরাক থেকে। নিরীহ প্রাণিটি বুঝতেই পারেনি তার মতো শান্তির দূতকে কতটা অশান্তির কাজে ব্যবহার করছে দুর্বৃত্তরা। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত পায়রাটিকে আটক রাখা হয়েছে।

তবে অনেকের ধারণা, পায়রাটি মাদকের চালানটি ধরিয়ে দিতেই কাস্টমস অফিসের ছাদে এসে বসে। তা না হলে শহরে তো ছাদের অভাব ছিল না। এছাড়া পায়রাটি উড়েও যেতে পারতো। এত সহজে তো তার ধরা দেওয়ার কথা না।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

বাংলাদেশকে প্রশংসায় ভাসালেন সরফরাজ 

884

স্পোর্টস ডেস্ক, ২৭ মে : বর্তমান সময়ে ক্রিকেট বিশ্বের অন্যতম বিস্ময়ের নাম বাংলাদেশ। ২০১৫ সাল থেকেই ধীরে ধীরে বদলে গেছে টিম বাংলাদেশ। ঘরের মাঠে ভারত, পাকিস্তান ও দক্ষিণ আফ্রিকার মতো দলকে হারানো পাশাপাশি দেশের বাইরেও নিজেদের সামর্থ্যের প্রমাণ দিয়েছে বারবার। আর বদলে যাওয়া এই বাংলাদেশকে এবার প্রশংসায় ভাসালেন পাকিস্তান অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ।

চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে বাংলাদেশ ও পাকিস্তান দুই গ্রুপে খেললেও টুর্নামেন্ট শুরুর আগে প্রস্তুতি ম্যাচে আজ মুখোমুখি হচ্ছে তারা। টাইগার বিপক্ষে মাঠে নামার আগে নিজের মুগ্ধতা প্রকাশ করে সরফরাজ বলেন, ‘গত দেড় বছর ধরে বাংলাদেশ খুব ভালো পারফর্ম করেছে। চ্যাম্পিয়নস ট্রফির আগে প্রস্তুতি ম্যাচটি উভয় দলের জন্যই ভালো সুযোগ। উভয় দলই ম্যাচ জিততে চাইবে। সুতরাং এটি একটি ভালো অনুশীলন ম্যাচ হবে। ’

এসময় বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের প্রশংসা করে সরফরাজ বলেন, ‘গত কয়েক বছরে ভালো করছে তারা (বাংলাদেশ)। তামিম ইকবালের মতো ব্যাটসম্যানকে আমরা দেখব। যদি আমরা সেমিফাইনাল খেলি!

উল্লেখ্য, সম্প্রতি ত্রিদেশীয় সিরিজে প্রথমবারের মতো দেশের বাইরে নিউজিল্যান্ডকে হারিয়েছে বাংলাদেশ। এই জয়ে ইন্টারন্যশনাল ক্রিকেট কাউন্সিলের (আইসিসি) ওয়ানডে র‍্যাঙ্কিংয়ে ছয়ে উঠে এসেছে মাশরাফির দল। পিছনে ফেলেছে শ্রীলঙ্কা, পাকিস্তান, ওয়েস্ট ইন্ডিজের মতো দলকে। ফলে ২০১৯ সালের বিশকাপে সরাসরি খেলার সম্ভাবনার দুয়ার খুলে গেছে অনেকটাই। সূত্র: আইসিসি

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

আন্তর্জাতিক বাজারে স্বর্ণের দরপতন 

872

অর্থনৈতিক ডেস্ক, ২৭ মে : আন্তর্জাতিক বাজারে স্বর্ণের দরপতন হয়েছে। টানা তিন সপ্তাহের মধ্যে সর্বোচ্চ অবস্থানে ওঠার একদিন পরই দরপতন ঘটল মূল্যবান ধাতুটির। দরপতনে ভূমিকা রেখেছে ডলারের শক্তিশালী অবস্থান।

এছাড়া যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় ব্যাংক ফেডারেল রিজার্ভের (ফেড) সুদহার বৃদ্ধির সম্ভাবনাও ধাতুটির বাজার নিম্নমুখী করেছে বলে জানিয়েছেন বাজার বিশ্লেষকরা। খবর মার্কেটওয়াচ, রয়টার্স।

নিউইয়র্ক মার্কেন্টাইল এক্সচেঞ্জের (নিমেক্স) কোমেক্স বিভাগে মঙ্গলবার আউন্সে ৫ ডলার ৯০ সেন্ট বা স্থানীয় মুদ্রায় ৪৭২ টাকা (প্রতি ডলার ৮০ টাকা ধরে) দাম কমেছে স্বর্ণের। জুনে সরবরাহ চুক্তিতে সোমবারের তুলনায় দশমিক ৫ শতাংশ কমে প্রতি আউন্স স্বর্ণ বিক্রি হয়েছে ১ হাজার ২৫৫ ডলার ৫০ সেন্ট বা এক লাখ ৪৪০ টাকায়।

এর আগে গত সোমবার কোমেক্সে প্রতি আউন্স স্বর্ণ বিক্রি হয়েছিল ১ হাজার ২৬১ ডলার ৪০ সেন্ট বা এক লাখ ৯১২ টাকায়, যা গত ২৮ এপ্রিলের পর সেটিই ছিল ধাতুটির সর্বোচ্চ দর। আইসিই ইউএস ডলার সূচক মঙ্গলবার বেড়েছে দশমিক ২ শতাংশ।

ডলারের শক্তিশালী অবস্থানে ভূমিকা রেখেছে দুর্বল ইউরো। যুক্তরাজ্যে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনার প্রভাব পড়েছে ইউরোপের অর্থনীতিতে। এ কারণে নিম্নমুখী প্রবণতায় রয়েছে ইউরো। দুর্বল ইউরো শক্তিশালী অবস্থানে ঠেলে দিচ্ছে ডলারকে। আর শক্তিশালী ডলার স্বর্ণসহ বিভিন্ন মূল্যবান ও ব্যবহারিক ধাতুর বাজারে সৃষ্টি করেছে নিম্নমুখী প্রবণতা।

ফেডের নীতিনির্ধারণী বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে আগামী ১২-১৩ জুন। এ বৈঠকে সুদহার বাড়ানো হতে পারে। সুদহার বাড়ানো হলে ডলার আরও শক্তিশালী অবস্থানে চলে যেতে পারে।

স্বভাবতই এতে ডলার দ্বারা নির্ধারিত স্বর্ণসহ বিভিন্ন ধাতুর বাজারে নেতিবাচক প্রভাব পড়তে পারে বলে জানিয়েছেন বিশ্লেষকরা। আইআই ট্রেডারের প্রধান বাজার বিশ্লেষক বিল বারুচ বলেন, স্বর্ণের বাজারটি আপাতত বিক্রয়প্রবণ হয়ে উঠেছে।

এ বিক্রয়প্রবণতা সামনের দিনগুলোয় আরও বাড়তে পারে। ফেডের সুদহার বাড়ানোর বেশ সম্ভাবনা রয়েছে। সুদহার বাড়লে স্বর্ণের বাজারে নিঃসন্দেহে বিরূপ প্রভাব পড়বে বলে তিনি জানান।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

সাভারে ‘জঙ্গি আস্তানা': বোম ডিজপোজাল ইউনিটের অপেক্ষা 

88

সাভার, ২৭ মে : সাভারে ‘জঙ্গি আস্তানা’ সন্দেহে ঘিরে রাখা ছয়তলা বাড়িতে অভিযানের প্রস্তুতি নিয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

শনিবার সকালে ঢাকা থেকে বোম ডিজপোজাল ইউনিটের সদস্যরা সাভারের উদ্দেশে রওনা দিয়েছে। তারা এলে শুক্রবার উদ্ধার বোমাগুলো নিষ্ক্রিয় করা হবে।

এছাড়া ওই বাড়িতে আর কোনো বোমা ও বিস্ফোরক আছে কিনা তার সন্ধানে অভিযান চালানো হবে বলে পুলিশ সূত্রে জানা গেছে।

পুলিশ জানায়, মধ্য গেন্ডা মহল্লার সাকিব মিয়ার ছয়তলা বাড়ির দোতলায় দুটি ফ্ল্যাটে শুক্রবার জঙ্গি আস্তানার সন্ধান পায় ঢাকা জেলা পুলিশ।

পরে ঢাকা জেলা পুলিশ সুপার শাহ মিজান শাফিউর রহমানের সহয়তায় পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট ওই বাড়িতে অভিযান চালিয়ে দোতলার ফ্ল্যাট থেকে বিপুল পরিমাণ বোমা, বোমা তৈরির ব্যাটারি, জিহাদি বই ও ল্যাপটপ উদ্ধার করে।

এর আগে শুক্রবার সন্ধ্যা ৭টা থেকে সাভার পৌর এলাকার গেন্ডার দুটি বাড়িতে জঙ্গি ধরতে অভিযান চালায় পুলিশ।

প্রাথমিকভাবে সন্দেহজনক স্থানীয় আনোয়ার মোল্ল্যার বাড়িতে পুলিশি অভিযানের আগেই বাড়ির নিচ তলার একটি ফ্লাটে অবস্থানরত বাবুল নামে এক জঙ্গি পরিবারসহ পালিয়ে যায় বলে পুলিশ জানিয়েছে।

তবে ওই ফ্লাট থেকে কোনো বিস্ফোরক দ্রব্য পাওয়া যায়নি। বাবুলকে আশ্রয় দেয়া ওই বাড়ির ভাড়াটিয়া মুনির ও তার পরিবারকে স্থানীয় কাউন্সিলারের জিম্মায় রাখা হয়েছে।

এই অভিযানের মধ্যেই মধ্য গেন্ডা মহল্লার সাকিব মিয়ার বাড়িতে অভিযান চালিয়ে পুলিশ বোমা, বিস্ফোরক উদ্ধার করে।

তবে শুক্রবার রাতে সেগুলো নিষ্ক্রিয় করা হয়নি। শনিবার বোম ডিজপোজাল ইউনিটের সদস্যরা ঘটনাস্থলে পৌঁছলে এগুলো নিষ্ক্রিয় করা হবে।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

খুলনায় বিএনপির আধাবেলা হরতাল কাল 

225

খুলনা, ২৬ মে : জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক আলাউদ্দিন মিঠু হত্যার প্রতিবাদে আগামীকাল শনিবার খুলনা মহানগর ও জেলায় আধাবেলা হরতাল ডেকেছে দলটি।

এর প্রতিবাদে চার দিনের কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়েছে দলের পক্ষ থেকে।

আজ শুক্রবার খুলনা জেলা ও মহানগর বিএনপি আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ ঘোষণা দেন মহানগর সভাপতি নজরুল ইসলাম মঞ্জু।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা সভাপতি এস এম সফিকুল ইসলাম মোনা, খুলনা সিটি মেয়র ও মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মনিরুল ইসলাম মনিসহ অনেকে।

কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে আজ (শুক্রবার) মহানগর ও জেলার দলীয় কার্যালয়ে কালো পতাকা উত্তোলন, কালো ব্যাজ ধারণ, শনিবার জেলাজুড়ে অর্ধদিবস হরতাল, রোববার শোক সভা-দোয়া মাহফিল ও আগামী সোমবার মহানগর বিএনপির কার্যালযের সামনে সমাবেশ ও মঙ্গলবার জেলা প্রশাসক ও বিভিাগীয় কমিশনার বরাবর স্মারকলিপি প্রদান।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

বিএনপির বলিষ্ঠ নেতাদের বেছে বেছে হত্যা চলছে: খালেদা 

888

ঢাকা, ২৬ মে : বর্তমান সরকার বিএনপির বলিষ্ঠ নেতাকর্মীদের বেছে বেছে হত্যা করার মিশন নিয়ে কাজ করছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। তিনি বলেন, ‘বিএনপিসহ বিরোধীদলের নেতাকর্মীদের হত্যা করে ত্রাস সৃষ্টির মাধ্যমে জোর করে রাষ্ট্রক্ষমতা কব্জায় রাখাই আওয়ামী রাজনীতির সংস্কৃতি। এজন্য সরকার বিএনপির বলিষ্ঠ নেতাকর্মীদের বেছে বেছে হত্যার মিশন নিয়ে কাজ করছে।’

গতরাতে নিজ কার্যালয়ে দুর্বৃত্তের গুলিতে খুন হন খুলনা জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ও ফুলতলা উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান সরদার আলাউদ্দিন মিঠু। এর প্রতিবাদে সকালে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে বিএনপি চেয়ারপারসন এই মন্তব্য করেন।

খালেদা জিয়া বলেন, ত্রাস সৃষ্টির মাধ্যমে জোর করে রাষ্ট্রক্ষমতা কব্জায় রাখার সংস্কৃতির অংশ হিসেবে সরকার বিএনপি’র বলিষ্ঠ নেতাকর্মীদের বেছে বেছে হত্যার মিশনে নেমেছে। আর সেই মিশনেরই নিষ্ঠুর শিকার হলেন সরদার আলাউদ্দিন মিঠু।

বিএনপি চেয়ারপারসন বলেন, ‘দেশব্যাপী বিএনপি নেতাকর্মীদের হত্যার মাধ্যমে রক্তে হাত রঞ্জিত করে বাংলাদেশকে গোরস্থানে পরিণত করা হয়েছে। শহর, গ্রামসহ জনপদের পর জনপদে মানুষ হত্যার মহাযজ্ঞ যেন থামছেই না। সন্তানহারা পিতা-মাতা, স্বামীহারা স্ত্রী ও পিতাহারা সন্তানদের আহাজারিতে প্রতিদিনই দেশের আকাশ-বাতাস ভারী হয়ে উঠছে।’

রাতের আঁধারে মিঠুকে হত্যার ঘটনাতে কাপুরুষোচিত উল্লেখ করে সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘মিঠুকে নির্মমভাবে হত্যা সরকারের ধারাবাহিক প্রাণঘাতি নৃশংসতার আরেকটি বহি:প্রকাশ। দেশকে গণতন্ত্রশুন্য করতেই আওয়ামী লীগ গণসম্মতি উপেক্ষা করে চরম সীমালঙ্ঘন করছে। আর সীমালঙ্ঘনের কারণে ঝরে যাচ্ছে বিরোধীদলের অনেক প্রতিবাদী নেতাকর্মীর প্রাণ। সরকারের বিরুদ্ধে কেউ যেন কথা বলার সাহস না পায় এবং সমাজে যেত আতঙ্ক বিরাজ করে সেজন্য বিরোধীদলীয় নেতাকর্মীদের হত্যা করা হচ্ছে।’

খালেদা জিয়া বলেন, বর্তমান ভোটারবিহীন সরকার ক্ষমতার মোহে অন্ধ, বেপরোয়া ও মানবিকবোধশুন্য হয়ে পড়েছে। দুর্বিনীত অনাচার ও প্রতিদিন হত্যাকাণ্ড সংঘটিত করে দেশকে এক মহাদুর্যোগের মধ্যে ঠেলে দিয়েছে। এ কারণে বিএনপিকে কোনো সমাবেশ বা কোন কর্মসূচি বাস্তবায়ন করার অনুমতি দিচ্ছে না পুলিশ।

বিএনপি চেয়ারপারসন বলেন, রক্তপাত ঘটিয়ে জীবন কেড়ে নিয়ে ভীতির সৃষ্টি করে ক্ষমতায় টিকে থাকা যাবে না। জনগণ আর বসে থাকবে না। দু:শাসন মোকাবেলায় অব্যাহত রক্তপাতের কর্মসূচিকে সম্মিলিত শক্তি দিয়ে জনগণ প্রতিহত করবে।

বিবৃতিতে খালেদা জিয়া মিঠুর বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন এবং তার শোকার্ত পরিবার ও শুভানুধ্যায়ীদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

আলাদা আরেকটি বিবৃতিতে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘মিঠু বিএনপি’র বলিষ্ঠ নেতা হওয়ায় তাকে প্রতিহিংসাবশত পৃথিবী থেকে সরিয়ে দেয়া হয়েছে। সরকারের মদদেই এই হত্যাকাণ্ড সংঘটিত হয়েছে।’ তিনি এই হত্যাকাণ্ডের নিন্দা জানিয়ে খুনিদের গ্রেপ্তার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

যুক্তরাষ্ট্রে মুসলিমদের ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা আপিল আদালতেও নাকচ 

444

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, ২৬ মে : মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের একটি ফেডারেল আপিল আদালত প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের অভিবাসন সংক্রান্ত বিতর্কিত নির্বাহী আদেশের বিরুদ্ধে রায় দিয়েছে। ওই নির্বাহী আদেশের মাধ্যমে ট্রাম্প ইরানসহ ছয়টি মুসলিম দেশের নাগরিকদের আমেরিকায় প্রবেশের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিলেন। খবর : বিবিসি ও এএফপির।

ভার্জিনিয়া অঙ্গরাজ্যের রিচমন্ড শহরের ‘ফোর্থ সার্কিট কোর্ট অব অ্যাপিলস’ বৃহস্পতিবারের রায়ে বলেছে, ট্রাম্পের নির্দেশ মুসলমানদের বিরুদ্ধে বৈষম্যমূলক আচরণের শামিল; কাজেই জাতীয় নিরাপত্তার অজুহাতে এই নির্দেশ বাস্তবায়ন করা যাবে না।

আপিল আদালতের ১৩ বিচারপতির মধ্যে ১০ জন এই নির্দেশের পক্ষে রায় দেন। বিচারপতি রজার গ্রেগরি এই রায় পড়ে শোনানোর সময় বলেন, সরকার মুসলমানদের ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞাকে ব্যাখ্যা করতে গিয়ে জাতীয় নিরাপত্তা নামক ‘অস্পষ্ট পরিভাষা’ ব্যবহার করেছে। কিন্তু এই নির্বাহী আদেশ ‘ধর্মীয় অসহিষ্ণুতা, বিদ্বেষ এবং বৈষম্য’ সৃষ্টি করবে।

ডোনাল্ড ট্রাম্প নির্বাচনি প্রচারণার সময় আমেরিকায় মুসলমানদের প্রবেশের ওপর পুরোপুরি নিষেধাজ্ঞা আরোপের যে ঘোষণা দিয়েছিলেন সেকথা উল্লেখ করে বিচারপতি গ্রেগরি বলেন, একটি ধর্মের অনুসারীদের আমেরিকায় প্রবেশের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হলে তা হবে যুক্তরাষ্ট্রের সংবিধানের লঙ্ঘন।

এই মামলায় ট্রাম্প প্রশাসনের পক্ষে আইনজীবীর ভূমিকা পালন করে মার্কিন বিচার মন্ত্রণালয়। ওই মন্ত্রণালয় ট্রাম্পের নির্বাহী আদেশের বিরুদ্ধে মেরিল্যান্ডের ফেডারেল আদালত যে রায় দিয়েছিল তার বিরুদ্ধে ‘ফোর্থ সার্কিট কোর্ট অব অ্যাপিলস’-এ আপিল করেছিলেন।

মেরিল্যান্ডের ফেডারেল আদালত প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের নির্বাহী আদেশে স্থগিতাদেশ দিয়েছিলেন এবং ওই নির্দেশের বিরুদ্ধে কঠোর বক্তব্য দিয়েছিলেন ট্রাম্প। তার নির্বাহী আদেশে ইরান ছাড়া আর যে ছয়টি দেশের নাগরিকদের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছিল সে দেশগুলো হচ্ছে- ইরাক, সুদান, সিরিয়া, সোমালিয়া, লিবিয়া ও ইয়েমেন।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

ঢাকায় আসছেন অরিজিৎ-শ্রেয়া 

88

বিনোদন ডেস্ক, ২৬ মে : প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) পঞ্চম আসরে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে থাকবেন ভারতের জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী অরিজিৎ সিং ও শ্রেয়া ঘোষাল।

বৃহস্পতিবার মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে সংবাদ সম্মেলনে নতুন ভেন্যুর কথা জানান বিপিএল-এর গভর্নিং কাউন্সিল।

টি-টুয়েন্টি ফরম্যাটের এই টুর্নামেন্টের সর্বশেষ আসরে খেলেছিল সাতটি দল। এবার দল বেড়ে হয়েছে আটটি। এক আসর পর নতুন মালিকানায় বিপিএলে ফিরেছে সিলেট। ঢাকা ও চট্টগ্রামের সঙ্গে প্রথমবারের মতো ভেন্যু হিসেবেও যুক্ত হচ্ছে সিলেট। প্রথম পর্ব, এলিমিনেটর, প্রথম কোয়ালিফায়ার, দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ার ও ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে মিরপুরের শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে।

বিপিএলের গ্রাউন্ডস স্বত্ব পেয়েছে ঢাকা কমিউনিকেশন। ২০১৭ থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত বিপিএলের তিনটি আসরের সম্প্রচার স্বত্ব পেয়েছে ইমপ্রেস-মাত্রা কনসোর্টিয়াম।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

রোনাল্ডোর ১২ মাসের জেল! 

03

স্পোর্টস ডেস্ক, ২৬ মে : লিওনেল মেসির পর এবার কর ফাঁকি দেয়ার অভিযোগ উঠল ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর বিরুদ্ধে। স্পেনের সংবাদমাধ্যম সূত্রে খবর, আয়কর দফতরের কর্মকর্তারা সন্দেহ করছেন, ২০১১ থেকে ২০১৩ সালের মধ্যে ইমেজ রাইটস সংক্রান্ত আয়ের প্রকৃত তথ্য গোপন করেছেন রিয়াল মাদ্রিদ ও পর্তুগালের মহাতারকা। এর ফলে তিনি ৮.৯৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার কর ফাঁকি দিয়েছেন।

রোনাল্ডোর বিরুদ্ধে ওঠা এই অভিযোগের সত্যতা নিয়ে স্পেনের আয়কর বিভাগের কর্মকর্তাদের মধ্যেই দ্বিমত রয়েছে। তদন্ত শুরু হওয়ার আগেই যাবতীয় কর মিটিয়ে দেয়ার উদ্যোগ নেন রোনাল্ডো। ফলে তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত কিছু বলা যাবে না।

তদন্তে যদি রোনাল্ডোর বিরুদ্ধে কর ফাঁকির অভিযোগ প্রমাণিত হয়, তাহলে তাকে প্রায় ৯ মিলিয়ন মিলিয়ন মার্কিন ডলার এবং অতিরিক্ত জরিমানা দিতে হবে। অপরাধমূলক মামলা দায়ের করা হলে অবশ্য তিন বছরে চার মাস করে মোট ১২ মাস কারাদণ্ডের সাজা পেতে পারেন রোনাল্ডো।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর