২৮ মার্চ ২০১৭
রাত ১২:২০, মঙ্গলবার

রাজধানীতে চুলার আগুনে শিশুসহ দগ্ধ ৩

রাজধানীতে চুলার আগুনে শিশুসহ দগ্ধ ৩ 

ঢাকা, ২৭ মার্চ : রাজধানীর জুরাইনের মুরাদপুরের একটি বাসায় গ্যাসের চুলার আগুনে দুই শিশুসহ তিনজন দগ্ধ হয়েছে।

সিলেটের ঘটনায় অজ্ঞাতনামাদের বিরুদ্ধে মামলা

আজ সোমবার সকাল ১০টার দিকে এ আগুন লাগার ঘটনা ঘটে।

দগ্ধ তিনজন হলেন-সালিম (৫৫), নয়ন (৯) ও হাসান (৯)।

কদমতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী ওয়াজেদ আলী জানান, ধারণা করা হচ্ছে, গ্যাসের চুলার সঙ্গের পাইপ লিক হয়ে এ ঘটনা ঘটেছে। তবে দগ্ধ তিনজন একই পরিবারের কি না, তা এখনো জানা যায়নি।

গুরুতর অবস্থায় তাদের ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

পাকিস্তানের কাছে ক্যারিবীয়দের লজ্জার হার 

স্পোর্টস ডেস্ক, ২৭ মার্চ : চার ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথমটিতে পাকিস্তানের কাছে লজ্জাজনকভাবে হেরে গেল ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ত এই ফরম্যাটের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

রবিবার রাতে ক্যারিবীয়দের ছয় উইকেটে হারিয়ে সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেছেন হাফিজ-মালিক-সরফরাজরা।

এদিন রাতে টসে হেরে প্রথমে ব্যাট করতে নামে ক্যারিবীয়রা। কিন্তু পাকিস্তানের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ের সামনে দাঁড়াতেই পারেননি স্যামুয়েলস-সিমনস-পোলার্ডের সমন্বয়ে গড়া ওয়েস্ট ইন্ডিস। দলীয় ৭৪ রানেই স্বাগতিকদের ৭ ব্যাটসম্যানকে সাজঘরে পাঠায় পাকিস্তান। তবে শেষ দিকে কার্লোস ব্র্যাথওয়েটের প্রতিরোধে শত রান পার করে তারা। পাকিস্তানের হয়ে ৭ রানে তিন উইকেট নিয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিসকে একাই কোনঠাসা করে দেন অভিষিক্ত স্পিনার শাহদাব খান।

জবাবে ১৭ বল বাকি থাকতে ১১৫ করে মাঠ ছাড়ে পাকিস্তান। বার্বাডোজে জয়ের লক্ষ্যে খেলতে নেমে শোয়েব মালিকের ৩৮, বাবর আজমের ২৯ ও কামরান আকমলের ২২ রানে ভর করে জয় তুলে নেয় পাকিস্তান। জেসন হোল্ডার সর্বোচ্চ দুটি উইকেট পান।

ম্যাচ সেরা নির্বাচিত হয়েছেন শাহদাব খান। আগামী ৩০ মার্চ পোর্ট অব স্পেনে সিরিজে দ্বিতীয় টি-২০ অনুষ্ঠিত হবে।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

বঙ্গোপসাগরে লুণ্ঠিত ট্রলারসহ ১৩ জলদস্যু আটক 

চট্টগ্রাম, ২৭ মার্চ : বঙ্গোপসাগরে লুণ্ঠিত ফিশিং ট্রলারসহ ১৩ জলদস্যুকে আটক করেছে কোস্টগার্ড। এসময় তাদের কাছ থেকে ২ রাউন্ড গুলি, ১০টি চাপাতি, ১০টি মোবাইল ফোন, নগদ ৬ হাজার টাকা জব্দ করা হয়েছে।

ট্রলার থেকে উদ্ধার করা হয়েছে অপহৃত ৭ মাঝিমাল্লাকেও। রবিবার রাত ৮টার দিকে কুতুবদিয়া-মাতারবাড়ী চ্যানেলের অদূরে গভীর সাগর থেকে এদের আটক করা হয়েছে। তবে আটক জলদস্যু ও উদ্ধার মাঝি মাল্লাদের পরিচয় তাৎক্ষনিক পাওয়া যায়নি।

কোস্টগার্ড পূর্ব-জোনের গণমাধ্যম কর্মকর্তা লে. কমান্ডার মো. ওমর ফারুক জানান, মাছ ধরার ট্রলার লুট ও মাঝিমাল্লাদের জিম্মি করে রাখার খবরে কোস্টগার্ডের একটি দল রবিবার বিকালে কুতুবদিয়া-মাতারবাড়ী চ্যানেল থেকে গভীর সাগরে অভিযান চালায়।

লুটের শিকার ট্রলারটি চালিয়ে নিয়ে যাওয়ার সময় ধাওয়া দিয়ে ১৩ জলদস্যুকে আটক এবং জিন্মি ৭ মাঝি-মাল্লাকে উদ্ধার করা হয়েছে। দস্যুদের কাছ থেকে উদ্ধার করা অস্ত্র,মোবাইল ফোন ও নগদ ৬ হাজার টাকা।

অভিযান সমাপ্তের পর গণমাধ্যমকে বিস্তারিত জানানো হবে বলে উল্লেখ করেন কোস্টগার্ড কর্মকর্তা লে. কমান্ডার মো. ওমর ফারুক।কক্সবাজার বোট মালিক সমিতির সাংগঠনিক সম্পাদক মোস্তাক আহমদও বিষয়টি জেনেছেন বলে দাবি করেছেন।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

সিলেটের ঘটনা উদ্বেগজনক : ফখরুল 

ঢাকা, ২৬ মার্চ : সিলেটের জঙ্গি আস্তানা ঘিরে অভিযান ও আস্তানার পাশে বিস্ফোরণের ঘটনা উদ্বেগজনক বলে মনে করেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

তিনি বলেন, ‘এই ঘটনা উদ্বেগজনক। এর সঠিক তদন্ত দরকার। আমরা আগেও বলেছি, আবারও বলছি এখনো সময় আছে সবাইকে সঙ্গে নিয়ে ঐক্যবদ্ধ হয়ে এই সমস্যার মোকাবেলা করতে হবে।’

বিএনপি এই ঘটনাকে নাটক বলে মনে করে না বলেও উল্লেখ করলেও বিএনপির এই নেতার অভিযোগ আওয়ামী লীগই জঙ্গিবাদকে পৃষ্ঠপোষকতা করছে। রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে ব্যবহার করতে চায় তারা।

স্বাধীনতা দিবসে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

স্বাধীনতার ৪৬ বছর পর ২৫ মার্চ গণহত্যা দিবস পালন করা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন বিএনপি মহাসচিব। তিনি বলেন, স্বাধীনতার পর ১৯৭২ থেকে ১৯৭৫ পর্যন্ত আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় ছিল, এরপর ১৯৯৬ থেকে ২০০১ সালেও তারা রাষ্ট্র ক্ষমতায় ছিল। সবশেষ ২০০৮ সাল থেকে তারা এখনো ক্ষমতায় রয়েছে। কিন্তু এতবছর পর হঠাৎ করে কেন গণহত্যা দিবস পালন করার উপলব্ধি হলো তাদের?

মির্জা ফখরুল বলেন, আমরা এই দিবসটি সবসময় অন্তরে ধারণ করে আসছি। স্মরণ করে এসেছি, পালনও করি। কিন্তু এবার তারা ঘোষণা দিয়ে এই দিবসটি পালন করছে।

গণহত্যা দিবস পালনের যৌক্তিকতা নিয়ে প্রশ্ন তোলা হয়েছে পাকিস্তানের কয়েকটি গণমাধ্যমেও।

‘নো রিজন টু অবজার্ভ বাংলাদেশজ জেনোসাইড ডে’ শিরোনামে দ্য নিউজের নিবন্ধে বলা হয়েছে, ২৩ মার্চ পাকিস্তান দিবস পালিত হয়। ওই দিবসের পাল্টা দিবস হিসেবে ২৫ মার্চ গণহত্যা দিবস পালনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ। এজন্য তারা শীর্ষ দুই কর্মকর্তাকে নিউইয়র্কে জাতিসংঘ সদর দফতরে এবং জেনেভায় জাতিসংঘ মাববাধিকার কাউন্সিলে পাঠাবে।

‘বাংলাদেশ: আইডিয়া বিহাইন্ড জেনোসাইড ডে’ শিরোনামে পাকিস্তান অবজারভারের নিবন্ধে বলা হয়, ২৩ মার্চ পাকিস্তান দিবসকে ভূলুণ্ঠিত করতেই ২৫ মার্চ গণহত্যা দিবস পালনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ সংসদ। এর পেছনে ভারতীয় ষড়যন্ত্রের আভাস পাওয়া যায়।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

সিলেটে জঙ্গি আস্তানার চারপাশে ১৪৪ ধারা 

সিলেট, ২৮ মার্চ : সিলেটের দক্ষিণ সুরমার শিববাড়ি এলাকার আতিয়া মহলের নিচ তলায় ‘জঙ্গি আস্তানা’র আশপাশে চার কিলোমিটার এলাকাজুড়ে ১৪৪ ধারা জারি করেছে প্রশাসন।

রবিবার সকাল ৭টার দিকে এই ধারা জারি করা হয় বলে জানিয়েছেন সিলেটের গোয়ালাবাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খাইরুল ফজল। তিনি জানান, সকাল ৭টার দিকে আতিয়া মহলের আশপাশে চার কিলোমিটার এলাকাজুড়ে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে।

ওই এলাকার মধ্যে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য ও বাহন ছাড়া অন্য কোনো যানবাহন চলাচল করতে পারবে না। এ ছাড়া একসঙ্গে তিনজনের বেশি লোকজন চলাচল করা যাবে না।

এদিকে ১৪৪ ধারা জারি করার পর বেশ ভোগান্তিতে পড়েছেন সিলেট সিটি করপোরেশনের ২৭ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দারা।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

রোনালদোর জোড়া গোলে পর্তুগালের জয় 

স্পোর্টস ডেস্ক, ২৬ মার্চ : আবারো পর্তুগাল, আবারো সেই রোনালদো। বিশ্বকাপ বাছাইপর্বেও দারুণ ছন্দে আছে পর্তুগাল। তার প্রমাণও রেখেছে তারা। রোনালদো বাহিনী শনিবার রাতে আরও একবার চিরচেনা পর্তুগালকে চিনিয়ে দিল।

বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে হাঙ্গেরির বিপক্ষে ম্যাচে ২ গোল করেছেন রোনালদো। ৩-০ গোলে জয় তুলে নিয়েছে পর্তুগাল। ম্যাচের প্রথম গোল আসে ৩২ মিনিটে। আন্দ্রে সিলভা পায়ের আলতো ছোঁয়ায় বলটি হাঙ্গেরির জালে ঢোকাতে সক্ষম হন।

৩৬ মিনিটে মাঝমাঠ থেকে উড়িয়ে দেয়া বল রোনালদোকে দেন সিলভা। আর দুরপাল্লার এক শটে লক্ষ্যভেদ করেন পর্তুগাল অধিনায়ক। ৬৫ মিনিটে হাঙ্গেরির কফিনে শেষ পেরেকটা ঠুকে দেন রোনালদো নিজেই।

উল্লেখ্য, ১২ পয়েন্ট নিয়ে রোনালদোরা রয়েছেন ‘বি’ গ্রুপের দ্বিতীয় স্থানে। সুইজারল্যান্ড যথারীতি শীর্ষেই আছে।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

সরকার জঙ্গিবাদের সমাধান চায় না : ফখরুল 

88141

ঢাকা, ২৫ মার্চ : সরকার জঙ্গিবাদের সমাধান চায় না এমন অভিযোগ করে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, আমরা (বিএনপি) বারবার বলেছি জঙ্গিবাদ নিমূর্লে জাতীয় ঐক্যসৃষ্টি করা প্রয়োজন। কিন্তু সরকার এটা চায় না। বরং এটাকে জিইয়ে রেখে রাজনৈতিক উদ্দেশ্য হাসিল করতে চায়। আজ শনিবার বেলা সাড়ে ১০টায় নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের নিচ তলায় এক আলোকচিত্র প্রর্দশনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের কর্মময় জীবনের ওপর আলোকচিত্র প্রদর্শনীর আয়োজন করে জাতীয়তাবাদী যুবদল।

প্রতিদিনের ঘটনায় প্রচণ্ড উদ্বিগ্ন মন্তব্য করে মির্জা ফখরুল বলেন, বাংলাদেশে গত এক সপ্তাহে যে তিন-চারটি ঘটনা ঘটেছে, আত্মঘাতী বোমা হামলাও হয়েছে। অথচ সরকার এ ব্যাপারে সুষ্পষ্ট কোনো বক্তব্যে নিয়ে আসছেন না। সংশ্লিষ্ট এক একটি প্রতিষ্ঠান এক এক রকমের বক্তব্য দিচ্ছে। দেখতে পেয়েছি গতকালের শুক্রবার আত্মঘাতী, বোমা হামলার ঘটনায় একদিকে বলা হলো- এটার সঙ্গে আইএস, অন্যদিকে বলা হচ্ছে এই ঘটনা পূর্বের ঘটনার মতো নয়। কাজেই প্রশ্ন থেকে যায়, যে মানুষটি আত্মঘাতী বোমাতে নিহত হলো সে কি নিহত হওয়ার জন্যই আত্মঘাতী বোমার বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে? তাই এ ব্যাপারে বিশ্বাসযোগ্য বক্তব্য না আসলে জনগণের মধ্যে সন্দেহ সৃষ্টি হবেই।

তিনি বলেন, কোনো কিছু ঘটলেই আওয়ামী লীগের সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী পর্যন্ত বিএনপিকে দোষারোপ করেন। অথচ জঙ্গিবাদের ভয়াবহতা অনুসন্ধান না করে, সঠিক সত্য উদঘাটন না করে যদি এ ধরণের উক্তি করা হয় এবং যাদেরকে এই ধরণের ঘটনার সঙ্গে সংশ্লিষ্টতা রয়েছে বলে গ্রেফতার করে হত্যা করা হয় তাহলে কোনো দিন সত্য প্রকাশিত হবে না। তিনি আরও বলেন, বিএনপি বারবার দাবি জানিয়েছে যে, জঙ্গিবাদের সঠিক সত্য বের করুন, কারা এই জঙ্গিবাদের সঙ্গে জড়িত এবং মদদ দিচ্ছে? কারণ জঙ্গিবাদ নির্মূল ও মোকাবিলা করতে না পারলে বাংলাদেশের অস্তিত্ব বিপন্ন হয়ে পড়বে। তাই সকল রাজনৈতিক দলগুলোকে নিয়ে ঐক্য তৈরি করুন। সামাজিক আন্দোলনের মাধ্যমে এই জঙ্গিবাদকে প্রতিহত করতে হবে।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

বাংলাদেশ ভ্রমণে অস্ট্রেলিয়ার সতর্কতা জারি 

8777

ঢাকা, ২৫ মার্চ : সাম্প্রতিক জঙ্গি কার্যক্রমের ঘটনায় বাংলাদেশ ভ্রমণে নতুন করে সতর্কতা জারি করেছে অস্ট্রেলিয়া সরকার।

শনিবার অস্ট্রেলিয়ান সরকারের পররাষ্ট্র বিষয়ক বিভাগের ওয়েবসাইটে এ সতর্কতা জারি করা হয়।

শুক্রবার শাহজালাল বিমানবন্দরের নিকট একটি পুলিশ চেকপোস্টে আত্মঘাতী হামলার ঘটনায় একজন নিহতের ঘটনার পর এ সতর্কতা জারি করে অস্ট্রেলিয়ান সরকার।

সতর্ক বার্তায় অস্ট্রেলিয়ার নাগরিকদের বাংলাদেশ ভ্রমণে নতুন করে চিন্তা-ভাবনা করার পরামর্শ দেয়া হয়।

এতে বলা হয়, বিমান বন্দরটির কার্যক্রম স্বাভাবিক থাকলেও, বাংলাদেশ ভ্রমণের ক্ষেত্রে উচ্চ নিরাপত্তা ঝুঁকি রয়েছে। যারা প্রয়োজনে বাংলাদেশ ভ্রমনের পরিকল্পনা করছেন, তাদের ভ্রমনের বিষয়টি পুনর্বিবেচনা করা দরকার।

সতর্ক বার্তায় আরও বলা হয়, যারা ভ্রমণ করবেন, তারা যেন প্রয়োজনীয় খোঁজ খবর নিয়ে ভ্রমণে যান। এছাড়া প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে কিনা তা চেক করতেও ভ্রমণকারীদের পরামর্শ দেয়া হয়।

এতে উল্লেখ করা হয়, বাংলাদেশে জঙ্গিগোষ্ঠীগুলো আরও হামলা চালাতে পারে, এমন নির্ভরযোগ্য তথ্য রয়েছে। বিপদ ও হামলার ঝুঁকি এড়াতে স্থানীয় কর্তৃপক্ষের নির্দেশনা অনুসরন করতে অস্ট্রেলিয়ান নাগরিকদের নির্দেশনা দেয়া হয়।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

চীনে খনি দুর্ঘটনায় ১০ জনের মৃত্যু 

8

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, ২৫ মার্চ : চীনের মধ্যাঞ্চলীয় হেনান প্রদেশের দুটি সোনার খনিতে শুক্রবার পৃথক দুর্ঘটনায় ১০ জন মারা গেছে। শনিবার ভোরে স্থানীয় কর্তৃপক্ষ একথা জানায়।

দেশটির কমিউনিস্ট পার্টি নাগরিক কমিটির প্রেস অফিসের পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, স্থানীয় সময় শুক্রবার সকাল ১০ টা ৩৬ মিনিটে লিংবাও নগরীতে চায়না ন্যাশনাল গোল্ড গ্রুপের কিনলিং সোনার খনিটি ধোঁয়ায় ঢেকে গেছে। সেখানে ১২ শ্রমিক ও মাকিলপক্ষের ছয় কর্মী আটকা পড়েছে।

বিবৃতিতে আরো বলা হয়, শুক্রবার রাতে উদ্ধারকর্মীরা খনি থেকে সাতটি লাশ উদ্ধার করে। আহত অবস্থায় ১০ জনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয়। এদের মধ্যে একজন হাসপাতালে মারা যায়। তবে অপর নয় জন আশঙ্কামুক্ত রয়েছে।

নগরীর জরুরি কর্মকর্তারা শনিবার সকালে জানান , আটকে পড়া শ্রমিকদের মধ্যে এখন পর্যন্ত একজন নিখোঁজ রয়েছে। কিন্তু খনির ভেতর বিষাক্ত কার্বন মনোক্সাইড গ্যাসের মাত্রা অনেক বেশি থাকায় ও এক মিটারের কম দূরের জিনিষও দেখতে না পাওয়ায় তল্লাশী এবং উদ্ধার অভিযান বন্ধ রাখা হয়েছে। সিনহুয়া।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

ঘরে ঢুকে স্বামী-স্ত্রীকে গলা কেটে হত্যা 

3958

বান্দরবান, ২৫ মার্চ : বান্দরবানের লামা উপজেলায় ঘরে ঢুকে এক দম্পতিকে গলা কেটে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। গতকাল শুক্রবার দিবাগত রাতে উপজেলার ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের ইয়াংছা ছোট পাড়ায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- ক্যহ্লাচিং মার্মা (৭৫) ও তার স্ত্রী চিংহ্লানি মার্মা (৫০)। ক্যহ্লাচিং মার্মা ইয়াংছা ছোট পাড়ার বাসিন্দা ও মৃত মংছাচি মার্মার ছেলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, রাতের খাবার শেষে এই দম্পতি প্রতিদিনের মতো নিজ ঘরে ঘুমিয়ে পড়েন। রাতের কোনো এক সময় দুর্বৃত্তরা তাদের গলা কেটে হত্যা করে টাকা ও মূল্যবান জিনিসপত্র লুট করে পালিয়ে যায়।

লামা থানার ওসি মো. আনোয়ার হোসেন জানান, লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

‘যত দিন ইচ্ছে তোকে ব্যবহার করব’ 

অনলাইন ডেস্ক : ‘সেই রাতে লোকটা আমাকে জোর করে সঙ্গে নিয়ে যায়। আমি খুব কাঁদছিলাম। লোকটা বলছিল, আমি তোকে কিনে এনেছি, আমি যা চাই তা-ই করতে পারি। আমি তোর মা-বাবাকে টাকা দিয়েছি। যত দিন ইচ্ছে আমি তোকে ব্যবহার করব। মুখ বন্ধ রাখ।’

কথাগুলো ভারতের হায়দরাবাদের ১৯ বছরের আসমা বেগমের (ছদ্মনাম)। আসমা বলেন, তাঁর মা-বাবা বিয়ের নামে যখন জোর করে তাঁকে বিক্রি করে দেন, তখন তার বয়স ছিল ১২ বছর। আর ওমান থেকে আসা ওই ব্যক্তির বয়স ছিল ৭০ বছর। মানুষের জীবনে বিয়ে এক মধুর স্মৃতি হলেও আসমার জীবনে এই স্মৃতি ‘নির্যাতনের’।

আসমা তাঁর দুঃসহ জীবনের গল্প শোনাতে গিয়ে সিএনএনকে বলেন, ‘আমি পড়াশোনা জানতাম না। তাই আমার সঙ্গে কী হচ্ছে বুঝতে পারছিলাম না। আমার মধ্যে তখনো শিশুসুলভ আচরণ ছিল। দুই মাস এই লোকটা আমাকে এক ঘরে বন্দী করে রাখল আর যখন মন চাইত, তখনই যৌন নির্যাতন করত। যদি লোকটা কোথাও যেত, তাহলে তিনি আমাকে ঘরে তালাবদ্ধ করে যেত। আর ফিরে আবারও একই নির্যাতন শুরু করত।’

পুলিশ জানায়, আসমার মতো হায়দরাবাদের ওল্ড সিটিতে এমন শত শত ঘটনা আছে। গরিব ঘরের মা-বাবা তাঁদের কম বয়সী মেয়েদের সম্মতি ছাড়াই অর্থের বিনিময়ে বিক্রি করে দেন। আর তাদের খরিদ্দার হলো বয়স্ক পর্যটক, যারা যৌনতার জন্য এখানে আসে।

মধ্যপ্রাচ্য ও আফ্রিকার কয়েকটি দেশে এসব খরিদ্দারের জন্য এজেন্ট রয়েছে। তারা হায়দরাবাদের দালালদের চেনে। এসব দালাল গরিব পরিবারের অভিভাবকদের বুঝিয়ে অর্থের বিনিময়ে মেয়েকে বিক্রি করাতে রাজি করায়। খরিদ্দারেরা সাধারণত বয়স্ক পুরুষ। তারা হায়দরাবাদে আসার পর দালালদের দেখানো মেয়েদের মধ্য থেকে একজনকে পছন্দ করে।

এ অপরাধী চক্রের একজন অংশীদার হলেন কাজি। তিনি এ-সংক্রান্ত বিয়ের সনদে সই করেন এবং আগের তারিখ উল্লেখ করে বিবাহবিচ্ছেদ সনদে সই করেন। অথচ ঊর্ধ্বতন ধর্মীয় কর্তৃপক্ষ জানায়, ইসলামি আইন অনুযায়ী বিয়ের সময় মেয়ের সম্মতি প্রয়োজন।

ওই খরিদ্দারেরা কয়েক সপ্তাহ বা কয়েক মাস পর তাঁর কিশোরী স্ত্রীকে ফেলে চলে যায়, আর ফেরে না। এর মধ্যে অনেক মেয়ে গণধর্ষণের শিকার হয়। অনেক খরিদ্দার আবার তার সঙ্গে রাখা মেয়েটিকে মাদক দিয়ে অসহায় অবস্থায় নিয়ে যায়।

একজন মা কীভাবে তাঁর মেয়েকে বিক্রি করেন, বিষয়টি অকল্পনীয় হলেও আসমা বেগমের মা নিজেদের সুন্দর ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করেই মেয়েকে বিক্রি করেছেন বলে জানান। তিনি বলেন, হায়দরাবাদের দরিদ্র এলাকাগুলোর একটিতে পাঁচজনের পরিবার নিয়ে একটি কক্ষে কোনো রকমে তাঁরা থাকেন। স্বামী মদ খায়। ঘরে উপার্জনের কেউ নেই। তাই তিনি মনে করেছেন, মেয়েকে বিক্রির পর সেই অর্থ দিয়ে তাঁদের পরিবারে সুদিন ফিরবে।

আসমার মা বলেন, ‘মনে করেছি, মেয়েকে বিক্রির ওই টাকা দিয়ে আমরা ছোট্ট একটি বাড়িতে থাকতে পারব। আমাদের এবং মেয়ের জীবনের উন্নতি হবে। এসব চিন্তা করেই এমনটা করেছি।’

আসমার ঘরে এখন এক কন্যাসন্তান। বিয়ের দুই মাস পরই তিনি অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েন। কিন্তু তাঁর স্বামী ওমানে ফিরে গিয়ে ফোনে তাঁকে তালাক দেয়। সে সময় আসমা আত্মহত্যা করতে চেয়েছিলেন। আসমা বলেন, ‘আমি সারা দিন শুধু কাঁদতাম। মনে হতো আমার জীবনটা অর্থহীন হয়ে পড়ল। শেষবার আমি আমার কবজি কাটতে চেয়েছি।’

ওই সময় শাহিন নামের একটি এনজিও এগিয়ে আসে। তাঁকে নিয়ে যায়। এই সংস্থাটি বিয়ের নামে জোর করে মেয়েদের বিক্রি ঠেকাতে কাজ করে।

শাহিন এ ধরনের মেয়েদের উদ্ধারে করে তাঁদের পুনর্বাসন করে। তাদের কাপড় সেলাই, মেহেদি পরানো বা কম্পিউটার শেখানোর মতো বিভিন্ন কিছু শেখায়। মেয়েদের অর্থনৈতিকভাবে স্বাবলম্বী করে তুলতে প্রয়োজনীয় সব সহযোগিতা করে।

২০ বছর আগে জামিলা নিশাত নামের এক নারী এই শাহিন গড়ে তোলেন। তিনি এই সংস্থার মাধ্যমে সরাসরি শতাধিক মেয়েকে সহায়তা করেছেন। আর পরোক্ষভাবে এক হাজার। জামিলা বলেন, ‘আমার স্বপ্ন, প্রত্যেক মেয়ে জীবনে সুখী ও সর্বোচ্চ উপভোগ করবে এবং নিজেকে স্বাধীন ভাববে।’

শাহিনের কাছে আশ্রয় পাওয়ার পর আসমা মামলা করেন। তাঁকে বিক্রির সঙ্গে জড়িত মধ্যস্থতাকারী এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। আর কোনো মেয়ের জীবন এমন হতে দেওয়া হবে না বলে অঙ্গীকার করেছেন আসমা। তাঁর কথা, ‘আমার হৃদয়ে যে ক্ষত, আর কেউ যেন এমন কষ্টের মুখোমুখি না হয়।’

সিএনএন অবলম্বনে লিপি রানি সাহা

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

‘বাংলাদেশ এখন বিশ্বজুড়ে উন্নয়নের এক রোল মডেল’ 

ঢাকা, ২৪ মার্চ : তলাবিহীন ঝুড়ির সেই সময় পেরিয়ে বাংলাদেশ এখন এই অঞ্চলের এবং বিশ্বজুড়ে দেশগুলোর কাছে উন্নয়নের এক রোল মডেল হয়ে দাড়িয়েছে বলে নিজের ফেসবুক পেজে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়। আসন্ন স্বাধীনতা দিবসে আমাদের স্মরণ করতে হবে কীভাবে এত অল্প সময়ে এতটা পথ পাড়ি দিয়েছে আমাদের দেশ। ২০১৫ সালে বিশ্বব্যাংক বাংলাদেশকে অর্থনৈতিক মর্যাদা সূচকে একদাগ পদোন্নতি দিয়েছে নিম্ন মধ্য আয়ের বন্ধনীতে। ২০২১ সালের মধ্যে বিশ্ব ব্যাংকের উচ্চ-মধ্য আয়ের বন্ধনীতে যুক্ত হবার লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে আওয়ামী লীগ সরকার। সজীব ওয়াজেদ জয়ের ফেসবুক পেজের পোষ্টটি হুবুহু তুলে দরা হলো:

বাংলাদেশের স্বাধীনতা দিবসে উন্নয়ন স্মরণ
এ মাসে স্বাধীনতার ৪৬ বছর উদযাপন করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ। ১৯৭১ সালের ২৬ মার্চ মধ্যরাতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানের জনগণকে স্বাধীনতার লড়াইয়ে নামতে আহবান জানান। তার পরের নয় মাস রীতিমতো দুঃস্বপ্নের মধ্যে যেতে হয় বাংলাদেশকে। নির্বিচার নৃশংসতা ও যুদ্ধাপরাধে লিপ্ত পাকিস্তানী সেনাবাহিনী ও তাদের দোসরদের হাতে সংঘটিত এক গণহত্যার শিকার হয় ৩০ লক্ষ মানুষ। সদ্যজাত রাষ্ট্রটিকে মেধাশূন্য করতেই তারা নিশানা করেছিলো বুদ্ধিজীবী, অধ্যাপক, শিল্পী এবং অন্যান্য উচ্চ শিক্ষিত বাঙালিদের। অকুতোভয় মুক্তিযোদ্ধাদের লড়াই আর ভারতীয় সেনাবাহিনীর হস্তক্ষেপে ১৯৭১ সালের ডিসেম্বরে পাকিস্তান আত্মসমর্পন করে। আমার নানা শেখ মুজিব বাংলাদেশের প্রথম প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব গ্রহণ করেন। প্রায় কেউই আশা করেনি এই সদ্য স্বাধীন দেশটি টিকে যাবে। যুক্তরাষ্ট্র তো এর স্বাধীনতারই বিপক্ষে ছিলো।

১৯৭০ সালের প্রলয়ঙ্করী ঘূর্ণিঝড়ের ছোবল থেকে তখনও সেরে ওঠেনি এই দেশ, যাতে মারা গিয়েছিলো প্রায় ৫ লক্ষ মানুষ। আর পাকিস্তানীদের আক্রমণের পর টাইম ম্যাগাজিনের ভাষ্যমতে বাংলাদেশের বিধ্বস্ত শহরগুলোর অবস্থা দেখতে হয়েছিলো, পারমানবিক হামলার পরদিনের সকালের মতো। লাখ লাখ শরণার্থী ফিরে আসছিলো। হাতেগোনা রপ্তানীযোগ্য পণ্যের অন্যতম ছিলো পাট, যা কিউবার কাছে বিক্রি করা হয়েছে এই অভিযোগ তুলে বাংলাদেশে খাদ্যবোঝাই জাহাজ পাঠানোর ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করে যুক্তরাষ্ট্র, যার ফলে ১৯৭৪ সালে ভয়াবহ এক দুর্ভিক্ষের সূত্রপাত হয়।

১৯৭৫ সালে সরকারের বিরুদ্ধে এক সামরিক অভ্যুথান ঘটে আর তার নেতারা আমার নানা বাড়িতে হামলা চালিয়ে তাঁকে এবং আমার পরিবারের বেশীরভাগ সদস্যকে হত্যা করে। এর ধারাবাহিকতায় পরের বছরগুলো নারকীয়তার মধ্যে দিয়ে যেতে হয়েছে বাংলাদেশকে। সেসব ছিলো অভ্যুত্থান এবং স্বৈরাচারিতা, সামরিক শাসন, দুর্নীতি, দারিদ্রতা এবং অসংখ্য সুযোগ নষ্ট করার বছর। মার্কিন সেক্রেটারি অব স্টেট হেনরী কিসিঞ্জার বাংলাদেশকে অভিহিত করলেন তলাবিহীন ঝুড়ি বলে।

১৯৯৬ সালে প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হলেন আমার মা, বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনা। আর তিনি তার রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগকে সঙ্গী করে কার্যকর কিছু কর্মসূচী গ্রহণ করলেন যাতে বাংলাদেশ আবার ঘুরে দাঁড়ায়। কিন্তু তাকে প্রতিটা ইঞ্চি জায়গার জন্য লড়তে হয়েছে তার রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ খালেদা জিয়ার সঙ্গে যিনি বিরোধী দল বিএনপির প্রধান, যারা ২০০১ সালের নির্বাচনে জয়ী হয়েছিলো। তবে জনগনের মধ্যে আওয়ামী লীগ তাদের জনপ্রিয়তা বজায় রাখলো, এতই জনপ্রিয় যে বিএনপির গাত্রদাহ শুরু হলো। ২০০৪ সালে খালেদা জিয়ার ছেলের পরিকল্পনা অনুযায়ী আওয়ামী লীগের এক প্রতিবাদ সমাবেশে গ্রেনেড হামলায় ২৪ জন নিহত হয় এবং আহত হন আমার মা। হত্যা এবং ষড়যন্ত্রের চর্চায় অভ্যস্ত বিএনপির রাজনীতির পতনের শুরু হয় তখন থেকেই।

২০০৯ সালে এক ভূমিধ্বস বিজয়ের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হন শেখ হাসিনা এবং ২০১৪ সালে পুনঃনির্বাচিত হলেন তিনি। সাম্প্রতিক সময়ে বিএনপি যখন হরতাল আর জ্বালাও পোড়াওয়ের রাজনীতি করছে, আওয়ামী লীগ তখন ব্যস্ত থেকেছে দেশটাকে আরও ভালোভাবে গড়ার কাজে। ২০০৯ সাল থেকে দেশে দারিদ্রতার হার শতকরা ৪০ ভাগ থেকে ২১ শতাংশে নেমে এসেছে। তিন কোটি মানুষের দারিদ্র বিমোচন হয়েছে। দেশের গড় প্রবৃদ্ধির হার ১০৩ বিলিয়ন ডলার থেকে দ্বিগুণের বেশি হয়ে দাড়িয়েছে ২৫০ বিলিয়ন ডলার। অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির এই হারে শুরুতে মূল ভূমিকা রেখেছে তৈরি পোষাক খাত……..। রপ্তানী বার্ষিক ১৬ বিলিয়ন ডলার থেকে বেড়ে দাড়িয়েছে বার্ষিক ৩১ বিলিয়ন ডলারে।

প্রাথমিক ও মাধ্যমিক শিক্ষা ক্ষেত্রে নারী পুরুষের বৈষম্য দূরীকরণের লক্ষ্য অর্জন হয়েছে, যার কৃতিত্ব মেয়েদের জন্য সরকারী বৃত্তি দেওয়ার কর্মসূচীর। নির্ধারিত সময়ের আগেই বাংলাদেশ জাতিসংঘের বেঁধে দেওয়া মিলেনিয়াম উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রার বেশ কয়েকটি অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে। এতই চমকপ্রদ ছিলো এই অগ্রগতি যে জাতিসংঘ তাদের পর্যায়ক্রমিক কার্যকর লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারনে আমাদের আমন্ত্রণ জানিয়েছে। উদ্ভাবনী খামারের উদ্যোগে প্রান্তিক নারীরা উদ্যোক্তা হয়েছেন এবং ঘরে বসে আয়ের সুযোগ পেয়েছেন যা তাদের ব্যক্তিস্বাধীনতা ও সামাজিক মর্যাদা বাড়িয়েছে। প্রায় ২০ বছর আগে প্রধানমন্ত্রী হাসিনার প্রথম মেয়াদে ভূমিহীন ও গৃহহীনদের জন্য নেওয়া একটি কর্মসূচী ১ লাখ ১০ হাজার পরিবারকে পুনর্বাসিত হতে সাহায্য করেছে।

২০১৫ সালে বিশ্বব্যাংক বাংলাদেশকে অর্থনৈতিক মর্যাদা সূচকে একদাগ পদোন্নতি দিয়েছে নিম্ন মধ্য আয়ের বন্ধনীতে। ২০২১ সালের মধ্যে বিশ্ব ব্যাংকের উচ্চ-মধ্য আয়ের বন্ধনীতে যুক্ত হবার লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে আওয়ামী লীগ সরকার। তলাবিহীন ঝুড়ির সেই সময় পেরিয়ে বাংলাদেশ এখন এই অঞ্চলের এবং বিশ্বজুড়ে দেশগুলোর কাছে উন্নয়নের এক রোল মডেল হয়ে দাড়িয়েছে। আসন্ন স্বাধীনতা দিবসে আমাদের স্মরণ করতে হবে কীভাবে এত অল্প সময়ে এতটা পথ পাড়ি দিয়েছে আমাদের দেশ।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

সুন্দরবনে দুই জেলে অপহরণ 

সাতক্ষীরা, ২৪ মার্চ : সুন্দরবন সাতক্ষীরা রেঞ্জের বৈকারীর খাল এলাকা থেকে দুই জেলেকে অপহরণ করেছে বনদস্যু রবিউল বাহিনী। শুক্রবার ভোরে এদের অপহরণ করা হয়।

অপহৃত জেলেরা হলেন, শ্যামনগর উপজেলার রমজান নগর ইউনিয়নের ভেটখালী গ্রামের তারা মন্ডলের ছেলে ফনি মন্ডল ও মুন্সিগঞ্জ ইউনিয়নের মৃত আব্দুল সরদারের ছেলে কালাম সরদার।

ফিরে আসা জেলে পার্শেখালী গ্রামের মোনতাজ মোল্লার ছেলে করিম মোল্লা জানান, এক লাখ টাকা মুক্তিপণের দাবিতে দস্যু রবিউল বাহিনীর সদস্যরা এদের অপহরণ করেছে।

অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে জানিয়ে শ্যামনগর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, এখনও বিষয়টি কেউ জানায়নি।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

উ. কোরিয়ার বিরুদ্ধে মামলা করবে এফবিআই 

অর্থনৈতিক ডেস্ক, ২৪ মার্চ : বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরির ঘটনায় আগের দিন যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা সংস্থার (এনএসএ) শীর্ষস্থানীয় এক কর্মকর্তা উত্তর কোরিয়ার হ্যাকাররা জড়িত বলে অভিযোগ তুলেছিলেন। একদিন পরই আরেক গোয়েন্দা সংস্থা এফবিআই চাঞ্চল্যকর এ অর্থ চুরির পেছনে উত্তর কোরিয়ার পাশাপাশি চীনের দালালদেরও হাত ছিল বলে ইঙ্গিত দিয়েছে।

এ ঘটনায় উত্তর কোরিয়া সরকারের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের আইনজীবীরা মামলা করার প্রস্তুতি নিচ্ছেন। এফবিআইর গোয়েন্দারাও বিশ্বাস করেন, কোরিয়ান হ্যাকাররা ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক অব নিউইয়র্কে রক্ষিত বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভের ৮ কোটি ১০ লাখ ডলার চুরির মূল হোতা বলে এক সূত্রের বরাতে জানিয়েছে রয়টার্স।

অন্যদিকে, ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল আলোচিত এ চুরির ঘটনার তদন্তে জড়িত কর্মকর্তাদের সূত্র উদৃব্দত করে বলেছে, ফেডারেল আইনজীবীদের বিশ্বাস, চীনা দালালরা সুইফটের মাধ্যমে ভুয়া মেসেজ পাঠিয়ে অর্থ হাতিয়ে নিতে কোরিয়ান হ্যাকারদের সহায়তা করেছে। এ ঘটনায় কোনো ব্যক্তির বিরুদ্ধে নয়, সরাসরি মামলা করা হবে উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে। সংশিল্গষ্ট চীনের মধ্যস্বত্বভোগী ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানগুলোও অভিযোগের আওতায় চলে আসবে বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে। এফবিআই কর্মকর্তারা লস অ্যাঞ্জেলেস ও নিউইয়র্কে গত বছরের ফেব্রুয়ারির এ ঘটনার তদন্ত করছেন। এক বছরের বেশি সময় পার হলেও এখন পর্যন্ত কোনো সুনির্দিষ্ট তথ্য সামনে আসেনি।

এফবিআই গোয়েন্দারা এখন তদন্তের ক্ষেত্রে চীনা দালাল বা ব্যবসায়ীদের যোগসূত্রের দিকে বেশি মনোযোগ দিচ্ছেন। অন্যদিকে, মামলার পাশাপাশি ফেডারেল রিজার্ভ পর্যায়ে দালালি ব্যবস্থায় নিষেধাজ্ঞা আরোপের কথাও ভাবছে যুক্তরাষ্ট্রের অর্থ মন্ত্রণালয়। গত মঙ্গলবার এক সেমিনারে এনএসএর উপপরিচালক রিক লেজেট দাবি করেন, রিজার্ভের অর্থ চুরি করেছে উত্তর কোরিয়ার হ্যাকাররা। তার মতে, দেশটি ব্যাংকের অর্থ চুরির ব্যবসায় নেমেছে।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

যানজটে স্থবির ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক 

ঢাকা, ২৪ মার্চ : তীব্র যানজটে অচল হয়ে পড়েছে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক। নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জ থেকে মেঘনা ব্রিজ পর্যন্ত যানবাহন যেন নড়ছেই না। ঘন্টার পর ঘণ্টা যানজটে বসে থেকে হাপিয়ে উঠেছেন যাত্রীরা। সবচেয়ে ভোগান্তিতে পড়েছেন নারী, শিশু ও বৃদ্ধরা। সিদ্ধিরগঞ্জ থেকে সোনারগাঁও পর্যন্ত আসতে অনেকের চার-পাঁচ ঘণ্টা সময় লেগে গেছে বলে জানিয়েছেন অনেক যাত্রী।

এদিকে হঠাৎ মহাসড়কে এমন যানজটের কোন কারণও খুঁজে পাওয়া যায়নি। সমস্যা নিরসনে মহাসড়কে দেখা যায়নি ট্রাফিক পুলিশ বা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কোন সদস্যকে। যাত্রীরা অনেকে গাড়ি থেকে নেমে বাইরে পায়চারি করে সময় পার করছেন। তবে শৌচাগার সমস্যায় অনেকে বিপাকে পড়েছেন।

যানজটে আটকে পড়া কয়েকজন ফোন করে জানান, নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জ থেকে মেঘনা ব্রিজ পর্যন্ত কোন গাড়ি নড়ছে না। আজমল নামের এক যাত্রী জানান, সকাল ৬টায় ঢাকা থেকে রওনা হয়ে চার ঘণ্টায়ও তিনি সোনারগাঁও পৌঁছতে পারেননি। কী কারণে এমন যানজট তাও কেউ বলতে পারছে না। গাড়ির চালক-হেলপাররা গাড়ি রেখে কোথায় যেন চলে গেছে। রাস্তায় কোন ট্রাফিক পুলিশও দেখা যাচ্ছে না। এ পরিস্থিতিতে আজ সারাদিনে চট্টগ্রাম পৌঁছতে পারবেন কিনা সন্দেহ আছে।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর