২০ নভেম্বর ২০১৭
সকাল ৯:৪৬, সোমবার

পানামা-প্যারাডাইস কেলেঙ্কারি: ৫৩ বাংলাদেশির ব্যাপারে তদন্ত করছে দুদক

পানামা-প্যারাডাইস কেলেঙ্কারি: ৫৩ বাংলাদেশির ব্যাপারে তদন্ত করছে দুদক 

3232

ঢাকা, ২০ নভেম্বর : পানামা ও প্যারাডাইস পেপারস কেলেঙ্কারিতে যুক্ত ৫৩ বাংলাদেশির নামের তালিকা এখন দুর্নীতি দমন কমিশনে (দুদক)। তাদের মধ্যে পানামা কেলেঙ্কারির ৪২ বাংলাদেশির বিরুদ্ধে গত বছরের এপ্রিল থেকেই কর ফাঁকি ও অর্থ পাচারের অভিযোগ অনুসন্ধান করা হচ্ছে। এখন প্যারাডাইস কেলেঙ্কারির ঘটনায় অভিযুক্ত ২১ বাংলাদেশির বিরুদ্ধেও একই অভিযোগ অনুসন্ধানের জন্য আমলে নিয়েছে দুদক।

এদিকে গতকাল রোববার নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম বলেন, ‘প্যারাডাইস পেপারসখ্যাত গোপন নথিতে বাংলাদেশি যাদের নাম এসেছে, তাদের বিষয়ে তদন্ত হওয়া উচিত।’

পানামা কেলেঙ্কারির ঘটনায় ৪২ বাংলাদেশির বিরুদ্ধে কর ফাঁকি দিয়ে অর্থ পাচার করে বিদেশে অফশোর কোম্পানি খুলে অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগ রয়েছে। গত বছরের শুরুতে ইন্টারন্যাশনাল কনসোর্টিয়াম অব ইনভেস্টিগেটিভ জার্নালিস্টস (আইসিআইজে) এই কেলেঙ্কারির ঘটনা ফাঁস করার পর বিশ্বব্যাপী আলোড়ন দেখা দেয়। ওই সময় দুদক গণমাধ্যমসহ বিভিন্ন পর্যায় থেকে ৪২ বাংলাদেশির নাম সংগ্রহ করে। তাদের মধ্যে ৩২ জনের নাম এ প্রতিবেদকের কাছে রয়েছে- যারা প্রভাবশালী রাজনীতিক, ব্যবসায়ীসহ ক্ষমতাবান পেশাজীবী।

এবার আইসিআইজে প্যারাডাইস কেলেঙ্কারির ঘটনা ফাঁস করার পর ২১ বাংলাদেশির নাম পাওয়া যায়। গণমাধ্যমে প্রকাশিত এ খবর এরই মধ্যে অনুসন্ধানের জন্য আমলে নিয়েছে দুদক। কমিশনের অনুমোদন সাপেক্ষে অভিযোগটি খতিয়ে দেখছে যাচাই-বাছাই কমিটি। তাদের বিরুদ্ধে কর ফাঁকি ও বিদেশে অর্থ পাচারের অভিযোগ অনুসন্ধান করা হবে কি-না, এ ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে কমিশন।

দুদক চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ এ প্রতিবেদককে বলেন, প্যারাডাইস কেলেঙ্কারির বিষয়ে গণমাধ্যম থেকে সবেমাত্র তথ্য পাওয়া গেছে। এগুলো বিচার-বিশ্নেষণ করা হবে। পরে কমিশন আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেবে। বিদ্যমান মানি লন্ডারিং আইন অনুযায়ী, অর্থ পাচার-সংক্রান্ত অভিযোগ অনুসন্ধান বা তদন্তের এখতিয়ার দুদকের পাশাপাশি বাংলাদেশ ব্যাংকের বিএফআইইউ, এনবিআর ও সিআইডিরও রয়েছে। আইনগত দিক পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে অভিযোগটি দুদক এককভাবে অনুসন্ধান করতে পারে। অথবা ওই সব সংস্থার কোনো একটিকে সঙ্গে নিয়ে যৌথভাবেও তদন্ত হতে পারে।

পানামা পেপারস কেলেঙ্কারির অনুসন্ধান বিষয়ে দুদক চেয়ারম্যান বলেন, এ ব্যাপারে অনুসন্ধান চলছে। তথ্য চেয়ে এরই মধ্যে বেশ কয়েকটি দেশে মিউচুয়াল লিগ্যাল অ্যাসিস্ট্যান্স রিকোয়েস্ট (এমএলএআর) পাঠানো হয়েছে। তবে এখনও ওই সব দেশ থেকে কোনো তথ্য বা উত্তর পাওয়া যায়নি।

এক বছর আট মাস ধরে পানামা পেপারস কেলেঙ্কারির অভিযোগ অনুসন্ধান করছে দুদক। পাশাপাশি তাদের সম্পদের তথ্যও সংগ্রহ করা হচ্ছে। এ জন্য জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ১৫ জন অভিযুক্তের কাছে চিঠি পাঠানো হয়। এর মধ্যে নয়জন ঢাকার সেগুনবাগিচায় দুদকের প্রধান কার্যালয়ে হাজির হয়ে তাদের বক্তব্য দিয়েছেন। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আরও ছয়জনের কাছে পাঠানো চিঠি ফেরত এসেছে। তারা পানামা পেপারসে উল্লেখ করা ঠিকানায় অবস্থান করেন না।

পানামা পেপারস কেলেঙ্কারির ঘটনায় গত জুলাইয়ে পাকিস্তানের সুপ্রিম কোর্ট দেশটির প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফকে অযোগ্য ঘোষণা করেছিলেন। এরপর তিনি ক্ষমতা ছাড়তে বাধ্য হন। গত বছরের প্রথম দিকে এই কেলেঙ্কারি ফাঁস হওয়ার পর আইসল্যান্ডের তৎকালীন প্রধানমন্ত্রীও জনরোষের মুখে পদত্যাগ করেছিলেন। তবে গত দুই বছরেও কোনো তদন্ত সংস্থা থেকে বাংলাদেশের ৪২ জনের বিষয়ে আইনি পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি। দুদকের উপপরিচালক এস এম এম আখতার হামিদ ভূঁইয়ার নেতৃত্বে তিন সদস্যের বিশেষ টিম পানামা কেলেঙ্কারির অভিযোগ অনুসন্ধান করছে। এ কার্যক্রম তদারক করছেন পরিচালক মীর মো. জয়নুল আবেদীন শিবলী। টিমের আরও দুই সদস্যের মধ্যে রয়েছেন সহকারী পরিচালক মজিবুর রহমান ও উপসহকারী পরিচালক রাফি মো. নাজমুস সাদাৎ।

সংসদেও আলোচনা : এদিকে, প্যারাডাইস পেপারসে বাংলাদেশের যেসব ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের নাম এসেছে, তাদের টাকার হিসাব এবং এ বিষয়ে অর্থমন্ত্রীর ব্যাখ্যা দাবি করেছেন স্বতন্ত্র সাংসদ রুস্তম আলী ফরাজী। গতকাল জাতীয় সংসদের বৈঠকে পয়েন্ট অব অর্ডারে দেওয়া বক্তব্যে তিনি এ দাবি জানান।

রুস্তম আলী বলেন, এর আগে পানামা পেপারসে অনেকের নাম এসেছিল। বিষয়টি তদন্ত করে একটি প্রতিবেদন দেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু এখনও তা হয়নি। এবার ২১ জনের নাম এসেছে। আবদুল আউয়াল মিন্টু ও তার স্ত্রী-সন্তানসহ অনেকের নাম এসেছে। তারা বারমুডায় বিনিয়োগ করেছেন কেন? কারণ, বাংলাদেশে বিনিয়োগ করতে হলে কর দিতে হয়। তাদের উদ্দেশ্য কর ফাঁকি দেওয়া।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

অবশেষে বিমানবন্দরে কথা হলো কাদের-ফখরুলের 

2325

ঢাকা, ২০ নভেম্বর :‘একই ফ্লাইটে রংপুর যাচ্ছেন কাদের-ফখরুল’ এমন খবর গতকাল ব্যাপক সাড়া ফেলে গণমাধ্যমে। তবে হঠাৎ জানা যায়, নির্ধারিত ফ্লাইটে ফখরুল ইসলাম আলমগীর যাচ্ছেন না। শেষ পর্যন্ত একই ফ্লাইটে দেশের প্রধান দুটি দলের সাধারণ সম্পাদক ও মহাসচিব না গেলেও বিমানবন্দরে দুইজনের দেখা হয়েছে এবং কথাও হয়েছে।

রবিবার সকাল আটটার ফ্লাইটে দলের প্রতিনিধিদের নিয়ে সৈয়দপুরে যান ওবায়দুল কাদের। মির্জা ফখরুল যান দুপুরের ফ্লাইটে। এরইমধ্যে রংপুরে দলীয় কর্মসূচি শেষ করে ঢাকায় ফিরতে সৈয়দপুর বিমানবন্দরে ভিআইপি লাউঞ্জে অপেক্ষা করেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক। একই সময় মির্জা ফখরুল তার দলের নেতাদের নিয়ে অপেক্ষা করছিলেন সৈয়দপুর বিমানবন্দরের অতিথি কক্ষে।

সেখানেই দেখা হয় দুই দলের শীর্ষ দুই নেতার। দুই মেরুর রাজনীতি করলেও সাক্ষাতে তাদের মধ্যে আন্তরিকতার সঙ্গে কুশল বিনিময় হয় বলে জানা গেছে।

আওয়ামী লীগের প্রতিনিধি দলে থাকা দলের সাংগঠনিক সম্পাদক বি এম মোজাম্মেল বলেন, ‘ওবায়দুল কাদের ও মির্জা ফখরুল ইসলামের দেখা হয়েছে। কুশল বিনিময়ও হয়েছে। এটা সৌজন্য সাক্ষাৎ ছিল।’

জানা গেছে, দুপুরে সৈয়দপুর থেকে ফেরার পথে বিমানবন্দরের ভিআইপি লাউঞ্জে অপেক্ষা করছিলেন ওবায়দুল কাদের। পাশের আরেকটি কক্ষে মির্জা ফখরুল আছেন জেনে তার সঙ্গে দেখা করতে যান সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী।

ফখরুলের সঙ্গে কুশল বিনিময়ের সময় তিনি বলেন, ‘ঢাকা এয়ারপোর্টে আপনার জন্য অপেক্ষা করেছিলাম। কিন্তু শুনলাম আপনি আসছেন না। একসঙ্গে এলে ভালো হতো। কথা বলা যেত।’

মির্জা ফখরুলকে দেখে তিনি আরও বলেন, ‘আমরা যেহেতু রাজনীতি করি, তাই আলাপ-আলোচনার পথ খোলা রাখাই ভালো।’

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদকের এমন কথার জবাবে ফখরুল বলেন, তিনি সকালের ফ্লাইটেই আসতেন। কিন্তু পারিবারিক ঝামেলার কারণে একটু পরে আসতে হয়েছে।

ওবায়দুল কাদেরের এমন আচারণে মুগ্ধ হয়ে ফখরুল বলেন, ‘আপনি জেন্টলমেন্টের পরিচয় দিয়েছেন।’

বিএনপি চেয়ারপারসনের প্রেস উইংয়ের কর্মকর্তা শায়রুল কবীর খান জানান, বিমানবন্দরে দুই নেতার মধ্যে কুশল বিনিময় হয়েছে।

তবে এর আগে রংপুরে ক্ষতিগ্রস্ত হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের নিয়ে এক শান্তি সমাবেশে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘একই বিমানে মির্জা ফখরুলের সঙ্গে আসতে পারলে আমার ভালো লাগতো। আর কিছু না হোক, শুভেচ্ছা বিনিময় তো হতো। শুনেছি উনার আসন আমার পেছনে ছিল। উনি এলে আমার পাশের সিটেই বসতে দিতাম।’

ফখরুলের সমালোচনা করে তিনি বলেন, ‘কিন্তু নিরাপত্তার অজুহাত দেখিয়ে মির্জা ফখরুল কর্মসূচি বাতিল করেছেন। শুনেছি, উনি নাকি আমার পরের ফ্লাইটে এসেছেন।’

এদিকে একটি অনুষ্ঠানে ফখরুল ইসলাম আলমগীর জানিয়েছেন, একই দিনে বড় দুই দলের মহাসচিব পর্যায়ের দুই নেতা একই এলাকায় গেলে নিরাপত্তাজনিত সমস্যা হতে পারে। এজন্য তিনি আজকের রংপুর সফর বাতিল করেছেন।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

আজ কবি সুফিয়া কামালের মৃত্যুবার্ষিকী 

553

ঢাকা, ২০ নভেম্বর : আজ ২০ নভেম্বর সোমবার বাংলা সাহিত্যের অন্যতম কবি সুফিয়া কামালের ১৮তম মৃত্যুবার্ষিকী। ১৯৯৯ সালের এই দিনে ৮৮ বছর বয়সে মহীয়সী এই নারী শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। দিবসটি উপলক্ষে বিভিন্ন সংগঠন নানা কর্মসূচি হাতে নিয়েছে।

জননী সাহসিকা এ কবির মৃত্যুবার্ষিকীতে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আলাদা বাণীতে নারীমুক্তি, গণতন্ত্র ও সামাজিক-সাংস্কৃতিক আন্দোলনের অগ্রদূত কবি সুফিয়া কামালের স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানিয়েছেন।

রাষ্ট্রপতি তার বাণীতে বলেন, এই মহীয়সী নারীর জীবনাদর্শ ও সাহিত্যকর্ম তরুণ প্রজন্মকে দেশপ্রেমের মহান চেতনায় উদ্বুদ্ধ ও অনুপ্রাণিত করবে।

প্রধানমন্ত্রী তার বাণীতে বলেন, কবি সুফিয়া কামাল ছিলেন একদিকে আবহমান বাঙালি নারীর প্রতিকৃতি, মমতাময়ী মা, অন্যদিকে বাংলার প্রতিটি আন্দোলন সংগ্রামে ছিল তার আপসহীন এবং দৃপ্ত পদচারণা।

সুফিয়া কামাল ১৯১১ সালের ২০ জুন বরিশালের শায়েস্তাবাদে একটি অভিজাত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ছিলেন বাংলা ভাষার বিশিষ্ট কবি ও সাহিত্যিক।

বায়ান্ন’র ভাষা আন্দোলন, ঊনসত্তরের গণঅভ্যুত্থান, একাত্তরের অসহযোগ আন্দোলন ও মহান মুক্তিযুদ্ধ এবং স্বাধীন বাংলাদেশের বিভিন্ন গণতান্ত্রিক সংগ্রামসহ শিক্ষা ও সাংস্কৃতিক আন্দোলনে তার প্রত্যক্ষ উপস্থিতি ছিল। এজন্য তিনি ‘জননী সাহসিকা’ উপাধিতে অভিষিক্ত হন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম মহিলা হোস্টেলকে রোকেয়া হল নামকরনের প্রস্তাবক ছিলেন তিনি।

সুফিয়া কামাল ১৯২৩ সালে রচনা করেন প্রথম গল্প ‘সৈনিক বধূ’ যা বরিশালের তরুণ পত্রিকায় প্রকাশিত হয়। ১৯২৬ সালে সওগাত পত্রিকায় তার প্রথম কবিতা বাসন্তী প্রকাশিত হয়।

তিনি ছিলেন বেগম পত্রিকার প্রথম সম্পাদক। ১৯৪৭ সালে তিনি সপরিবারে ঢাকায় চলে আসেন। ১৯৫২ সালের ভাষা আন্দোলনে তিনি সরাসরি যোগ দেন। ১৯৬৯ সালে মহিলা সংগ্রাম পরিষদ (বর্তমানে মহিলা পরিষদ) গঠিত হলে প্রতিষ্ঠাতা প্রধান নির্বাচিত হন। এ ছাড়া তিনি প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে ছায়ানটের সভাপতি ছিলেন।

তার প্রকাশিত কাব্যগ্রন্থগুলো হচ্ছে- সাঁঝের মায়া, মায়া কাজল, মন ও জীবন, শান্তি ও প্রার্থনা, উদাত্ত পৃথিবী, দিওয়ান, মোর জাদুদের সমাধি পরে প্রভৃতি। গল্পগ্রন্থ কেয়ার কাঁটা। ভ্রমণ কাহিনী সোভিয়েত দিনগুলি। স্মৃতিকথা একাত্তুরের ডায়েরি।

সুফিয়া কামাল ৫০টিরও অধিক পুরস্কার লাভ করেছেন। এর মধ্যে বাংলা একাডেমি, একুশে পদক, বেগম রোকেয়া পদক, জাতীয় কবিতা পুরস্কার, স্বাধীনতা দিবস পদক উল্লেখযোগ্য।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

আর্জেন্টিনার ‘নিখোঁজ সাবমেরিন থেকে’ মিলেছে সংকেত 

415

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, ১৯ নভেম্বর : আর্জেন্টিনার নৌবহরে থাকা তিনটি সাবমেরিনের মধ্যে এআরএ সান হুয়ানই সবচেয়ে নতুন— ইপিএ

আটলান্টিক মহাসাগরে ৪৪ জন ক্রু নিয়ে নিখোঁজ হয়ে যাওয়া আর্জেন্টিনার সাবমেরিন থেকে ‘সংকেত’ পাওয়া গেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

দেশটির কর্মকর্তাদের কাছ থেকে পাওয়া তথ্যের বরাত দিয়ে রোববার বিবিসির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

আর্জেন্টিনার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, শনিবার তারা সাতটি ‘ফেইলড স্যাটেলাইট কল’ পেয়েছেন এবং সেগুলো নিখোঁজ সাবমেরিতে থেকে এসেছে বলে তারা ধারণা করছে। তবে পুরোপুরি নিশ্চিত হতে বিষয়টি পরীক্ষা করে দেখছেন তারা।

নাসার গবেষণা বিমান সঙ্গে নিয়ে আর্জেন্টিনার কর্তৃপক্ষ এআরএ সান হুয়ান নামের সাবমেরিনটিকে খুঁজে বের করতে তৎপরতা বাড়িয়ে দিয়েছে বলেও জানিয়েছে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়।

আর্জেন্টিনার উপকূলের ৪৩০ কিলোমিটার দূরে আটলান্টিক মহাসাগরে থাকা অবস্থায় বুধবার সকালে শেষবারের মতো সাবমেরিনটির সঙ্গে কর্তৃপক্ষের যোগাযোগ হয়। এরপর থেকেই ডিজেল-বিদ্যুৎ চালিত সাবমেরিনটির কোনো খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না।

এ অবস্থায় দক্ষিণ আটলান্টিক মহাসাগরের উদ্ধার অভিযান পরিচালনা করছে আন্তর্জাতিক সার্চ মিশন। তবে ঝড়ো বাতাস ও প্রায় ২০ ফুট উঁচু ঢেউয়ের কারণে সে প্রচেষ্টা বাধাগ্রস্ত হচ্ছে।

আর্জেন্টিনার নৌবহরে থাকা তিনটি সাবমেরিনের মধ্যে এআরএ সান হুয়ানই সবচেয়ে নতুন। দক্ষিণ আমেরিকার সবচেয়ে দক্ষিণে উসুইয়া নামে একটি সমুদ্রঘাঁটিতে নিয়মিত টহল শেষে ফেরার পথেেই নিখোঁজ হয় সাবমেরিনটি।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

এমপি রানার জামিন আবেদন খারিজ 

0851

ঢাকা, ১৯ নভেম্বর : মুক্তিযোদ্ধা ও আওয়ামী লীগ নেতা ফারুক হত্যা মামলায় টাঙ্গাইল-৩ আসনের সংসদ সদস্য আমানুর রহমান খান রানার জামিন আবেদন খারিজ করে দিয়েছে হাইকোর্ট।

বিচারপতি বোরহান উদ্দিন ও বিচারপতি মো. আশরাফুল কামাল সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টের একটি ডিভিশন বেঞ্চ আজ এই রায় দেয়। এর আগে গত বৃহস্পতিবার এমপি রানার জামিন সংক্রান্ত রুলের শুনানি শেষ হয়।

আওয়ামী লীগের টাঙ্গাইল জেলা কমিটির সদস্য ফারুক আহমেদকে ২০১৩ সালের ১৮ জানুয়ারি গুলি চালিয়ে হত্যা করা হয়। ওই মামলায় টাঙ্গাইল-৩ (ঘাটাইল) আসনের এমপি রানাকে প্রধান আসামী করে তার তিন ভাইসহ মোট ১৪ জনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দেয় পুলিশ।

গতবছর ১৮ সেপ্টেম্বর এমপি রানা টাঙ্গাইলের আদালতে আত্মসমর্পণ করলে তাকে কারাগারে পাঠায় আদালত। বর্তমানে তিনি কাশিমপুর কারাগারে রয়েছেন। বাসস

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

৫৭ ছক্কায় ৪৯০ রানের অবিশ্বাস্য রেকর্ড ড্যাডসওয়েলের 

085

স্পোর্টস ডেস্ক, ১৯ নভেম্বর : অবিশ্বাস্য হলেও সত্যি, শনিবার দক্ষিণ আফ্রিকার ক্লাব ক্রিকেটে ওয়ানডে ফরম্যাটে ব্যাট হাতে ওপেনার হিসেবে নেমে ৪৯০ রানের ইনিংস খেলেছেন ডানহাতি ব্যাটসম্যান শেন ড্যাডসওয়েল।

পচ ড্রপসের বিপক্ষে এনডব্লিুইউ পুক্কের হয়ে ৫০ ওভারের ম্যাচে ৫৭ ছক্কা ও ২৭টি চারে ১৫১ বল মোকাবেলা করে ৪৯০ রানের দানবীয় ইনিংস খেলেন ড্যাডসওয়েল। তার ৪৯০ ও রুয়ান হাসব্রোকের অপরাজিত ১০৪ রানের সুবাদে ৩ উইকেট হারিয়ে পুক্কের সংগ্রহ ছিলো ৬৭৭ রান।

নিজের ২০তম জন্মদিনের দিন ক্লাব ক্রিকেটে এই কীর্তি গড়ে বিশ্বরেকর্ড গড়েছেন ড্যাডসওয়েল। ব্যাট হাতে নামার আগেও হয়তো ভাবেননি এমন কিছু ঘটতে পারেন তিনি।
আন্তর্জাতিক না হলেও বিশ্ব ক্রিকেটের ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড দখল করে ফেলেছেন ড্যাডসওয়েল। কারণ আন্তর্জাতিক অঙ্গনে টেস্ট ক্রিকেটের সর্বোচ্চ ৪০০ রানের মালিক ওয়েস্ট ইন্ডিজের ব্রায়ান লারা। ওয়ানডে ক্রিকেটে সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত রানের মালিক ভারতের রোহিত শর্মা। আর টুয়েন্টি টুয়েন্টি অস্ট্রেলিয়ার অ্যারন ফিঞ্চের।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

খালেদা এতিমদের টাকা আত্মসাৎ করেছেন তা আজ প্রমাণিত: শাজাহান 

12

মাদারীপুর, ১৭ নভেম্বর : জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট ও জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট থেকে দুর্নীতির মাধ্যমে খালেদা জিয়া অবৈধভাবে এতিমদের টাকা আত্মসাৎ করেছেন, তা আজ দেশের মানুষের কাছে প্রমাণিত হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন নৌ পরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান।

শুক্রবার সকালে মাদারীপুরে আচমত আলী খান পাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজের নতুন ভবন উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে মন্ত্রী এই মন্তব্য করেন।

শাজাহান বলেন, জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট ও জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সাজা হলে দলটি আগামী সংসদ নির্বাচনে অংশ নেবে না।

নৌমন্ত্রী বলেন, যেকোনো মামলায় কেউ দোষী প্রমাণিত হলে তার সাজা হবেই। তেমনি খালেদা জিয়ার সাজা হলে বিএনপি নির্বাচন করবে না।

রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে নৌমন্ত্রী বলেন, মায়ানমারের মানবাধিকার পরিস্থিতির ওপর জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের তৃতীয় কমিটিতে উন্মুক্ত ভোটের মাধ্যমে একটি রেজুলেশন গৃহীত হয়। ১৩৫টি দেশ এই রেজুলেশনের পক্ষে ভোট দিয়ে মায়ানমারের রোহিঙ্গা হত্যাকাণ্ড নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে। বিপক্ষে ভোট দেয় ১০টি দেশ। ভোট প্রদানে বিরত থাকে ২৬টি দেশ। ওআইসির পক্ষে সৌদি আরব এই রেজুলেশন উত্থাপন করে। তাই মায়ানমারকে রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে হবে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন আচমত আলী খান স্কুল অ্যান্ড কলেজের সভাপতি ওয়ায়দুর রহমান, ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক সৈয়দ ফারুক আহম্মেদ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার উত্তম প্রসাদ পাঠক প্রমুখ।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

ভাইস চেয়ারম্যানদের ডেকেছেন খালেদা জিয়া 

201

ঢাকা, ১৭ নভেম্বর : দলের ভাইস চেয়ারম্যানদের নিয়ে বেঠক ডেকেছেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। শনিবার রাত সাড়ে ৮টায় গুলশানে চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে বলে জানা গেছে।

দলীয় সূত্র জানায়, সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশের পর স্থায়ী কমিটির সদস্যদের সঙ্গে বৈঠক করেন বিএনপি চেয়ারপারসন। এরপর ২০ দলীয় জোটের বৈঠক করেন। ওইসব বৈঠকে দেশের চলমান রাজনৈতিক পরিস্থিতির আলোকে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

মূলত ওইসব সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে দলের বিভিন্ন স্তরে বৈঠকের উদ্যোগ নিয়েছেন বেগম জিয়া। এরই অংশ হিসেবে দলের ভাইস চেয়ারম্যান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও যুগ্ম মহাসচিবদের সঙ্গে পর্যায়ক্রমে আলাদাভাবে বৈঠক করবেন তিনি। তাদের সঙ্গে বিভিন্ন বিষয়ে চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার কথা বলবেন।

এদিকে বুধবার রাতে জোটের শরিক দলের শীর্ষ নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন খালেদা জিয়া। বৈঠকে আসন্ন রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার আহ্বান জানান বিএনপি চেয়ারপারসন। শরিক দলের নেতারা এ ব্যাপারে খালেদা জিয়াকে আশ্বস্ত করেন।

আগামী জানুয়ারির প্রথম দিকে জোটের শীর্ষ নেত্রী খালেদা জিয়ার বিভাগীয় শহর ও কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ জেলা শহর সফরের সিদ্ধান্ত হয়।

কেন্দ্র ও স্থানীয় বিএনপির সঙ্গে সমন্বয় করে সুবিধাজনক সময় সফরের দিনক্ষণ চূড়ান্ত করা হবে। এছাড়া বিজয়ের মাস ডিসেম্বর মুক্তিযোদ্ধাদের নেতৃত্বে একটি বড় আকারের বিজয় র‌্যালীর ব্যাপারেও আলোচনা হয়। বৈঠকে অংশ নেয়া জোটের কয়েকজন নেতা এ তথ্য জানিয়েছেন।

তারা জানান, বৈঠকে খালেদা জিয়ার দেশে ফেরার দিন বিমানবন্দর সড়ক, রোহিঙ্গাদের দেখতে যাওয়ার সময় ঢাকা থেকে কক্সবাজার মহাসড়ক এবং সর্বশেষ সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বিপুল মানুষের অংশগ্রহণে শান্তিপূর্ন সমাবেশ অনুষ্ঠান হওয়ায় বিএনপি চেয়ারপারসনকে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানান জোটের শরিক দলের নেতারা।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

তারেক মাসুদের মৃত্যু, ক্ষতিপূরণ মামলার রায় ২৯ নভেম্বর 

55

ঢাকা, ১৭ নভেম্বর : চলচ্চিত্র নির্মাতা তারেক মাসুদের মৃত্যুতে প্রায় দশ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে তার স্ত্রীর করা মামলার শুনানি হাইকোর্টে শেষ হয়েছে। আগামী ২৯ নভেম্বর রায় ঘোষণা করবে আদালত।

বিচারপতি জিনাত আরা ও বিচারপতি কাজী ইজারুল হক আকন্দের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ গতকাল বৃহস্পতিবার উভয় পক্ষের শুনানি গ্রহণ করে রায় ঘোষণার উক্ত দিন ধার্য্য করে দেন। এদিকে এটিএন নিউজের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) মিশুক মুনীরের মৃত্যুতে তার স্ত্রী কানিজ এফ কাজীর করা আরেকটি ক্ষতিপূরণ মামলার বিচার চলছে হাইকোর্টের একই ডিভিশন বেঞ্চে। আগামী ৩ ডিসেম্বর এই মামলার পরবর্তী শুনানির জন্য দিন ধার্য্য রেখেছে আদালত।

২০১১ সালের ১৩ আগষ্ট মানিকগঞ্জের ঘিওর উপজেলার জোকা এলাকায় ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে সড়ক দুর্ঘটনায় মারা যান তারেক মাসুদ এবং মিশুক মুনীর। তাদের বহনকারী মাইক্রোবাসটির সঙ্গে চুয়াডাঙ্গাগামী একটি বাসের সংঘর্ষ ঘটে। তাতে তারেক-মিশুকসহ মাইক্রোবাসের পাঁচ আরোহীর মৃত্যু হয়। আহত হয় আরো কয়েকজন। এ ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করে। পরে ২০১৩ সালের ১৩ ফেব্রুয়ারি নিহতদের পরিবারের সদস্যরা মানিকগঞ্জে মোটরযান অর্ডিন্যান্সের ১২৮ ধারায় বাসমালিক, চালক ও ইনস্যুরেন্স কোম্পানির বিরুদ্ধে ক্ষতিপূরণ চেয়ে মানিকগঞ্জ জেলা জজ ও মোটর কেইমস ট্রাইব্যুনালে দুটি মামলা করেন।

এরপর মোকদ্দমা দুটি জনস্বার্থে হাইকোর্টে বিচারের জন্য সংবিধানের ১১০ অনুচ্ছেদ অনুসারে আবেদন করা হয়। ২০১৪ সালের ২৯ অক্টোবর বিচারপতি নাঈমা হায়দার ও বিচারপতি জাফর আহমেদের ডিভিশন বেঞ্চ এক রায়ে মোকদ্দমা দুটি হাইকোর্টে
বিচারের পক্ষে মত দেন। এজন্য উপযুক্ত বেঞ্চ গঠন বিষয়ে পদপে নিতে প্রধান বিচারপতির কাছে মামলা দুটির নথি ও আদালত বদলির আবেদনের নথি পাঠানো হয়।

পরে প্রধান বিচারপতি বিষয়টি নিষ্পত্তির জন্য বিচারপতি জিনাত আরার নেতৃত্বাধীন ডিভিশন বেঞ্চে পাঠান। ওই বেঞ্চে এই মামলার স্বাক্ষ্য গ্রহন ও যুক্তিতর্ক অনুষ্ঠিত হয়। মামলায় ক্যাথরিন মাসুদের পক্ষে ৭ জন, বাস মালিকের পক্ষে ৫ জন এবং ইন্সুরেন্স কোম্পানির পক্ষে একজন হাইকোর্টে স্বাক্ষ্য দেন।

আদালতে ক্যাথরিনের পক্ষে ড. কামাল হোসেন ও সারা হোসেন, বাস মালিকের পক্ষে আব্দুস সোবহান তরফদার ও রিলায়েন্স ইন্সুরেন্সের পক্ষে ইমরান এ সিদ্দিকী ও এহসান এ সিদ্দিকী শুনানি করেন। -ইত্তেফাক

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

আজ রুয়েটে প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষা 

88

রাজশাহী, ১৭ নভেম্বর : রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (রুয়েট) ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের প্রথম বর্ষ বিএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং কোর্সে ভর্তি পরীক্ষা আজ শুক্রবার অনুষ্ঠিত হবে।

সকাল ৯টায় রুয়েটের বিভিন্ন ভবনে ১ম বর্ষ ভর্তি পরীক্ষা শুরু হবে।

‘ক’ গ্রুপের ভর্তি পরীক্ষা সকাল ৯টা থেকে ১১টা পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হবে। আর ‘খ’ গ্রুপের ভর্তি পরীক্ষা অর্থাৎ শুধুমাত্র আর্কিটেকচারে বিভাগে ভর্তীচ্ছুদের পরীক্ষা সকাল ৯টা থেকে ১২টা ১০ মিনিট পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হবে।

ভর্তি পরীক্ষার আসন বিন্যাস রুয়েটের ওয়েবসাইট (www.ruet.ac.bd) এবং প্রশাসনিক ভবনের নোটিশ বোর্ডসহ এবং ক্যাম্পাসের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে স্থাপন করা হয়েছে।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

জড়িত ৬ জনের পরিচয় মিলেছে 

511

ঢাকা, ১৭ নভেম্বর : রাজধানীর বনানীতে জনশক্তি রফতানিকারক প্রতিষ্ঠানের কর্ণধার সিদ্দিক হোসাইন (৫২) হত্যা মামলার তদন্ত নতুন মোড় নিয়েছে। চাঁদাবাজি বা পারিবারিক কোনো শত্রুতা নয়, ব্যবসায়িক বিরোধ থেকেই এ হত্যার ঘটনা ঘটেছে বলে আলামত পেয়েছেন তদন্ত-সংশ্নিষ্টরা। এ ছাড়া সন্দেহভাজন মূল পরিকল্পনাকারী ও হত্যা মিশনে জড়িত ভাড়াটে ছয়জনের নাম-পরিচয়ও জানতে পেরেছেন তারা। সিসিটিভির ফুটেজে মুখোশ পরিহিত চারজনকে সরাসরি হত্যা মিশনে দেখা গেছে। তবে তাদের সঙ্গে আরেকটি ‘ব্যাকআপ’ পার্টি বাইরে ছিল। ‘ব্যাকআপ’ পার্টির সদস্য ছিল দু’জন। তারা ওই ভবনের সিসিটিভির দৃষ্টিসীমার বাইরে অবস্থান করছিল। তবে শিগগির জড়িতদের আইনের আওতায় আনা সম্ভব হবে বলে মনে করছে পুলিশ। তদন্ত-সংশ্নিষ্ট একাধিক উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা গতকাল বৃহস্পতিবার এ প্রতিবেদককে এ তথ্য জানান।

গত মঙ্গলবার রাতে বনানীর ‘বি’ ব্লকের ৪ নম্বর সড়কের ১১৩ নম্বর বাড়ির নিচতলায় ‘মেসার্স এস মুন্সী ওভারসিজ’ নামে নিজ প্রতিষ্ঠানে গুলি করে হত্যা করা হয় সিদ্দিক হোসাইনকে। একই সময়ে সেখানে গুলিবিদ্ধ হন প্রতিষ্ঠানটির আরও তিন কর্মকর্তা। তারা এখন আশঙ্কামুক্ত বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। এদিকে, গতকাল নিহত ব্যবসায়ীকে টাঙ্গাইলের কালিহাতীর নিজ গ্রামে দাফন করা হয়েছে।

পুলিশের উচ্চ পর্যায়ের এক কর্মকর্তা জানান, বনানীর মতো অভিজাত এলাকায় ফিল্মি কায়দায় একজন প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ীকে হত্যার ঘটনায় তারা প্রাথমিকভাবে বেশ কয়েকটি বিষয় সামনে রেখে তদন্ত শুরু করেন। এর মধ্যে ছিল চাঁদাবাজি, আর্থিক বিরোধ, ব্যক্তিগত শত্রুতা, পারিবারিক দ্বন্দ্ব ও ব্যবসায়িক লেনদেন। তবে এখন পর্যন্ত

যেসব আলামত পাওয়া গেছে তাতে তারা মনে করছেন, ব্যবসায়িক বিরোধের জেরে পরিকল্পিতভাবে এ হত্যাকাণ্ড ঘটেছে। হত্যায় ভাড়াটে পেশাদার কিলার গ্রুপকে ব্যবহার করা হয়েছে। তবে নেপথ্যে যিনি কলকাঠি নেড়েছেন, হয়তো তিনি তার পূর্বপরিচিত। প্রায়ই কাজের সূত্রে তাদের দেখা হতো। সিদ্দিকের ব্যাপারে সব তথ্য নিয়ে রেকি করার পর হত্যার ছক নিখুঁতভাবে সাজানো হয়েছে। তদন্তের স্বার্থে এখনই পরিকল্পনাকারী ও জড়িত কিলারদের নাম প্রকাশ করতে চান না সংশ্নিষ্টরা। তবে মালয়েশিয়া, সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্যের কয়েকটি দেশে জনশক্তি পাঠানো নিয়ে বিরোধের জেরেই হত্যার ঘটনা ঘটেছে।

দায়িত্বশীল এক কর্মকর্তা জানান, নিজেদের পরিচয় লুকাতে হত্যা মিশনে অংশগ্রহণকারীরা বেশ কিছু কৌশল নিয়েছিল। প্রথমত, তারা ঘটনাস্থলের আশপাশে গিয়েছিল রিকশায় ও হেঁটে। চারজন মুখোশ পরে আলাদাভাবে মুন্সী ওভারসিজে প্রবেশ করলেও অন্তত দু’জন বাইরে থেকে পরিস্থিতির ওপর নজর রাখছিল। আড়াই থেকে তিন মিনিটের মধ্যে সিদ্দিককে হত্যা করে চার খুনি। টাকা লুটপাটের মূল উদ্দেশ্য হলে হত্যার পরপরই তারা প্রতিষ্ঠানটির ক্যাশবাক্স বা সিন্দুকের নিয়ন্ত্রণ নিত। তবে খুনিরা তা করেনি। তারা টার্গেট করে খুব কাছ থেকে বুকে গুলি করে হত্যার পর দ্রুত পালিয়ে যায়। এমনকি প্রতিষ্ঠানটির অন্য কোনো সদস্যকে হত্যার জন্য গুলি করেনি তারা। হত্যা মিশনে জড়িতরা রাজধানীর কোন এলাকার বাসিন্দা, সে সম্পর্কেও তথ্য পাওয়া গেছে। তারা ওই এলাকায় ছিনতাইসহ অন্যান্য অপরাধে জড়িত।

সিদ্দিক হোসাইনের মেয়েজামাই আবু হানিফ গতকাল এ প্রতিবেদককে বলেন, ঘটনার সময় তাদের প্রতিষ্ঠানে তিন লাখ ৯০ হাজার টাকা ছিল। তবে খুনিরা কোনো টাকা নেয়নি। টাকা কোথায় আছে, তা জানতে চেয়েছিল তারা। তারা ‘ডন ভাই’য়ের লোক বলে জানায়। টাকা লুট করা তাদের উদ্দেশ্য ছিল বলে মনে হয় না। তিনি বলেন, আবদুস সালাম নামের একজনের সঙ্গে তার শ্বশুরের বিরোধ ছিল। সে ২০ লাখ টাকা দাবি করেছিল। এ নিয়ে মামলাও আছে। তবে এ ঘটনায় তার সম্পৃক্ততা রয়েছে কি-না, তা পরিস্কারভাবে বলতে পারছেন না তিনি।

পুলিশের অন্য এক কর্মকর্তা জানান, আবদুস সালামের সঙ্গে সিদ্দিক হোসাইনের পূর্ববিরোধ থাকলেও এই হত্যার সঙ্গে তার সংশ্নিষ্টতার সরাসরি কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি; বরং অন্য কেউ এ ঘটনায় জড়িত বলে কিছু আলামত পাওয়া গেছে।

জানা গেছে, প্রায় দুই দশক জনশক্তি রফতানি ব্যবসার সঙ্গে জড়িত সিদ্দিক। বনানীর ১১৩ নম্বর ভবনের চারতলার নিচতলায় তার প্রতিষ্ঠান মুন্সী ওভারসিজ। ভবনটি দুই ভাগে বিভক্ত। একই ভবনের আরেকটি অংশে তিনটি রিত্রুক্রটিং এজেন্সি এবং আরও কিছু সাব-এজেন্ট অফিস রয়েছে। দ্বিতীয় ও তৃতীয় তলায় আছে নোমানী অ্যাসোসিয়েট। আর দক্ষিণ পাশের অংশে আছে মুসা ইন্টারন্যাশনাল নামে একটি প্রতিষ্ঠান। সেটির কর্ণধার ভবন মালিক। ঘটনার আগে ও পরে ভবনের অন্য প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কার্যকলাপ খতিয়ে দেখছেন গোয়েন্দারা।

ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের অতিরিক্ত ডিআইজি শেখ নাজমুল আলম এ প্রতিবেদককে বলেন, বেশ কয়েকটি বিষয় সামনে রেখে তারা ছায়াতদন্ত করছেন। তবে ব্যবসায়িক বিরোধকে বেশি গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে।

পুলিশের গুলশান বিভাগের ডিসি মোস্তাক আহমেদ এ প্রতিবেদককে বলেন, হত্যারহস্য উদ্ঘাটনে পুলিশের একাধিক টিম কাজ করছে।

বায়রার সভাপতি বেনজীর আহমদ এ প্রতিবেদককে বলেন, দ্রুত সময়ের মধ্যে হত্যাকারীরা গ্রেফতার হবে বলে আশ্বাস দিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। এ সেক্টরের সার্বিক বিষয় নিয়ে প্রবাসীকল্যাণমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলব।  সূত্র : সমকাল

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

১২ জানুয়ারি থেকে বিশ্ব ইজতেমা শুরু 

55

গাজীপুর, ১৬ নভেম্বর : আগামী বছরের ১২ জানুয়ারি থেকে শুরু হবে তাবলিগ জামাতের বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব। চলবে ১৪ জানুয়ারি পর্যন্ত। দ্বিতীয় পর্ব শুরু হবে ১৯ জানুয়ারি শুক্রবার, শেষ হবে ২১ জানুয়ারি।

বৃহস্পতিবার দুপুরে গাজীপুর জেলা প্রশাসনের ভাওয়াল সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত বিশ্ব ইজতেমার প্রস্তুতিমূলক সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় বিশ্ব ইজতেমা সফলভাবে সম্পন্ন করার জন্য ময়দানের উন্নয়ন কর্মকাণ্ডসহ নানা বিষয়ে আলোচনা ও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

গাজীপুরের জেলা প্রশাসক ড. হুমায়ুন কবীরের সভাপতিত্বে প্রস্তুতিমূলক সভায় সরকারি বিভিন্ন দপ্তরের প্রতিনিধি এবং তাবলিগের মুরুব্বিরা অংশ নেন।

দুই পর্বে বিশ্ব ইজতেমায় মুসল্লিদের সার্বিক নিরাপত্তার পাশাপাশি অজু-গোসল, থাকা-খাওয়া এবং অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা বাড়ানোর বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এ ছাড়া বিদেশি মেহমানদের আশা-যাওয়া ও অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা বাড়ানোর বিষয়েও আলোচনা করা হয় এ প্রস্তুতি সভায়।

এদিকে ইজতেমা ময়দানের উন্নয়নসহ অন্যান্য সব প্রস্তুতির জন্য আগামীকাল থেকে শুরু হবে পাঁচদিনব্যাপী জোড় ইজতেমা। দেশ-বিদেশের লক্ষাধিক তাবলিগের মুসল্লি এ জোড় ইজতেমায় অংশ নেবেন।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

নিম্নচাপে পরিণত লঘুচাপ, সাগরে ১ নম্বর সংকেত 

38

ঢাকা, ১৬ নভেম্বর : বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত সুস্পষ্ট লঘুচাপটি ঘণীভূত হয়ে নিম্নচাপে পরিণত হয়েছে। উপকূল থেকে হাজার কিলোমিটার দূরে থাকা নিম্নচাপটি উত্তর দিকে সমূদ্র উপকূলে অগ্রসর হতে পারে।

তাই নিম্নচাপ কেন্দ্রের এলাকায় সাগর উত্তাল থাকায় সমুদ্র বন্দরসমূহকে ১ নম্বর দূরবর্তী সতর্ক সংকেত দেখাতে বলেছে আবহাওয়া অধিদফতর। এদিকে নিম্নচাপের কারণে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে আকাশ মেঘলা রয়েছে। কোথাও কোথাও হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টিপাতে হচ্ছে। ঢাকাতেও হালকা বৃষ্টি হয়েছে। বিশেষ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, পশ্চিমমধ্য বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থানরত সুস্পষ্ট লঘুচাপটি ঘণীভূত হয়ে একই এলাকায় নিম্নচাপে পরিণত হয়েছে।

আবহাওয়াবিদরা জানান, কোনো কারণে তাপমাত্রা বেড়ে গেলে বায়ুর চাপ কমে যায়। এতে ওই এলাকায় লঘুচাপের সৃষ্টি হয়। এই অবস্থায় বৃদ্ধি পাওয়া তাপমাত্রা অব্যাহত থাকলে সুস্পষ্ট লঘুচাপ সৃষ্টি হয়। সুস্পষ্ট লঘুচাপে বাতাসের গতিবেগ ঘণ্টায় ২০-৩০ কিলোমিটার হয়ে থাকে। আর ঝড়োহাওয়াসহ কেন্দ্রে ঘণ্টায় ৪০-৫০ কিলোমিটার বাতাসের গতিবেগ বিরাজমান থাকলে সেটিকে নিম্নচাপ বলে আবহাওয়া অফিস।

আবহাওয়া অধিদফতরের বিশেষ বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়, নিম্নচাপটি বিকাল ৩টায় চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর থেকে ১ হাজার ১৮৫ কিলোমিটার দক্ষিণপশ্চিমে, কক্সবাজার সমুদ্রবন্দর থেকে ১ হাজার ১৫০ কিলোমিটার দক্ষিণপশ্চিমে, মোংলা সমুদ্রবন্দর থেকে ১ হাজার ৩০ কিলোমিটার দক্ষিণ-দক্ষিণ পশ্চিমে এবং পায়রা সমুদ্র বন্দর থেকে ১ হাজার ৪৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-দক্ষিণ পশ্চিমে অবস্থান করছিলো। এটি আরও ঘণীভুত হয়ে উত্তর দিকে অগ্রসর হতে পারে।

আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, ঢাকা, খুলনা, রাজশাহী এবং বরিশাল বিভাগের অনেক জায়গায় এবং রংপুর, ময়মনসিংহ, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় হালকা থেকে মাঝারী ধরনের বৃষ্টি/বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে দেশের কোথাও কোথাও মাঝারী ধরনের ভারী বষর্ণ হতে পারে। আবহাওয়াবিদ রুহুল কুদ্দুছ জানান, নিম্নচাপের কারণে আগামী ১৭ নভেম্বর পর্যন্ত আকাশ মেঘাচ্ছন্ন থাকতে পারে।

এদিকে, রাত ১টা পর্যন্ত দেশের অভ্যন্তরীণ নদীবন্দর সমূহের জন্য আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, কুষ্টিয়া, যশোর, ফরিদপুর, পাবনা, টাঙ্গাইল, ঢাকা, মাদারীপুর, খুলনা, বরিশাল, পটুয়াখালী, নোয়াখালী, কুমিল্লা, চট্টগ্রাম এবং কক্সবাজার অঞ্চল সমূহের উপর দিয়ে পুর্ব/উত্তর-পুর্ব দিক থেকে ঘণ্টায় ৪৫-৬০ কিলোমিটার বেগে বৃষ্টি অথবা বজ্রবৃষ্টিসহ অস্থায়ীভাবে দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। এসব এলাকার নদীবন্দর সমূহকেও ১ নম্বর সতর্ক সংকেত দেখাতে বলেছে আবহাওয়া অধিদফতর।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

খোঁজ মিলল পৃথিবীর মতো গ্রহের 

33

নিউজ৬৯বিডি ডেস্ক, ১৬ নভেম্বর : সিএনএন বলছে, নামটা মনে রাখুন। ‘রস ১২৮বি’। বিজ্ঞানীদের ধারণা, অনেকটা মানুষের মতো নামধারী এই গ্রহই হতে যাচ্ছে মানুষের পরবর্তী আশ্রয়স্থল, দ্বিতীয় পৃথিবী। বাসযোগ্য গ্রহের মধ্যে দ্বিতীয় সর্বনিম্ন দূরত্বে অবস্থান করছে গ্রহটি। মানববসতি গড়ার জন্য আদর্শ পরিবেশ নাকি খুঁজে পাওয়া গেছে রস ১২৮বিতে।

কদিন পরপরই এমন কিছু শোনা যায়, বাসযোগ্য গ্রহের সন্ধান মিলেছে এবার। মহাজাগতিক বিস্তারের জন্য প্রস্তুতি শুরু করে দিতে পারে মানুষ। কদিন পরেই সে উত্তেজনা থিতিয়ে আসে। তাহলে রস ১২৮বি এমন কী করল যে এ নিয়ে উত্তেজিত হতে হবে? উত্তরটা বলেই দেওয়া যাক।

গ্রহটি আকারে পৃথিবীর প্রায় কাছাকাছি। এমনকি পৃষ্ঠ তাপমাত্রাও পৃথিবীর সমান হওয়ার সম্ভাবনা আছে। যার মানে এ গ্রহে প্রাণের বিকাশ ঘটতেই পারে। প্রতি ৯.৯ দিনে এটি এর তারা ‘রস ১২৮’কে একবার প্রদক্ষিণ করে। পৃথিবী যেমন ৩৬৫ দিনে একবার সূর্যকে প্রদক্ষিণ করে। তবে রস ১২৮বি থেকে রস ১২৮-এর দূরত্ব পৃথিবী ও সূর্যের দূরত্বের ২০ ভাগের একভাগ।

তারার এতটা কাছাকাছি হওয়ার পরও গ্রহটি বাসোপযোগী, কারণ রস ১২৮ একটি লাল বামন তারা। এরা সবচেয়ে ঠান্ডা এবং মৃদু তারা। ফলে অতিবেগুনি রশ্মি ও এক্স-রের তেজস্ক্রিয়তা অতটা ছড়ায় না। এখানে তরল পানি পাওয়ার সম্ভাবনা সবচেয়ে বেশি। ফলে প্রাণ বিকাশের সম্ভাবনা থাকে। পৃথিবীর চেয়ে মাত্র ১.৩৮ গুণ বেশি তেজস্ক্রিয়া সহ্য করতে হবে রস ১২৮বি-তে।

গ্রহটি ইউরোপিয়ান সাউদার্ন অবজারভেটরি আবিষ্কার করেছে হার্পসের (হাই একুরেসি ভেলোসিটি প্ল্যানেট সার্চার) সাহায্যে। চিলিতে অবস্থিত এই অবজারভেটরি ‘দ্বিতীয় পৃথিবী’ খোঁজার কাজে নিজেদের নিয়োজিত করেছে। আজ বুধবার ‘অ্যাস্ট্রোনমি অ্যান্ড অ্যাস্ট্রোফিজিকস’ সাময়িকীতে মহাকাশ বিজ্ঞানীরা তাঁদের এই নতুন আবিষ্কারের কথা জানিয়েছেন।

গবেষণাপত্রের এক লেখক নিকোলা অস্তুদিলো-ডেফ্রু জানিয়েছেন, ‘এমন এক আবিষ্কারের সঙ্গে জড়িত থাকা অনেক তৃপ্তির। এ পদ্ধতি জানিয়ে দিচ্ছে, আমরা দ্বিতীয় পৃথিবী খুঁজে পাওয়ার পথে অবদান রাখছি।’

রস ১২৮বি পৃথিবী থেকে ১১ আলোকবর্ষ দূরে অবস্থিত। এর চেয়ে কাছে আরেকটি বাসযোগ্য গ্রহ রয়েছে, ‘প্রক্সিমা বি’। ৪.২ আলোকবর্ষ দূরের এই গ্রহের ক্ষেত্রে একটি সমস্যা রয়েছে। গ্রহটির তারা প্রক্সিমা সেঞ্চারি বামন তারা হলেও মাঝেমধ্যেই অতিবেগুনি রশ্মি ও এক্স-রের বিচ্ছুরণ ঘটায়। যেটা প্রাণিজগৎ ধ্বংস করে দিতে পারে। কিন্তু রস ১২৮ তারাটি সে তুলনায় একেবারেই শান্ত।

সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য, এ গ্রহ ও তারাটিও ধীরে ধীরে পৃথিবীর দিকে এগিয়ে আসছে। ফলে প্রক্সিমা বিকে ছাড়িয়ে এই নতুন গ্রহই আমাদের নিকটতম বাসযোগ্য প্রতিবেশী হবে একসময়।

ঘটনাটি ঘটতে অবশ্য এখনো ৭৯ হাজার বছর বাকি। শুনে অনেক-অনেক দূর ভবিষ্যৎ মনে হতে পারে। কিন্তু ৪০০ কোটি বছর টিকে থাকা এক গ্রহের জন্য এ আর এমনকি সময়! সূত্র: সিএনএন।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর

বৃষ্টি বাগড়ায় খুলনা-সিলেটের ম্যাচ পরিত্যক্ত 

087

স্পোর্টস ডেস্ক, ১৫ নভেম্বর : সাগরে নিম্নচাপের প্রভাবে সকাল থেকেই গুঁড়িগুঁড়ি বৃষ্টি। আর এ কারণেই বিপিএলে খুলনা টাইটানস ও সিলেট সিক্সার্সের ম্যাচে টস হতে দেরি হয়। শেষ পর্যন্ত ম্যাচটি পরিত্যক্ত ঘোষণা করা হয়েছে।

বুধবার মিরপুরের শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে দুই দলের মধ্যে ম্যাচ শুরুর কথা ছিল। তবে ম্যাচ পরিত্যক্ত হওয়ায় দুই দলই একটি করে পয়েন্ট ভাগ করে নিয়েছে।

সকাল থেকেই গুঁড়িগুঁড়ি বৃষ্টি শুরু হওয়ায় উইকেটসহ মাঠের অনেকটা অংশ ত্রিপল দিয়ে ঢেকে রাখা হয়। বৃষ্টির কারণে নির্ধারিত সময় দুপুর সাড়ে ১২টায় টসও হয়নি।

শেষ পর্যন্ত বিকাল পৌনে ৪টা পর্যন্ত বল মাঠে না গড়ালে মাহমুদউল্লাহর খুলনা টাইটানস ও নাসির হোসেনের সিলেট সিক্সার্সের মধ্যকার ম্যাচটি পরিত্যক্ত ঘোষণা করেন ম্যাচ অফিশিয়ালরা।

আজকের লড়াইয়ে সিলেটকে হারাতে পারলে পয়েন্টের হিসাবে তাদের ধরে ফেলতে পারত খুলনা। তবে ম্যাচটি মাঠে না গড়ানোতে চতুর্থ স্থানেই থেকে যেতে হচ্ছে খুলনাকে।

এদিকে বৃষ্টি কারণে সন্ধ্যা ৬টায় চিটাগং ভাইকিংসের বিপক্ষে ঢাকা ডায়নামাইটসের মাঠে নামা নিয়ে আশংকা দেখা দিয়েছে।

Share This:

এই পেইজের আরও খবর